alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

কলারোয়ায় মাটিখেকোদের খপ্পরে নিঃশেষ বেত্রবতী নদীর পাড়

প্রতিনিধি, কলারোয়া (সাতক্ষীরা) : বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) : নদীর পাড় থেকে এভাবেই কাটা হচ্ছে মাটি -সংবাদ

কলারোয়ার বেত্রবতী নদীর দুই পাড়ের মাটি কেটে সাবাড় করে দিচ্ছে প্রভাবশালী সিন্ডিকেট। শীত এলেই মাটিকাটা বাণিজ্যে মেতে ওঠে তারা। সিন্ডিকেটের নিযোজিত কিছু লোক মাটিকাটা দেখভাল করে।

সরেজমিনে দেখা যায়, দিনে রাতে ট্রলিযোগে বেত্রবতী নদীর পাড়ের মাটি যাচ্ছে ইটভাটা আর বাড়ি নির্মাণে ভরাট করার কাজে। মাটিবাহী ট্রাক্টরের চলাচলে সড়কগুলো ভেঙে যাচ্ছে। মাটি কাটার দৃশ্য দেখলেও ভয়ে স্থানীয়রা মুখ খোলেন না। কলারোয়া বেত্রবতী নদীর প্রায় ৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে গত কিছু দিন ধরে চলছে মাটি বাণিজ্য। বেত্রবতী নদীর পাড়ের মাটি কেটে সাবাড় করার ফলে হুমকির মুখে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে নদীর তীরে বসবাসকারীদের। নদীর পাড় থেকে মূল রাস্তায় ওঠা-নামার জন্য বিকল্প পথও তৈরি করা হয়েছে। নদী পাড়ের গোপিনাথপুর ও মুরারীকাঠি ঘাটের ব্রীজের পাশের পাড়ের মাটি কেটে কেটে তৈরি পথে রাস্তায় উঠে নির্দিষ্ট গন্তব্যে যায়। আবার খালি ট্রলি এসে জড়ো হচ্ছে নদীর পাড়ে। সেখানকার স্থানীয় মুরারীকাঠি গ্রামের অরুণ পালের স্ত্রী কল্পনা পাল জানান, নদী খননের সময় আমাদের মালিকানাধীন জমিতে মাটি কেটে রাখলে সেই মাটি ৩০ হাজার টাকা খরচ করে জমি সমান করে কলাগাছ রোপন করি। কিন্তু হঠাৎ করে এই মাটি খেকোরা জোরপূর্বক কলা গাছ উপড়ে ফেলে মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ করেও কোন ফল না পাওয়ার আক্ষেপ করেন তিনি। এলাকাবাসীরা জানান, পাড়ের মাটি যেভাবে কেটে নেয়া হচ্ছে তাতে স্থানীয়দের বসবাস হুমকির মুখে পড়বে। মাটিকাটা সিন্ডিকেট প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের কিছু বলার সাহসও নেই স্থানীয়দের। মাটি পরিবহন করা এমন একজন ট্রলি চালককে সিন্ডিকেটের বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে সে নাম জানাতে অস্বীকৃতি জানায়। তার মুখ থেকে কোনোভাবেই বের করা যায়নি সংশ্লিষ্ট কারও নাম। কলারোয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কৃষ্ণা রায় জানান, মাটি কাটার বিষয়টি আমি আপনাদের মাধ্যমে জানতে পারলাম। যেই কাটুক তদন্তপূর্বক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ছবি

শিশু আয়ানের মৃত্যু: তদন্ত প্রতিবেদনে হাইকোর্টের ‘অসন্তুষ্ট, পুন:তদন্তে নতুন কমিটি

ছবি

মোবাইল চুরির পর চোর হয়ে যেতেন প্রবাসী বন্ধু

ছবি

কিশোর গ্যাং-মাদকের বিরুদ্ধে‘অলআউট অ্যাকশনে’ যাবো ঃ র‌্যাব ডিজি

ছবি

আবারো পেছালো ৩৫ বছর আগের সগিরা মোর্শেদ হত্যা মামলার রায়

ছবি

৩৫ বছর আগে খুন হওয়া সগিরা মোর্শেদের মামলার রায় আবার পেছাল

ছবি

দরবেশ বাবা পরিচয়দানকারি নতুন প্রতারক চক্রের সন্ধান ১৯ সদস্য গ্রেফতার,স্বীকারোক্তি : একজন নারী ডাক্তার থেকে ২৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে এই চক্র

মাদ্রাসার শিক্ষকদের এমপিওভূক্তির আশ্বাস দিয়ে ৪ কোটি টাকা আত্মসাৎ, গ্রেফতার দুই বাটপারের স্বীকারোক্তি

ছবি

ফরিদপুরে অস্ত্র মামলায় রুবেল ও তার সহযোগীর কারাদণ্ড

ছবি

চার মাদ্রাসার শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ, শিক্ষকের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

চালক-হেলপারের সহায়তায় বাসে ছিনতাই করে ‘বমি পার্টি’র সদস্যরা

ছবি

সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা ফজলুল করিম হত্যায় বিচার কার্যক্রম শুরু

ছবি

তরুণীকে ব্ল্যাক মেইল,ধর্ষণ,ভিডিও ভাইরালের হুমকি অবশেষে গ্রেফতার,স্বীকারোক্তি

ছবি

রেলের টিকিট কালোবাজারে বিক্রি আরেক বুকিং সহকারী গ্রেপ্তার

ছবি

গৃহকর্মীর মৃত্যুঃ সাংবাদিক আশফাক ও স্ত্রী ৪ দিনের রিমান্ডে

ছবি

জামালপুরে কলেজছাত্র লিটন হত্যা মামলায় ৭ জনের যাবজ্জীবন

সুবর্ণচরে মা- মেয়েকে ধর্ষনঃ প্রধান আসামি আওয়ামী লীগ সভাপতিকে রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরন

ছবি

এনআইডি জালিয়াতি: সাবরিনার বিচার শুরুর আদেশ

ছবি

মুন্সীগঞ্জ শ্রীনগরে নিরব হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধন ও প্রতিবাদ মিছিল

জামালপুরে বীরমুক্তিযোদ্ধাকে ভুয়া বাবা বানিয়ে সরকারি চাকরি করার অভিযোগ

রূপগঞ্জে সংঘর্ষে নারী ও শিশুসহ গুলিবিদ্ধ ১০

ছবি

সাজা বাতিল চেয়ে পিকে হালদারের বান্ধবীর হাইকোর্টে আপিল

ছবি

শ্রীনগরে এসএসসি পরিক্ষার্থী নীরব হত্যার ঘটনায় ৯ জন গ্রেফতার

হারুন আদালতে জবানবন্দি দিতে অস্বীকার করায় ৪ দিনের রিমান্ডে

ছবি

জাবিতে গণধর্ষণ পরিকল্পনাকারীসহ ২ জন গ্রেপ্তার

পাথরঘাটায় আদালতের আদেশ অমান্য করে ধান কাটার অভিযোগ

সুবর্নচরে মা - মেয়ে ধর্ষনঃ আওয়ামী লীগ সভাপতির ৪ দিনের রিমান্ড মন্জুর

বদলগাছীতে মাদক সেবনের দায়ে ছাত্রলীগনেতাসহ দুজনের জেল

ছবি

সুবর্ণচরে মা-মেয়েকে দলবদ্ধ ধর্ষণ, আ’লীগ নেতা আবুল খায়ের মুন্সি গ্রেপ্তার

ডলারে আয়ের লোভনীয় ফাঁদ, কয়েক মাসে চক্র ৬-৭ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে

ছবি

কুমিল্লার সেই বিচারককে সাজা থেকে অব্যাহতি

ভোটের রাতে সুবর্ণচরে ধর্ষণ : ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড, ছয়জনের যাবজ্জীবন

সোনারগাঁয়ে চালক হত্যা করে অটোরিকশা ছিনতাই

ছবি

দুই মামলায় মামুনুল হককে জামিন দিলেন আপিল বিভাগ

নড়াইলে ঘের দখলকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় নিহত ১

ছবি

প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি, সৌদি সরকারের সহায়তায় যুবদলের দুজন গ্রেপ্তার: সিটিটিসি

ছবি

ড. ইউনূসের সাজা স্থগিতের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আবেদন

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

কলারোয়ায় মাটিখেকোদের খপ্পরে নিঃশেষ বেত্রবতী নদীর পাড়

প্রতিনিধি, কলারোয়া (সাতক্ষীরা)

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) : নদীর পাড় থেকে এভাবেই কাটা হচ্ছে মাটি -সংবাদ

বৃহস্পতিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩

কলারোয়ার বেত্রবতী নদীর দুই পাড়ের মাটি কেটে সাবাড় করে দিচ্ছে প্রভাবশালী সিন্ডিকেট। শীত এলেই মাটিকাটা বাণিজ্যে মেতে ওঠে তারা। সিন্ডিকেটের নিযোজিত কিছু লোক মাটিকাটা দেখভাল করে।

সরেজমিনে দেখা যায়, দিনে রাতে ট্রলিযোগে বেত্রবতী নদীর পাড়ের মাটি যাচ্ছে ইটভাটা আর বাড়ি নির্মাণে ভরাট করার কাজে। মাটিবাহী ট্রাক্টরের চলাচলে সড়কগুলো ভেঙে যাচ্ছে। মাটি কাটার দৃশ্য দেখলেও ভয়ে স্থানীয়রা মুখ খোলেন না। কলারোয়া বেত্রবতী নদীর প্রায় ৫ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে গত কিছু দিন ধরে চলছে মাটি বাণিজ্য। বেত্রবতী নদীর পাড়ের মাটি কেটে সাবাড় করার ফলে হুমকির মুখে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে নদীর তীরে বসবাসকারীদের। নদীর পাড় থেকে মূল রাস্তায় ওঠা-নামার জন্য বিকল্প পথও তৈরি করা হয়েছে। নদী পাড়ের গোপিনাথপুর ও মুরারীকাঠি ঘাটের ব্রীজের পাশের পাড়ের মাটি কেটে কেটে তৈরি পথে রাস্তায় উঠে নির্দিষ্ট গন্তব্যে যায়। আবার খালি ট্রলি এসে জড়ো হচ্ছে নদীর পাড়ে। সেখানকার স্থানীয় মুরারীকাঠি গ্রামের অরুণ পালের স্ত্রী কল্পনা পাল জানান, নদী খননের সময় আমাদের মালিকানাধীন জমিতে মাটি কেটে রাখলে সেই মাটি ৩০ হাজার টাকা খরচ করে জমি সমান করে কলাগাছ রোপন করি। কিন্তু হঠাৎ করে এই মাটি খেকোরা জোরপূর্বক কলা গাছ উপড়ে ফেলে মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ করেও কোন ফল না পাওয়ার আক্ষেপ করেন তিনি। এলাকাবাসীরা জানান, পাড়ের মাটি যেভাবে কেটে নেয়া হচ্ছে তাতে স্থানীয়দের বসবাস হুমকির মুখে পড়বে। মাটিকাটা সিন্ডিকেট প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের কিছু বলার সাহসও নেই স্থানীয়দের। মাটি পরিবহন করা এমন একজন ট্রলি চালককে সিন্ডিকেটের বিষয়ে জিজ্ঞেস করলে সে নাম জানাতে অস্বীকৃতি জানায়। তার মুখ থেকে কোনোভাবেই বের করা যায়নি সংশ্লিষ্ট কারও নাম। কলারোয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কৃষ্ণা রায় জানান, মাটি কাটার বিষয়টি আমি আপনাদের মাধ্যমে জানতে পারলাম। যেই কাটুক তদন্তপূর্বক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

back to top