alt

আন্তর্জাতিক

ইরানে পুলিশ হেফাজতে তরুণীর মৃত্যু

দেশজুড়ে বিক্ষোভ : অনেকে ঘোমটা ফেলে পুড়িয়ে দিয়েছে হিজাব

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক : শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

ইরানে মহিলাদের হিজাব পরা বাধ্যতামূলক। তবে আমিনির মৃত্যুর পর সেই কঠোর বিধি ভেঙেছেন হাজার হাজার নারী

ইরানে পুলিশি হেফাজতে মাহসা আমিনি নামে এক তরুণীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ চলছে। বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত আটজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আমিনির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে দেশটির প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি ‘বিশৃঙ্খলাকারীদের’ বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন।

মাহসা আমিনির মৃত্যুকে ঘিরে তোলপাড় শুরু হয় তেহরানসহ দেশটির বিভিন্ন শহরে। প্রথমে ইরানের কুর্দি-জনবহুল উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে শুরু হয় বিক্ষোভ। দেশটির অন্তত ৫০টি শহরে এখনো বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। বিক্ষোভে অংশ নিয়ে কেউ কেউ তাদের ঘোমটা ফেলে দিয়েছে। পুড়িয়ে দিচ্ছে হিজাব। কেউ কেউ প্রকাশ্যে তাদের চুল কেটে ফেলেছে।

ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি মাহসা আমিনির মৃত্যুর প্রতিবাদে আন্দোলনকারীদের লক্ষ্য করে বলেন, ‘বিশৃঙ্খল কর্মকান্ড’ গ্রহণযোগ্য নয়। নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের এক ফাঁকে সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি আরও বলেন, তিনি ২২ বছর বয়সী মাহসা আমিনির মৃত্যুর মামলাটি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

রাইসি আরও বলেছেন, ‘ইরানে মত প্রকাশের স্বাধীনতা আছে ... তবে বিশৃঙ্খল কর্মকান্ড গ্রহণযোগ্য নয়’। ইরানে জনসম্মুখে নারীদের বাধ্যতামূলক হিজাব পরাসহ কঠোর পর্দা পালনের নিয়ম রয়েছে। এই বিধিগুলো তদারক করার জন্য রয়েছে দেশটির ‘নৈতিকতাবিষয়ক’ পুলিশ।

নৈতিকতাবিষয়ক পুলিশের একটি দল গত সপ্তাহে মাহসা আমিনিকে তেহরান থেকে আটক করে। আমিনি তার পরিবারের সঙ্গে তেহরানে ঘুরতে গিয়েছিলেন। আটকের পর মাহসা থানায় অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় মাহসা আমিনির।

ইরানের শক্তিশালী রেভল্যুশনারি গার্ড দেশব্যাপী বিক্ষোভ ছড়ায় ‘যারা মিথ্যা সংবাদ ও গুজব ছড়ায়’ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বিচার বিভাগের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। এক বিবৃতিতে আমিনির পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছে সংগঠনটি।

২০১৯ সালে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছিল ইরানে। এরপর এবারই এতো বড় বিক্ষোভের সম্মুখীন হচ্ছে প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির সরকার।

ছবি

গোটাবায়ার বিরুদ্ধে মামলার অনুমতি দিল শ্রীলঙ্কার সর্বোচ্চ আদালত

ছবি

শান্তির নোবেল পেল বেলারুশ, ইউক্রেন ও রাশিয়ার অধিকার কর্মীরা

ছবি

মায়ানমারের ‘অস্ত্র কারবারিদের’ ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসে ছুরি হামলায় নিহত ২, আহত ৬

ছবি

শিগগিরই শুরু হবে বৈশ্বিক মন্দা: আইএমএফের সতর্কবার্তা

ছবি

পুতিনের পারমাণবিক হুমকি বিশ্বের জন্য সবচেয়ে বড় ঝুঁকি: বাইডেন

ছবি

ইরানের বিক্ষোভরত নারীদের সমর্থন প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার

ছবি

জাপানি নির্মাতাকে ১০ বছরের জেল দিল মায়ানমার

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে অপহৃত ৮ মাসের শিশু-সহ ৪ ভারতীয়র লাশ উদ্ধার

ছবি

সাহিত্যে নোবেল পেলেন ফরাসি লেখক আনি এর্নো

ছবি

গাম্বিয়ায় ৬৬ শিশুর মৃত্যু: ভারতের তৈরি সিরাপ নিয়ে ডব্লিউএইচও’র সতর্কবার্তা

ছবি

থাইল্যান্ডের ডে-কেয়ার সেন্টারে বন্দুক হামলা, নিহত বেড়ে ৩৮

ছবি

মেক্মিকোতে টাউন হলে বন্দুকধারীদের গুলি, মেয়রসহ নিহত ১৮

ছবি

প্রতিমা বিসর্জনের দুর্ঘটনায় আট জনের মৃত্যু, বহু নিখোঁজ

ছবি

গ্রিসের উপকূলে নৌযান ডুবে ১৫ অভিবাসন প্রত্যাশীর মৃত্যু

ছবি

পাল্টা ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে জবাব দিলো যুক্তরাষ্ট্র ও দ. কোরিয়া

ছবি

ভারতে তুষার ধসে ১০ পর্বতারোহীর মৃত্যু, নিখোঁজ ২০

ছবি

রসায়নে নোবেল পুরস্কার পেলেন তিন বিজ্ঞানী

ছবি

হিজাব খুলে বিক্ষোভে ইরানের স্কুলছাত্রীরা

ছবি

পাকিস্তানের হাত দিয়ে মায়ানমারকে অস্ত্র দিচ্ছে চীন

ছবি

নীলফামারীতে সড়ক দুঘর্টনায় নিহত ২

ছবি

ভারতে বিয়েবাড়িতে যাওয়ার সময় বাস খাদে, নিহত ২৫

ছবি

আ.লীগ পরিকল্পিতভাবে গণতন্ত্র ধ্বংস করছে : ফখরুল

ছবি

ব্রাজিলের কংগ্রেস নির্বাচনে ডানপন্থিদের জয়

ছবি

ইরানকে হুঁশিয়ারি দিলেন বাইডেন

ছবি

জাপানের উপর দিয়ে গেল উ. কোরিয়ার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র

ছবি

ন্যাটোতে যোগ দিতে ইউক্রেনকে ৯ দেশের সমর্থন

ছবি

ইরানে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

ছবি

রাজনৈতিক বিবাদে দুর্গাপূজা, দুর্গার পায়ের নীচে অসুর রুপী মহাত্মা গান্ধী

ছবি

ইন্দোনেশিয়ার স্টেডিয়ামে নিহতদের মধ্যে ৩২ শিশু

ছবি

ভারতের আকাশসীমায় ইরানি উড়োজাহাজে বোমাতঙ্ক

ছবি

চিকিৎসায় নোবেল: মানব বিবর্তনের গবেষণায় পেলেন সুইডেনের সান্তে প্যাবো

ছবি

চিকিৎসায় নোবেল ঘোষণা আজ

ছবি

কেবিন ক্রুদের যথাযথভাবে পোশাক পরার নির্দেশনা প্রত্যাহার করল পাকিস্তানের বিমান সংস্থা

ছবি

এখনই তাইওয়ানে হামলা করবে না চীন: মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী

ছবি

উত্তরপ্রদেশে দুর্গাপূজা মণ্ডপে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, হতাহত ৬৩

tab

আন্তর্জাতিক

ইরানে পুলিশ হেফাজতে তরুণীর মৃত্যু

দেশজুড়ে বিক্ষোভ : অনেকে ঘোমটা ফেলে পুড়িয়ে দিয়েছে হিজাব

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক

ইরানে মহিলাদের হিজাব পরা বাধ্যতামূলক। তবে আমিনির মৃত্যুর পর সেই কঠোর বিধি ভেঙেছেন হাজার হাজার নারী

শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২

ইরানে পুলিশি হেফাজতে মাহসা আমিনি নামে এক তরুণীর মৃত্যুকে কেন্দ্র করে বিক্ষোভ চলছে। বিক্ষোভ চলাকালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে এখন পর্যন্ত আটজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আমিনির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে দেশটির প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি ‘বিশৃঙ্খলাকারীদের’ বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন।

মাহসা আমিনির মৃত্যুকে ঘিরে তোলপাড় শুরু হয় তেহরানসহ দেশটির বিভিন্ন শহরে। প্রথমে ইরানের কুর্দি-জনবহুল উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে শুরু হয় বিক্ষোভ। দেশটির অন্তত ৫০টি শহরে এখনো বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। বিক্ষোভে অংশ নিয়ে কেউ কেউ তাদের ঘোমটা ফেলে দিয়েছে। পুড়িয়ে দিচ্ছে হিজাব। কেউ কেউ প্রকাশ্যে তাদের চুল কেটে ফেলেছে।

ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি মাহসা আমিনির মৃত্যুর প্রতিবাদে আন্দোলনকারীদের লক্ষ্য করে বলেন, ‘বিশৃঙ্খল কর্মকান্ড’ গ্রহণযোগ্য নয়। নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের এক ফাঁকে সংবাদ সম্মেলনে প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি আরও বলেন, তিনি ২২ বছর বয়সী মাহসা আমিনির মৃত্যুর মামলাটি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

রাইসি আরও বলেছেন, ‘ইরানে মত প্রকাশের স্বাধীনতা আছে ... তবে বিশৃঙ্খল কর্মকান্ড গ্রহণযোগ্য নয়’। ইরানে জনসম্মুখে নারীদের বাধ্যতামূলক হিজাব পরাসহ কঠোর পর্দা পালনের নিয়ম রয়েছে। এই বিধিগুলো তদারক করার জন্য রয়েছে দেশটির ‘নৈতিকতাবিষয়ক’ পুলিশ।

নৈতিকতাবিষয়ক পুলিশের একটি দল গত সপ্তাহে মাহসা আমিনিকে তেহরান থেকে আটক করে। আমিনি তার পরিবারের সঙ্গে তেহরানে ঘুরতে গিয়েছিলেন। আটকের পর মাহসা থানায় অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় মাহসা আমিনির।

ইরানের শক্তিশালী রেভল্যুশনারি গার্ড দেশব্যাপী বিক্ষোভ ছড়ায় ‘যারা মিথ্যা সংবাদ ও গুজব ছড়ায়’ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বিচার বিভাগের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। এক বিবৃতিতে আমিনির পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেছে সংগঠনটি।

২০১৯ সালে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছিল ইরানে। এরপর এবারই এতো বড় বিক্ষোভের সম্মুখীন হচ্ছে প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির সরকার।

back to top