alt

বিনোদন

সেন্সর বোর্ডে যেমন কাটল পূর্ণিমার প্রথমদিন

বিনোদন বার্তা পরিবেশক : শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪

কয়েকদিন আগেই জানা গেল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সদস্য হয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা পূর্ণিমা। এদিকে গত ১৫ মে ছিল পূর্ণিমার অভিনয় জীবনের অবিস্মরণীয় দিন। ১৯৯৮ সালের এই দিনেই জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘এ জীবন তোমার আমার’ সিনেমাতে নায়ক রিয়াজের বিপরীতে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে ঢাকাই চলচ্চিত্রে নায়িকা হিসেবে তার অভিষেক ঘটে। এই দিনেই পূর্ণিমা চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের একজন সদস্য হিসেবে প্রথম কোনো সিনেমা দেখে তিনি তার অভিমত প্রকাশ করেন।

গত ১৫ মে পূর্ণিমা বিকেল রাজধানীর সার্কিট হাউসের ‘চলচ্চিত্র ভবন’-এ অবস্থিত সেন্সর বোর্ডের অফিসে পৌঁছান। এরপর একটি সিনেমা তিনি সন্ধ্যা পর্যন্ত উপভোগ করে তারপর বাসায় ফিরে যান। প্রথমদিনের অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে পূর্ণিমা বলেন, ‘যেহেতু ১৫ মে ছিল আমার চলচ্চিত্র জীবনের জন্য একটি স্মরণীয় দিন, আবার একইদিনে সেন্সর বোর্ডের সদস্য হিসেবে কাজ শুরু করা।

তাই নিজের ভেতর একটা অন্যরকম ভালো লাগা কাজ করছিল। অফিসে পৌঁছানোর পর সেন্সর বোর্ডের অন্যান্য সদস্যরা আমাকে স্বাগত জানান। এরপর আমরা সবাই মিলে একটি সিনেমা উপভোগ করি। অফিসের অন্যান্যরাও এসেছিলেন। সিনেমা দেখা শেষে সিনেমাটির ব্যাপারেই সবাই কথা বলছিলেন, প্রশংসা করছিলেন সবাই। আমার কাছেও ভালো লাগল সিনেমাটি। আবার সেন্সরে আটকে থাকা সিনেমা নিয়েও কথা হলো।

কী করলে সেই সিনেমাগুলোকে সেন্সর দেয়া যেতে পারে এসব বিষয়ে বিষদ আলোচনা হলো। তারপর আমি সবার কাছ থেকে বিদায় নিয়ে চলে এলাম। সবমিলিয়ে প্রথমদিনের অভিজ্ঞতা ভালো। বাংলা সিনেমাপ্রেমী দর্শকের কাছে ভালো ভালো সিনেমা পৌঁছে দেবার কিছুটা দায়িত্ব আমার কাঁধেও, এই দায়িত্বটুকু আমি যথাযথভাবে পালন করতে চাই।’

ছবি

ঈদ আয়োজনে বৈশাখী টেলিভির আয়োজন

বিটিভির ঈদ আড্ডায় সুজাতা, রোজিনা, সানী ও ডিপজল

হানিফ সংকেতের ঈদের নাটক ‘ব্যবহার বিভ্রাট’

ছবি

‘তুফান’ সিনেমার প্রচারে বাংলাদেশে মিমি চক্রবর্তী

ছবি

ফিরলেন নজরুল রাজ, সঙ্গে পাভেল

ছবি

ঈদে নেক্সাস টিভির অনুষ্ঠানমালা

ছবি

আবারো এক মঞ্চে তাহসান-মিথিলা

ছবি

অর্ধশতাধিক শিল্পীর ৬৩টি গানের সংকলন নিয়ে এলেন নির্ঝর

ছবি

শেষ করলেন ‘নীল চক্র’, আসছে নতুন কিছু

ছবি

পালা ও লোক গানে মুগ্ধতা ছড়াচ্ছেন মুক্তা সরকার

ছবি

প্রথম একসঙ্গে ফারহান ও সাফা

ছবি

বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালক হলেন টুটুল

ছবি

বিটিভিতে ঈদে বিশেষ চার নাটক

ছবি

‘নায়ক রাজ রাজ্জাক আজীবন সম্মাননা’য় ভূষিত আবুল হায়াত

ছবি

টেলিপ্যাবের দায়িত্বে আদনান, প্রাচী ও দোদুল

ছবি

কাজী হায়াতের নতুন ছবির নায়ক মারুফ

ছবি

ঈদে তিন দিনের ব্যান্ডসংগীতের অনুষ্ঠান

ছবি

ইউরোপ থেকে ফিরে আবার ব্যস্ত শান্তা জাহান

ছবি

ঈদের ‘অবিরাম দেবদাস’-এ নাসিম-মম

ছবি

হিন্দি সিনেমা আমদানিতে মত দিলেন ডিপজল

ছবি

সুখবর দিলেন চঞ্চল চৌধুরী

ছবি

চলেই গেলেন অভিনেত্রী সীমানা

ছবি

ঈদে ফিরছেন অর্চিতা স্পর্শিয়া

ছবি

অস্ত্রোপচার ও থেরাপি শেষে ফিরেছেন সাবিনা ইয়াসমিন

ছবি

বাঁশরীর উৎসবের আজ যাত্রাপালা ‘বিদ্রোহী নজরুল’

ছবি

খালেদ মুন্নার ফোক ম্যাশআপ

ছবি

এজেএফবি স্টার অ্যাওয়ার্ডে শ্রেষ্ঠ পরিচালক পলাশ মণি দাস

ছবি

‘তুফান’ শেষে দেশে ফিরেছেন শাকিব

ছবি

বন্যার উপস্থাপনায় আলতাফ মাহমুদ ও কমল দাশগুপ্ত স্মরণে গাইলেন তারা

ছবি

‘বরযাত্রী’তে জুটি হলেন তৌসিফ-তিশা

ছবি

বিসিআরসি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন নাট্যকার রাজীব মণি দাস

ছবি

বিদ্যাসাগর হতে পারেন দেব

ছবি

‘আঁ সাঁর্তে রিগা’য় সেরা চীনা ছবি, অভিনেত্রী ভারতের অনসূয়া

ছবি

বর্তমানে নাটকের মান নিয়ে কাহিনিকার বা নির্মাতা কেউই ভাবেন না: রিজভী

ছবি

ক্যাম্পাস থিয়েটার প্রশিক্ষকদের মিলনমেলা

ছবি

অভিনয়ে নাট্যকার মানস পালের মেয়ে অরিত্রী

tab

বিনোদন

সেন্সর বোর্ডে যেমন কাটল পূর্ণিমার প্রথমদিন

বিনোদন বার্তা পরিবেশক

শুক্রবার, ১৭ মে ২০২৪

কয়েকদিন আগেই জানা গেল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের সদস্য হয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত নায়িকা পূর্ণিমা। এদিকে গত ১৫ মে ছিল পূর্ণিমার অভিনয় জীবনের অবিস্মরণীয় দিন। ১৯৯৮ সালের এই দিনেই জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘এ জীবন তোমার আমার’ সিনেমাতে নায়ক রিয়াজের বিপরীতে অভিনয়ের মধ্যদিয়ে ঢাকাই চলচ্চিত্রে নায়িকা হিসেবে তার অভিষেক ঘটে। এই দিনেই পূর্ণিমা চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডের একজন সদস্য হিসেবে প্রথম কোনো সিনেমা দেখে তিনি তার অভিমত প্রকাশ করেন।

গত ১৫ মে পূর্ণিমা বিকেল রাজধানীর সার্কিট হাউসের ‘চলচ্চিত্র ভবন’-এ অবস্থিত সেন্সর বোর্ডের অফিসে পৌঁছান। এরপর একটি সিনেমা তিনি সন্ধ্যা পর্যন্ত উপভোগ করে তারপর বাসায় ফিরে যান। প্রথমদিনের অভিজ্ঞতা প্রসঙ্গে পূর্ণিমা বলেন, ‘যেহেতু ১৫ মে ছিল আমার চলচ্চিত্র জীবনের জন্য একটি স্মরণীয় দিন, আবার একইদিনে সেন্সর বোর্ডের সদস্য হিসেবে কাজ শুরু করা।

তাই নিজের ভেতর একটা অন্যরকম ভালো লাগা কাজ করছিল। অফিসে পৌঁছানোর পর সেন্সর বোর্ডের অন্যান্য সদস্যরা আমাকে স্বাগত জানান। এরপর আমরা সবাই মিলে একটি সিনেমা উপভোগ করি। অফিসের অন্যান্যরাও এসেছিলেন। সিনেমা দেখা শেষে সিনেমাটির ব্যাপারেই সবাই কথা বলছিলেন, প্রশংসা করছিলেন সবাই। আমার কাছেও ভালো লাগল সিনেমাটি। আবার সেন্সরে আটকে থাকা সিনেমা নিয়েও কথা হলো।

কী করলে সেই সিনেমাগুলোকে সেন্সর দেয়া যেতে পারে এসব বিষয়ে বিষদ আলোচনা হলো। তারপর আমি সবার কাছ থেকে বিদায় নিয়ে চলে এলাম। সবমিলিয়ে প্রথমদিনের অভিজ্ঞতা ভালো। বাংলা সিনেমাপ্রেমী দর্শকের কাছে ভালো ভালো সিনেমা পৌঁছে দেবার কিছুটা দায়িত্ব আমার কাঁধেও, এই দায়িত্বটুকু আমি যথাযথভাবে পালন করতে চাই।’

back to top