alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

শতাধিক ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারের দুর্নীতির অনুসন্ধানে দুদক

সাইফ বাবলু : মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ নিতে যাওয়া শতাধিক বর্তমান ও সম্ভ্যাব্য প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতি, সরকারি অর্থ আত্মসাৎ, জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনসহ ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ অনুসন্ধানে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এদের বেশিরভাগই বর্তমান চেয়ারম্যান এবং ইউপি সদস্য। তাদের অনেকের অনিয়ম-দুর্নীতির ‘আমলনামা’ হাতে পেয়েছে দুদক। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যদের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত অভিযোগ জমা পড়ছে দুদকে।

সম্প্রতি দুদকের কাছে জমা পড়ে মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখার দক্ষিণভাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজির উদ্দিনের বিরুদ্ধে নানা দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ। তার যাচাই-বাছাই শুরু করেছে দুদক। অভিযোগে বলা হয়েছে, বিগত দশ বছরে টানা দুইবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তিনি। টিআর, কাবিখা, কাবিটা, এলজিএসপিসহ সরকারের এহেন কোন উন্নয়ন প্রকল্প নেই, যেখান থেকে অর্থ তসরুপ করেননি এই চেয়ারম্যান। সরকারি বরাদ্দের টাকা হাতিয়ে নেয়া, প্রকল্প অর্ধসমাপ্ত রেখে বিল উঠানো, ভুয়া রসিদ দিয়ে ট্যাক্সের টাকা পকেটে ঢুকানোসহ নৈতিক স্খলনের অভিযোগ রয়েছে এই জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে। একইভাবে নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এসেছে দুদকের হাতে। ক্ষমতার অপব্যবহার, জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ এবং মানিলন্ডারিং-এর মতো গুরুতর অপরাধে জড়িত বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। গতবারের ইউপি নির্বাচনের হলফনামা অনুযায়ী মাত্র কয়েক লাখ টাকার সম্পদের মালিক এই চেয়ারম্যান পাঁচ বছর দায়িত্ব পালন করে শত কোটি টাকার সম্পদের মালিক বনে গেছেন। ২টা ইটভাটা, বিলাসবহুল বাংলো, পার্ক রয়েছে তার, চড়ে বেড়ান কোটি টাকা দামের গাড়িতে।

দুদক সূত্র জানিয়েছে, ইউপি নির্বাচনে সম্ভ্যাব্য প্রার্থী হওয়া বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের কয়েকজনের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে করোনাকালে সরকারের নেয়া ত্রাণ ও নগদ অর্থসহায়তাসহ বিভিন্ন সামাজিক নিরাপত্তামূলক কর্মসূচির অর্থ আত্মসাৎ সংক্রান্ত অভিযোগের প্রমাণ পেয়েছে দুদক। জন প্রতিনিধিরা প্রকৃত দুস্থদের বঞ্চিত করে সরকারি ত্রাণ ও অর্থ আত্মসাৎ করেছেন। এসব কারণে স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ১১০ জন প্রতিনিধিকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এই সংখ্যা গত ২০ জুন পর্যন্ত ছিল ১০০ জন। তাদের মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৩০ জন চেয়ারম্যান, ৬৪ জন ইউপি সদস্য (মেম্বার), একজন জেলা পরিষদ সদস্য, চারজন পৌর কাউন্সিলর এবং উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানও রয়েছেন কয়েকজন।

স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে গত ১৭ জুন প্রকাশিত প্রজ্ঞাপনসহ বেশকিছু প্রজ্ঞাপন দুদকের নথিতে জমা হয়েছে। এসব প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে নগদ অর্থ সহায়তা কর্মসূচির সুবিধাভোগীদের তালিকা তৈরিতে অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির জন্য বেশকিছু চেয়ারম্যান, মেম্বারকে বরখাস্ত করেছে।

অনুসন্ধান তালিকায় নাম

দুদকের অনুসন্ধান তালিকায় রয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া কসবার মেহারী ইউপি চেয়ারমান মো. আলম মিয়া এবং সদর উপজেলার বুধল ইউপির সংরক্ষিত ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য ফরিদা বেগমের নাম। এদের বিরুদ্ধে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। সরকারের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির আওতায় দরিদ্র জনসাধারণের জন্য বরাদ্দ দেয়া চাল আত্মসাৎ ও উপকারভোগীদের তালিকা তৈরিতে অনিয়ম করার অভিযোগ আছে পিরোজপুর নাজিরপুরের কলারদোয়ানিয়া ইউপির ৬নং ওয়ার্ডের সদস্য মনিরুল ইসলাম ও ৮নং ওয়ার্ডের মো. আবুল কালাম, মাগুরা মহম্মদপুরের ৮নং নহাটা ইউপির ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য কাঞ্চন মিয়া, ময়মনসিংহ মুক্তাগাছার ৪নং কুমারগাতা ইউপির ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. মফিজুল ইসলাম, ময়মনসিংহ ঈশ্বরগঞ্জের রাজিবপুর ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য রইছ উদ্দিন, জয়পুরহাট সদরের বম্বু ইউপির ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত ইউপি সদস্য পারভীন আক্তার ও ২নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. লোকমান হোসেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ গোমস্তাপুরের গোমস্তাপুর ইউপির ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের মহিলা সদস্য মুসলেমা বেগম, নোয়াখালী হাতিয়ার ৬নং চরকিং ইউপির ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. ইকবাল হোসেনের বিরুদ্ধে।

কমিশনের অনুসন্ধান তালিকায় আরও আছেন পাবনার বেড়ার ঢালারচর ইউপি চেয়ারম্যান মো. কোরবান আলী, সিরাজগঞ্জ রায়গঞ্জের পাঙ্গাসী ইউপি চেয়ারম্যান মো. আবদুস সালাম, বরগুনা পাথরঘাটার কাকচিড়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. আলাউদ্দিন পল্টু, বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের ১নং আন্দারমানিক ইউপি চেয়ারম্যান কাজী শহিদুল ইসলাম, কুমিল্লা দেবীদ্বারের সুবিল ইউপির ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. আবদুল মান্নান মোল্লা, ঢাকা নবাবগঞ্জের নয়নশ্রী ইউপির ১নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. সেকান্দার মিয়া, কিশোরগঞ্জ ভৈরবের গজারিয়া ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. সোহেল মিয়া, ভোলা লালমোহনের ১নং বদরপুর ইউপির ৬নং ওয়ার্ডের সদস্য মুহাম্মদ ওমর এবং একই ইউপির ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. জুয়েল মিয়া। এছাড়া লালমোহন পৌর মেয়র এমদাদুল ইসলাম তুহিনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে মামলা করেছেন শফিকুল ইসলাম বাদল পঞ্চায়েত নামের এক আওয়ামী লীগ নেতা। ওই অভিযোগ দুদক তদন্ত করছে।

তালিকায় আছেন শরীয়তপুর কুচাইপট্টি ইউপি চেয়ারম্যান বিএম নাসির উদ্দিন স্বপন, ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. মোফাজ্জেল বেপারি এবং ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য শামীম বেপারি, মাদারীপুর সদরের শিরখাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান হাওলাদার, বাগেরহাট রামপালের পেড়িখালী ইউপির ১নং ওয়ার্ডের রুবেল ইজারাদার ওরফে বাবুল মেম্বার, নড়াইলের মাইজপাড়া ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের মো. সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, শরীয়তপুর জাজিরার বিলাসপুর ইউপির ৯নং ওয়ার্ডের মো. সেলিম মোল্লা, ঝালকাঠির নলছিটির সুবিদপুর ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য রেজাউল করিম খান সোহাগ, মৌলভীবাজার শ্রীমঙ্গলের কালাপুর ইউপির ৩নং ওয়ার্ডের মুজিবুর রহমান একই ইউপির ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী সদস্য সাহিদা বেগম রূপা। তালিকায় আরও আছেন রাজশাহী চারঘাট পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রাজু আহম্মেদ, ভোলা মনপুরার উপজেলার মনপুরা ইউপি চেয়ারম্যান মো. আমানত উল্লাহ আলমগীর এবং ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার মানকোন ইউপির ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য নাজমিন আক্তার লাভলী, কক্সবাজার পেকুয়ার টৈটং ইউপির জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী, নরসিংদীর রায়পুরার চর-আড়ালিয়া ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের মো. বাচ্চু মিয়া, কুষ্টিয়ার কুমারখালীর নন্দলালপুর ইউপির ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. শরিফুল ইসলাম এবং দৌলতপুরের দৌলতপুর ইউপির ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. হাবিবুর রহমান। তালিকায় আছেন বরিশাল বাবুগঞ্জের কেদারপুর ইউপির চেয়ারম্যান মো. নূরে আলম বেপারি, ভোলা সদরের উপজেলার রাজাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান খান, পটুয়াখালী সদরের কমলাপুর ইউপির মো. মনির রহমান মৃধা, চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরের রহনপুর ইউপির শাহ আল শফি আনসারী, রাজবাড়ী পাংশার যশাই ইউপির মো. সিদ্দিকুর রহমান মন্ডল, নড়াইল কালিয়ার পেড়লী ইউপির জারজিদ মোল্লা এবং কালিয়া উপজেলার জয়নগর ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন চৌধুরী, নেত্রকোনা দুর্গাপুরের গাঁওকান্দিয়া ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের মো. রফিকুল ইসলাম, পটুয়াখালীর গলাচিপার গলাচিপা ইউপির ২নং ওয়ার্ডের সদস্য মহিউদ্দিন সোহেল এবং একই উপজেলার কেশবপুর ইউপির সংরক্ষিত মহিলা সদস্য লিপি বেগম। আছেন বগুড়া শিবগঞ্জের ময়দানহাট্টা ইউপি চেয়ারম্যান এস এম রুপম, হবিগঞ্জ সদরের গজনাইন ইউপি চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল, মাদারীপুর কালকিনির নবগ্রাম ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য উত্তম বিশ্বাস ও রংপুর পীরগঞ্জের রায়পুর ইউপি চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান।

দুর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার (অনুসন্ধান) মোজাম্মেল হক খান জানান, বেশিরভাগ অভিযোগই বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান এবং ওয়ার্ড মেম্বারদের বিরুদ্ধে। আমরা যাচাই-বাছাই করছি, এমনকি প্রথমিক সত্যতা পাওয়ার পর বেশ কিছু অভিযোগের বিষয়ে অনুসন্ধান শুরু হয়েছে।

ছবি

কিনারা হয়নি পাঁচ বছরেও, শেষ ভরসা পিবিআই

ছবি

শিশু তামীমকে ১০ কোটি দিতে রুল, ৫ লাখ টাকা তাৎক্ষণিক দিতে নির্দেশ

ছবি

ক্ষমতা থাকলেই অপব্যবহার নয়, দুদককে হাইকোর্ট

ছবি

রাজারবাগ পীরের কার্যক্রমে নজরদারি রাখার নির্দেশ

ছবি

খালেদার বিদেশ যেতে আইনি সুযোগ খতিয়ে দেখা হচ্ছে: আইনমন্ত্রী

ভান্ডারিয়ায় মোবাইল ফোন নিয়ে ঝগড়া স্কুলছাত্র হত্যা

ছবি

গৃহকর্তার সঙ্গে সম্পর্ক ‘সন্দেহে’ গৃহকর্মী খুন

ছবি

অর্থপাচার : হাইকোর্টে ১৪ প্রতিষ্ঠান ও ২৯ ব্যক্তির তালিকা দাখিল

ছবি

সন্তানদের ফিরে পেতে জাপানি মায়ের আপিল

নীলফামারীতে জেএমবির সামরিক কমান্ডারসহ ৫ জঙ্গি গ্রেপ্তার

হাকিমপুর ইউপি নির্বাচন নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২০

২৯ ব্যক্তি ও ১৪ প্রতিষ্ঠানের নামের তালিকা হাইকোর্টে জমা দিচ্ছে দুদক

সিদ্ধিরগঞ্জে মাদকসহ ধৃত ৩

সিংগাইরে শ্বাসরোধ করে যুবককে হত্যা

মুন্সীগঞ্জে সন্ত্রাসী হামলায় সাংবাদিক আহত

গাড়ি কেনার টাকা চুরির সময় ধরা পড়ে প্রবাসীকে খুন করে চাচাত ভাই

দিনাজপুরে ধর্ষণের শিকার ৮ বছরের শিশু লাইফ সাপোর্টে, ধর্ষক আটক

ছবি

রামপুরায় শিক্ষার্থীর মৃত্যু: সুপারভাইজার-হেলপারের স্বীকারোক্তি

ছবি

শত্রুতার বিষে মরল খামারের আড়াইশ’ হাঁস

মির্জাগঞ্জে চোরের চেতনানাশকে ৪ শিশুসহ ৭ জন হাসপাতালে

টঙ্গীতে শিশুসহ অপহরণকারী গ্রেপ্তার

মঠবাড়িয়ায় পরীক্ষায় প্রক্সি আটক ৬ : মামলায় অধ্যক্ষ আসামি

দুই কোটি হাতিয়ে লাপাত্তা হায় হায় কোম্পানি-জুয়েলারি

ছবি

ঢাবির সেই প্রভোস্টকে সহযোগী অধ্যাপক পদে পুনর্বহালের নির্দেশ

জগন্নাথপুরে আধিপত্য নিয়ে গোলাগুলি : আহত ৫০

বরিশালে স্বামী হত্যা স্ত্রী ও প্রেমিকের যাবজ্জীবন

ছবি

জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে এবার নওগাঁয় মামলা

ছবি

কর্মকর্তাদের ‘কাল্পনিক’ বিদেশ ভ্রমণ বন্ধে হাই কোর্টের তিন নির্দেশনা

ছবি

আমিনবাজারে ৬ শিক্ষার্থী হত্যা : ১৩ জনের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

উপকূলীয় অঞ্চলে জলদস্যুদের হানা, জেলেদের জিম্মি করে মুক্তিপণ আদায়

ছবি

রাজারবাগ পীরের সম্পদের অনুসন্ধানে ব্যাংকসহ ১২২ প্রতিষ্ঠানে দুদকের চিঠি

ছবি

মোরেলগঞ্জে ৩০৯ স্কুলে বায়োমেট্রিক হাজিরা ডিভাইস ক্রয়ে হরিলুট!

ছবি

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের মামলা ৯০ দিনে নিষ্পত্তির নির্দেশ

ছবি

৩ কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কর্মকর্তাদের বিদেশ ভ্রমণ নয়

ছবি

৩৪২ ধারায় ৮ আসামির বক্তব্য গ্রহণ: পরবর্তি ধার্য্য দিন ৬ ডিসেম্বর

ছবি

কাউন্সিলর সোহেল হত্যা: ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধার

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

শতাধিক ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারের দুর্নীতির অনুসন্ধানে দুদক

সাইফ বাবলু

মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর ২০২১

স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ নিতে যাওয়া শতাধিক বর্তমান ও সম্ভ্যাব্য প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতি, সরকারি অর্থ আত্মসাৎ, জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনসহ ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ অনুসন্ধানে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এদের বেশিরভাগই বর্তমান চেয়ারম্যান এবং ইউপি সদস্য। তাদের অনেকের অনিয়ম-দুর্নীতির ‘আমলনামা’ হাতে পেয়েছে দুদক। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যদের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত অভিযোগ জমা পড়ছে দুদকে।

সম্প্রতি দুদকের কাছে জমা পড়ে মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখার দক্ষিণভাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আজির উদ্দিনের বিরুদ্ধে নানা দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ। তার যাচাই-বাছাই শুরু করেছে দুদক। অভিযোগে বলা হয়েছে, বিগত দশ বছরে টানা দুইবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তিনি। টিআর, কাবিখা, কাবিটা, এলজিএসপিসহ সরকারের এহেন কোন উন্নয়ন প্রকল্প নেই, যেখান থেকে অর্থ তসরুপ করেননি এই চেয়ারম্যান। সরকারি বরাদ্দের টাকা হাতিয়ে নেয়া, প্রকল্প অর্ধসমাপ্ত রেখে বিল উঠানো, ভুয়া রসিদ দিয়ে ট্যাক্সের টাকা পকেটে ঢুকানোসহ নৈতিক স্খলনের অভিযোগ রয়েছে এই জনপ্রতিনিধির বিরুদ্ধে। একইভাবে নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর উপজেলার ধামগড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মদের বিরুদ্ধে অভিযোগ এসেছে দুদকের হাতে। ক্ষমতার অপব্যবহার, জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ এবং মানিলন্ডারিং-এর মতো গুরুতর অপরাধে জড়িত বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়। গতবারের ইউপি নির্বাচনের হলফনামা অনুযায়ী মাত্র কয়েক লাখ টাকার সম্পদের মালিক এই চেয়ারম্যান পাঁচ বছর দায়িত্ব পালন করে শত কোটি টাকার সম্পদের মালিক বনে গেছেন। ২টা ইটভাটা, বিলাসবহুল বাংলো, পার্ক রয়েছে তার, চড়ে বেড়ান কোটি টাকা দামের গাড়িতে।

দুদক সূত্র জানিয়েছে, ইউপি নির্বাচনে সম্ভ্যাব্য প্রার্থী হওয়া বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের কয়েকজনের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে করোনাকালে সরকারের নেয়া ত্রাণ ও নগদ অর্থসহায়তাসহ বিভিন্ন সামাজিক নিরাপত্তামূলক কর্মসূচির অর্থ আত্মসাৎ সংক্রান্ত অভিযোগের প্রমাণ পেয়েছে দুদক। জন প্রতিনিধিরা প্রকৃত দুস্থদের বঞ্চিত করে সরকারি ত্রাণ ও অর্থ আত্মসাৎ করেছেন। এসব কারণে স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ১১০ জন প্রতিনিধিকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। এই সংখ্যা গত ২০ জুন পর্যন্ত ছিল ১০০ জন। তাদের মধ্যে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৩০ জন চেয়ারম্যান, ৬৪ জন ইউপি সদস্য (মেম্বার), একজন জেলা পরিষদ সদস্য, চারজন পৌর কাউন্সিলর এবং উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানও রয়েছেন কয়েকজন।

স্থানীয় সরকার বিভাগ থেকে গত ১৭ জুন প্রকাশিত প্রজ্ঞাপনসহ বেশকিছু প্রজ্ঞাপন দুদকের নথিতে জমা হয়েছে। এসব প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে নগদ অর্থ সহায়তা কর্মসূচির সুবিধাভোগীদের তালিকা তৈরিতে অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির জন্য বেশকিছু চেয়ারম্যান, মেম্বারকে বরখাস্ত করেছে।

অনুসন্ধান তালিকায় নাম

দুদকের অনুসন্ধান তালিকায় রয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া কসবার মেহারী ইউপি চেয়ারমান মো. আলম মিয়া এবং সদর উপজেলার বুধল ইউপির সংরক্ষিত ৪, ৫ ও ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য ফরিদা বেগমের নাম। এদের বিরুদ্ধে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। সরকারের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির আওতায় দরিদ্র জনসাধারণের জন্য বরাদ্দ দেয়া চাল আত্মসাৎ ও উপকারভোগীদের তালিকা তৈরিতে অনিয়ম করার অভিযোগ আছে পিরোজপুর নাজিরপুরের কলারদোয়ানিয়া ইউপির ৬নং ওয়ার্ডের সদস্য মনিরুল ইসলাম ও ৮নং ওয়ার্ডের মো. আবুল কালাম, মাগুরা মহম্মদপুরের ৮নং নহাটা ইউপির ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য কাঞ্চন মিয়া, ময়মনসিংহ মুক্তাগাছার ৪নং কুমারগাতা ইউপির ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. মফিজুল ইসলাম, ময়মনসিংহ ঈশ্বরগঞ্জের রাজিবপুর ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য রইছ উদ্দিন, জয়পুরহাট সদরের বম্বু ইউপির ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত ইউপি সদস্য পারভীন আক্তার ও ২নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. লোকমান হোসেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ গোমস্তাপুরের গোমস্তাপুর ইউপির ৭, ৮ ও ৯নং ওয়ার্ডের মহিলা সদস্য মুসলেমা বেগম, নোয়াখালী হাতিয়ার ৬নং চরকিং ইউপির ৪নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. ইকবাল হোসেনের বিরুদ্ধে।

কমিশনের অনুসন্ধান তালিকায় আরও আছেন পাবনার বেড়ার ঢালারচর ইউপি চেয়ারম্যান মো. কোরবান আলী, সিরাজগঞ্জ রায়গঞ্জের পাঙ্গাসী ইউপি চেয়ারম্যান মো. আবদুস সালাম, বরগুনা পাথরঘাটার কাকচিড়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. আলাউদ্দিন পল্টু, বরিশালের মেহেন্দিগঞ্জের ১নং আন্দারমানিক ইউপি চেয়ারম্যান কাজী শহিদুল ইসলাম, কুমিল্লা দেবীদ্বারের সুবিল ইউপির ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. আবদুল মান্নান মোল্লা, ঢাকা নবাবগঞ্জের নয়নশ্রী ইউপির ১নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. সেকান্দার মিয়া, কিশোরগঞ্জ ভৈরবের গজারিয়া ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. সোহেল মিয়া, ভোলা লালমোহনের ১নং বদরপুর ইউপির ৬নং ওয়ার্ডের সদস্য মুহাম্মদ ওমর এবং একই ইউপির ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. জুয়েল মিয়া। এছাড়া লালমোহন পৌর মেয়র এমদাদুল ইসলাম তুহিনের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে মামলা করেছেন শফিকুল ইসলাম বাদল পঞ্চায়েত নামের এক আওয়ামী লীগ নেতা। ওই অভিযোগ দুদক তদন্ত করছে।

তালিকায় আছেন শরীয়তপুর কুচাইপট্টি ইউপি চেয়ারম্যান বিএম নাসির উদ্দিন স্বপন, ৩নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. মোফাজ্জেল বেপারি এবং ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য শামীম বেপারি, মাদারীপুর সদরের শিরখাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান হাওলাদার, বাগেরহাট রামপালের পেড়িখালী ইউপির ১নং ওয়ার্ডের রুবেল ইজারাদার ওরফে বাবুল মেম্বার, নড়াইলের মাইজপাড়া ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের মো. সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, শরীয়তপুর জাজিরার বিলাসপুর ইউপির ৯নং ওয়ার্ডের মো. সেলিম মোল্লা, ঝালকাঠির নলছিটির সুবিদপুর ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের সদস্য রেজাউল করিম খান সোহাগ, মৌলভীবাজার শ্রীমঙ্গলের কালাপুর ইউপির ৩নং ওয়ার্ডের মুজিবুর রহমান একই ইউপির ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত নারী সদস্য সাহিদা বেগম রূপা। তালিকায় আরও আছেন রাজশাহী চারঘাট পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রাজু আহম্মেদ, ভোলা মনপুরার উপজেলার মনপুরা ইউপি চেয়ারম্যান মো. আমানত উল্লাহ আলমগীর এবং ময়মনসিংহের মুক্তাগাছার মানকোন ইউপির ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য নাজমিন আক্তার লাভলী, কক্সবাজার পেকুয়ার টৈটং ইউপির জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী, নরসিংদীর রায়পুরার চর-আড়ালিয়া ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের মো. বাচ্চু মিয়া, কুষ্টিয়ার কুমারখালীর নন্দলালপুর ইউপির ৭নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. শরিফুল ইসলাম এবং দৌলতপুরের দৌলতপুর ইউপির ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য মো. হাবিবুর রহমান। তালিকায় আছেন বরিশাল বাবুগঞ্জের কেদারপুর ইউপির চেয়ারম্যান মো. নূরে আলম বেপারি, ভোলা সদরের উপজেলার রাজাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান খান, পটুয়াখালী সদরের কমলাপুর ইউপির মো. মনির রহমান মৃধা, চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরের রহনপুর ইউপির শাহ আল শফি আনসারী, রাজবাড়ী পাংশার যশাই ইউপির মো. সিদ্দিকুর রহমান মন্ডল, নড়াইল কালিয়ার পেড়লী ইউপির জারজিদ মোল্লা এবং কালিয়া উপজেলার জয়নগর ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন চৌধুরী, নেত্রকোনা দুর্গাপুরের গাঁওকান্দিয়া ইউপির ৮নং ওয়ার্ডের মো. রফিকুল ইসলাম, পটুয়াখালীর গলাচিপার গলাচিপা ইউপির ২নং ওয়ার্ডের সদস্য মহিউদ্দিন সোহেল এবং একই উপজেলার কেশবপুর ইউপির সংরক্ষিত মহিলা সদস্য লিপি বেগম। আছেন বগুড়া শিবগঞ্জের ময়দানহাট্টা ইউপি চেয়ারম্যান এস এম রুপম, হবিগঞ্জ সদরের গজনাইন ইউপি চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল, মাদারীপুর কালকিনির নবগ্রাম ইউপির ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য উত্তম বিশ্বাস ও রংপুর পীরগঞ্জের রায়পুর ইউপি চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান।

দুর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার (অনুসন্ধান) মোজাম্মেল হক খান জানান, বেশিরভাগ অভিযোগই বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান এবং ওয়ার্ড মেম্বারদের বিরুদ্ধে। আমরা যাচাই-বাছাই করছি, এমনকি প্রথমিক সত্যতা পাওয়ার পর বেশ কিছু অভিযোগের বিষয়ে অনুসন্ধান শুরু হয়েছে।

back to top