alt

নগর-মহানগর

রামপুরায় ১২টি বাস বিধ্বস্ত অবস্থায় পেয়েছে ফায়ার সার্ভিস

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১

রাজধানীর রামপুরা এলাকায় অনাবিল পরিবহনের বাসের চাপায় শিক্ষার্থী মাইনুদ্দিন ইসলামের নিহত হওয়ার ঘটনায় অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরে মোট ১২টি বাস ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সোমবার দিবাগত রাতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে এ কথা জানান ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক (ডিএডি) হাফিজুর রহমান।

তিনি বলেন, ঘটনাস্থলে এসে আমরা ১২টি বাস বিধ্বস্ত অবস্থায় পেয়েছি। এর মধ্যে চারটি বাসে ভাঙচুর ও বাকি আটটিতে আগুন দেওয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলে আমাদের তিনটি ইউনিট কাজ করে আগুন নিয়ন্ত্রণ ও নির্বাপণ করেছে। আগুনে বাসগুলো সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।

রাত সাড়ে বারোটার দিকে পুলিশের দুটি রেকার বিধ্বস্ত বাসগুলো সড়ক থেকে সরিয়ে ফেলে। এ সময় পুলিশ সড়ক থেকে উত্তেজিত জনতাকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। রাত ১টা ৫০ মিনিটের দিকে সড়কে যান চলাচল শুরু হয়।

রাত পৌনে এগারোটার দিকে রাজধানীর রামপুরা এলাকায় অনাবিল পরিবহনের বাসের চাপায় একরামুন্নেসা স্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থী মাইনুদ্দীন ইসলাম নিহত হওয়ার ঘটনায় সড়ক অবরোধ করে উত্তেজিত জনতা। এ সময় ঘাতক বাসসহ আটটি বাসে আগুন দেয় তারা।

ছবি

বাসভাড়া নিয়ে বাগবিতন্ডা যাত্রীকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে হত্যা

মোটরসাইকেল আরোহীকে পিটিয়ে হত্যা বাসযাত্রীদের

ছবি

বইমেলা পিছিয়ে যাচ্ছে ২ সপ্তাহ!

ছবি

ঢাকায় বায়ু দূষনের ৬০ শতাংশ হয় রাতে, দূষণের শীর্ষে আবদুল্লাহপুর

ছবি

মিরপুর বাঙলা কলেজের নির্মাণাধীন ভবনে মিলল লাশ

ছবি

রাজধানীতে মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৭৯

রাজধানীতে অধিকাংশ মানুষের মুখে মাস্ক ছিল না

ছবি

ঐতিহ্যবাহী সাকরাইন উৎসব

‘বিশৃঙ্খলায় ঢাকায় বাসে যাত্রী পরিবহন কম’

ছবি

যাত্রী ছাউনি : অযত্ন অবহেলায় বেহাল অবস্থা

অর্ধেক আসনে যাত্রী বহনের নামে বাসভাড়া বৃদ্ধির পায়ঁতারা বন্ধ করুন ------------ যাত্রী কল্যান সমিতি

ছবি

ম্যারাথনে হাতিরঝিল বন্ধ, যানজটে নাকাল নগরবাসী

ঘুম থেকে দেরি করে উঠায় বকা : অভিমানে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

ছবি

উত্তরায় মহাসড়ক অবরোধ করে হকারদের বিক্ষোভ

ছবি

আইভীর বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ তৈমুরের

ছবি

রাজধানীর কাপ্তান বাজারে আগুন, নিহত ১

ছবি

রাজধানীতে বাসচাপায় দুই পথচারী নিহত

ছবি

রাজধানী বাংলামোটরের আগুন নিয়ন্ত্রণে

ছবি

বাংলামোটরে বহুতল ভবনে ভয়াবহ আগুন

ছবি

তুরাগে বসতবাড়িতে আগুন, ভাই-বোনসহ ৩ লাশ উদ্ধার

উত্তরায় প্রেমিককে বেঁধে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৫

ছবি

বনানীর রাস্তায় মালিকবিহীন পোরশে

ছবি

আজ রাজধানীর যেসব মার্কেট ও দর্শনীয় স্থান বন্ধ

ঢাবি প্রকৌশলীর দুর্নীতি : ট্রাইব্যুনাল গঠনের সিন্ধান্ত

জোন্তা ইন্টারন্যাশনাল ডিস্ট্রিক্ট ২৫ লেফটেন্যান্ট গভর্নর হলেন ডা: জেরিন

ছবি

অনন্যা শীর্ষদশ ২০২০ সম্মাননা পেলেন অধ্যাপক ড. লাফিফা জামাল

মতিঝিলে কিশোরী ধর্ষণ, এপিবিএন সদস্য গ্রেপ্তার

ছবি

রাজধানীতে বেপরোয়া এনা উঠে গেল মাইক্রোবাসের ওপর

নবাবগঞ্জে মৃত স্বজনকে দেখতে গিয়ে সড়কে ঝরল চার নারী

ছবি

টিকিট কেটে বাসে চড়লেন দুই মেয়র

কামরাঙ্গীর চরে উচ্ছেদ বন্ধের দাবিতে মানববন্ধন

ছবি

এবার ওয়ারীতে দক্ষিণ সিটির ময়লার গাড়ির ধাক্কায় বৃদ্ধ নিহত

ছবি

রাজধানীতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ছবি

ডিএনসিসি খাল থেকে ৭৯ হাজার মেট্রিক টন বর্জ্য অপসারণ

ছবি

গণপরিবহনে অভিযান শুরু হলে বাস বন্ধ করে দেয় চালকরা

ছবি

ডিএমপির মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৪৬

tab

নগর-মহানগর

রামপুরায় ১২টি বাস বিধ্বস্ত অবস্থায় পেয়েছে ফায়ার সার্ভিস

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১

রাজধানীর রামপুরা এলাকায় অনাবিল পরিবহনের বাসের চাপায় শিক্ষার্থী মাইনুদ্দিন ইসলামের নিহত হওয়ার ঘটনায় অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরে মোট ১২টি বাস ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সোমবার দিবাগত রাতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে এ কথা জানান ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক (ডিএডি) হাফিজুর রহমান।

তিনি বলেন, ঘটনাস্থলে এসে আমরা ১২টি বাস বিধ্বস্ত অবস্থায় পেয়েছি। এর মধ্যে চারটি বাসে ভাঙচুর ও বাকি আটটিতে আগুন দেওয়া হয়েছে। ঘটনাস্থলে আমাদের তিনটি ইউনিট কাজ করে আগুন নিয়ন্ত্রণ ও নির্বাপণ করেছে। আগুনে বাসগুলো সম্পূর্ণ পুড়ে গেছে।

রাত সাড়ে বারোটার দিকে পুলিশের দুটি রেকার বিধ্বস্ত বাসগুলো সড়ক থেকে সরিয়ে ফেলে। এ সময় পুলিশ সড়ক থেকে উত্তেজিত জনতাকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। রাত ১টা ৫০ মিনিটের দিকে সড়কে যান চলাচল শুরু হয়।

রাত পৌনে এগারোটার দিকে রাজধানীর রামপুরা এলাকায় অনাবিল পরিবহনের বাসের চাপায় একরামুন্নেসা স্কুলের এসএসসি পরীক্ষার্থী মাইনুদ্দীন ইসলাম নিহত হওয়ার ঘটনায় সড়ক অবরোধ করে উত্তেজিত জনতা। এ সময় ঘাতক বাসসহ আটটি বাসে আগুন দেয় তারা।

back to top