alt

নগর-মহানগর

ফোন করে বলে ‘ও তো আমার লোক’ কিশোর গ্যাং আটক প্রসঙ্গে ডিবি প্রধান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : রোববার, ১২ মে ২০২৪

প্রভাবশালী ব্যক্তিদের ফোনে কিশোর গ্যাংয়ের আটকদের মধ্যে কাউকে কাউকে ছেড়ে দিতে হয় বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার ডিবিপ্রধান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ। তিনি বলেন, আমরা যখন কিশোর গ্যাংয়ের কাউকে আটক করি, তখন কেউ ফোন করে বলে, ‘ও তো আমার লোক, সে মাদক ব্যবসা করে না।’ গতকাল দুপুরে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘কিশোর অপরাধের ধরন ও কারণ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

হারুন অর রশীদ বলেন, কিশোর গ্যাং নিয়ে প্রায়ই আলোচনা হচ্ছে। আমরা বিভিন্ন বিষয়ের তাৎপর্য বিবেচনা করছি। বিভিন্ন সমাবেশে কিশোর গ্যাংয়ের দৌরাত্ম্য নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের কারণে আমরা পুলিশের সদস্যরা উঠেপড়ে লেগেছি। কিশোরদের বিষয়টি নিয়ে অনেক সময় কিছুটা কনফিউশান তৈরি হয়।

ইউনিসেফ বলছে, ১০-১৯ বছরের মধ্যে ছেলেমেয়েরা এ ধরনের অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। আবার আমাদের সংবিধানে ১৬ বছর বলা আছে। সবকিছু বিবেচনা করে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। আজকাল বাচ্চারা সাত বছর বয়সেই ম্যাচুরিটি অর্জন করে ফেলছে। কিশোর গ্যাং বিভিন্ন নাম দিয়ে সমাজের বিভিন্ন জায়গায় আধিপত্য বিস্তার করছে।

ডিবিপ্রধান বলেন, প্রত্যেক এলাকায় যদি আমাদের লোক পাঠাই যে এরা কারা। সেখানে পোশাকের ধরন দেখলেই বোঝা যাবে এরা কারা। এক সময় আমরা দেখতাম রজনৈতিক নেতারা বস্তির ছেলেদের সস্তায় মিছিলে নিতেন, তাদের বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করতেন। এখন কিন্তু পরিস্থিতি পরিবর্তন হয়েছে, কারণ বস্তির সংখ্যা কমে গেছে। আমরা সমাজের প্রতিটি রন্ধে যাওয়ার চেষ্টা করছি। তবে কিশোর গ্যাংয়ের জন্য যে শুধু তারা দায়ী তা নয়, একটি বড় ভাই গ্রুপ তাদের নিয়ন্ত্রণ করে।

তিনি বলেন, পারিবারিক শিক্ষাটা গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু সেটি সঠিকভকবে হচ্ছে না বলে অপরাধ বাড়ছে। আমরা যখন কিশোর গ্যাংয়ের কাউকে আটক করি, তখন কেউ ফোন করে বলে, ‘ও তো আমার লোক, সে মাদক ব্যবসা করে না।’ আবার তারা অনেক সময় এমনভাবে তদবির করে, দলের সিনিয়র নেতা ও মন্ত্রীদের মতো প্রভাবশালীদের গিয়ে বলে, ‘ডিবি তো আমাদের লোকদের ধরে নিয়ে গেছে।’ ওনারা যখন আমাদের ফোনটা করেন, তখন আমরা ভাবি এখন কথা না রাখলে তো পরে মাইন্ড করবে। অনেক সময় আমরা ছেড়ে দিতে বাধ্য হই। সব সময় যে ছাড়ি তাও নয়।

ছবি

জাতীয় প্রেস ক্লাবে কিডনি ও চক্ষু ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

ছবি

এমপি আনার হত্যায় তিনজনকে ৮ দিনের রিমান্ডে

ছবি

শান্তিনগরে বহুতল ভবনে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ২ ইউনিট

ছবি

চার্জার লাইটের ভেতরে ৫ কোটি টাকার সোনা, ২ বিদেশি গ্রেপ্তার

ছবি

ঢাকার বাতাস আজও ‘অস্বাস্থ্যকর’

ছবি

জ্বালানি খাতে অবদানের জন্য সম্মাননা পেল এফইআরবি, সংবাদের রিপোর্টার ও ১১ সাংবাদিক

ছবি

জনগণকে উদ্বুদ্ধ করা ছাড়া এককভাবে মশা নিয়ন্ত্রণ সম্ভব না : তাজুল ইসলাম

ছবি

বাড্ডায় ঘিরে রাখা বাড়ি থেকে ৬৫ হাতবোমা উদ্ধার, আটক ৩

ছবি

গোলাম মাওলা রনির গাড়িতে হামলা

ছবি

ধানমন্ডিতে গলায় চাপাতি ঠেকিয়ে ছিনতাই, গ্রেপ্তার ৪

ছবি

২৭ মে সারাদেশে আন্দোলনের হুঁশিয়ারি অটোরিকশা চালকদের

ছবি

রাজধানীর বাবুবাজারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে ব্যবসায়ীর মৃত্যু

ছবি

ইভ্যালির এমডি: দুই বছরের মধ্যে সবার টাকা ফেরত

ছবি

মিরপুরে ব্যাটারিচালিত রিকশাচালকদের বিক্ষোভ ট্রাফিক বক্সে আগুন, পথচারী গুলিবিদ্ধ

ছবি

২৫ মে বঙ্গবাজারে নতুন মার্কেটের কাজ শুরু

ছবি

মিরপুরে পুলিশ-অটোরিকশা চালকদের পাল্টাপাল্টি ধাওয়া, পুলিশ বক্সে আগুন

ছবি

মেট্রোরেলে উত্তরা থেকে টঙ্গীর মাঝে হবে ৫ স্টেশন

ছবি

মিরপুরে লাঠিসোটা নিয়ে বিক্ষোভে ব্যাটারিচালিত রিকশাচালকরা

ছবি

স্বেচ্ছাসেবক লীগের কর্মসূচি : ছাত্রলীগ কর্মী খুন

ছবি

পুরান ঢাকার ব্যাংকের আগুন নিয়ন্ত্রণে

ছবি

পুরান ঢাকায় ব্যাংকে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট

ছবি

রত্নগর্ভা মা সম্মাননা স্মারক পেলেন সুরাইয়া আহমেদ

ছবি

বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষ্যে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

সিদ্ধেশ্বরীর মনোয়ারা হাসপাতালে আগুন

ছবি

ট্রেনের দরজা থেকে পড়ে শিশুর নিহত

ছবি

পুলিশের কাজ মিশে যাওয়া, মিলে যাওয়া নয় : তেজগাঁও বিভাগের ডিসি

ছবি

গেটলক সিস্টেম না মানলেই মামলা : ডিএমপি কমিশনার

ছবি

স্টার্টআপ বাংলাদেশ ও মনের বন্ধু’র মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর

ছবি

শুক্রবারও মেট্রোরেল চালানোর প্রাথমিক সিদ্ধান্ত

ছবি

সিলেটে হোল্ডিংট্যাক্সে ‘তুঘলকি কান্ড’, এক লাফে বাড়লো কয়েকশ’ গুণ

ছবি

রাজধানীতে এবার চালু হলো বাসের গেটলক সিস্টেম

ছবি

সুপ্রিম বার সমিতির নির্বাচনে সংঘর্ষ জামিন পেয়েছেন নাহিদ সুলতানা যুথী

হাসপাতালের লিফটে আটকে রোগীর মৃত্যু

পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে শাহবাগ অবরোধ চাকরিপ্রত্যাশীদের, পুলিশের লাঠিচার্জ, আটক ১৩

ছবি

অভিজাত এলাকায় অভিজাত ময়লা পেয়েছি : মেয়র আতিক

ছবি

যাত্রাবাড়ীতে বাস-পিকআপ সংঘর্ষে নিহত

tab

নগর-মহানগর

ফোন করে বলে ‘ও তো আমার লোক’ কিশোর গ্যাং আটক প্রসঙ্গে ডিবি প্রধান

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

রোববার, ১২ মে ২০২৪

প্রভাবশালী ব্যক্তিদের ফোনে কিশোর গ্যাংয়ের আটকদের মধ্যে কাউকে কাউকে ছেড়ে দিতে হয় বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার ডিবিপ্রধান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ। তিনি বলেন, আমরা যখন কিশোর গ্যাংয়ের কাউকে আটক করি, তখন কেউ ফোন করে বলে, ‘ও তো আমার লোক, সে মাদক ব্যবসা করে না।’ গতকাল দুপুরে রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘কিশোর অপরাধের ধরন ও কারণ’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

হারুন অর রশীদ বলেন, কিশোর গ্যাং নিয়ে প্রায়ই আলোচনা হচ্ছে। আমরা বিভিন্ন বিষয়ের তাৎপর্য বিবেচনা করছি। বিভিন্ন সমাবেশে কিশোর গ্যাংয়ের দৌরাত্ম্য নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের কারণে আমরা পুলিশের সদস্যরা উঠেপড়ে লেগেছি। কিশোরদের বিষয়টি নিয়ে অনেক সময় কিছুটা কনফিউশান তৈরি হয়।

ইউনিসেফ বলছে, ১০-১৯ বছরের মধ্যে ছেলেমেয়েরা এ ধরনের অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। আবার আমাদের সংবিধানে ১৬ বছর বলা আছে। সবকিছু বিবেচনা করে আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। আজকাল বাচ্চারা সাত বছর বয়সেই ম্যাচুরিটি অর্জন করে ফেলছে। কিশোর গ্যাং বিভিন্ন নাম দিয়ে সমাজের বিভিন্ন জায়গায় আধিপত্য বিস্তার করছে।

ডিবিপ্রধান বলেন, প্রত্যেক এলাকায় যদি আমাদের লোক পাঠাই যে এরা কারা। সেখানে পোশাকের ধরন দেখলেই বোঝা যাবে এরা কারা। এক সময় আমরা দেখতাম রজনৈতিক নেতারা বস্তির ছেলেদের সস্তায় মিছিলে নিতেন, তাদের বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করতেন। এখন কিন্তু পরিস্থিতি পরিবর্তন হয়েছে, কারণ বস্তির সংখ্যা কমে গেছে। আমরা সমাজের প্রতিটি রন্ধে যাওয়ার চেষ্টা করছি। তবে কিশোর গ্যাংয়ের জন্য যে শুধু তারা দায়ী তা নয়, একটি বড় ভাই গ্রুপ তাদের নিয়ন্ত্রণ করে।

তিনি বলেন, পারিবারিক শিক্ষাটা গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু সেটি সঠিকভকবে হচ্ছে না বলে অপরাধ বাড়ছে। আমরা যখন কিশোর গ্যাংয়ের কাউকে আটক করি, তখন কেউ ফোন করে বলে, ‘ও তো আমার লোক, সে মাদক ব্যবসা করে না।’ আবার তারা অনেক সময় এমনভাবে তদবির করে, দলের সিনিয়র নেতা ও মন্ত্রীদের মতো প্রভাবশালীদের গিয়ে বলে, ‘ডিবি তো আমাদের লোকদের ধরে নিয়ে গেছে।’ ওনারা যখন আমাদের ফোনটা করেন, তখন আমরা ভাবি এখন কথা না রাখলে তো পরে মাইন্ড করবে। অনেক সময় আমরা ছেড়ে দিতে বাধ্য হই। সব সময় যে ছাড়ি তাও নয়।

back to top