alt

আন্তর্জাতিক

বিহারে বিজেপির সঙ্গে নীতিশের মনোমালিন্য চরমে, বড় পরিবর্তনের আভাস

প্রতিনিধি, কলকাতা: : সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২

বিহারে এনডিএ জোটের দুই প্রধান শরিক জেডিইউ ও বিজেপির মনোমালিন্য চরমে পৌঁছেছে। মন্ত্রীত্ব বণ্টন সহ একাধিক ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের সঙ্গে শরিক দল বিজেপির বিবাদ এতটাই গভীর হয়েছে যে জোটেও সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

ইতিমধ্যেই দলের বিধায়ক ও সাংসদদের বৈঠক ডেকেছেন জেডিইউ প্রধান নীতীশ কুমার। পাটনায় গিয়ে পৌঁছেছেন কংগ্রেস বিধায়করাও।

সবাইকে চমকে দিয়ে আজ আচমকাই কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধীকে ফোন করেন নীতীশ। ফোন করে কংগ্রেস সভানেত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের সময় চান বিহারের মুখ্যমন্ত্রী।

নীতীশ কি ফের লালু প্রসাদ যাদবের আরজেডি-র হাত ধরবেন, সেই সম্ভবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন না রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

মুখ্যমন্ত্রী নীতীশের ঘনিষ্ঠ জেডি(ইউ) মন্ত্রী বিজয় চৌধুরী সোমবার বলেছেন, ‘মঙ্গলবার আমাদের দলের সাংসদ, বিধায়ক এবং নেতারা বসে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবেন। এর পর পরবর্তী পদক্ষেপ স্থির করা হবে।’

বর্তমানে জেডিইউ ও বিজেপি সহ বিহারের এনডিএ সরকারে ১২৬ জন বিধায়কের সমর্থন রয়েছে। আর আরজেডি-র নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোটে কংগ্রেস, বাম ও বাকি দলগুলির মোট বিধায়ক সংখ্যা ১২২। এত কম ব্যবধানে নীতীশের সঙ্গে বিজেপির সম্পর্কে পতন বিহারের রাজনীতিতে ফের বড়সড় পট পরিবর্তন ঘটাতে পারে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে নীতিশের কথোপকথনের বিষয়ে কংগ্রেস সূত্রে বলা হচ্ছে আগামী ৪৮ ঘণ্টা বিহারের রাজনৈতিক পরিস্থিতি তথা জোটের রাজনীতির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মহাজোটের সঙ্গে আবারও সরকার গড়ার সম্ভাবনা রয়েছে জেডিইউ-এর। বিজেপি ছাড়া সব দলই বিধায়ক দলের বৈঠক ডেকেছে বলে জানা গিয়েছে।

তবে জেডিইউ জানিয়েছে তারা নরেন্দ্র মোদীর কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অংশ হবে না কিন্তু দুই দল একসঙ্গে জোটে রয়েছে।

গত মাসে, মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানেও যোগ দেননি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে নীতি আয়োগের রোববারের বৈঠকেও অনুপস্থিত ছিলেন নীতিশ। এই নিয়ে ১৭ জুলাই থেকে চতুর্থ বার কেন্দ্রের কোনও বৈঠকে গরহাজির রইলেন তিনি।

২০১৭ সালে, বিরোধী মহাজোট ভেঙ্গে বেরিয়ে যায় জেডিইউ। এরপরেই বিজেপির এনডিএতে যোগ দেয় তারা। ২০১৫ সালের বিধানসভা নির্বাচনের পরে মহাজোট গঠিত হয়।

ছবি

ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল মাঠে সংঘর্ষ, নিহত বেড়ে ১৭৪

ছবি

ভারতের কানপুরে পৃথক দুর্ঘটনায় নিহত ৩১

ছবি

ইমরান খানের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা, বাড়ি ঘিরে রেখেছে সমর্থকেরা

ছবি

ব্রাজিলের প্রথম রাউন্ডের ভোটেই প্রেসিডেন্ট হয়ে যেতে পারেন লুলা

ছবি

ফ্লোরিডায় ইয়ানের আঘাত; ৬৬ জনের মৃত্যু

ছবি

ই-গেমে ৩৭.৭ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা সৌদি যুবরাজের

ছবি

লিমানে রুশ সেনাদের ঘিরে ফেলেছে ইউক্রেনীয় বাহিনী

ছবি

বেপরোয়া পুতিনকে যুক্তরাষ্ট্র ভয় পায় না: বাইডেন

ছবি

জাতিসংঘে মস্কোবিরোধী নিন্দা প্রস্তাবে ভোট দিল না চীন-ভারত

ছবি

রাশিয়ার ওপর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আরও নিষেধাজ্ঞা

ছবি

ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রায় ভূমিকম্পে ১ জনের মৃত্যু

ছবি

হারিকেন ইয়ানের আঘাতে যুক্তরাষ্ট্রে ৪৫ জনের মৃত্যু

ছবি

ইউক্রেনের ৪ অঞ্চল রাশিয়ার, ঘোষণা পুতিনের

ছবি

ইউক্রেনের জাপোরিঝিয়ায় রুশ ক্ষেপণান্ত্র হামলায় নিহত ২৩

ছবি

হিজাব বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল ইরান, দুই সপ্তাহে নিহত ৮৩

ছবি

হাতিয়ায় দুই জলদস্যু বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলি, নিহত ৩

ছবি

রাজধানীতে কিশোর খুন, গ্রেপ্তার ৪ প্রতিবেশী

ছবি

হারিকেন ইয়ানের আঘাতে ১২ জনের মৃত্যু

ছবি

ফ্লোরিডার ইতিহাসে সবচেয়ে মারাত্মক ঘূর্ণিঝড় হতে পারে ইয়ান: বাইডেন

ছবি

সৌদির ক্রাউন প্রিন্স সালমানকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ

মিয়ানমারে ৫ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্প, প্রভাব পড়েছে বাংলাদেশ-ভারতেও

ছবি

পুতিনের ঘোষণায় ইউক্রেনের ৪ অঞ্চল রাশিয়ার হচ্ছে আজ

ছবি

অবিবাহিত নারীদের গর্ভপাতের অধিকার দিলো ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট

ছবি

কেবিন ক্রুদের শালীন পোশাক পড়তে পিআইএ’র নির্দেশনা

ছবি

ফেইসবুককে অবশ্যই রোহিঙ্গাদের ক্ষতিপূরণ দিতে হবে বলে দাবি : অ্যামনেস্টি

ছবি

মার্কিন নাগরিকদের অবিলম্বে রাশিয়া ত্যাগের আহ্বান

ছবি

মৃত্যু দুঃখজনক, কিন্তু বিশৃঙ্খলা অগ্রহণযোগ্য : ইরানের প্রেসিডেন্ট

ছবি

ভারতের প্রতিরক্ষা বাহিনীর নতুন প্রধান অনিল চৌহান

ছবি

সু চির আরও ৩ বছরের কারাদণ্ড

ছবি

ইরাকের কুর্দি অঞ্চলে ইরানের হামলা, নিহত ১৩

ছবি

রোহিঙ্গাদের ক্ষতিপূরণ দিতে ফেইসবুক-এর প্রতি আহবান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি

ছবি

মেক্সিকোতে বন্দুক হামলায় ছয় পুলিশ কর্মকর্তাকে গুলি করে হত্যা

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় ইয়ানের তাণ্ডব, ২০ লাখ মানুষ বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন

ছবি

ইউরোপে গ্যাস সরবরাহের লাইনে ‘বিস্ফোরণ ঘটিয়ে’ ফাটানো হয়েছে

ছবি

ইউক্রেনের ৪ অঞ্চলে গণভোটে জয় দাবি রাশিয়ার

ছবি

সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সে মাঝ আকাশে বোমা আতঙ্ক

tab

আন্তর্জাতিক

বিহারে বিজেপির সঙ্গে নীতিশের মনোমালিন্য চরমে, বড় পরিবর্তনের আভাস

প্রতিনিধি, কলকাতা:

সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২

বিহারে এনডিএ জোটের দুই প্রধান শরিক জেডিইউ ও বিজেপির মনোমালিন্য চরমে পৌঁছেছে। মন্ত্রীত্ব বণ্টন সহ একাধিক ইস্যুতে মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের সঙ্গে শরিক দল বিজেপির বিবাদ এতটাই গভীর হয়েছে যে জোটেও সঙ্কট দেখা দিয়েছে।

ইতিমধ্যেই দলের বিধায়ক ও সাংসদদের বৈঠক ডেকেছেন জেডিইউ প্রধান নীতীশ কুমার। পাটনায় গিয়ে পৌঁছেছেন কংগ্রেস বিধায়করাও।

সবাইকে চমকে দিয়ে আজ আচমকাই কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধীকে ফোন করেন নীতীশ। ফোন করে কংগ্রেস সভানেত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের সময় চান বিহারের মুখ্যমন্ত্রী।

নীতীশ কি ফের লালু প্রসাদ যাদবের আরজেডি-র হাত ধরবেন, সেই সম্ভবনা উড়িয়ে দিচ্ছেন না রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

মুখ্যমন্ত্রী নীতীশের ঘনিষ্ঠ জেডি(ইউ) মন্ত্রী বিজয় চৌধুরী সোমবার বলেছেন, ‘মঙ্গলবার আমাদের দলের সাংসদ, বিধায়ক এবং নেতারা বসে পরিস্থিতি পর্যালোচনা করবেন। এর পর পরবর্তী পদক্ষেপ স্থির করা হবে।’

বর্তমানে জেডিইউ ও বিজেপি সহ বিহারের এনডিএ সরকারে ১২৬ জন বিধায়কের সমর্থন রয়েছে। আর আরজেডি-র নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোটে কংগ্রেস, বাম ও বাকি দলগুলির মোট বিধায়ক সংখ্যা ১২২। এত কম ব্যবধানে নীতীশের সঙ্গে বিজেপির সম্পর্কে পতন বিহারের রাজনীতিতে ফের বড়সড় পট পরিবর্তন ঘটাতে পারে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে নীতিশের কথোপকথনের বিষয়ে কংগ্রেস সূত্রে বলা হচ্ছে আগামী ৪৮ ঘণ্টা বিহারের রাজনৈতিক পরিস্থিতি তথা জোটের রাজনীতির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মহাজোটের সঙ্গে আবারও সরকার গড়ার সম্ভাবনা রয়েছে জেডিইউ-এর। বিজেপি ছাড়া সব দলই বিধায়ক দলের বৈঠক ডেকেছে বলে জানা গিয়েছে।

তবে জেডিইউ জানিয়েছে তারা নরেন্দ্র মোদীর কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অংশ হবে না কিন্তু দুই দল একসঙ্গে জোটে রয়েছে।

গত মাসে, মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মুর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানেও যোগ দেননি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে নীতি আয়োগের রোববারের বৈঠকেও অনুপস্থিত ছিলেন নীতিশ। এই নিয়ে ১৭ জুলাই থেকে চতুর্থ বার কেন্দ্রের কোনও বৈঠকে গরহাজির রইলেন তিনি।

২০১৭ সালে, বিরোধী মহাজোট ভেঙ্গে বেরিয়ে যায় জেডিইউ। এরপরেই বিজেপির এনডিএতে যোগ দেয় তারা। ২০১৫ সালের বিধানসভা নির্বাচনের পরে মহাজোট গঠিত হয়।

back to top