alt

অর্থ-বাণিজ্য

মে মাসে রপ্তানি আয় বাড়লো ২৭ শতাংশ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : রোববার, ০৪ জুন ২০২৩

রেমিট্যান্সের প্রবৃদ্ধি কমলেও মে মাসে রপ্তানি আয়ে এসেছে সুখবর। গত মাসে বাংলাদেশের তৈরি পণ্য বিশ্ববাজারে রপ্তানি হয়েছে ৪৮৪৯ দশমিক ৬২ মিলিয়ন ইউএস ডলার। মে মাসে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১০১৯ দশমিক ৩৩ মিলিয়ন ডলার বেশি রপ্তানি হয়েছে। ২০২২ সালের মে মাসে রপ্তানি আয় হয়েছিল ৩৮৩০ দশমিক ২৯ মিলিয়ন ডলার। সেই হিসাবে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২৬ দশমিক ৬১ শতাংশ। রোববার (৪ জুন) রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তবে ২০২২-২৩ অর্থবছরের মে মাসে রপ্তানি আয়ের যে লক্ষ্যমাত্রা ছিল তা পূরণ হয়নি। মে মাসে সরকারের রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৫১২০ মিলিয়ন ডলার। আর রপ্তানি আয় হয়েছে ৪৮৪৯ দশমিক ৬২ মিলিয়ন ডলার। অর্থাৎ পরিকল্পনা অনুসারে মে মাসে ১২০ দশমিক ৩৮ মিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয় কম হয়েছে।

এর আগের মাস এপ্রিলে সরকারের রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৫০৫০ মিলিয়ন ইউএস ডলার। রপ্তানি আয় হয়েছে ৩৯৫৬ মিলিয়ন বা ৩৯৫ কোটি ৬০ লাখ ইউএস ডলার। আগের বছরের একই সময়ে রপ্তানি আয় ছিল ৪৭৩৮ দশমিক ৬৭ মিলিয়ন ইউএস ডলার। অর্থাৎ ৭৮২ দশমিক ৬৭ মিলিয়ন ইউএস ডলার কম পণ্য রপ্তানি হয়েছিল। শতাংশের হিসাবে যা ১৬.৫২ শতাংশ কম।

তার আগের মাস মার্চে রপ্তানি আয় ছিল ৪৬৪ কোটি ৩৯ লাখ ৪০ হাজার ইউএস ডলার। গত বছরের একই সময়ে আয় ছিল ৪৭৬ কোটি ২২ লাখ ২০ হাজার ইউএস ডলার। অর্থাৎ ১১ কোটি ৮২ লাখ ৮০ হাজার ডলার পরিমাণ কম পণ্য রপ্তানি হয়েছিল মার্চে।

তবে ফেব্রুয়ারিতে রপ্তানি আয় ছিল ইতিবাচক ধারায়। ওই মাসে রপ্তানি হয়েছিল ৪৬৩ কোটি ১ লাখ ইউএস ডলারের পণ্য। ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রপ্তানি আয় হয়েছিল ২৯ কোটি ৪৫ লাখ ইউএস ডলার।

আর নতুন বছরের শুরুতে অর্থাৎ ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে ৫১৩৬ দশমিক ২৪ মিলিয়ন ইউএস ডলারের পণ্য রপ্তানি হয়েছিল। আগের বছরের একই সময়ে রপ্তানি হয়েছিল ৪৮৫০ দশমিক ৩৭ মিলিয়ন ইউএস ডলার। রপ্তানি বেড়েছিল ৫ দশমিক ৮৯ শতাংশ।

রপ্তানি বাড়ায় ২০২১-২২ অর্থবছরের তুলনায় ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে রপ্তানি আয়ে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৭ দশমিক ১১ শতাংশ। তাতে দেখা গেছে, চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাই ২০২২ থেকে মে ২০২৩ সাল পর্যন্ত ১১ মাসে বিশ্ববাজারে মোট ৫০৫২৭ দশমিক ২৪ অর্থাৎ ৫ হাজার ৫২ কোটি ৭২ লাখ ৪০ হাজার ইউএস ডলারের পণ্য রপ্তানি হয়েছে। আগের অর্থবছরের একই সময়ে রপ্তানি হয়েছিল ৪৭১৭ দশমিক ৬৩ মিলিয়ন ইউএস ডলার বা ৪ হাজার ৭১৭ কোটি ৪৫ লাখ ৫০ হাজার ডলার। অর্থাৎ রপ্তানি ৭ দশমিক ১১ শতাংশ বেড়েছে।

কিন্তু এ সময়ে সরকারের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৬২৪৫৪ মিলিয়ন ইউএস ডলার বা ৬ হাজার ২৪৫ কোটি ৪০ লাখ ডলারের পণ্য রপ্তানির। সেই হিসাবে অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসের রপ্তানি আয় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫ দশমিক ৬৪ শতাংশ পিছিয়ে আছে। অর্থাৎ ১৯০৬ দশমিক ৭৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পরিমাণ পণ্য বিশ্ববাজারে কম রপ্তানি হয়েছে।

নতুন মুদ্রানীতি: নীতি সুদহার অপরিবর্তিত রেখেছে বাংলাদেশ ব্যাংক

ছবি

মতিঝিলে পুলিশ-শিক্ষার্থী সংঘর্ষ চলছে

ছবি

সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সে ‘অচলাবস্থা’, ব্যবসা ‘কমেছে ৫০ শতাংশ’, সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ

ছবি

বাজারে আসছে নতুন স্মার্টফোন এআই পোট্রেইট মাস্টার অনার ২০০ এবং ২০০ প্রো

ছবি

মোবাইল গেমিংয়ে ৩০ লাখ টাকা জিতলেন গেমাররা

ছবি

৪০০ কোটি টাকার’ পিয়ন জাহাঙ্গীরের ব্যাংক হিসাব জব্দ

ছবি

টানা দশমবার “জাতীয় রপ্তানি ট্রফি”অর্জন করল সার্ভিস ইঞ্জিন লিমিটেড

ছবি

শুরুতেই শেয়ারবাজারে বড় দরপতন

ছবি

তথ্যের অভাব, সংস্কারে গড়িমসি, বড় বিপদে পড়বে অর্থনীতি : আহসান মনসুর

ছবি

বাজার মূলধন কমলো সাড়ে ৭ হাজার কোটি টাকা

ছবি

বাংলালিংকে আনলিমিটেড ইন্টারনেট ও ফ্রি ওটিটি সাবস্ক্রিপশন

ছবি

ইনফিনিক্স নোট ৩০ প্রো ফোনের দাম কমলো

ছবি

দেশের ৬৪টি জেলায় ই-কমার্স ডেলিভারি দিচ্ছে পাঠাও কুরিয়ার

ছবি

বাংলাদেশের বাজারে এআই ফিচার সমৃদ্ধ অপোর রেনো১২ সিরিজ

ছবি

ঢাকা-নেপাল রুটে বাস চালুর পরিকল্পনা বিআরটিসির

ছবি

‘আকাশ গো’ কম্প্যানিয়ন অ্যাপ নিয়ে এলো আকাশ ডিজিটাল টিভি

ছবি

মাদানী হসপিটালে বৃহৎপরিসরে ইনডোর সেবা উদ্বোধন

ছবি

মেহেরপুরে অবৈধ সিগারেট জব্দ, ৫ জনকে জরিমানা

ছবি

১৬ জুলাইয়ের মধ্যে ভিভো ওয়াই২৮ কিনলে সাথে ফ্রি উপহার

ছবি

মাসে দুই কোটি সক্রিয় গ্রাহকের মাইলফলক অর্জন করলো মাইজিপি

ছবি

ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটির ৪০ শিক্ষার্থীর হাতে অভিভাবক মৃত্যু বীমার চেক হস্তান্তর

ছবি

হুয়াওয়ের সঙ্গে নগদের চুক্তি

ছবি

ফোর্বস এর প্রচ্ছদে রিয়েলমি’র সিইও স্কাই লি

ছবি

শীঘ্রই বাংলাদেশের বাস্তায় নামছে বিওয়াইডি সিল

ছবি

এফবিসিসিআইআই আইআরসি এর আয়োজনে এক্সটেন্ডেড প্রসিডিউর রেসপনসিবিলিটি বিষয়ক সেমিনার

ছবি

মিউজ ডিজাইন অ্যাওয়ার্ডে প্লাটিনাম জিতলো টেকনো ক্যামন ৩০ সিরিজ

ছবি

বাজারে ভিভো’র ওয়াই সিরিজের নতুন স্মার্টফোন ওয়াই২৮

ছবি

নতুন অর্থবছরে ঢাকা উত্তরের সাড়ে ৫ হাজার কোটি টাকার বাজেট

ছবি

এক সপ্তাহে পেঁয়াজের দাম কেজিতে বাড়ল ৩০ টাকা

প্লাস্টিক রিসাইক্লিং খাতে বিনিয়োগ বাড়াতে হবে

ছবি

রপ্তানিতে প্রণোদনা কমানোর সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার চায় বিটিএমএ

ছবি

কাঁচা মরিচের ঝালের সঙ্গে বাড়ছে পেঁয়াজের ঝাঁঝও

ছবি

একটি ফলই ঘুরিয়ে দিয়েছে রাজশাহী অঞ্চলের অর্থনীতির মোড়

ছবি

আগামী সপ্তাহে দেশের বাজারে আসছে ওয়ানপ্লাস নর্ড সিই৪ লাইট ফাইভজি

ছবি

দেশের বাজারে মনস্টার ‘এম’ সিরিজের নতুন স্মার্টফোন স্যামসাং গ্যালাক্সি এম১৪ এলটিই

ছবি

মানাবে ওয়াটার পার্কে যাতায়াতে উবার যাত্রীদের জন্য বিশেষ ছাড়

tab

অর্থ-বাণিজ্য

মে মাসে রপ্তানি আয় বাড়লো ২৭ শতাংশ

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

রোববার, ০৪ জুন ২০২৩

রেমিট্যান্সের প্রবৃদ্ধি কমলেও মে মাসে রপ্তানি আয়ে এসেছে সুখবর। গত মাসে বাংলাদেশের তৈরি পণ্য বিশ্ববাজারে রপ্তানি হয়েছে ৪৮৪৯ দশমিক ৬২ মিলিয়ন ইউএস ডলার। মে মাসে আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় ১০১৯ দশমিক ৩৩ মিলিয়ন ডলার বেশি রপ্তানি হয়েছে। ২০২২ সালের মে মাসে রপ্তানি আয় হয়েছিল ৩৮৩০ দশমিক ২৯ মিলিয়ন ডলার। সেই হিসাবে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২৬ দশমিক ৬১ শতাংশ। রোববার (৪ জুন) রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তবে ২০২২-২৩ অর্থবছরের মে মাসে রপ্তানি আয়ের যে লক্ষ্যমাত্রা ছিল তা পূরণ হয়নি। মে মাসে সরকারের রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৫১২০ মিলিয়ন ডলার। আর রপ্তানি আয় হয়েছে ৪৮৪৯ দশমিক ৬২ মিলিয়ন ডলার। অর্থাৎ পরিকল্পনা অনুসারে মে মাসে ১২০ দশমিক ৩৮ মিলিয়ন ডলার রপ্তানি আয় কম হয়েছে।

এর আগের মাস এপ্রিলে সরকারের রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৫০৫০ মিলিয়ন ইউএস ডলার। রপ্তানি আয় হয়েছে ৩৯৫৬ মিলিয়ন বা ৩৯৫ কোটি ৬০ লাখ ইউএস ডলার। আগের বছরের একই সময়ে রপ্তানি আয় ছিল ৪৭৩৮ দশমিক ৬৭ মিলিয়ন ইউএস ডলার। অর্থাৎ ৭৮২ দশমিক ৬৭ মিলিয়ন ইউএস ডলার কম পণ্য রপ্তানি হয়েছিল। শতাংশের হিসাবে যা ১৬.৫২ শতাংশ কম।

তার আগের মাস মার্চে রপ্তানি আয় ছিল ৪৬৪ কোটি ৩৯ লাখ ৪০ হাজার ইউএস ডলার। গত বছরের একই সময়ে আয় ছিল ৪৭৬ কোটি ২২ লাখ ২০ হাজার ইউএস ডলার। অর্থাৎ ১১ কোটি ৮২ লাখ ৮০ হাজার ডলার পরিমাণ কম পণ্য রপ্তানি হয়েছিল মার্চে।

তবে ফেব্রুয়ারিতে রপ্তানি আয় ছিল ইতিবাচক ধারায়। ওই মাসে রপ্তানি হয়েছিল ৪৬৩ কোটি ১ লাখ ইউএস ডলারের পণ্য। ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে রপ্তানি আয় হয়েছিল ২৯ কোটি ৪৫ লাখ ইউএস ডলার।

আর নতুন বছরের শুরুতে অর্থাৎ ২০২৩ সালের জানুয়ারিতে ৫১৩৬ দশমিক ২৪ মিলিয়ন ইউএস ডলারের পণ্য রপ্তানি হয়েছিল। আগের বছরের একই সময়ে রপ্তানি হয়েছিল ৪৮৫০ দশমিক ৩৭ মিলিয়ন ইউএস ডলার। রপ্তানি বেড়েছিল ৫ দশমিক ৮৯ শতাংশ।

রপ্তানি বাড়ায় ২০২১-২২ অর্থবছরের তুলনায় ২০২২-২০২৩ অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে রপ্তানি আয়ে প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৭ দশমিক ১১ শতাংশ। তাতে দেখা গেছে, চলতি অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাই ২০২২ থেকে মে ২০২৩ সাল পর্যন্ত ১১ মাসে বিশ্ববাজারে মোট ৫০৫২৭ দশমিক ২৪ অর্থাৎ ৫ হাজার ৫২ কোটি ৭২ লাখ ৪০ হাজার ইউএস ডলারের পণ্য রপ্তানি হয়েছে। আগের অর্থবছরের একই সময়ে রপ্তানি হয়েছিল ৪৭১৭ দশমিক ৬৩ মিলিয়ন ইউএস ডলার বা ৪ হাজার ৭১৭ কোটি ৪৫ লাখ ৫০ হাজার ডলার। অর্থাৎ রপ্তানি ৭ দশমিক ১১ শতাংশ বেড়েছে।

কিন্তু এ সময়ে সরকারের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৬২৪৫৪ মিলিয়ন ইউএস ডলার বা ৬ হাজার ২৪৫ কোটি ৪০ লাখ ডলারের পণ্য রপ্তানির। সেই হিসাবে অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসের রপ্তানি আয় লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫ দশমিক ৬৪ শতাংশ পিছিয়ে আছে। অর্থাৎ ১৯০৬ দশমিক ৭৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পরিমাণ পণ্য বিশ্ববাজারে কম রপ্তানি হয়েছে।

back to top