alt

আন্তর্জাতিক

অবিবাহিত নারীদের গর্ভপাতের অধিকার দিলো ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক: : বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

ফাইল ছবি

ভারতের সুপ্রিম কোর্ট বৃহস্পতিবার এক রায়ে বলেছে, গর্ভপাতের অধিকার দেশের সব নারীর জন্যই প্রযোজ্য এবং তিনি বিবাহিত নাকি বিবাহিত নন তা সেখানে কখনোই বিচার্য হতে পারে না।

শুধু অবিবাহিত হওয়ার জন্য কোনো নারীকে গর্ভপাতের অধিকার থেকে বঞ্চিত করাটা অসাংবিধানিক বলেও মন্তব্য করেছে শীর্ষ আদালত।

এই গুরুত্বপূর্ণ রায় ঘোষণার সময় বিচারপিত ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়, এ এস বোপান্না ও জে বি পারডিওয়ালার বেঞ্চ ‘ম্যারিটাল রেপ’ বা বৈবাহিক সম্পর্কের মধ্যে ঘটা ধর্ষণকেও এক রকম ধর্ষণ বলে একরকম স্বীকৃতি দিয়েছে - যদিও তা শুধুমাত্র গর্ভপাতের অধিকারের পটভূমিতেই।

সুপ্রিম কোর্ট এ প্রসঙ্গে বলেছে, মেডিক্যাল টার্মিনেশন অব প্রেগনেন্সি অ্যাক্ট বা গর্ভপাত আইনে ধর্ষণের যে সংজ্ঞা দেয়া হয়েছে তাতে ‘ম্যারিটাল রেপ’কেও অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। এই পর্যবেক্ষণ ‘ম্যারিটাল রেপ’ নিয়ে ভবিষ্যতে আরো গুরুত্বপূর্ণ রায়ের পথ প্রশস্ত করবে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। এটি ভারতে বহুল আলোচিত ও বিতর্কিত একটি ইস্যু, যার পক্ষে-বিপক্ষে বহু যুক্তি-তর্ক আছে।

সুপ্রিম কোর্ট রায়ে আরো বলেছে, একজন ‘সিঙ্গল’ বা ‘অবিবাহিত’ নারী যদি তার অবাঞ্ছিত প্রেগন্যান্সি গর্ভপাতের মাধ্যেমে শেষ করে দিতে চান তাহলে সেটা তার মৌলিক অধিকার। তাকে যদি ওই অবাঞ্ছিত প্রেগন্যান্সি টেনে নিয়ে যেতে বাধ্য করা হয়, তাহলে নিজের জীবন কোন খাতে বইবে সেটা স্থির করার অধিকার রাষ্ট্র তার কাছ থেকে কেড়ে নিচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন বিচারপতিরা।

আজকের এই গুরুত্বপর্ণ রায়টি এসেছে ২৫-বছর বয়সী এক অবিবাহিত নারীর আবেদনের পটভূমিতে। তার গর্ভপাতের অধিকার খারিজ করে দিয়ে দিল্লি হাইকোর্ট সম্প্রতি যে রায় দিয়েছিল তার বিরুদ্ধেই তিনি সুপ্রিম কোর্টের শরণাপন্ন হন।

দিল্লি হাইকোর্টের যুক্তি ছিল, ওই নারী অবিবাহিত বলে গর্ভপাত আইনের সুবিধা পেতে পারেন না - এবং যে শারীরিক সম্পর্কের কারণে তিনি গর্ভবতী হয়েছিলেন সেটাও ছিল পারস্পরিক সম্মতির (‘কনসেনসুয়াল’) ভিত্তিতেই।

কিন্তু তিনি সুপ্রিম কোর্টকে জানান, তার সঙ্গী পরে তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে।

তাছাড়া তিনি একটি দরিদ্র কৃষক পরিবারের পাঁচ ছেলে-মেয়ের মধ্যে সবচেয়ে বড় এবং পরিবারের ভরণপোষণের দায়িত্বও তার কাঁধেই - ফলে একটি পিতৃহীন সন্তানকে প্রতিপালন করার ক্ষমতাই তার নেই।

এরপর গত ২১ জুলাই কোর্ট নির্দেশ দেয়, মেডিক্যাল বোর্ড যদি বলে গর্ভপাত করালে ওই নারীর কোনো শারীরিক ক্ষতি হবে না তাহলে তিনি তার গর্ভের ভ্রূণটি শেষ করে দিতে পারবেন।

এরপর কোর্ট বলে, ২০২১ সালে দেশে যে গর্ভপাত আইন সংশোধন করা হয়েছে তাতে ‘হাজব্যান্ড’ বা স্বামীর বদলে ‘পার্টনার’ বা সঙ্গী শব্দটি ব্যবহার করা হয়েছে।

ফলে বিচারপতিদের ব্যাখ্যা ছিল, গর্ভপাতের অধিকার শুধু বৈবাহিক সম্পর্কে আবদ্ধ নারীদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকুক এটা দেশের পার্লামেন্টও চায় না।

আজকের রায় সেই অধিকার কার্যত দেশের বিবাহিত বা অবিবাহিত-সব নারীর জন্যই সম্প্রসারিত করল।

সূত্র: বিবিসি

ছবি

দক্ষিণ কোরিয়ার আকাশসীমায় চীন-রাশিয়ার যুদ্ধবিমান

ছবি

অশ্লীল ভিডিও কলে ফাঁসিয়ে ব্ল্যাকমেইল করা হচ্ছে যেভাবে

ছবি

সর্বজনীন ঐক্যের ভাবনার প্রসার ঘটাবে ভারতের জি২০ প্রেসিডেন্সি

ছবি

চীনের দুই শহরে কোভিডবিধি শিথিল

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে ওয়ালমার্টের বিরুদ্ধে ৫ কোটি ডলারের ক্ষতিপূরণ মামলা

ছবি

আফগানিস্তানে মাদ্রাসায় বোমা হামলায় নিহত ১৭

ছবি

পাকিস্তানে কয়লাখনিতে বিস্ফোরণ, নিহত ৯

ছবি

লকডাউনবিরোধী বিক্ষোভের পর চীনে বিধি-নিষেধ শিথিল

ছবি

ভারতে মোদি-অমিত শাহর গুজরাটে বিধানসভা নির্বাচন আজ

ছবি

চীনের সাবেক নেতা জিয়াং জেমিন আর নেই

ছবি

অস্ট্রেলিয়ায় গোপনে পাঁচ মন্ত্রী দায়িত্ব নেন মরিসন

ছবি

পাকিস্তানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় পুলিশসহ নিহত ৩

ছবি

চীনের গুয়াংজু শহরে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

ছবি

চীনে বিক্ষোভকারীদের হাতে কেন ‘সাদা কাগজ’

ছবি

ভারতে কারখানায় আগুন, শিশুসহ নিহত ৬

ছবি

৪০০ পারমাণবিক ওয়ারহেডের মালিক চীন

ছবি

বিশ্বে ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৮৪৮ জনের মৃত্যু

ছবি

নিজেদের তিয়ানগং মহাকাশ স্টেশনে পৌঁছালেন চীনের ৩ নভোচারী

পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি বাহিনীর হাতে ২ ফিলিস্তিনি নিহত

ছবি

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ন্যাসাল ভ্যাকসিনের অনুমোদন দিলো ভারত

ছবি

শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ দমন থেকে বিরত থাকতে চীনকে আহ্বান জাতিসংঘের

ছবি

দিল্লিতে খোলা তলোয়ার নিয়ে পুলিশের ভ্যানে হামলা

ছবি

শীতকে যুদ্ধের অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করছে রাশিয়া : ন্যাটো

ছবি

ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে বিশ্বকে আহ্বান খামেনির ভাগনির

ছবি

চীন-যুক্তরাজ্য সম্পর্কের সোনালি যুগ শেষ: ঋষি

ছবি

বিশ্বে করোনায় আরও ৫০৮ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২ লাখ ৭২ হাজার

ছবি

মশার কামড়ে ৪ সপ্তাহ কোমায়, করতে হয়েছে ৩০টি অপারেশন

ছবি

বিশ্বের সবচেয়ে বড় আগ্নেয়গিরির উদগীরণ শুরু, হাওয়াইতে সতর্কতা

ভারতে মুসলিম শিক্ষার্থীকে সন্ত্রাসী বলায় শিক্ষক বরখাস্ত

ছবি

এবার বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের জেরে স্বামীকে হত্যার পর ২২ টুকরো

ছবি

পারমাণবিক অস্ত্রে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিধর হতে চায় উত্তর কোরিয়া

ছবি

সার্ব ও আলবেনিয়া সরকারের মধ্যে ফের উত্তেজনা কেন?

ছবি

খামেনির ভাগ্নিকে গ্রেপ্তার

ছবি

চীনে বিক্ষোভ বাড়ছেই, সাংহাইতে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ

ছবি

বিশ্বজুড়ে করোনায় কমেছে শনাক্ত-মৃত্যু

ছবি

বিদ্যুৎকেন্দ্রে হামলা গণহত্যার শামিল: ইউক্রেন

tab

আন্তর্জাতিক

অবিবাহিত নারীদের গর্ভপাতের অধিকার দিলো ভারতীয় সুপ্রিম কোর্ট

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক:

ফাইল ছবি

বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২

ভারতের সুপ্রিম কোর্ট বৃহস্পতিবার এক রায়ে বলেছে, গর্ভপাতের অধিকার দেশের সব নারীর জন্যই প্রযোজ্য এবং তিনি বিবাহিত নাকি বিবাহিত নন তা সেখানে কখনোই বিচার্য হতে পারে না।

শুধু অবিবাহিত হওয়ার জন্য কোনো নারীকে গর্ভপাতের অধিকার থেকে বঞ্চিত করাটা অসাংবিধানিক বলেও মন্তব্য করেছে শীর্ষ আদালত।

এই গুরুত্বপূর্ণ রায় ঘোষণার সময় বিচারপিত ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়, এ এস বোপান্না ও জে বি পারডিওয়ালার বেঞ্চ ‘ম্যারিটাল রেপ’ বা বৈবাহিক সম্পর্কের মধ্যে ঘটা ধর্ষণকেও এক রকম ধর্ষণ বলে একরকম স্বীকৃতি দিয়েছে - যদিও তা শুধুমাত্র গর্ভপাতের অধিকারের পটভূমিতেই।

সুপ্রিম কোর্ট এ প্রসঙ্গে বলেছে, মেডিক্যাল টার্মিনেশন অব প্রেগনেন্সি অ্যাক্ট বা গর্ভপাত আইনে ধর্ষণের যে সংজ্ঞা দেয়া হয়েছে তাতে ‘ম্যারিটাল রেপ’কেও অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। এই পর্যবেক্ষণ ‘ম্যারিটাল রেপ’ নিয়ে ভবিষ্যতে আরো গুরুত্বপূর্ণ রায়ের পথ প্রশস্ত করবে বলেও ধারণা করা হচ্ছে। এটি ভারতে বহুল আলোচিত ও বিতর্কিত একটি ইস্যু, যার পক্ষে-বিপক্ষে বহু যুক্তি-তর্ক আছে।

সুপ্রিম কোর্ট রায়ে আরো বলেছে, একজন ‘সিঙ্গল’ বা ‘অবিবাহিত’ নারী যদি তার অবাঞ্ছিত প্রেগন্যান্সি গর্ভপাতের মাধ্যেমে শেষ করে দিতে চান তাহলে সেটা তার মৌলিক অধিকার। তাকে যদি ওই অবাঞ্ছিত প্রেগন্যান্সি টেনে নিয়ে যেতে বাধ্য করা হয়, তাহলে নিজের জীবন কোন খাতে বইবে সেটা স্থির করার অধিকার রাষ্ট্র তার কাছ থেকে কেড়ে নিচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন বিচারপতিরা।

আজকের এই গুরুত্বপর্ণ রায়টি এসেছে ২৫-বছর বয়সী এক অবিবাহিত নারীর আবেদনের পটভূমিতে। তার গর্ভপাতের অধিকার খারিজ করে দিয়ে দিল্লি হাইকোর্ট সম্প্রতি যে রায় দিয়েছিল তার বিরুদ্ধেই তিনি সুপ্রিম কোর্টের শরণাপন্ন হন।

দিল্লি হাইকোর্টের যুক্তি ছিল, ওই নারী অবিবাহিত বলে গর্ভপাত আইনের সুবিধা পেতে পারেন না - এবং যে শারীরিক সম্পর্কের কারণে তিনি গর্ভবতী হয়েছিলেন সেটাও ছিল পারস্পরিক সম্মতির (‘কনসেনসুয়াল’) ভিত্তিতেই।

কিন্তু তিনি সুপ্রিম কোর্টকে জানান, তার সঙ্গী পরে তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করে।

তাছাড়া তিনি একটি দরিদ্র কৃষক পরিবারের পাঁচ ছেলে-মেয়ের মধ্যে সবচেয়ে বড় এবং পরিবারের ভরণপোষণের দায়িত্বও তার কাঁধেই - ফলে একটি পিতৃহীন সন্তানকে প্রতিপালন করার ক্ষমতাই তার নেই।

এরপর গত ২১ জুলাই কোর্ট নির্দেশ দেয়, মেডিক্যাল বোর্ড যদি বলে গর্ভপাত করালে ওই নারীর কোনো শারীরিক ক্ষতি হবে না তাহলে তিনি তার গর্ভের ভ্রূণটি শেষ করে দিতে পারবেন।

এরপর কোর্ট বলে, ২০২১ সালে দেশে যে গর্ভপাত আইন সংশোধন করা হয়েছে তাতে ‘হাজব্যান্ড’ বা স্বামীর বদলে ‘পার্টনার’ বা সঙ্গী শব্দটি ব্যবহার করা হয়েছে।

ফলে বিচারপতিদের ব্যাখ্যা ছিল, গর্ভপাতের অধিকার শুধু বৈবাহিক সম্পর্কে আবদ্ধ নারীদের মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকুক এটা দেশের পার্লামেন্টও চায় না।

আজকের রায় সেই অধিকার কার্যত দেশের বিবাহিত বা অবিবাহিত-সব নারীর জন্যই সম্প্রসারিত করল।

সূত্র: বিবিসি

back to top