alt

আন্তর্জাতিক

ব্রিকস সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আজ, বিশ্বব্যাপী দাপটের জন্য চাপ দেবে সদস্যরা

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক : বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০২২

ধুমধাম কিংবা বিশাল প্রত্যাশা ছাড়াই ভার্চুয়ালি আয়োজন হচ্ছে এবারের ব্রিকস সম্মেলন। ভূ-রাজনৈতিক শৃঙ্খলায় বড় পরিবর্তনের মধ্যে ব্রিকস গ্রুপের দেশের নেতারা সম্মেলনে মিলিত হচ্ছেন আজ। এনিয়ে টানা তৃতীয় বছর এভাবে সম্মেলন আয়োজিত হচ্ছে।

এটি কোয়াড সম্মেলনের সম্পূর্ণ বিপরীত। এই জোটটি গত মাসে জাপানে সম্মেলনে মিলিত হয়। বিশ্ব মিডিয়ার তীক্ষ্ণ নজরের মধ্যে জোটের নেতারা ব্যক্তিগতভাবে বৈঠকে বসেন। পাঁচ দেশের নামের প্রথম অক্ষর নিয়ে নামকরণ করা গ্রুপটির সদস্য দেশগুলো হচ্ছে ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন এবং দক্ষিণ আফ্রিকা। ব্রিকস দেশগুলোর সম্মিলিত জনসংখ্যা ৩২৩ কোটি এবং তাদের সম্মিলিত জিডিপি ২৩ লাখ কোটি ডলারের বেশি।

ব্রিকসের কেন্দ্রস্থলে সব সময়ে থেকেছে অর্থনীতি তবে বৃহস্পতিবারের শীর্ষ সম্মেলনে ইউক্রেন যুদ্ধ বড় হয়ে উঠতে পারে। দেশগুলো হয়তো যুদ্ধের কথা স্পষ্টভাবে উল্লেখ নাও করতে পারে, তবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং, দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা এবং ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারো একে অপরের সঙ্গে কথা বলার সময় এটি নিয়ে আলোচনা হবে।

কিছু বিশ্লেষক বলছেন এর আংশিকভাবে কারণ ব্রিকস বছরের পর বছর সত্যিই প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি। ২০০৯ সালে যখন এটি যাত্রা শুরু করে, তখন আশা করা হয়েছিল, গ্রুপটি বিশ্ব অর্থনীতিকে নতুন আকার দেবে এবং উন্নয়নশীল বিশ্বকে সাহায্য করার জন্য একটি নতুন আর্থিক ব্যবস্থা তৈরি করবে। জোটের সাফল্যকে সবচেয়ে ভালোভাবে মধ্যপন্থী হিসাবে বর্ণনা করা যেতে পারে, তবে এর গুরুত্বকে অতিমাত্রায় বলা যাবে না।

ওয়াশিংটনের থিংক ট্যাংক উইলসন সেন্টারের উপপরিচালক মাইকেল কুজেলম্যান বলেন, ‘ব্রিকস অপ্রাসঙ্গিক বলে মনে হতে পারে কারণ এটি মার্কিন নেতৃত্বাধীন বিদ্যমান ব্যবস্থায় কার্যকর বৈশ্বিক অর্থনৈতিক বিকল্পের সূচনা করার দীর্ঘস্থায়ী প্রচেষ্টাকে সত্যিই এগিয়ে নেয়নি’।

কন্ট্রোল রিস্ক কনসালটেন্সির দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক পরিচালক প্রত্যুষ রাও বলেন, কোনও সন্দেহ নেই সম্মেলনে ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে আলোচনা হবে। তিনি বলেন, ‘অনেক মানুষ এই সম্মেলনের দিকে নজর রাখবে, বিশেষ করে ইউক্রেন নিয়ে রাশিয়া ও চীনের মধ্যে গতিশীলতার দিকে’।

চীন রাশিয়ার প্রতি সমর্থনের বিষয়ে বেশি খোলামেলা হলেও, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ব্রাজিল যুদ্ধের বিষয়ে কূটনৈতিক দৃঢ়তার সঙ্গে চলার চেষ্টা করেছে। তারা খোলাখুলিভাবে রাশিয়ার সমালোচনা করেনি তবে যুদ্ধ শেষ করার জন্য আলোচনার পক্ষে কথা বলেছে। কিন্তু যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর অনেক কিছু বদলেছে। যুদ্ধের অর্থনৈতিক প্রভাব এবং পশ্চিমের নেতৃত্বাধীন নিষেধাজ্ঞার প্রভাব বিশ্বজুড়ে দেখা যাচ্ছে। অনেক দেশে মুদ্রাস্ফীতি বেড়েছে, বিশ্বব্যাপী সরবরাহ শৃঙ্খল ব্যাহত হয়েছে এবং খাদ্য সংকটের আশঙ্কা রয়েছে।

রুশ ভাষ্যকাররা নিষেধাজ্ঞার প্রভাব এড়াতে ব্রিকস দেশগুলোর গুরুত্ব সম্পর্কে কথা বলছেন। প্রত্যুষ রাও বলেন, সম্মেলনে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে কিছু একটা আশা করা যেতে পারে আর এটি রাশিয়ার জন্য স্বস্তিদায়ক হবে। ‘তবে এটিকে রাশিয়ার কর্মকাণ্ডের সমর্থন হিসাবে ব্যাখ্যা করা উচিত নয়,’ বলেন তিনি।

ছবি

ধানমন্ডিতে ছাত্র ইউনিয়ন নেতা সাদাতের আত্মহত্যা

ছবি

জর্দার পোটলা নিয়ে হজে, ভোগালেন সব যাত্রীকে

ছবি

আস্থা ভোটের আগে পদত্যাগ মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্বব ঠাকরের

ছবি

সৌদি আরবে ঈদুল আজহা ৯ জুলাই, পবিত্র হজ পালন ৮ জুলাই

ছবি

মহামারি শেষ হয়নি: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

ছবি

ইউক্রেনকে আরো ১৩০ কোটি মার্কিন ডলার দিল যুক্তরাষ্ট্র

ছবি

ভারতের রাজস্থান রাজ্য : দরজি হত্যায় দুজন গ্রেপ্তার

ছবি

প্যারিস হামলা : বিভিন্ন মেয়াদে ২০ জনকে সাজা

ছবি

ইসরায়েলের পার্লামেন্ট ভাঙছে আজ সকালে

ছবি

ফিলিপাইনে নতুন প্রেসিডেন্টের শপথ আজ

ছবি

ইউক্রেনকে ১০০ কোটি পাউন্ড সহায়তার ঘোষণা যুক্তরাজ্যের

ছবি

লিবিয়ায় মরুভূমি থেকে ২০ লাশ উদ্ধার

ছবি

ন্যাটোর ‘সম্রাজ্যবাদী উচ্চাকাঙ্ক্ষার’ নিন্দা পুতিনের, ফিনল্যান্ড-সুইডেনকে হুঁশিয়ারি

ছবি

৯ জুলাই সৌদি আরবে ঈদুল আজহা

ছবি

বিশ্বে করোনায় একদিনে মৃত্যু ১৪৬৭, শনাক্ত ৭২২১৮২

ছবি

বিশ্বজুড়ে করোনায় শনাক্ত ছাড়াল ৫৫ কোটি

যুক্তরাষ্ট্রে লরীতে মৃত্যু বেড়ে ৫০

ছবি

মুম্বাইয়ে ভবন ধস, নিহত ১৯

ছবি

প্রায় এক যুগে সিরিয়ায় নিহত ৩ লাখের বেশি মানুষ

দুই সপ্তাহের জন্য জ্বালানি তেল বিক্রি বন্ধ করল শ্রীলঙ্কা

মোদির সমালোচনা করে আটক হলেন সাংবাদিক

ছবি

মাইকোলাইভে রুশ হামলা, ৪০ ইউক্রেনীয় সেনা নিহত

ছবি

‘বন্যায় বাংলাদেশের পরিস্থিতি ভয়াবহ’

যোগ্য পাত্র চাই তবে স্কুলশিক্ষক নয়, ভাইরাল বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের মিসৌরিতে ট্রাক-ট্রেনের সংঘর্ষ

মুম্বাইয়ে ধসে পড়ল চার তলা ভবন, একজনের মৃত্যু

রাশিয়া সন্ত্রাসী সংগঠন : জেলেনস্কি

জর্ডানের বন্দরে বিষাক্ত ক্লোরিন গ্যাসে নিহত ১৩

নেপালে নিষিদ্ধ হলো ফুচকা বিক্রি

ছবি

বিশ্বজুড়ে বেড়েছে মৃত্যু, সংক্রমণ আড়াই লাখ

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে লরি থেকে ৪৬ ‘অভিবাসীর’ মরদেহ উদ্ধার

ছবি

মায়ানমারে আগুনে পুড়লো ৬৪ কোটি ডলারের মাদক

ছবি

ফিলিপাইন উপকূলে নৌযানে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

ছবি

সেফ ড্রাইভ বার্তা নিয়ে সাইকেলে চেপে ভারতীয় যুবক বাংলাদেশে

বাজেপি ৩, কংগ্রেস ১ আসন জয়

ছবি

সৌদি আরবে হজে গিয়ে ভিক্ষা, গ্রেপ্তার বাংলাদেশি

tab

আন্তর্জাতিক

ব্রিকস সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আজ, বিশ্বব্যাপী দাপটের জন্য চাপ দেবে সদস্যরা

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন ২০২২

ধুমধাম কিংবা বিশাল প্রত্যাশা ছাড়াই ভার্চুয়ালি আয়োজন হচ্ছে এবারের ব্রিকস সম্মেলন। ভূ-রাজনৈতিক শৃঙ্খলায় বড় পরিবর্তনের মধ্যে ব্রিকস গ্রুপের দেশের নেতারা সম্মেলনে মিলিত হচ্ছেন আজ। এনিয়ে টানা তৃতীয় বছর এভাবে সম্মেলন আয়োজিত হচ্ছে।

এটি কোয়াড সম্মেলনের সম্পূর্ণ বিপরীত। এই জোটটি গত মাসে জাপানে সম্মেলনে মিলিত হয়। বিশ্ব মিডিয়ার তীক্ষ্ণ নজরের মধ্যে জোটের নেতারা ব্যক্তিগতভাবে বৈঠকে বসেন। পাঁচ দেশের নামের প্রথম অক্ষর নিয়ে নামকরণ করা গ্রুপটির সদস্য দেশগুলো হচ্ছে ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন এবং দক্ষিণ আফ্রিকা। ব্রিকস দেশগুলোর সম্মিলিত জনসংখ্যা ৩২৩ কোটি এবং তাদের সম্মিলিত জিডিপি ২৩ লাখ কোটি ডলারের বেশি।

ব্রিকসের কেন্দ্রস্থলে সব সময়ে থেকেছে অর্থনীতি তবে বৃহস্পতিবারের শীর্ষ সম্মেলনে ইউক্রেন যুদ্ধ বড় হয়ে উঠতে পারে। দেশগুলো হয়তো যুদ্ধের কথা স্পষ্টভাবে উল্লেখ নাও করতে পারে, তবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং, দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট সিরিল রামাফোসা এবং ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জইর বলসোনারো একে অপরের সঙ্গে কথা বলার সময় এটি নিয়ে আলোচনা হবে।

কিছু বিশ্লেষক বলছেন এর আংশিকভাবে কারণ ব্রিকস বছরের পর বছর সত্যিই প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি। ২০০৯ সালে যখন এটি যাত্রা শুরু করে, তখন আশা করা হয়েছিল, গ্রুপটি বিশ্ব অর্থনীতিকে নতুন আকার দেবে এবং উন্নয়নশীল বিশ্বকে সাহায্য করার জন্য একটি নতুন আর্থিক ব্যবস্থা তৈরি করবে। জোটের সাফল্যকে সবচেয়ে ভালোভাবে মধ্যপন্থী হিসাবে বর্ণনা করা যেতে পারে, তবে এর গুরুত্বকে অতিমাত্রায় বলা যাবে না।

ওয়াশিংটনের থিংক ট্যাংক উইলসন সেন্টারের উপপরিচালক মাইকেল কুজেলম্যান বলেন, ‘ব্রিকস অপ্রাসঙ্গিক বলে মনে হতে পারে কারণ এটি মার্কিন নেতৃত্বাধীন বিদ্যমান ব্যবস্থায় কার্যকর বৈশ্বিক অর্থনৈতিক বিকল্পের সূচনা করার দীর্ঘস্থায়ী প্রচেষ্টাকে সত্যিই এগিয়ে নেয়নি’।

কন্ট্রোল রিস্ক কনসালটেন্সির দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক পরিচালক প্রত্যুষ রাও বলেন, কোনও সন্দেহ নেই সম্মেলনে ইউক্রেন যুদ্ধ নিয়ে আলোচনা হবে। তিনি বলেন, ‘অনেক মানুষ এই সম্মেলনের দিকে নজর রাখবে, বিশেষ করে ইউক্রেন নিয়ে রাশিয়া ও চীনের মধ্যে গতিশীলতার দিকে’।

চীন রাশিয়ার প্রতি সমর্থনের বিষয়ে বেশি খোলামেলা হলেও, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা এবং ব্রাজিল যুদ্ধের বিষয়ে কূটনৈতিক দৃঢ়তার সঙ্গে চলার চেষ্টা করেছে। তারা খোলাখুলিভাবে রাশিয়ার সমালোচনা করেনি তবে যুদ্ধ শেষ করার জন্য আলোচনার পক্ষে কথা বলেছে। কিন্তু যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর অনেক কিছু বদলেছে। যুদ্ধের অর্থনৈতিক প্রভাব এবং পশ্চিমের নেতৃত্বাধীন নিষেধাজ্ঞার প্রভাব বিশ্বজুড়ে দেখা যাচ্ছে। অনেক দেশে মুদ্রাস্ফীতি বেড়েছে, বিশ্বব্যাপী সরবরাহ শৃঙ্খল ব্যাহত হয়েছে এবং খাদ্য সংকটের আশঙ্কা রয়েছে।

রুশ ভাষ্যকাররা নিষেধাজ্ঞার প্রভাব এড়াতে ব্রিকস দেশগুলোর গুরুত্ব সম্পর্কে কথা বলছেন। প্রত্যুষ রাও বলেন, সম্মেলনে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে কিছু একটা আশা করা যেতে পারে আর এটি রাশিয়ার জন্য স্বস্তিদায়ক হবে। ‘তবে এটিকে রাশিয়ার কর্মকাণ্ডের সমর্থন হিসাবে ব্যাখ্যা করা উচিত নয়,’ বলেন তিনি।

back to top