alt

নগর-মহানগর

দেশে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নাজুক : মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : মঙ্গলবার, ০২ এপ্রিল ২০২৪

দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা একবারে তলানিতে। ভয়ংকর অবস্থা বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ।

তিনি গত জানুয়ারি মাসে বামনার ডৌয়াতলা কলেজ রোডে অবস্থিত সুন্দরবন হসপিটাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে মেঘলা আক্তারের (১৯) সাথে ঘটে যাওয়া অমানবিক ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বলেন, গর্ভবতী মেঘলাকে অস্ত্রোপচার কক্ষে নেওয়া হয়। সেখানে মেঘলার ভুল চিকিৎসা হয়।

রোগীর অবস্থা খারাপ হলে জীবিত নবজাতক সন্তানকে ফের মায়ের পেটে ঢুকিয়ে দ্রæত বরিশালে নিতে বলেন চিকিৎসকরা। সেখানে মেঘলা ও তার নবজাতক সন্তানকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক । এমন ঘটনা থেকেই বোঝা যায় দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা কতোটা নাজুক বলে মন্তব্য করেন কমিশনের চেয়ারম্যান।

রাজধানীর একটি হোটেলে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন আয়োজিত মানবাধিকার সুরক্ষায় গণমাধ্যমকর্মীদের ভ‚মিকা বিষয়ক মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কমিশনের সা¤প্রতিক বিষয়ে কার্যক্রম উপস্থাপন করেন সংস্থাটির পরিচালক কাজী আরফান আশিক। স্বাগত বক্তব্য উপস্থাপন করেন কমিশন সচিব সেবাষ্টিন রেমা।

সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পরিপ্রেক্ষিত-এর নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ বোরহান কবীর। তিনি বলেন, ‘কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টের তথ্য অনুযায়ী গত বছর বিশ্বজুড়ে ৯৯ জন সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। সংবাদ প্রকাশের জন্য নিপীড়িত, নির্যাতিত সাংবাদিকদের সংখ্যা সহস্রাধিক।

গত বছরের শেষার্ধে অর্থাৎ জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ২৮২টি অভিযোগ পেয়েছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। এ সব অভিযোগের মধ্যে নিষ্পত্তি হয়েছে ১৩০টি অভিযোগ, ১২৯টি অভিযোগ নিষ্পত্তির বিষয়ে কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এ সময়ে কমিশন স্বপ্রণোদিত হয়ে ৫১টি অভিযোগ নিয়ে কাজ করেছে। এর মধ্যে ১২টি অভিযোগ নিষ্পত্তি হয়েছে। কার্যক্রম চলমান রয়েছে ৩৯টি অভিযোগের।

কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য সেলিম রেজা, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল দত্ত এবং জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচির সহকারী আবাসিক প্রতিনিধি আনোয়ারুল হক।

সভাপতির বক্তব্যে কামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘মুক্ত গণমাধ্যম এবং মানবাধিকার সুরক্ষা একে অন্যের পরিপূরক। মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনাগুলো সম্পর্কে জানতে আমরা গণমাধ্যমের সহায়তাই নিয়ে থাকি। আমার স্বপ্রণোদিত হয়ে যেসব অভিযোগ নিয়ে কাজ করেছি তা গণমাধ্যমের খবরের ওপর ভিত্তি করেই।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘মানবাধিকার কমিশনের ক্ষমতা ও সক্ষমতা বৃদ্ধির চেষ্টা আমরা অব্যাহতভাবে করে যাচ্ছি। মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটলে আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পিবিআই, সিআইডিসহ বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে কাজ করি। পুলিশ সদস্যরা শাস্তির আওতায় এসেছে, এমন ঘটনাও আছে।’

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত বলেন, ‘আমার দুই সহকর্মী (সাগর-রুনি) হত্যার শিকার হয়েছে, তাদের সেই মামলার তদন্ত প্রতিবেদন ১০৮ বার পেছানো হয়েছে। এমন আরো অনেক ঘটনায় বলতে পারি আমাদের মানবাধিকার এখনো নিশ্চিত হয়নি। মানবাধিকার নিশ্চিতে সকলের সমন্বয় নিশ্চিত করতে হবে। যেখানে মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রবণতা বেশি, সেখানে গণমাধ্যম তত সংকুচিত এবং ততটাই ঝুঁকিতে।’

আনোয়ারুল হক বলেন, ‘মানবাধিকতার ইস্যুতে বিশেষায়িত সাংবাদিকতার বিকাশ জরুরি। সাংবাদিকদের আইনি সুরক্ষারও প্রয়োজন। আমরা এসব কিছু নিয়েই মানবাধিকার কমিশনের সঙ্গে কাজ করতে চাই। কমিশন, গণমাধ্যম এবং সিভিল সোসাইটিকে মানবাধিকার নিয়ে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে।’

নিত্যপণ্যের তুলনায় তামাকপণ্য সস্তা, দাম বাড়ানোর দাবি

ছবি

ট্রেনে পায়ের আঙুল কাটা পড়েছে আনু মুহাম্মদের

ছবি

রেকি করে ফাঁকা ঢাকায় চুরি করতেন তারা

ছবি

প্রচণ্ড তাপপ্রবাহে আইনজীবীদের গাউন পড়নে শিথিলতা

ছবি

হাতিরঝিলে ভাসছিল যুবকের মরদেহ

ছবি

শিশু হাসপাতালে পর্যাপ্ত অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা ছিল না: ফায়ার সার্ভিস

ছবি

শিশু হাসপাতালে আগুন, ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

ছবি

নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাইদা বাস থার্ড টার্মিনালে, প্রকৌশলী নিহত

ছবি

ঢাকা শিশু হাসপাতালের কার্ডিয়াক বিভাগে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৭ ইউনিট

ছবি

ভাষানটেকে বাবা-মা-দাদির পরে চলে গেল লামিয়াও

ছবি

যমুনা এক্সপ্রেসের লাইনচ্যুত বগি উদ্ধার, ঢাকামুখী পথ সচল

ছবি

রাজধানীতে স্বস্তির বৃষ্টি

ছবি

ভাসানটেকে গ্যাসের আগুন: শাশুড়ি ও স্ত্রীর পর স্বামীও মারা গেছে

ছবি

পহেলা বৈশাখে জাহানারা জাদুঘরের বিশেষ প্রদর্শনী

ছবি

চট্টগ্রামে বস্তিতে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৯ ইউনিট

ছবি

ঢাকায় পুলিশের অভিযানে গ্রেপ্তার ৮

ঢাবি চারুকলার বকুলতলায় গান-নাচ-আবৃত্তিতে চৈত্রসংক্রান্তি উদ্‌যাপন

ছবি

ঢাকায় এসেছে ইসরায়েলের ফ্লাইট, বেবিচকের ব্যাখা

ছবি

বর্ষবরণের অপেক্ষায় রমনা

ছবি

যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের ওপর গাড়িতে আগুন লাগে জানান পুলিশ

লঞ্চের দড়ি ছিঁড়ে ৫ জনের মৃত্যু : আসামিদের তিন দিনের রিমান্ড

ছবি

এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের ওপর প্রাইভেট কারে আগুন

রাজধানীর শাহজাদপুরে বুথের নিরাপত্তা প্রহরীকে হত্যা

ছবি

যাত্রীদের পিটুনিতে হয়নি চালক-সহকারীর মৃত্যু, হেলপার গল্প সাজিয়েছে বলছে পুলিশ

ছবি

ঈদের দিন বন্ধ থাকবে মেট্রোরেল

ছবি

মেট্রোরেলের পিলারে বাসের ধাক্কা

ছবি

কেএনএফের তৎপরতা নিয়ে ঢাকায় কোনো শঙ্কা নেই: ডিএমপি কমিশনার

ছবি

আবাসিক হোটেল থেকে নির্মাতা সোহানুর রহমানের মেয়ের মরদেহ উদ্ধার

কেটলির শর্টসার্কিট থেকে লিকেজের গ্যাসে বিস্তার

ছবি

জনগণের ঈদযাত্রা স্বস্তিদায়ক করতে পুলিশের সব ইউনিট একযোগে কাজ করছে : আইজিপি

ছবি

কমলাপুর স্টেশনে বেড়েছে যাত্রীর চাপ, টিকেট ছাড়া প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

ছবি

ঈদে ঢাকা ছাড়ার আগে নগরবাসীকে ডিএমপির ১৪ পরামর্শ

ছবি

আগামী দিনে সদরঘাট আরও ফিটফাট হবে : নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

ছবি

মেট্রোরেলে ভ্যাট, ঘোষণা কে দিলো ‘জানেন না’ ওবায়দুল কাদের

ছবি

পর্নোগ্রাফির উদ্দেশ্যে ধর্ষণের ভিডিও করা হয় : পুলিশ

এডিস মশা : ডাবের খোসাসহ পরিত্যক্ত দ্রব্যাদি কিনবে ঢাকা উত্তর সিটি

tab

নগর-মহানগর

দেশে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা নাজুক : মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

মঙ্গলবার, ০২ এপ্রিল ২০২৪

দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা একবারে তলানিতে। ভয়ংকর অবস্থা বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ।

তিনি গত জানুয়ারি মাসে বামনার ডৌয়াতলা কলেজ রোডে অবস্থিত সুন্দরবন হসপিটাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে মেঘলা আক্তারের (১৯) সাথে ঘটে যাওয়া অমানবিক ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বলেন, গর্ভবতী মেঘলাকে অস্ত্রোপচার কক্ষে নেওয়া হয়। সেখানে মেঘলার ভুল চিকিৎসা হয়।

রোগীর অবস্থা খারাপ হলে জীবিত নবজাতক সন্তানকে ফের মায়ের পেটে ঢুকিয়ে দ্রæত বরিশালে নিতে বলেন চিকিৎসকরা। সেখানে মেঘলা ও তার নবজাতক সন্তানকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক । এমন ঘটনা থেকেই বোঝা যায় দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা কতোটা নাজুক বলে মন্তব্য করেন কমিশনের চেয়ারম্যান।

রাজধানীর একটি হোটেলে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন আয়োজিত মানবাধিকার সুরক্ষায় গণমাধ্যমকর্মীদের ভ‚মিকা বিষয়ক মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় কমিশনের সা¤প্রতিক বিষয়ে কার্যক্রম উপস্থাপন করেন সংস্থাটির পরিচালক কাজী আরফান আশিক। স্বাগত বক্তব্য উপস্থাপন করেন কমিশন সচিব সেবাষ্টিন রেমা।

সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পরিপ্রেক্ষিত-এর নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ বোরহান কবীর। তিনি বলেন, ‘কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টের তথ্য অনুযায়ী গত বছর বিশ্বজুড়ে ৯৯ জন সাংবাদিক নিহত হয়েছেন। সংবাদ প্রকাশের জন্য নিপীড়িত, নির্যাতিত সাংবাদিকদের সংখ্যা সহস্রাধিক।

গত বছরের শেষার্ধে অর্থাৎ জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ২৮২টি অভিযোগ পেয়েছে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। এ সব অভিযোগের মধ্যে নিষ্পত্তি হয়েছে ১৩০টি অভিযোগ, ১২৯টি অভিযোগ নিষ্পত্তির বিষয়ে কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এ সময়ে কমিশন স্বপ্রণোদিত হয়ে ৫১টি অভিযোগ নিয়ে কাজ করেছে। এর মধ্যে ১২টি অভিযোগ নিষ্পত্তি হয়েছে। কার্যক্রম চলমান রয়েছে ৩৯টি অভিযোগের।

কমিশনের চেয়ারম্যান ড. কামাল উদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য সেলিম রেজা, জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল দত্ত এবং জাতিসংঘের উন্নয়ন কর্মসূচির সহকারী আবাসিক প্রতিনিধি আনোয়ারুল হক।

সভাপতির বক্তব্যে কামাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘মুক্ত গণমাধ্যম এবং মানবাধিকার সুরক্ষা একে অন্যের পরিপূরক। মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনাগুলো সম্পর্কে জানতে আমরা গণমাধ্যমের সহায়তাই নিয়ে থাকি। আমার স্বপ্রণোদিত হয়ে যেসব অভিযোগ নিয়ে কাজ করেছি তা গণমাধ্যমের খবরের ওপর ভিত্তি করেই।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘মানবাধিকার কমিশনের ক্ষমতা ও সক্ষমতা বৃদ্ধির চেষ্টা আমরা অব্যাহতভাবে করে যাচ্ছি। মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটলে আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পিবিআই, সিআইডিসহ বিভিন্ন সংস্থার মাধ্যমে বিষয়টি নিয়ে কাজ করি। পুলিশ সদস্যরা শাস্তির আওতায় এসেছে, এমন ঘটনাও আছে।’

জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও ভোরের কাগজের সম্পাদক শ্যামল দত্ত বলেন, ‘আমার দুই সহকর্মী (সাগর-রুনি) হত্যার শিকার হয়েছে, তাদের সেই মামলার তদন্ত প্রতিবেদন ১০৮ বার পেছানো হয়েছে। এমন আরো অনেক ঘটনায় বলতে পারি আমাদের মানবাধিকার এখনো নিশ্চিত হয়নি। মানবাধিকার নিশ্চিতে সকলের সমন্বয় নিশ্চিত করতে হবে। যেখানে মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রবণতা বেশি, সেখানে গণমাধ্যম তত সংকুচিত এবং ততটাই ঝুঁকিতে।’

আনোয়ারুল হক বলেন, ‘মানবাধিকতার ইস্যুতে বিশেষায়িত সাংবাদিকতার বিকাশ জরুরি। সাংবাদিকদের আইনি সুরক্ষারও প্রয়োজন। আমরা এসব কিছু নিয়েই মানবাধিকার কমিশনের সঙ্গে কাজ করতে চাই। কমিশন, গণমাধ্যম এবং সিভিল সোসাইটিকে মানবাধিকার নিয়ে এক সঙ্গে কাজ করতে হবে।’

back to top