alt

আন্তর্জাতিক

মায়ানমারের ‘অস্ত্র কারবারিদের’ ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২

অস্ত্র সংগ্রহের মাধ্যমে মায়ানমারের জান্তাকে সহায়তা করার অভিযোগে দেশটির তিন নাগরিক ও এক কোম্পানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

বৃহস্পতিবার মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয় এ নিষেধাজ্ঞার কথা জানায়, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

মায়ানমারের সামরিক বাহিনী গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল ও নোবেলজয়ী অং সান সু চিসহ গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিতদের আটক করে; এরপর জান্তাবিরোধী বিক্ষোভেও নির্মম দমনপীড়ন চালায়।

দেশটির জান্তাবিরোধীদের অনেকেই এখন সশস্ত্র সংগ্রামে নেমেছেন। আগে থেকে লড়াই চালিয়ে আসা জাতিগত বিদ্রোহীরাও তাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় সংঘাতের তীব্রতা বেড়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার দেওয়া বিবৃতিতে বলেছে, জান্তার হয়ে অস্ত্র কেনাকাটায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা মায়ানমারের ব্যবসায়ী অং মোয়ে মিন্ট, তার প্রতিষ্ঠিত ডাইনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানি লিমিটেড ও এর দুই পরিচালকের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিচ্ছে তারা।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাজ্য মায়ানমারের সামরিক বাহিনীর এক কর্মকর্তার ছেলে মিন্টের ওপর আগে থেকেই নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে।

মিন্ট মায়ানমারের সামরিক বাহিনীর জন্য ‘নানান অস্ত্র, সরঞ্জাম, ক্ষেপণাস্ত্র ও বিমানের’ পাশাপাশি বিমানের যন্ত্রাংশ সংগ্রহের কাজে তার কোম্পানিকে ব্যবহার করছেন, অভিযোগ মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয়ের।

নিষেধাজ্ঞা আরোপের ফলে মায়ানমারের এই তিন নাগরিক ও কোম্পানিটির যুক্তরাষ্ট্রে কোনো সম্পদ থাকলে তা জব্দ হবে এবং মোটাদাগে মার্কিন নাগরিকরা বা কোনো প্রতিষ্ঠান এদের সঙ্গে কোনো লেনদেন করতে পারবে না।

“আজ আমরা বার্মার সামরিক শাসকদের জন্য অস্ত্র সংগ্রহে নিযুক্ত সহায়তাকারী নেটওয়ার্ক ও যুদ্ধের মাধ্যমে লাভবান হওয়াদের টার্গেট করেছি। বার্মার জনগণের ওপর নির্মম সহিংস কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাওয়া বার্মিজ সামরিক বাহিনীর সক্ষমতা কমাতে আমাদের পদক্ষেপ অব্যাহত থাকবে,” মায়ানমারের আগের নাম ব্যবহার করে দেওয়া বিবৃতিতে বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয়ের আন্ডার সেক্রেটারি ব্রায়ান নেলসন।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মানবাধিকার লংঘন বিশেষ করে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে জান্তাবিরোধী শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের বিচারবহির্ভূত হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে মায়ানমারের সাবেক পুলিশপ্রধান ও স্বরাষ্ট্র বিষয়ক উপমন্ত্রী থান হ্লাইংয়ের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বলেও জানিয়েছে মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয়।

রয়টার্স এসব নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে ওয়াশিংটনের মায়ানমার দূতাবাসের মন্তব্য চাইলেও তাৎক্ষণিকভাবে তারা সাড়া দেয়নি।

গত বছরের অভ্যুত্থানের পর থেকে পশ্চিমা দেশগুলো মায়ানমারের সেনাবাহিনী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ওপর একের পর এক নিষেধাজ্ঞা দিলেও মার্কিন এক দূতের ভাষ্যমতে চলমান ‘গৃহযুদ্ধে’ জান্তাকে পুরোপুরি কাবু ও বিচ্ছিন্ন করা যায়নি।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জান্তা ও এর সহযোগীদের ওপর যত নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে, তাতে মায়ানমারের গ্যাস রপ্তানিকে টার্গেট করা হয়নি; এই গ্যাস রপ্তানিই মায়ানমারের সামরিক বাহিনীর সবচেয়ে বড় আয়ের খাত।

জান্তাবিরোধী শক্তি এবং মানবাধিকার সংগঠনগুলো মায়ানমারের এই গ্যাস রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিতে পশ্চিমাদের ওপর চাপ দিয়ে আসছে।

এমন পদক্ষেপই মায়ানমারের সামরিক বাহিনীর আচরণের ওপর প্রভাব ফেলতে পারে, বলছে তারা।

“মায়ানমার নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এখনকার নিষেধাজ্ঞা কাজ করছে না। এটা অনেকটা ওষুধের হাফ ডোজ দিয়ে ফুল ডোজ কাজ করবে এমন প্রত্যাশার মতো,” বলেছেন হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এশিয়া অ্যাডভোকেসি পরিচালক জন সিফটন।

ছবি

করোনায় আরও ৪৯৯ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩ লাখ ১১ হাজার

ছবি

বিপর্যয়ের শঙ্কায় ইউরোপের বৃহত্তম পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রটি

ছবি

গুজরাটে সহকর্মীর গুলিতে ২ আধাসামরিক জওয়ানের মৃত্যু

ছবি

দলীয়প্রধানের পদ থেকে তাইওয়ান প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ

ছবি

ইতালিতে ভয়াবহ ভূমিধস, নিখোঁজ ১২

ছবি

খেরসনে রুশ হামলায় ৩২ জন নিহত

আফগানিস্তানে নারীর প্রতি আচরণ মানবতাবিরোধী অপরাধের শামিল

ছবি

ব্রাজিলে স্কুলে বন্দুকধারীর গুলি, নিহত ৩

ছবি

মসজিদে নববিতে সন্তান প্রসব করলেন নারী

ছবি

করোনার মতো আরেক ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা

ছবি

করোনায় ৮০১ জনের মৃত্যু, শনাক্ত পৌনে ৪ লাখ

ছবি

রাহুলের ‘ভারত জোড়ো’ যাত্রায় পা মেলালেন বোন প্রিয়াঙ্কা, ঘটবে কী কংগ্রেসের পুনরুজ্জীবন?

ছবি

কোভিডে চীনে একদিনে ৩২ হাজারেরও বেশি রোগী শনাক্ত

ছবি

যুক্তরাজ্যে সরকারি ভবনে চীনা ক্যামেরায় নিষেধাজ্ঞা

ছবি

রাশিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে গোলাগুলি, নিহত ৪

ছবি

বিদ্যুৎ সংযোগ ফেরাতে লড়াই করছে ইউক্রেন

ছবি

ইউরোপে তীব্র গরমে অতিরিক্ত ২০ হাজার মানুষের মৃত্যু

ছবি

‘দক্ষিণ কোরিয়া যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্বস্ত কুকুর’

ছবি

আফগানিস্তানে প্রকাশ্যে চাবুক মারা হলো অভিযুক্তদের

ছবি

পাকিস্তানের নতুন সেনাপ্রধান জেনারেল আসিম মুনীর

ছবি

মালয়েশিয়ার নতুন প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম

ছবি

প্রয়োজন মেটাতে ঘরের জিনিসপত্র বিক্রি করছেন আফগানরা

ছবি

সাংবিধানিক রাজার ভালো উদাহরণ ছিলেন, রানি এলিজাবেথ : মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির

ছবি

চীনের কাছে ‘আত্মসমর্পণের শর্তে’ ঘুষ নিয়েছেন তাইওয়ানের কর্নেল!

ছবি

ইন্দোনেশিয়ায় ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ২৬৮, নিখোঁজ আরও দেড়শ

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে ওয়ালমার্ট স্টোরে গুলি, কয়েকজন নিহত

ছবি

‘আর কর্মী ছাঁটাই নয়, এবার নিয়োগ দেবে টুইটার’

ছবি

বহু বছর পর দেশে ফিরেছে ভারতে পাচার হওয়া ২৪ বাংলাদেশী নারী ও পুরুষ

শিল্প খাতে আরও ৫ শতাংশ গ্যাসের জোগান বৃদ্ধির আহ্বান ব্যবসায়ীদের

ছবি

আর্জেন্টিনার হারের ৫ কারণ

ছবি

মেক্সিকোতে ৬.২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রে গাঁজার খামার থেকে ৪ চীনা নাগরিকের মরদেহ উদ্ধার

ছবি

বিশ্বে করোনায় একদিনে ৯৯৪ জনের মৃত্যু

ছবি

নিজ দলের এমপিদের বিদ্রোহের মুখে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী

ছবি

আসাম-মেঘালয় সীমান্তে গোলাগুলি, নিহত ৬

ছবি

জীবননাশক শীতের মুখোমুখি বিদ্যুৎহীন ইউক্রেনীয়রা: ডব্লিউএইচও

tab

আন্তর্জাতিক

মায়ানমারের ‘অস্ত্র কারবারিদের’ ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২

অস্ত্র সংগ্রহের মাধ্যমে মায়ানমারের জান্তাকে সহায়তা করার অভিযোগে দেশটির তিন নাগরিক ও এক কোম্পানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

বৃহস্পতিবার মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয় এ নিষেধাজ্ঞার কথা জানায়, খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

মায়ানমারের সামরিক বাহিনী গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখল ও নোবেলজয়ী অং সান সু চিসহ গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিতদের আটক করে; এরপর জান্তাবিরোধী বিক্ষোভেও নির্মম দমনপীড়ন চালায়।

দেশটির জান্তাবিরোধীদের অনেকেই এখন সশস্ত্র সংগ্রামে নেমেছেন। আগে থেকে লড়াই চালিয়ে আসা জাতিগত বিদ্রোহীরাও তাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ায় সংঘাতের তীব্রতা বেড়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার দেওয়া বিবৃতিতে বলেছে, জান্তার হয়ে অস্ত্র কেনাকাটায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখা মায়ানমারের ব্যবসায়ী অং মোয়ে মিন্ট, তার প্রতিষ্ঠিত ডাইনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানি লিমিটেড ও এর দুই পরিচালকের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিচ্ছে তারা।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও যুক্তরাজ্য মায়ানমারের সামরিক বাহিনীর এক কর্মকর্তার ছেলে মিন্টের ওপর আগে থেকেই নিষেধাজ্ঞা দিয়ে রেখেছে।

মিন্ট মায়ানমারের সামরিক বাহিনীর জন্য ‘নানান অস্ত্র, সরঞ্জাম, ক্ষেপণাস্ত্র ও বিমানের’ পাশাপাশি বিমানের যন্ত্রাংশ সংগ্রহের কাজে তার কোম্পানিকে ব্যবহার করছেন, অভিযোগ মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয়ের।

নিষেধাজ্ঞা আরোপের ফলে মায়ানমারের এই তিন নাগরিক ও কোম্পানিটির যুক্তরাষ্ট্রে কোনো সম্পদ থাকলে তা জব্দ হবে এবং মোটাদাগে মার্কিন নাগরিকরা বা কোনো প্রতিষ্ঠান এদের সঙ্গে কোনো লেনদেন করতে পারবে না।

“আজ আমরা বার্মার সামরিক শাসকদের জন্য অস্ত্র সংগ্রহে নিযুক্ত সহায়তাকারী নেটওয়ার্ক ও যুদ্ধের মাধ্যমে লাভবান হওয়াদের টার্গেট করেছি। বার্মার জনগণের ওপর নির্মম সহিংস কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাওয়া বার্মিজ সামরিক বাহিনীর সক্ষমতা কমাতে আমাদের পদক্ষেপ অব্যাহত থাকবে,” মায়ানমারের আগের নাম ব্যবহার করে দেওয়া বিবৃতিতে বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয়ের আন্ডার সেক্রেটারি ব্রায়ান নেলসন।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মানবাধিকার লংঘন বিশেষ করে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে জান্তাবিরোধী শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভকারীদের বিচারবহির্ভূত হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে মায়ানমারের সাবেক পুলিশপ্রধান ও স্বরাষ্ট্র বিষয়ক উপমন্ত্রী থান হ্লাইংয়ের যুক্তরাষ্ট্র ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বলেও জানিয়েছে মার্কিন অর্থ মন্ত্রণালয়।

রয়টার্স এসব নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে ওয়াশিংটনের মায়ানমার দূতাবাসের মন্তব্য চাইলেও তাৎক্ষণিকভাবে তারা সাড়া দেয়নি।

গত বছরের অভ্যুত্থানের পর থেকে পশ্চিমা দেশগুলো মায়ানমারের সেনাবাহিনী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ওপর একের পর এক নিষেধাজ্ঞা দিলেও মার্কিন এক দূতের ভাষ্যমতে চলমান ‘গৃহযুদ্ধে’ জান্তাকে পুরোপুরি কাবু ও বিচ্ছিন্ন করা যায়নি।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত জান্তা ও এর সহযোগীদের ওপর যত নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে, তাতে মায়ানমারের গ্যাস রপ্তানিকে টার্গেট করা হয়নি; এই গ্যাস রপ্তানিই মায়ানমারের সামরিক বাহিনীর সবচেয়ে বড় আয়ের খাত।

জান্তাবিরোধী শক্তি এবং মানবাধিকার সংগঠনগুলো মায়ানমারের এই গ্যাস রপ্তানির ওপর নিষেধাজ্ঞা দিতে পশ্চিমাদের ওপর চাপ দিয়ে আসছে।

এমন পদক্ষেপই মায়ানমারের সামরিক বাহিনীর আচরণের ওপর প্রভাব ফেলতে পারে, বলছে তারা।

“মায়ানমার নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এখনকার নিষেধাজ্ঞা কাজ করছে না। এটা অনেকটা ওষুধের হাফ ডোজ দিয়ে ফুল ডোজ কাজ করবে এমন প্রত্যাশার মতো,” বলেছেন হিউম্যান রাইটস ওয়াচের এশিয়া অ্যাডভোকেসি পরিচালক জন সিফটন।

back to top