alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

ওসি প্রদীপের সম্পদের খোঁজে ৭ দেশে চিঠি

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : সোমবার, ২২ মে ২০২৩

অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ দাশের সম্পদের খোঁজে এক মাসে আগে সাতটি দেশে চিঠি দেওয়া হলেও এখনো কোনো জবাব মেলেনি।

সোমবার চট্টগ্রামে একটি অনুষ্ঠানে এসে সাংবাদিকের এ তথ্য জানান দুদক কমিশনার (অনুসন্ধান) ড. মো. মোজাম্মেল হক খান।

তিনি বলেন, “সম্পদের নিশানা খুঁজতে বিভিন্ন দেশের সহযোগিতা দরকার হয়। ওসি প্রদীপের সম্পদের খোঁজে সাতটি দেশে চিঠি পাঠানো হয়েছে।”

এক মাস আগে পাঠানো এসব চিঠির কোনটিরই এখনও জবাব পাওয়া যায়নি জানিয়ে দুদক কমিশনার মোজাম্মেল বলেন, “এসব ক্ষেত্রে টাইম বাউন্ড করা যাবে না। আশা করি সবাই জবাব দেবে। যদি বিলম্ব হয় তাহলে আমরা তাদের তাগাদা দেব।”

চট্টগ্রাম বন্দরের শহীদ ফজলুর রহমান মুন্সী অডিটরিয়ামে সততা সংঘ নামে একটি সংগঠনের উদ্যোগে চট্টগ্রাম বিভাগের ১০৪টি উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়ে দুর্নীতি বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে প্রধান অতিথি ছিলেন দুদক কমিশনার মোজাম্মেল হক।

চট্টগ্রাম দুদক কার্যালয় থেকে জানা গেছে, প্রদীপের সম্পদের অনুসন্ধানে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, কানাডা, আরব আমিরাত ও ভারতের ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

২০২০ সালের ৩১ জুলাই কক্সবাজারে সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানকে এপিবিএন চেকপোস্টে গুলি করে হত্যা করা হয়। ওই ঘটনায় সেসময়ের টেকনাফের ওসি প্রদীপ গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে যাওয়ার পর তার অবৈধ সম্পদের অনুসন্ধানে নামে দুদক।

ওই বছর ২৩ অগাস্ট দুদকের সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন অবৈধ সম্পদের মালিক হওয়ার অভিযোগে প্রদীপ ও তার স্ত্রী চুমকির বিরুদ্ধে মামলা করেন।

গত বছরের ২৭ জুলাই একটি মামলায় প্রদীপ কুমার দাশকে কয়েকটি ধারা মিলিয়ে মোট ২০ বছর এবং তার স্ত্রী চুমকি কারণকে ২১ বছরের কারাদণ্ড দেয় আদালত।

প্রদীপের দুর্নীতির অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা দুদক চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক নুরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, প্রদীপ দাশের স্ত্রী চুমকির নামে অবৈধ যে সম্পদ পাওয়া গেছে সেটির মামলায় রায় হয়েছে।

“প্রদীপের সম্পদের বিষয়ে অনুসন্ধান চলমান রয়েছে। তাই তার সম্পদের সঠিক পরিমাণ জানতে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (বিএফআইইউ) মাধ্যমে সাতটি দেশে চিঠি পাঠানো হয়েছে।”

ছবি

সাভারে সংবাদ সংগ্রহে গিয়ে হামলার শিকার সাংবাদিক

ছবি

আজীমকে দুই দিন জীবিত রেখে ব্ল্যাকমেইলের পরিকল্পনা ছিল খুনিদের : ডিবি

সোনারগাঁয়ে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেফতার

ছবি

এমপি আজিম খুনে কলকাতায় ‘কসাই’ জিহাদ রিমান্ডে, লাশের অংশের খোঁজে পুলিশ

ছবি

এমপি আজিম হত্যা: ভারতে গ্রেপ্তার সেই ‘কসাই’ দেড় বছর ধরে এলাকায় পলাতক

ছবি

আখতারুজ্জামান হোতা, শিমুল বাস্তবায়নকারী : ডিবি

ছবি

আখতারুজ্জামান হোতা, শিমুল বাস্তবায়নকারী : ডিবি

ছবি

সাবেক আইজিপি বেনজীরের সম্পত্তি ক্রোক, ব্যাংক হিসাব ফ্রিজ করার আদেশ

ছবি

জামিন নিতে শ্রম আপিল ট্রাইব্যুনালে ড. ইউনূস

ছবি

আড়াইহাজারে কিশোরী গণধর্ষণ : অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ৪

ছবি

পাহাড়কেন্দ্রিক অপহরণ চক্রের প্রধান মোর্শেদ অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার

২২ বছর পর স্ত্রী হত্যায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত স্বামী গ্রেপ্তার

আড়াইহাজারে কিশোরীকে তুলে নিয়ে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

৭ বছর পর শিশু হত্যা রহস্য উদ্ঘাটন

ব্যবসার আড়ালে অনলাইনে প্রতারণার অভিযোগ

ছবি

ঢাকা বাড্ডায় এক হত্যা মামলায় তিন আসামির যাবজ্জীবন

ছবি

সাগর-রুনি হত্যা: মামলার প্রতিবেদন জমা আবারও পেছালো

ছবি

আদালতের সময় নষ্ট করায় সেলিম প্রধানকে জরিমানা

খুলনা ও মৌলভীবাজারে চার জনের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে দেড় বছরে ৮০ জন হত্যা

ছবি

উড়োজাহাজ লিজে অনিয়ম: বিমানের সাবেক এমডিসহ ১৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

চাকরি দেওয়ার কথা বলে অর্থ আত্মসাৎ, বরখাস্ত অফিস সহায়কের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

ছবি

সার আত্মসাৎ মামলায় সাবেক এমপি পোটনসহ ৫ জন কারাগারে

ছবি

বিমানবন্দর ও টঙ্গী থেকে ৭ ছিনতাইকারী গ্রেপ্তার

ছবি

ইন্স্যুরেন্স চাকরির আড়ালে জঙ্গি সংগঠনের রিক্রুটার : ডিবি

ছবি

স্বামী-স্ত্রীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

গোবিন্দগঞ্জে নির্যাতন করে গৃহবধূর মাথার চুল কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষ, ৩জন গ্রেফতার

লাখে ১১ হাজার লাভ দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে ৬৩ লাখ টাকা আত্মসাৎ

ছবি

ধর্ম অবমাননায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে জবি শিক্ষার্থীর পাঁচ বছরের কারাদণ্ড

ভারতে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে কিডনি হাতিয়ে নিতো চক্রটি

ছবি

আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সক্রিয় সদস্য গ্রেপ্তার

ছবি

ডিজিটাল ডিভাইসে জানানো হতো উত্তর,১০মিনিটে পরীক্ষা শেষ

সংবাদের সার্কুলেশন ম্যানেজারকে প্রাণনাশের হুমকি

ছবি

নায়ক সোহেল চৌধুরী হত্যা: আজিজ মোহাম্মদ ভাই ও দুইজনের যাবজ্জীবন, খালাস ৬

মাদকের তথ্য দেয়ায় হাতের রগ কর্তন, আসামীর পরিবর্তে ভুক্তভোগীকেই আটক, পরে ৫০ হাজার টাকায় মুক্তি

সাবেক এসপি সুব্রত কুমার হালদারসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে দুদকের চার্জশিট

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

ওসি প্রদীপের সম্পদের খোঁজে ৭ দেশে চিঠি

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

সোমবার, ২২ মে ২০২৩

অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ দাশের সম্পদের খোঁজে এক মাসে আগে সাতটি দেশে চিঠি দেওয়া হলেও এখনো কোনো জবাব মেলেনি।

সোমবার চট্টগ্রামে একটি অনুষ্ঠানে এসে সাংবাদিকের এ তথ্য জানান দুদক কমিশনার (অনুসন্ধান) ড. মো. মোজাম্মেল হক খান।

তিনি বলেন, “সম্পদের নিশানা খুঁজতে বিভিন্ন দেশের সহযোগিতা দরকার হয়। ওসি প্রদীপের সম্পদের খোঁজে সাতটি দেশে চিঠি পাঠানো হয়েছে।”

এক মাস আগে পাঠানো এসব চিঠির কোনটিরই এখনও জবাব পাওয়া যায়নি জানিয়ে দুদক কমিশনার মোজাম্মেল বলেন, “এসব ক্ষেত্রে টাইম বাউন্ড করা যাবে না। আশা করি সবাই জবাব দেবে। যদি বিলম্ব হয় তাহলে আমরা তাদের তাগাদা দেব।”

চট্টগ্রাম বন্দরের শহীদ ফজলুর রহমান মুন্সী অডিটরিয়ামে সততা সংঘ নামে একটি সংগঠনের উদ্যোগে চট্টগ্রাম বিভাগের ১০৪টি উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের নিয়ে দুর্নীতি বিরোধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে প্রধান অতিথি ছিলেন দুদক কমিশনার মোজাম্মেল হক।

চট্টগ্রাম দুদক কার্যালয় থেকে জানা গেছে, প্রদীপের সম্পদের অনুসন্ধানে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, কানাডা, আরব আমিরাত ও ভারতের ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

২০২০ সালের ৩১ জুলাই কক্সবাজারে সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানকে এপিবিএন চেকপোস্টে গুলি করে হত্যা করা হয়। ওই ঘটনায় সেসময়ের টেকনাফের ওসি প্রদীপ গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে যাওয়ার পর তার অবৈধ সম্পদের অনুসন্ধানে নামে দুদক।

ওই বছর ২৩ অগাস্ট দুদকের সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন অবৈধ সম্পদের মালিক হওয়ার অভিযোগে প্রদীপ ও তার স্ত্রী চুমকির বিরুদ্ধে মামলা করেন।

গত বছরের ২৭ জুলাই একটি মামলায় প্রদীপ কুমার দাশকে কয়েকটি ধারা মিলিয়ে মোট ২০ বছর এবং তার স্ত্রী চুমকি কারণকে ২১ বছরের কারাদণ্ড দেয় আদালত।

প্রদীপের দুর্নীতির অনুসন্ধানকারী কর্মকর্তা দুদক চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক নুরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, প্রদীপ দাশের স্ত্রী চুমকির নামে অবৈধ যে সম্পদ পাওয়া গেছে সেটির মামলায় রায় হয়েছে।

“প্রদীপের সম্পদের বিষয়ে অনুসন্ধান চলমান রয়েছে। তাই তার সম্পদের সঠিক পরিমাণ জানতে বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (বিএফআইইউ) মাধ্যমে সাতটি দেশে চিঠি পাঠানো হয়েছে।”

back to top