alt

আন্তর্জাতিক

সংলাপ না সংঘাত, পুতিনকে যুক্তরাষ্ট্র

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : সোমবার, ১০ জানুয়ারী ২০২২

রাশিয়ার সৈন্য ইউক্রেন সীমান্তে সমাবেশের বিষয়ে কঠোর অবস্থান তুলে ধরল যুক্তরাষ্ট্র। সংলাপ বা সংঘাত—এই দুইয়ের মধ্যে যেকোনো একটিকে বেছে নিতে হবে রাশিয়াকে। ইউক্রেন নিয়ে আন্তর্জাতিক কূটনীতির অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ এ সময়ে কথাগুলো বলল যুক্তরাষ্ট্র।

রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের জ্যেষ্ঠ কূটনীতিক এবং সেনা কমর্কর্তারা গতকাল রোববার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় নৈশভোজে বসেছিলেন। আজ সোমবারের আনুষ্ঠানিক আলোচনার আগে এ নৈশভোজ ছিল। গত মাসে ন্যাটো ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এ খসড়া চুক্তি হয়। এর অনেকগুলোই যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে মেনে নেওয়া অসম্ভব। কারণ, এর মধ্যে একটি হলো ইউক্রেনকে কখনোই ন্যাটোর সদস্য করা যাবে না।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের দেওয়া তথ্য অনুসারে, রাশিয়া ইউক্রেন সীমান্তে এক লাখ সৈন্যের সমাবেশ ঘটিয়েছে। দ্রুত নোটিশে আরও লাখখানেক সৈন্য জড়ো করার প্রস্তুতি নিয়েছে। গতকাল ব্লিঙ্কেন বলেন, চলতি সপ্তাহের কূটনীতিক আলোচনা রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যবহ।

ব্লিঙ্কেনের কথা, আমাদের সামনে দুটো পথ আছে। একটি পথ হলো আলোচনা ও কূটনীতির মাধ্যমে বিদ্যমান ভিন্নতা সমাধানের চেষ্টা এবং সংঘাত এড়ানো। আরেকটি পথ হচ্ছে সংঘাত। যদি রাশিয়া ইউক্রেনে আবার আগ্রাসন চালাতে চায়, তবে এর জন্য তাদের চরম মূল্য দিতে হবে।

রাশিয়ার দলটির প্রধান উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াবকভ বলেন, আলোচনা জটিল ছিল। কিন্তু এটা কাযর্কর হয়েছে। আগামীতে যেসব বিষয় নিয়ে কথা হবে, আমরা তার দিকে দৃষ্টিপাত করেছি। আমি মনে করি, কাল (আজ) আমরা সময় নষ্ট করব না। আমি কখনো আশা ছাড়ি না। আমি সব সময় আশা নিয়েই থাকি।

সংবাদবিষয়ক অনুষ্ঠান ‘দিস উইক’-এ দেওয়া সাক্ষাৎকারে ব্লিঙ্কেন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, আমরা এ সপ্তাহে দেখব প্রেসিডেন্ট পুতিন কোন পথ নিতে চান। এখন সত্যি এ প্রশ্নই আসছে যে প্রেসিডেন্ট পুতিন আলোচনার পথ নেবেন না সংঘাত

ছবি

ইউক্রেনে রুশপন্থী নেতাকে ক্ষমতায় আনার চক্রান্ত চলছে : যুক্তরাজ্য

ছবি

‘আমার বিয়েও হবে না’

ছবি

কত ডোজ নিলে ‘ভ্যাক্সিনেটেড’ বলা যাবে?

ছবি

উত্তরপ্রদেশে কংগ্রেসের মুখ্যমন্ত্রী প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা?

ছবি

ইউক্রেন ইস্যুতে উত্তেজনা হ্রাসে সম্মত যুক্তরাষ্ট্র-রাশিয়া

ছবি

কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ভূমিকম্পে কাঁপলো এশিয়ার ৬ দেশ

ছবি

বিশ্বজুড়ে করোনায় একদিনে শনাক্তের রেকর্ড

ছবি

মুম্বাইয়ে বহুতল ভবনে অগ্নিকাণ্ড, নিহত ৭

ছবি

মায়ানমার ছাড়ছে শেভরন, টোটাল

ছবি

বাংলাদেশ সরকারকে লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিওর অভিনন্দন

ছবি

পশ্চিমারা স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে, হুঁশিয়ারি ব্রিটেনের

ছবি

‘জনপ্রিয়তার জরিপে’ শীর্ষে মোদী, বাইডেন ষষ্ঠ ট্রুডো সপ্তম

ছবি

পাকিস্তানের লাহোরে বোমা হামলায় নিহত ৩, আহত অর্ধশতাধিক

ছবি

লাইবেরিয়ায় গির্জায় পদদলিত হয়ে ২৯ জনের মৃত্যু

ছবি

খাবার, পানির সঙ্কট টোঙ্গায়, যাচ্ছে আরও সহায়তা

ছবি

ঘানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে ৫০০ ভবন ধস, বহু হতাহতের শঙ্কা

ছবি

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত নুসরাত চৌধুরী মার্কিন ফেডারেল বিচারপতি মনোনীত

ছবি

রোহিঙ্গা গণহত্যা বিষয়ে আইসিজেতে শুনানি ফেব্রুয়ারিতে

ছবি

সংবাদ সম্মেলনে সহজ প্রশ্ন চাইলেন বাইডেন

ছবি

কনজারভেটিভ এমপি’র দলত্যাগ, মদপার্টির খেসারত দিচ্ছেন জনসন

ছবি

মুম্বাইয়ে যুদ্ধজাহাজে বিস্ফোরণ, ভারতীয় নৌবাহিনীর তিন সদস্য নিহত

ছবি

তিস্তার সংকট ও সম্ভাবনা নিয়ে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক পানি সম্মেলন শুরু আজ

ছবি

গোয়ায় বিজেপির সামনে চতুর্মুখী চ্যালেঞ্জ

ছবি

ফুরাচ্ছে না মহামারী, আসছে আরও ধরন : ডব্লিউএইচও

ছবি

ভারতে নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজে বিস্ফোরণে নিহত ৩, আহত ১১

ছবি

সাবমেরিন ক্যাবল মেরামতে কয়েক সপ্তাহ বিচ্ছিন্ন থাকবে টোঙ্গা

ছবি

মোদির ওপর হামলার আশঙ্কায় নিরাপত্তা জোরদার

ছবি

ফেইসবুকে ‘মৃত’ তসলিমা, টুইটারে ক্ষোভ

ছবি

ইয়েমেনে সৌদি জোটের বিমান হামলা, নিহত ১৪

ছবি

আয়াতুল্লাহ খামেনির ভাতিজি গ্রেপ্তার

ছবি

টোংগায় সুনামি : স্বজনদের খবর পেতে উদ্বেগ প্রবাসীদের

ছবি

আফগানিস্তানে ভূমিকম্পে নিহত অন্তত ২৬

ছবি

পুলিশের সাহায্যে কাশ্মীর প্রেসক্লাব দখল, নিন্দা এডিটরস গিল্ডের

ছবি

চীনে বার্ষিক জন্মহার হ্রাসের রেকর্ড

ছবি

উত্তর কোরিয়া ফের ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে, জানাল দক্ষিণ কোরিয়া

ছবি

অ্যাস্ট্রাজেনেকার বুস্টার অমিক্রনের বিরুদ্ধে ‘কার্যকর’

tab

আন্তর্জাতিক

সংলাপ না সংঘাত, পুতিনকে যুক্তরাষ্ট্র

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

সোমবার, ১০ জানুয়ারী ২০২২

রাশিয়ার সৈন্য ইউক্রেন সীমান্তে সমাবেশের বিষয়ে কঠোর অবস্থান তুলে ধরল যুক্তরাষ্ট্র। সংলাপ বা সংঘাত—এই দুইয়ের মধ্যে যেকোনো একটিকে বেছে নিতে হবে রাশিয়াকে। ইউক্রেন নিয়ে আন্তর্জাতিক কূটনীতির অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ এ সময়ে কথাগুলো বলল যুক্তরাষ্ট্র।

রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের জ্যেষ্ঠ কূটনীতিক এবং সেনা কমর্কর্তারা গতকাল রোববার সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় নৈশভোজে বসেছিলেন। আজ সোমবারের আনুষ্ঠানিক আলোচনার আগে এ নৈশভোজ ছিল। গত মাসে ন্যাটো ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এ খসড়া চুক্তি হয়। এর অনেকগুলোই যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে মেনে নেওয়া অসম্ভব। কারণ, এর মধ্যে একটি হলো ইউক্রেনকে কখনোই ন্যাটোর সদস্য করা যাবে না।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের দেওয়া তথ্য অনুসারে, রাশিয়া ইউক্রেন সীমান্তে এক লাখ সৈন্যের সমাবেশ ঘটিয়েছে। দ্রুত নোটিশে আরও লাখখানেক সৈন্য জড়ো করার প্রস্তুতি নিয়েছে। গতকাল ব্লিঙ্কেন বলেন, চলতি সপ্তাহের কূটনীতিক আলোচনা রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যবহ।

ব্লিঙ্কেনের কথা, আমাদের সামনে দুটো পথ আছে। একটি পথ হলো আলোচনা ও কূটনীতির মাধ্যমে বিদ্যমান ভিন্নতা সমাধানের চেষ্টা এবং সংঘাত এড়ানো। আরেকটি পথ হচ্ছে সংঘাত। যদি রাশিয়া ইউক্রেনে আবার আগ্রাসন চালাতে চায়, তবে এর জন্য তাদের চরম মূল্য দিতে হবে।

রাশিয়ার দলটির প্রধান উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই রিয়াবকভ বলেন, আলোচনা জটিল ছিল। কিন্তু এটা কাযর্কর হয়েছে। আগামীতে যেসব বিষয় নিয়ে কথা হবে, আমরা তার দিকে দৃষ্টিপাত করেছি। আমি মনে করি, কাল (আজ) আমরা সময় নষ্ট করব না। আমি কখনো আশা ছাড়ি না। আমি সব সময় আশা নিয়েই থাকি।

সংবাদবিষয়ক অনুষ্ঠান ‘দিস উইক’-এ দেওয়া সাক্ষাৎকারে ব্লিঙ্কেন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, আমরা এ সপ্তাহে দেখব প্রেসিডেন্ট পুতিন কোন পথ নিতে চান। এখন সত্যি এ প্রশ্নই আসছে যে প্রেসিডেন্ট পুতিন আলোচনার পথ নেবেন না সংঘাত

back to top