alt

আন্তর্জাতিক

একাই ১৩০ নারীকে বিক্রি, অভিযুক্ত আটক

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক: : বুধবার, ১৭ নভেম্বর ২০২১

আফগানিস্তানে ১৩০ নারীকে দাস হিসেবে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। ভালো বিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাদের অন্যত্র বিক্রি করে দেওয়া হয়। পরে প্রতারণার অভিযোগে দেশটির উত্তরাঞ্চল থেকে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে আফগান পুলিশ। আফগান কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে এএফপি।

এ অভিযোগে এক ব্যক্তিকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় জাওজান প্রদেশের তালেবানের পুলিশপ্রধান দামুল্লাহ সিরাজ। মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) সাংবাদিকদের তিনি জানান, জাওজান প্রদেশ থেকে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, আমরা এখনও তদন্তের প্রাথমিক পর্যায়ে আছি। আরও কিছু সময় পার হলে আমরা এ বিষয়টির ব্যাপারে আরও তথ্য বের করতে পারবো। জাওজান প্রদেশের একটি জেলার পুলিশপ্রধান মোহাম্মদ সরদার মুবারিজ এএফপিকে জানান, অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি কেবল আর্থিক সংকটে রয়েছে এমন নারীদেরই টার্গেট করতো। আর নিজেদের আর্থিক পরিস্থিতি উন্নতি করতে ইচ্ছুক ওই নারীরা সহজেই অভিযুক্তের ফাঁদে পা দিতেন।

তিনি আরও বলেন, দরিদ্র এসব নারীদের ওই অভিযুক্ত ব্যক্তি সম্পদশালী স্বামী খুঁজে দেওয়ার প্রলোভন দেখাতেন। এরপর তিনি নারীদের পৃথক প্রদেশে নিয়ে যেতেন এবং সেখানে তাদের দাস হিসেবে বিক্রি করা হতো। এভাবে অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি প্রায় ১৩০ জন নারীকে বিক্রি করেছেন।

২০ বছর পর গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান দখলে নেয় তালেবান। এরপর সেপ্টেম্বর মাসের শুরুতে তালেবান অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভার ঘোষণা দেয়। অবশ্য বিশ্বের কোনো দেশই এখনও তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি।

এর জেরে বিশ্বের অধিকাংশ দেশ ও এর পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বিভিন্ন দাতা সংস্থা আফগানিস্তানে মানবিক সহায়তাসহ অর্থ সাহায্য পাঠানো বন্ধ করে দেয়। ফলে দেশটিতে অর্থনৈতিক সংকট প্রতিদিনই খারাপের দিকে যাচ্ছে। জাতিসংঘ বারবার সতর্ক করেছে যে, বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ মানবিক সংকটের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে আফগানিস্তান। দেশটির অর্ধেকেরও বেশি মানুষ তীব্র খাদ্য ঘাটতির সম্মুখীন হয়েছে এবং প্রচন্ড শীতের মধ্যে লাখ লাখ আফগান অনাহারের মধ্যে থাকতে বাধ্য হচ্ছে।

এছাড়া করোনাভাইরাস মহামারী, চলমান খাদ্য সংকট এবং শীত মৌসুমের শুরুতে আফগানিস্তানের চলমান পরিস্থিতিকে আরও খারাপের দিকে নিয়ে গেছে। অবশ্য ক্ষমতায় আসার পর থেকে খারাপ অর্থনৈতিক অবস্থার মধ্যেও বড় বড় শহরগুলোতে ডাকাতি ও অপহরণের মতো অপরাধ বন্ধে চেষ্টা করে যাচ্ছে তালেবান সরকার।

ছবি

শ্রীলঙ্কানকে বাঁচানোর চেষ্টাকারীকে পদক দেওয়ার ঘোষণা ইমরানের

ছবি

সু চিকে ৪ বছরের কারাদণ্ড

ছবি

অস্ট্রেলিয়ায় কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়ে ইতিহাস ২ বাংলাদেশির

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের এক তৃতীয়াংশ অঙ্গরাজ্যে ওমিক্রনের হানা

ছবি

সেনাদের গুলিতে ১৩ বেসামরিক প্রাণহানি, চরম উত্তেজনা নাগাল্যান্ডে

ছবি

বিশ্বে করোনায় আজও ৪ হাজার মৃত্যু

ছবি

মায়ানমারে বিক্ষোভে গাড়িচাপা দিয়ে ৫ জনকে হত্যা করল জান্তা বাহিনী

ছবি

নাগাল্যান্ডে সশস্ত্র বাহিনীর অভিযানে ১৩ খনি শ্রমিক নিহত

ছবি

তপ্ত ছাই উগরাচ্ছে ইন্দোনেশিয়ার সেমেরু, নিহত ১৩

ছবি

‘জাওয়াদের’ প্রভাবে উত্তাল সমুদ্র

ছবি

‘ওমিক্রন’ এশিয়ায় বাড়ছে

ছবি

সাধারণ ঠাণ্ডার ভাইরাসের জিনগত বৈশিষ্ট্য মিলেছে ওমিক্রনে

ছবি

নারীর সম্মতি ছাড়া তাকে বিয়ে করা যাবে না, ডিক্রি আফগানিস্তানে

ছবি

প্রস্তুতি নিতে সব দেশের প্রতি আহ্বান ডাব্লিউএইচওর

ছবি

টানা ৬ সপ্তাহে বিশ্ববাজারে কমলো জ্বালানি তেলের দাম

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের ৫ রাজ্যে ওমিক্রনের থাবা

ছবি

ওমিক্রন: ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা নয়, টিকার পক্ষে ডব্লিউএইচও

ছবি

মালয়েশিয়ায় ওমিক্রন, নিষেধাজ্ঞা জারি ভ্রমণে

ছবি

রানওয়ে থেকে ঠেলে বিমান সরালেন যাত্রীরা

ছবি

অ্যাস্ট্রাজেনেকা টিকায় রক্ত জমাট বাঁধার কারণ জানা গেল

ছবি

গাদ্দাফিপুত্রের প্রেসিডেন্ট পদে লড়তে আর বাধা নেই

ছবি

প্রতি বছরই করোনাভাইরাসের টিকা নিতে হবে : ফাইজার প্রধান

ছবি

পাগড়ি-শেরোয়ানি পরে ঘোড়ায় চড়ে বিয়ে করতে গেলেন কনে

ছবি

বিশ্বজুড়ে করোনায় মৃত্যু কমেছে, বেড়েছে শনাক্ত

ছবি

ওমিক্রন : কতটা মারাত্মক?

ছবি

ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘জাওয়াদ’

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রকে অর্থ ছাড়ের আহ্বান তালেবানের

ছবি

এবার ভারতে ২ জনের ওমিক্রন শনাক্ত

ছবি

ওমিক্রন সম্পর্কে নিশ্চিত তথ্য পেতে আরও ‘দুই সপ্তাহ’ লাগতে পারে

ছবি

ফোর্বসের ‘থার্টি আন্ডার থার্টি’ -তে বাংলাদেশি তরুণী বাশিমা

ছবি

ওমিক্রন: কতটা মারাত্মক?

ছবি

সৌদি আরবে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত

ছবি

ওমিক্রন পৌঁছেছে ২০ দেশে, শনাক্তের আগেই ছিল ইউরোপে

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের স্কুলে বন্দুকধারীর হামলা, নিহত ৩ শিক্ষার্থী

ছবি

অস্ট্রেলিয়ার পার্লামেন্টের এক-তৃতীয়াংশ কর্মী যৌন হয়রানির শিকার

ছবি

সু চির মামলার রায় হঠাৎ স্থগিত

tab

আন্তর্জাতিক

একাই ১৩০ নারীকে বিক্রি, অভিযুক্ত আটক

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক:

বুধবার, ১৭ নভেম্বর ২০২১

আফগানিস্তানে ১৩০ নারীকে দাস হিসেবে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। ভালো বিয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাদের অন্যত্র বিক্রি করে দেওয়া হয়। পরে প্রতারণার অভিযোগে দেশটির উত্তরাঞ্চল থেকে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে আফগান পুলিশ। আফগান কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে এএফপি।

এ অভিযোগে এক ব্যক্তিকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় জাওজান প্রদেশের তালেবানের পুলিশপ্রধান দামুল্লাহ সিরাজ। মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) সাংবাদিকদের তিনি জানান, জাওজান প্রদেশ থেকে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, আমরা এখনও তদন্তের প্রাথমিক পর্যায়ে আছি। আরও কিছু সময় পার হলে আমরা এ বিষয়টির ব্যাপারে আরও তথ্য বের করতে পারবো। জাওজান প্রদেশের একটি জেলার পুলিশপ্রধান মোহাম্মদ সরদার মুবারিজ এএফপিকে জানান, অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি কেবল আর্থিক সংকটে রয়েছে এমন নারীদেরই টার্গেট করতো। আর নিজেদের আর্থিক পরিস্থিতি উন্নতি করতে ইচ্ছুক ওই নারীরা সহজেই অভিযুক্তের ফাঁদে পা দিতেন।

তিনি আরও বলেন, দরিদ্র এসব নারীদের ওই অভিযুক্ত ব্যক্তি সম্পদশালী স্বামী খুঁজে দেওয়ার প্রলোভন দেখাতেন। এরপর তিনি নারীদের পৃথক প্রদেশে নিয়ে যেতেন এবং সেখানে তাদের দাস হিসেবে বিক্রি করা হতো। এভাবে অভিযুক্ত ওই ব্যক্তি প্রায় ১৩০ জন নারীকে বিক্রি করেছেন।

২০ বছর পর গত ১৫ আগস্ট আফগানিস্তান দখলে নেয় তালেবান। এরপর সেপ্টেম্বর মাসের শুরুতে তালেবান অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভার ঘোষণা দেয়। অবশ্য বিশ্বের কোনো দেশই এখনও তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেয়নি।

এর জেরে বিশ্বের অধিকাংশ দেশ ও এর পাশাপাশি আন্তর্জাতিক বিভিন্ন দাতা সংস্থা আফগানিস্তানে মানবিক সহায়তাসহ অর্থ সাহায্য পাঠানো বন্ধ করে দেয়। ফলে দেশটিতে অর্থনৈতিক সংকট প্রতিদিনই খারাপের দিকে যাচ্ছে। জাতিসংঘ বারবার সতর্ক করেছে যে, বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ মানবিক সংকটের দ্বারপ্রান্তে রয়েছে আফগানিস্তান। দেশটির অর্ধেকেরও বেশি মানুষ তীব্র খাদ্য ঘাটতির সম্মুখীন হয়েছে এবং প্রচন্ড শীতের মধ্যে লাখ লাখ আফগান অনাহারের মধ্যে থাকতে বাধ্য হচ্ছে।

এছাড়া করোনাভাইরাস মহামারী, চলমান খাদ্য সংকট এবং শীত মৌসুমের শুরুতে আফগানিস্তানের চলমান পরিস্থিতিকে আরও খারাপের দিকে নিয়ে গেছে। অবশ্য ক্ষমতায় আসার পর থেকে খারাপ অর্থনৈতিক অবস্থার মধ্যেও বড় বড় শহরগুলোতে ডাকাতি ও অপহরণের মতো অপরাধ বন্ধে চেষ্টা করে যাচ্ছে তালেবান সরকার।

back to top