alt

আন্তর্জাতিক

চীনের গুয়াংজু শহরে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

আন্দোলন দমনে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট সরকার কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া সত্ত্বেও দেশটিতে জনরোষ বেড়েই চলেছে। বৃহত্তম মহানগরী সাংহাইয়ের পর এবার দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় গুরুত্বপূর্ণ শিল্প উৎপাদন কেন্দ্র গুয়াংজুতেও কোভিড বিধিনিষেধ বিরোধী বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার রাতে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া কিছু ভিডিওর বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে নগরীটির বাসিন্দারা করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধী পোশাক পরা দাঙ্গা পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জাড়িয়েছে।

মহামারীর তিন বছরে একের পর এক কঠোর কোভিড-১৯ লকডাউনে হতাশ চীনারা ক্ষুব্ধ হয়ে প্রতিবাদে নেমেছে। সাংহাই, রাজধানী বেইজিং ও অন্যান্য শহরে সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতে হওয়া বিক্ষোভের পর গতকাল রাতে গুয়াংজুতে সংঘর্ষের ঘটনা প্রতিবাদ বাড়ারই ইঙ্গিত দিচ্ছে। এক দশক আগে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ক্ষমতা নেওয়ার পর থেকে এটিই চীনে আইন অমান্যের সবচেয়ে বড় ঘটনা।

গত কয়েক দশক ধরে ব্যাপক অর্থনৈতিক অগ্রগতি ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি ও জনগণের মধ্যে একটি অলিখিত সামাজিক চুক্তির ভিত্তি তৈরি করেছিল, কিন্তু করোনা মহামারীতে অর্থনীতি ধসে পড়ায় প্রেসিডেন্ট শির অধীনে প্রায় নাগরিক স্বাধীনতা হারানো জনগণ অধৈর্য হয়ে উঠেছে।

টুইটারে পোস্ট করা এক ভিডিওতে সংক্রমণ প্রতিরোধী সাদা পোশাকে আবৃত কয়েক ডজন দাঙ্গা পুলিশকে মাথারও ওপর বর্ম ধরে রেখে একযোগে এগিয়ে যেতে দেখা গেছে, সেখানে লকডাউন বিরোধীরা সড়ক অবরোধগুলো ভেঙ্গে তাদের দিকে ছুড়ে মারছে বলে মনে হয়েছে।

পরে পুলিশকে হ্যান্ডকাফ পরা একদল লোককে পাহারা দিয়ে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যেতে দেখা যায়।

অন্য আরেকটি ভিডিও ক্লিপে লোকজনকে পুলিশের দিকে বিভিন্ন বস্তু ছুড়তে দেখা যায়। তৃতীয় আরেকটি ভিডিওতে সরু একটি গলিতে অল্প কিছু লোকের মাঝে কাঁদুনে গ্যাসের একটি ক্যানিস্টার এসে পড়তে দেখা গেছে, তখন ধোঁয়া থেকে বাঁচতে লোকজনকে দৌঁড় দেয়।

রয়টার্স ওই ভিডিওগুলো যাচাই করে দেখেছে সেগুলো গুয়াংজুর হাইঝু এলাকায় রেকর্ড করা, কিন্তু কখন এই ক্লিপগুলো নেওয়া হয়েছে বা কী থেকে ঘটনার সূত্রপাত বা সংঘর্ষ হয়েছে তা নির্ণয় করতে পারেনি। দুই সপ্তাহ আগেও এখানে কোভিড বিধিনিষেধজনিত অস্থিরতা দেখা দিয়েছিল।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসা পোস্টগুলো বলছে, লকডাউনের বিধিনিষেধ নিয়ে বিরোধের জের ধরে মঙ্গলবার রাতে এসব সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

চীনজুড়ে কোভিড সংক্রমণের চলতি ঢেউয়ে কঠিন আঘাতের শিকার হওয়া নগরী গুয়াংজুর স্থানীয় সরকার ঘটনার বিষয়ে মন্তব্যের জন্য রয়টার্সের জানানো অনুরোধে তাৎক্ষণিকভাবে সাড়া দেয়নি।

কোভিড-লকডাউনের বিরুদ্ধে শুরু হওয়া ব্যাপক জনরোষের খবর চাপতে নোংরা কৌশল নিয়েছে দেশটির ক্ষমতাসীন শি জিনপিং সরকার।

অভিযোগ, বিক্ষোভের খবর ছড়িয়ে পড়া রুখতে টুইটারে পর্ন এবং অশ্লীল ভিডিওর লিঙ্ক দিয়ে ভরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এজন্য ব্যবহার করা হচ্ছে রোবটদের (ওয়েব বট)। কিন্তু কীভাবে পর্ন দিয়ে রোখার চেষ্টা চলছে জনরোষের খবর?

বিভিন্ন প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই রোবটগুলো বিক্ষোভের খবরের কী ওয়ার্ডের বিপরীতে এত বেশি পরিমাণে পর্ন ভিডিও টুইটারে আপলোড করছে যাতে টুইটার ব্যবহারকারীরা বিক্ষোভের খবর জানতে সার্চ দিলেই এই সব ভিডিও আসতে থাকে। যৌনকর্মীদের বিজ্ঞাপনও দেখাতে থাকে। এছাড়া প্রচুর পরিমাণে স্প্যামের লিঙ্কও ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

বেইজিং, সাংহাই, নানজিং এবং গুয়াংজু সহ প্রধান প্রতিবাদের হটস্পটগুলোর খবর সার্চ দিলেই ইঙ্গিতপূর্ণ ভঙ্গিতে স্বল্পপোশাক পরিহিত নারীদের ছবি এবং এলোমেলো শব্দ ও বাক্যাংশ দেখাচ্ছে।

এছাড়া বিক্ষোভ ঠেকাতে আন্দোলনকারীদের পেছনে পুলিশও লেগেছে। চীনে গত শনি-রবিবার কোভিড বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে হওয়া বিক্ষোভগুলোতে যারা অংশ নিয়েছিলেন – তাদের অনেকে বলছেন যে তারা পুলিশের কাছ থেকে ফোন পেয়েছেন।

রাজধানী বেইজিংএর বেশ কয়েকজন বলেছেন, পুলিশ তাদেরকে ফোন করে তারা কোথায় আছেন সে ব্যাপারে তথ্য চাইছে। কীভাবে পুলিশ তাদের পরিচয় জানতে পারলো তা স্পষ্ট নয়।

চীনের বেইজিং, সাংহাই ও উহানের মত বেশ কিছু শহরে হওয়া ওই বিক্ষোভে হাজার হাজার লোকের সমাগম হয়েছিল। এসব বিক্ষোভে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে পদত্যাগ করার দাবি জানিয়ে শ্লোগান দেয়া হয় – যা চীনে অত্যন্ত বিরল ঘটনা।

বিক্ষোভের অবসান ঘটাতে কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই কঠোর ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে। শহরগুলিতে পুলিশ উপস্থিতি অনেকগুণ বেড়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। কর্তৃপক্ষ বিক্ষোভকারীদের সতর্ক করে দিয়েছে যেন তারা আইন না ভাঙে।

ছবি

তুরস্ক-সিরিয়ায় ভয়াবহ ভূমিকম্প, নিহত অগণন

ছবি

আদানি বিতর্ক: সোমবারও অচল ভারতের পার্লামেন্ট

ছবি

তুরস্ক ও সিরিয়ায় ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা ২৩শ ছাড়িয়েছে

ছবি

ল্যাটিন আমেরিকার আকাশে দ্বিতীয় বেলুনটিও নিজেদের দাবি করল চীন

ছবি

দ্বিতীয়বার ভূমিকম্পে কেঁপেছে তুরস্ক

ছবি

ভূমিকম্পে সিরিয়ার বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকায় ১৪৭ জনের মৃত্যু

ছবি

তুরস্ক ও সিরিয়ায় ভূমিকম্প: দেশ দুটিকে সহায়তার প্রস্তাব পুতিনের

ছবি

তুরস্কে ভূমিকম্পের ভয়াবহ বর্ণনা দিলেন এক তরুণ

ছবি

তুরস্কে ৮০ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ভূমিকম্প, দুই দেশে নিহত বেড়ে ১৩ শতাধিক

ছবি

শক্তিশালী ভূমিকম্পে তুরস্ক ও সিরিয়ায় নিহত ৫ শতাধিক

ছবি

ইউটিউবার মেয়েকে ঘুমের মধ্যে হত্যা, থানায় গেলেন বাবা

ছবি

তুরস্ক-সিরিয়া সীমান্তে ৭.৮ মাত্রার ভূমিকম্পে নিহত ৫২৯

ছবি

ধর্ষণ মামলায় ফাঁসানোর হুমকি পেয়ে গলায় ফাঁস নিলেন যুবক

ছবি

তুরস্ক, সিরিয়ায় ভূমিকম্পঃ শতাধিক নিহত, বাড়ছে মৃতের সংখ্যা

ছবি

তুষারধসে অস্ট্রিয়া ও সুইজারল্যান্ডে ১০ জনের মৃত্যু

ছবি

গৃহকর্মীকে ধর্ষণের পর হত্যা করে পুড়িয়ে দেয় চাকরিদাতার কিশোর ছেলে

ছবি

দুই ছিনতাইকারীকে জীবন্ত পুড়িয়ে দিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা

ছবি

তুরস্কে ৭.৮ মাত্রার ভূমিকম্প

ছবি

ইউক্রেন-ইইউ সম্মেলন পশ্চিমা আধিপত্যবাদের প্রতি সমর্থন: রাশিয়া

ছবি

তুরস্কের ২৩৮ ফ্লাইট বাতিল

ছবি

বেলুন ধ্বংসের ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের ওপর চটেছে চীন

ছবি

নেতানিয়াহুর পদত্যাগের দাবিতে বিক্ষোভ, টালমাটাল ইসরায়েল

ছবি

যুদ্ধের বর্ষপূর্তিতে রাশিয়ার বিরুদ্ধে আসছে বড় নিষেধাজ্ঞা

ছবি

পাকিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট পারভেজ মোশাররফ মারা গেছেন

ছবি

অস্ট্রেলিয়ায় হাঙরের আক্রমণে প্রাণ গেল কিশোরীর

ছবি

যেভাবে চীনের বেলুন ভূপাতিত করল যুক্তরাষ্ট্র

ছবি

চিলিতে শতাধিক দাবানলে নিহত ২৩, আহত ৯৭৯

ছবি

যুক্তরাষ্ট্র আরও অস্ত্র দিলে পরিস্থিতি পরমাণু যুদ্ধ পর্যন্ত গড়াতে পারে: রাশিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট মেদভেদেভ

ছবি

আপত্তিকর কনটেন্ট না সরানোয় পাকিস্তানে উইকিপিডিয়া নিষিদ্ধ

ছবি

রাশিয়ার অর্থ জব্দ করে ইউক্রেনকে দিতে অনুমতি যুক্তরাষ্ট্রের

ছবি

ভূমধ্যসাগরে নারী-শিশুসহ ১০ অভিবাসন প্রত্যাশীর মৃত্যু

ছবি

নাইজেরিয়ায় ডাকাত-রক্ষীবাহিনীর সংঘর্ষে নিহত ৫১

ছবি

চিলিতে দাবানলে ১৩ মৃত্যু

ছবি

আকাশে বেলুন : ব্লিনকেনের চীন সফর বন্ধ করল যুক্তরাষ্ট্র

ছবি

বাখমুতে আত্মসমর্পণ না করার ঘোষণা জেলেনস্কির

ছবি

পাকিস্তানের রিজার্ভ তলানীতে, মিটবে না তিন সপ্তাহ আমদানি ব্যয়ও

tab

আন্তর্জাতিক

চীনের গুয়াংজু শহরে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২

আন্দোলন দমনে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট সরকার কঠোর পদক্ষেপ নেওয়া সত্ত্বেও দেশটিতে জনরোষ বেড়েই চলেছে। বৃহত্তম মহানগরী সাংহাইয়ের পর এবার দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় গুরুত্বপূর্ণ শিল্প উৎপাদন কেন্দ্র গুয়াংজুতেও কোভিড বিধিনিষেধ বিরোধী বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার রাতে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া কিছু ভিডিওর বরাতে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, মঙ্গলবার রাতে নগরীটির বাসিন্দারা করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধী পোশাক পরা দাঙ্গা পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জাড়িয়েছে।

মহামারীর তিন বছরে একের পর এক কঠোর কোভিড-১৯ লকডাউনে হতাশ চীনারা ক্ষুব্ধ হয়ে প্রতিবাদে নেমেছে। সাংহাই, রাজধানী বেইজিং ও অন্যান্য শহরে সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোতে হওয়া বিক্ষোভের পর গতকাল রাতে গুয়াংজুতে সংঘর্ষের ঘটনা প্রতিবাদ বাড়ারই ইঙ্গিত দিচ্ছে। এক দশক আগে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ক্ষমতা নেওয়ার পর থেকে এটিই চীনে আইন অমান্যের সবচেয়ে বড় ঘটনা।

গত কয়েক দশক ধরে ব্যাপক অর্থনৈতিক অগ্রগতি ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি ও জনগণের মধ্যে একটি অলিখিত সামাজিক চুক্তির ভিত্তি তৈরি করেছিল, কিন্তু করোনা মহামারীতে অর্থনীতি ধসে পড়ায় প্রেসিডেন্ট শির অধীনে প্রায় নাগরিক স্বাধীনতা হারানো জনগণ অধৈর্য হয়ে উঠেছে।

টুইটারে পোস্ট করা এক ভিডিওতে সংক্রমণ প্রতিরোধী সাদা পোশাকে আবৃত কয়েক ডজন দাঙ্গা পুলিশকে মাথারও ওপর বর্ম ধরে রেখে একযোগে এগিয়ে যেতে দেখা গেছে, সেখানে লকডাউন বিরোধীরা সড়ক অবরোধগুলো ভেঙ্গে তাদের দিকে ছুড়ে মারছে বলে মনে হয়েছে।

পরে পুলিশকে হ্যান্ডকাফ পরা একদল লোককে পাহারা দিয়ে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যেতে দেখা যায়।

অন্য আরেকটি ভিডিও ক্লিপে লোকজনকে পুলিশের দিকে বিভিন্ন বস্তু ছুড়তে দেখা যায়। তৃতীয় আরেকটি ভিডিওতে সরু একটি গলিতে অল্প কিছু লোকের মাঝে কাঁদুনে গ্যাসের একটি ক্যানিস্টার এসে পড়তে দেখা গেছে, তখন ধোঁয়া থেকে বাঁচতে লোকজনকে দৌঁড় দেয়।

রয়টার্স ওই ভিডিওগুলো যাচাই করে দেখেছে সেগুলো গুয়াংজুর হাইঝু এলাকায় রেকর্ড করা, কিন্তু কখন এই ক্লিপগুলো নেওয়া হয়েছে বা কী থেকে ঘটনার সূত্রপাত বা সংঘর্ষ হয়েছে তা নির্ণয় করতে পারেনি। দুই সপ্তাহ আগেও এখানে কোভিড বিধিনিষেধজনিত অস্থিরতা দেখা দিয়েছিল।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আসা পোস্টগুলো বলছে, লকডাউনের বিধিনিষেধ নিয়ে বিরোধের জের ধরে মঙ্গলবার রাতে এসব সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

চীনজুড়ে কোভিড সংক্রমণের চলতি ঢেউয়ে কঠিন আঘাতের শিকার হওয়া নগরী গুয়াংজুর স্থানীয় সরকার ঘটনার বিষয়ে মন্তব্যের জন্য রয়টার্সের জানানো অনুরোধে তাৎক্ষণিকভাবে সাড়া দেয়নি।

কোভিড-লকডাউনের বিরুদ্ধে শুরু হওয়া ব্যাপক জনরোষের খবর চাপতে নোংরা কৌশল নিয়েছে দেশটির ক্ষমতাসীন শি জিনপিং সরকার।

অভিযোগ, বিক্ষোভের খবর ছড়িয়ে পড়া রুখতে টুইটারে পর্ন এবং অশ্লীল ভিডিওর লিঙ্ক দিয়ে ভরিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এজন্য ব্যবহার করা হচ্ছে রোবটদের (ওয়েব বট)। কিন্তু কীভাবে পর্ন দিয়ে রোখার চেষ্টা চলছে জনরোষের খবর?

বিভিন্ন প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই রোবটগুলো বিক্ষোভের খবরের কী ওয়ার্ডের বিপরীতে এত বেশি পরিমাণে পর্ন ভিডিও টুইটারে আপলোড করছে যাতে টুইটার ব্যবহারকারীরা বিক্ষোভের খবর জানতে সার্চ দিলেই এই সব ভিডিও আসতে থাকে। যৌনকর্মীদের বিজ্ঞাপনও দেখাতে থাকে। এছাড়া প্রচুর পরিমাণে স্প্যামের লিঙ্কও ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে।

বেইজিং, সাংহাই, নানজিং এবং গুয়াংজু সহ প্রধান প্রতিবাদের হটস্পটগুলোর খবর সার্চ দিলেই ইঙ্গিতপূর্ণ ভঙ্গিতে স্বল্পপোশাক পরিহিত নারীদের ছবি এবং এলোমেলো শব্দ ও বাক্যাংশ দেখাচ্ছে।

এছাড়া বিক্ষোভ ঠেকাতে আন্দোলনকারীদের পেছনে পুলিশও লেগেছে। চীনে গত শনি-রবিবার কোভিড বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে হওয়া বিক্ষোভগুলোতে যারা অংশ নিয়েছিলেন – তাদের অনেকে বলছেন যে তারা পুলিশের কাছ থেকে ফোন পেয়েছেন।

রাজধানী বেইজিংএর বেশ কয়েকজন বলেছেন, পুলিশ তাদেরকে ফোন করে তারা কোথায় আছেন সে ব্যাপারে তথ্য চাইছে। কীভাবে পুলিশ তাদের পরিচয় জানতে পারলো তা স্পষ্ট নয়।

চীনের বেইজিং, সাংহাই ও উহানের মত বেশ কিছু শহরে হওয়া ওই বিক্ষোভে হাজার হাজার লোকের সমাগম হয়েছিল। এসব বিক্ষোভে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে পদত্যাগ করার দাবি জানিয়ে শ্লোগান দেয়া হয় – যা চীনে অত্যন্ত বিরল ঘটনা।

বিক্ষোভের অবসান ঘটাতে কর্তৃপক্ষ ইতোমধ্যেই কঠোর ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে। শহরগুলিতে পুলিশ উপস্থিতি অনেকগুণ বেড়েছে বলে খবর পাওয়া যাচ্ছে। কর্তৃপক্ষ বিক্ষোভকারীদের সতর্ক করে দিয়েছে যেন তারা আইন না ভাঙে।

back to top