alt

আন্তর্জাতিক

বিশ্বে মহামারীর মধ্যেও বাস্তুচ্যুত রেকর্ডসংখ্যক মানুষ: জাতিসংঘ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : শনিবার, ১৯ জুন ২০২১
image

বাস্তুচ্যুত মানুষ : ফাইল ছবি

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) জানিয়েছে ; করোনা মহামারীর মধ্যেও সারাবিশ্বে চলছে সহিংসতা, সংঘাত, নিপীড়ন এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন। এতে বিভিন্ন দেশে বাস্তুচ্যুত হওয়া মানুষের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে রেকর্ড সংখ্যক - ৮ কোটি ২০ লাখ ।

শুক্রবার ইউএনএইচসিআর বার্ষিক ‘গ্লোবাল ট্রেন্ডস রিপোর্ট’-এ এসব তথ্য তুলে ধরেছে বলে জানিয়েছে। খবর বিবিসির।

ইউএনএইচসিআর রিপোর্টে বলা হয়; বাস্তুচ্যুত মানুষের এই সংখ্যা এক দশকে দ্বিগুণ হয়েছে, তার মানে বিশ্বে ১ শতাংশেরও বেশি মানুষ এখন বাস্তুচ্যুত।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মহামারীর মধ্যে মানুষের চলাফেরা সীমিত থাকায় বিদেশে আশ্রয় চাওয়া মানুষের সংখ্যা কমাসহ সামগ্রিকভাবে অভিবাসন কমেছে।

তারপরও গতবছর নানা বাধা-নিষেধের মধ্যেও বাস্তুচ্যুত হয়েছে ১ কোটি ১২ লাখ মানুষ, যা ২০১৯ সালের চেয়ে বেশি।

বেশিরভাগ মানুষই বাড়িঘর ছাড়া হয়েছে নিপীড়ন, সংঘাত, সহিংসতা এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের শিকার হয়ে। করোনাভাইরাসের কারণে আন্তর্জাতিক সীমানা পেরোনোয় নিষেধাজ্ঞা থাকায় বহুসংখ্যক মানুষ নিজ দেশের ভেতরেই বাস্তুুচ্যুত হয়েছে।

রিপোর্টে বলা হয়; মোট বাস্তুুচ্যুত হওয়া মানুষের অর্ধেকের বেশি, অর্থাৎ, ৪ কোটি ৮০ লাখ মানুষই অভ্যন্তরীনভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছে। বিশ্বব্যাপী বাস্তুচ্যুত মানুষের সংখ্যা ১০ কোটি ছাড়িয়ে যাওয়া এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র, বলছে ইউএনএইচসিআর।

সংস্থাটির মতে; ২০২১ সালে করোনাভাইরাসের বিধিনিষেধ শিথিল হয়ে গেলে সংঘর্ষ, সংঘাত আরও বেড়ে যেতে পারে। পাশাপাশি খারাপের দিকে যাবে খাদ্য সংকট।

চরম আবহাওয়া এবং মহামারীর কারণে সংকট আরও প্রকট হবে। দক্ষিন সুদান, মধ্য আফ্রিকান রিপাবলিক ও সিরিয়ায় দেখা দিতে পারে দুর্ভিক্ষ। বিশ্বব্যাপী চরম দরিদ্র মানুষের সংখ্যাও আরও বাড়তির দিকে যাবে।

ইউএনএইচসিআর এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মহামারীর কারণে মানুষের পালিয়ে আরেক দেশের সীমানা পেরোনো কঠিন হয়ে পড়লেও কিছু দেশ বাস্তুচ্যুত মানুষদের আশ্রয় দিচ্ছে।

উদাহরণস্বরূপ, কঙ্গো প্রজাতন্ত্র থেকে লড়াইয়ের মুখে পালিয়ে আসা মানুষদের উগান্ডা তাদের সীমানায় ঢুকতে দিচ্ছে। সেখানে তাদের কোভিড পরীক্ষাও করা হচ্ছে।

বিদেশে বাস্তুচ্যুত এই মানুষদের দুই-তৃতীয়াংশই এসেছে মাত্র ৫ টি দেশ থেকে। এর মধ্যে আছে সিরিয়া। দেশটিতে ১০ বছরের গহযুদ্ধে ১ কোটি ৩৫ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে, যা দেশটির জনসংখ্যার অর্ধেকের বেশি। এসব মানুষের প্রায় অর্ধেকই বিদেশে চলে গেছে। আর বাকীরা দেশের ভেতরেই বাড়িঘর ছাড়া হয়ে আছে।

বিদেশে বাস্তুচ্যুত প্রায় তিন-চতুর্থাংশ মানুষই আশ্রয় নিয়ে আছে প্রতিবেশী দেশগুলোতে। বাস্তুচ্যুত এসব মানুষদের মধ্যে বাড়ছে শিশুর সংখ্যা। ২০১৮ সাল থেকে ২০২০ সালের মধ্যে জন্ম নেওয়া প্রায় ১০ লাখ নবজাতক জন্মের পর থেকেই শরণার্থী হিসেবে বেড়ে উঠছে। ফলে অনিশ্চয়তার মুখে আছে তাদের ভবিষ্যৎ।

ইউএনএইচসিআর বলছে, এই অন্ধকারের মধ্যেও আছে কিছু আশার আলো। কিছু দেশ এই শরণার্থীদের নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র এ বছরই ৬২ হাজার ৫শ’ এবং ২০২২ সালে ১২৫,০০০ শরণার্থী নেবে বলে কথা দিয়েছে। আর ভেনেজুয়েলার ১০ লাখের বেশি শরণার্থীকে স্থায়ী মর্যাদা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলম্বিয়া।

ছবি

৪৯ বছর অপেক্ষার পর অস্ট্রেলিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের স্থায়ী কার্যালয় হচ্ছে

ছবি

যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে ইসরায়েলের নাগরিককে সতর্কবার্তা

ছবি

ভারতের জনসংখ্যা নিয়ে ভুল তথ্য : ট্রোলের শিকার ইমরান খান

ছবি

নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসে ট্রাকের ধাক্কা, মালিতে নিহত ৪১

ছবি

জাপানে ৬ মাত্রার ভূমিকম্প, কেঁপে উঠল অলিম্পিক ভিলেজ

ছবি

ওমান চায় ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক শক্তিশালী করতে

ছবি

৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার পুরষ্কারের ঘোষণা দিল পাবজি মোবাইল

ছবি

বিল ও মেলিন্ডা গেটসের আনুষ্ঠানিক বিচ্ছেদ সম্পন্ন

ছবি

ভারতে বাড়ছে জিকা ভাইরাসের সংক্রমণ

ছবি

করোনা উহানের ল্যাব থেকেই ছড়িয়েছে, দাবি নতুন রিপোর্টে

ছবি

ফের উহানের সকল নাগরিকের করোনা পরীক্ষা করবে চীন

ছবি

ডেল্টার উদ্বেগজনক বৃদ্ধি যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণাঞ্চলে

ছবি

রাজশাহী মেডিকেলে করোনায় আজও ১৯ প্রাণহানি

ছবি

আফগানিস্তানের প্রথম কোনও প্রাদেশিক রাজধানী পতনের মুখে

ছবি

ট্যাংকারে হামলা: পাল্টাপাল্টি রাষ্ট্রদূত তলব করল ইরান-যুক্তরাজ্য

ছবি

এবার সিকিম সীমান্তে ভারত-চীন হটলাইন

ছবি

ইসরায়েলি তেলবাহী জাহাজে হামলায় ইরানকে দুষছে আমেরিকা ও ব্রিটেন

ছবি

ইসমাইল হানিয়াহ দ্বিতীয়বারের মতো হামাসের প্রধান

ভূমধ্যসাগরে বাংলাদেশিসহ ৩৯৪ অভিবাসী উদ্ধার

ছবি

কোভিড পাসপোর্ট চালু হলো যেসব দেশে

ছবি

তুরস্কে দাবানল : সরিয়ে নেওয়া হলো পর্যটকদের

ছবি

ইরাক ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা বাড়ানোর ইচ্ছা যুক্তরাষ্ট্রের নেই

ছবি

ক্ষুধায় লক্ষাধিক শিশু মারা যেতে পারে ইথিওপিয়ায়

ছবি

বৈশ্বিক টাস্ক ফোর্সের প্রতিবেদন, টিকাদানে বাংলাদেশ পেছনের কাতারে

ছবি

সীমান্তে ইসরায়েলি সেনাদের আনাগোনা, হুঁশিয়ারি লেবাননের

ছবি

চীনে আরও দুই এলাকায় কারোনা, কয়েক স্থানে লকডাউন

ছবি

করোনার ডেল্টা ধরন শিশুদের আক্রমণ করে না: ডব্লিউএইচও

ছবি

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ‘লড়তে চান’ গাদ্দাফির ছেলে

ছবি

পাকিস্তানে ঝুঁকিপূর্ণ শ্রমে জড়িত ৩৩ লাখ শিশু

ছবি

পেগাসাস কাণ্ড : ইসরাইলি গোয়েন্দাদের এনএসও দপ্তরে তল্লাশি

ছবি

তেলের ট্যাংকারে হামলায় নিহত ২, ইসরায়েল দুষছে ইরানকে

ছবি

লকডাউন কার্যকরে সিডনিতে নামছে সামরিক বাহিনী

ছবি

আফগান দোভাষীদের প্রথম দল যুক্তরাষ্ট্রের পথে

ছবি

বিদেশি পর্যটকদের জন্য দরজা খুলে দিচ্ছে সৌদি, থাকবে যে শর্ত

ছবি

যে নারী আইপিএস বিজেপি ‘মন্ত্রী’কে চড় মেরেছিলেন!

ছবি

বেড়েই চলেছে ভারতে করোনা সংক্রমণ

tab

আন্তর্জাতিক

বিশ্বে মহামারীর মধ্যেও বাস্তুচ্যুত রেকর্ডসংখ্যক মানুষ: জাতিসংঘ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট
image

বাস্তুচ্যুত মানুষ : ফাইল ছবি

শনিবার, ১৯ জুন ২০২১

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা (ইউএনএইচসিআর) জানিয়েছে ; করোনা মহামারীর মধ্যেও সারাবিশ্বে চলছে সহিংসতা, সংঘাত, নিপীড়ন এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন। এতে বিভিন্ন দেশে বাস্তুচ্যুত হওয়া মানুষের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে রেকর্ড সংখ্যক - ৮ কোটি ২০ লাখ ।

শুক্রবার ইউএনএইচসিআর বার্ষিক ‘গ্লোবাল ট্রেন্ডস রিপোর্ট’-এ এসব তথ্য তুলে ধরেছে বলে জানিয়েছে। খবর বিবিসির।

ইউএনএইচসিআর রিপোর্টে বলা হয়; বাস্তুচ্যুত মানুষের এই সংখ্যা এক দশকে দ্বিগুণ হয়েছে, তার মানে বিশ্বে ১ শতাংশেরও বেশি মানুষ এখন বাস্তুচ্যুত।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মহামারীর মধ্যে মানুষের চলাফেরা সীমিত থাকায় বিদেশে আশ্রয় চাওয়া মানুষের সংখ্যা কমাসহ সামগ্রিকভাবে অভিবাসন কমেছে।

তারপরও গতবছর নানা বাধা-নিষেধের মধ্যেও বাস্তুচ্যুত হয়েছে ১ কোটি ১২ লাখ মানুষ, যা ২০১৯ সালের চেয়ে বেশি।

বেশিরভাগ মানুষই বাড়িঘর ছাড়া হয়েছে নিপীড়ন, সংঘাত, সহিংসতা এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের শিকার হয়ে। করোনাভাইরাসের কারণে আন্তর্জাতিক সীমানা পেরোনোয় নিষেধাজ্ঞা থাকায় বহুসংখ্যক মানুষ নিজ দেশের ভেতরেই বাস্তুুচ্যুত হয়েছে।

রিপোর্টে বলা হয়; মোট বাস্তুুচ্যুত হওয়া মানুষের অর্ধেকের বেশি, অর্থাৎ, ৪ কোটি ৮০ লাখ মানুষই অভ্যন্তরীনভাবে বাস্তুচ্যুত হয়েছে। বিশ্বব্যাপী বাস্তুচ্যুত মানুষের সংখ্যা ১০ কোটি ছাড়িয়ে যাওয়া এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র, বলছে ইউএনএইচসিআর।

সংস্থাটির মতে; ২০২১ সালে করোনাভাইরাসের বিধিনিষেধ শিথিল হয়ে গেলে সংঘর্ষ, সংঘাত আরও বেড়ে যেতে পারে। পাশাপাশি খারাপের দিকে যাবে খাদ্য সংকট।

চরম আবহাওয়া এবং মহামারীর কারণে সংকট আরও প্রকট হবে। দক্ষিন সুদান, মধ্য আফ্রিকান রিপাবলিক ও সিরিয়ায় দেখা দিতে পারে দুর্ভিক্ষ। বিশ্বব্যাপী চরম দরিদ্র মানুষের সংখ্যাও আরও বাড়তির দিকে যাবে।

ইউএনএইচসিআর এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মহামারীর কারণে মানুষের পালিয়ে আরেক দেশের সীমানা পেরোনো কঠিন হয়ে পড়লেও কিছু দেশ বাস্তুচ্যুত মানুষদের আশ্রয় দিচ্ছে।

উদাহরণস্বরূপ, কঙ্গো প্রজাতন্ত্র থেকে লড়াইয়ের মুখে পালিয়ে আসা মানুষদের উগান্ডা তাদের সীমানায় ঢুকতে দিচ্ছে। সেখানে তাদের কোভিড পরীক্ষাও করা হচ্ছে।

বিদেশে বাস্তুচ্যুত এই মানুষদের দুই-তৃতীয়াংশই এসেছে মাত্র ৫ টি দেশ থেকে। এর মধ্যে আছে সিরিয়া। দেশটিতে ১০ বছরের গহযুদ্ধে ১ কোটি ৩৫ লাখ মানুষ বাস্তুচ্যুত হয়েছে, যা দেশটির জনসংখ্যার অর্ধেকের বেশি। এসব মানুষের প্রায় অর্ধেকই বিদেশে চলে গেছে। আর বাকীরা দেশের ভেতরেই বাড়িঘর ছাড়া হয়ে আছে।

বিদেশে বাস্তুচ্যুত প্রায় তিন-চতুর্থাংশ মানুষই আশ্রয় নিয়ে আছে প্রতিবেশী দেশগুলোতে। বাস্তুচ্যুত এসব মানুষদের মধ্যে বাড়ছে শিশুর সংখ্যা। ২০১৮ সাল থেকে ২০২০ সালের মধ্যে জন্ম নেওয়া প্রায় ১০ লাখ নবজাতক জন্মের পর থেকেই শরণার্থী হিসেবে বেড়ে উঠছে। ফলে অনিশ্চয়তার মুখে আছে তাদের ভবিষ্যৎ।

ইউএনএইচসিআর বলছে, এই অন্ধকারের মধ্যেও আছে কিছু আশার আলো। কিছু দেশ এই শরণার্থীদের নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে। এর মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র এ বছরই ৬২ হাজার ৫শ’ এবং ২০২২ সালে ১২৫,০০০ শরণার্থী নেবে বলে কথা দিয়েছে। আর ভেনেজুয়েলার ১০ লাখের বেশি শরণার্থীকে স্থায়ী মর্যাদা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলম্বিয়া।

back to top