alt

প্রযুক্তি

‘বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনায় ব্যয় হ্রাস কার্যক্রমে চলমান সংষ্কার এবং ভবিষ্যতের প্রস্তুতি’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক : মঙ্গলবার, ২৭ এপ্রিল ২০২১
image

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) এবং বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) মধ্যকার ‘বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনায় ব্যয় হ্রাস কার্যক্রমে চলমান সংষ্কার এবং ভবিষ্যতের প্রস্তুতি’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা ২৭ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে বিডা’র নির্বাহী চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজুল ইসলাম প্রধান অতিথি এবং বিডা’র নির্বাহী সদস্য মোঃ বিল্লাল হোসেন বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগদান করেন।

ওয়েবিনারের স্বাগত বক্তব্যে ঢাকা চেম্বারের সভাপতি রিজওয়ান রাহমান বলেন, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির গতিধারা অব্যাহত রাখতে বেসরকারীখাতের অবদান নিশ্চিতকল্পে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষন, এসডিজি’র লক্ষ্যমাত্রা অর্জন, বৈশ্বিক প্রতিযোগিতায় টিকে থাকা এবং শিল্পায়ন সহায়ক পরিবেশ নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট নীতিমালার সহজীকরণ ও ব্যবসা সহায়ক পরিবেশ নিশ্চিতের কোন বিকল্প নেই। তিনি জানান, ২০২৬ সালে বাংলাদেশের উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার পর হতে, আমরা পণ্য রপ্তানিতে অগ্রাধিকারমূলক সহায়তা প্রাপ্তি হতে বঞ্চিত হব, যা আমাদেরকে রপ্তানি বাজারে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ার সম্ভাবনা তৈরি করতে পারে এবং এ অবস্থা উত্তরণে পণ্যের উৎপাদন ব্যয় কমাতে আমাদেরকে অবশ্যই ব্যবসা পরিচলন ব্যয় হ্রাসের প্রতি আরো বেশি হারে মানোনিবেশ করতে হবে। ডিসিসিআই সভাপতি বলেন, ২০২০ সালে প্রকাশিত ‘ডুইং বিজনেস ইনডেক্স’ অনুযায়ী বাংলাদেশের অবস্থান ১৬৮তম, পূর্ববর্তী বছরে যা ছিল ১৭৬তম এবং এ সূচকে আমাদের ৮ ধাপের অগ্রগতি সম্ভব হয়েছিল সংশ্লিষ্ট নীতিমালার সংষ্কার কার্যক্রমের বাস্তবায়নের মাধ্যমে। তিনি উল্লেখ করেন, ভিয়েতনাম, ফিলিপাইন এবং ইন্দোনেশিয়ার মত আমাদের প্রতিযোগী দেশগুলো অধিক হারে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষন করতে পারছে, কারণ ‘ডুইং বিজনেস ইনডেক্স’-এ দেশগুলোর অবস্থান বাংলাদেশের চেয়ে বেশ ভালো, এমন বাস্তবতায় আমাদের অবশ্যক ব্যবসা পরিচালনার সূচকে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জনের কোন বিকল্প নেই এবং এলক্ষ্যে দেশের বেসরকারীখাত সরকারের সাথে একযোগে কাজ করতে আগ্রহী। দেশে একটি ব্যবসা সহায়ক পরিবেশ উন্নয়নে বিডা ইতোমধ্যে ‘ওয়ান স্টপ সার্ভিস’ প্রদানের কার্যক্রম চালু করছে পাশাপাশি কোম্পানী আইন ও ভ্যাট আইন সহ অন্যান্য আইনে বেশকিছু সংষ্কার করা হয়েছে এবং আশা করা যাচ্ছে আগামীতে প্রকাশিত ‘ডুইং বিজনেস ইনডেক্স’-এ আমাদের অবস্থানের আরো উন্নয়ন হবে।

প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে বিডা’র নির্বাহী চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন, ব্যবসা পরিচালন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ডাবল ডিজিটে নামিয়ে আনতে হবে এবং এ লক্ষ্যে সরকারের গৃহীত সংষ্কার কার্যক্রম সম্পর্কে বেসরকারীখাতকে অবহিত করা জরুরী। তিনি বলেন, বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষনে ‘ডুইং বিজনেস ইনডেক্স’ গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে এবং বিশ্বব্যাংকের এ সূচকে ভালো করতে পারলে বাংলাদেশের একাগ্রতা ও উন্নয়নের মানসিকতাকেই প্রকাশ করবে। তিনি উল্লেখ করেন, বিডাকে আরো শক্তিশালী করতে হবে এবং সকল সীমাবদ্ধতা থাকা সত্বেও দেশে বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ তৈরিতে বিডা কাজ করে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এছাড়াও তিনি ব্যাণিজ্য বিষয়ক সংষ্কার কার্যক্রম বাস্তবে কতটা বিদ্যমান আছে, সেটা পর্যবেক্ষণ করার জন্য বেসরকারীখাতের প্রতি আহ্বান জানান। বিডা চেয়ারম্যান বলেন, সংষ্কারের ক্ষেত্রে নীতিমালা খুবই সহজেই সংশোধন হলেও মাঠ পর্যায়ে সেটার বাস্তবায়নে মাঝে মাঝে কিছু শিথীলতা দেখা যায়, তবে তা সমাধানে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। তিনি জানান, এক কোম্পানী হতে অন্য কোম্পানীতে ভূমি হস্তান্তরের নথি নিবন্ধনে সারা দেশের ভূমি অফিসগুলোতে আলাদা বালাম বই ব্যবহার করা হচ্ছে এবং স্বল্প সময়েই ভূমি নিবন্ধনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যাচ্ছে এবং প্রক্রিয়াটি বিডা’র ওএসএস-এর মাধ্যমে করা যায় কিনা তা নিয়ে কাজ চলছে। তিনি জানান, ব্যবসায়িক বিরোধ সহজেই নিষ্পত্তি করার জন্য এডিআর কোন বিকল্প নেই এবং আরবিট্রেশনের নিষ্পত্তিতে সময় নির্ধারণ করা প্রয়োজন বলে, মত প্রকাশ করেন। সিরাজুল ইসলাম বলেন, ঢাকা ও চট্টগ্রামে আলাদ দুটি আদালত করা হবে, যারা শুধুমাত্র ব্যবসায়িক বিরোধ বিষয়ক মামলা পরিচালনা করবে। তিনি অবহিত করেন, বিডা’র ওএসএস সেবা দেওয়ার জন্য ইতোমধ্যে ২৫টি সংস্থার সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে এবং শুধুমাত্র ১৫০টি সরকারি সেবা এর মাধ্যমে প্রদান করা সম্ভব হবে। দেশের সরকারী ও বেসরকারীখাত একযোগে কাজ করতে পারলেই ব্যবসা পরিচালনার সূচকে বাংলাদেশের অবস্থানের দৃশ্যমান অগ্রগতি পরিলক্ষিত হবে বলে, তিনি মত প্রকাশ করেন।

বিশেষ অতিথি’র বক্তব্যে বিডা’র নির্বাহী সদস্য মোঃ বিল্লাল হোসেন বলেন, দেশে শিল্প উন্নয়নের জন্য বিডা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং দেশের বিনিয়োগকারীরা কি ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হন তা জেনে, বিডা করণীয় নির্ধারণে আগ্রহী। তিনি আরো বলেন, ব্যবসা পরিচালন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ভালো করতে পারলে, বর্হিবিশ্বেবাংলাদেশের ভাবমূর্তি বহুলাংশে বাড়বে এবং এর ফলে দেশি-বিদেশী বিনিয়োগও বৃদ্ধি পাবে। বিল্লাহ হোসেন বলেন, বিডা’র ওএসএস-এর মাধ্যমে অনলাইনে বর্তমানে ৪৮টি সেবা প্রদান করা হচ্ছে এবং অনলাইনের মাধ্যমে এ ধরনের সেবা গ্রহণের জন্য তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

বিডা’র পরিচালক জীবন কৃষ্ণ সাহা রয় ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, বিশেষ করে ব্যবসা শুরু, ভূমি নিবন্ধন, বিদ্যুৎ সংযোগ প্রাপ্তি, ঋণ প্রাপ্তি, বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সংরক্ষণ, অন্যান্য দেশের সাথে বাণিজ্য প্রক্রিয়া এবং করা প্রদান প্রক্রিয়া প্রভৃতি বিষয়ে বেশ কিছু সংষ্কার কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হয়েছে এবং দেশের বেসরকারীখাতে সরকার গৃহীত সংষ্কার কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করার মাধ্যমে সচেতন করতে হবে, যার মাধ্যমে সেবা প্রাপ্তি নিশ্চিত হবে। তিনি বিশ্বব্যাংক পরিচালিত জরিপে উত্তর প্রদানের সময় সরকার গৃহীত সংষ্কার কার্যক্রমসমূহ বিবেচনা নেওয়ার জন্য ব্যবসায়ী সমাজের প্রতি আহ্বান জানান।

মুক্ত আলোচনায় ডিসিসিআই পরিচালক মোঃ রাশেদুল করিম মুন্না, প্রাক্তন সভাপতি আসিফ ইব্রাহীম, প্রাক্তন পরিচালক দাতা মাগফুর, সদস্য এম এস সিদ্দিকী এবং বাংলাদেশ ফ্রেইট ফরওয়াডর্স এসোশিয়েন (বাফা)’র সভাপতি কবীর আহমেদ অংশগ্রহণ করেন। আলোচকবৃন্দ বাণিজ্য সংষ্কার বিষয়ক সরকারের কমিটিসমূহে বেসরকারীখাতের অংশগ্রহণ, আমাদের প্রতিযোগী দেশগুলো কি ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করছে তা মূল্যায়ন সাপেক্ষে আমাদের কার্যক্রমে আরো গতি আনায়ন, সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের ওয়েবসাইট ও সিটিজেন চার্টারে সংষ্কার কার্যক্রমের নথি সন্নিবেশিত করা, বাণিজ্য সহায়ক কর কাঠামো নিশ্চিতকরণ এবং দ্রুততম সময়ে ট্রেড লাইসেন্স প্রাপ্তির বিষয়ে সিটি কর্পোরেশনগুলো সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

ডিসিসিআই এর ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি এন কে এ মবিন অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। ডিসিসিআই সহ-সভাপতি মনোয়ার হোসেন সহ পরিচালনা পর্ষদের সদস্যবৃন্দ ওয়েবিনারে যোগদান করেন।

ছবি

ন্যাশনাল হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ২০২১ এর জাতীয় পর্ব অনুষ্ঠিত

ছবি

বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২১ এর নির্বাচিত স্টার্টআপদের নিয়ে অনলাইনে বুটক্যাম্প শুরু

ছবি

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার অগ্রসৈনিক তরুণ উদ্যোক্তা এবং উদ্ভাবকগণ - পলক

ছবি

হারমোনিওএস ২ অপারেটিং সিস্টেমের সাতটি নতুন ডিভাইস আনল হুয়াওয়ে

ছবি

সরকারের তিনটি প্রকল্পের তথ্যপ্রযুক্তি সংশ্লিষ্ট ৩৫৭ কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে বেক্সিমকো

ছবি

আইসিটি বিভাগের এডিপি পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ছবি

ক্লাউড সেবায় সেরা রেটিং পেলো জেডটিই

ছবি

ই-ক্যাবের এফ-কমার্স এ্যালায়েন্স কমিটি গঠিত

ছবি

তরুণদের কর্মসংস্থানের জন্য দেশের ৬৪ জেলায় ৪৯২টি বিডিসেট স্থাপন করা হবে

ছবি

আগামী ৩ বছরে ১০ কোটি ব্যবহারকারীর জন্য ৫জি স্মার্টফোন নিয়ে আসবে রিয়েলমি

ছবি

“আত্মনির্ভরশীল ডিজিটাল বাংলাদেশ” বিনির্মাণের পথে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক

ছবি

রেসপনসিবল বিজনেস ২০২১ এর সাথে যুক্ত হলো হুয়াওয়ে

ছবি

ব্যবসা পরিচালনায় স্বয়ংক্রিয় রোবটিক্স প্রক্রিয়া শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

ছবি

এডিসন এলাইন্সে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন জুনাইদ আহমেদ পলক

ছবি

অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ন্যাশনাল হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা ২০২১

ছবি

বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে যোগ দিলেন ডা. বিকর্ণ কুমার ঘোষ

ছবি

ফোনে ভিডিও এডিট করার সহজ যত অ্যাপস

ছবি

স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করণে ব্লকচেইন সবচেয়ে কার্যকর প্রযুক্তি: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক

ছবি

কম্পিউটারের উপর এখনি ভ্যাট ট্যাক্স আরোপ না করার আহ্বান বিসিএস সভাপতির

ছবি

সিক্রেটস অব ইফেকটিভ কমিউনিকেশন ফর দ্য সাকসেস অব বিজনেস বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

ছবি

জনপ্রিয় গেম ফ্রি ফায়ার ও পাবজি বন্ধের সুপারিশ

ছবি

নজরদারির সুযোগ চায় ভারত, সরকারের বিরুদ্ধে মামলা করল হোয়াটসঅ্যাপ

ছবি

বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের কিশোর বিজ্ঞানীদের তৈরি রোবট প্রদর্শন করবে বিজ্ঞান জাদুঘর

ছবি

সানফ্লাওয়ার-এর আকর্ষণীয় টিজার প্রকাশ করেছে জিফাইভ গ্লোবাল

ছবি

বিসিএস এর উদ্যোগে ‘ডিজিটাল রুপান্তর এবং প্রযুক্তি বান্ধব প্রতিষ্ঠান’ শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

ছবি

আইসিটি বিভাগের এডিপি পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ছবি

আগামী ৫ দিন দেশে ইন্টারনেটের গতি কিছুটা ধীর থাকতে পারে

ছবি

টফি অ্যাপে সরাসরি দেখা যাচ্ছে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ওয়ানডে সিরিজ

ছবি

আইটিতে দক্ষ মানুষের ট্যালেন্ট পুল তৈরি করবে সরকার: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক

ছবি

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি এবং যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস লোয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষরিত

ছবি

দক্ষিণ এশিয়ায় এক লাখ তরুণকে ডিজিটাল ক্ষেত্রে দক্ষ করে তুলবে হুয়াওয়ে

ছবি

ডব্লিউএসআইএস অ্যাওয়ার্ড পেল বাংলাদেশের প্রকল্প সিবিভিএমপি

ছবি

করোনাকালে বাংলালিংক এর বিশেষ উদ্যোগ: ৫০ লক্ষ গ্রাহক পাচ্ছেন ফ্রি ডেটা ও টক টাইম

ছবি

বাংলাদেশে ডিজিটাল সাংবাদিকতার প্রশিক্ষণ নিয়ে এসেছে ফেসবুক জার্নালিজম প্রজেক্ট ও রয়টার্স

ছবি

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম রেজিষ্ট্রেশন প্রক্রিয়া প্রবর্তনের জন্য ডব্লিউএসআইএস পুরস্কার ২০২১ জিতলো বাংলাদেশ

ছবি

‘অ্যাকসেলেরেটিং ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন ডিউরিং চ্যালেঞ্জিং টাইমস’ শীর্ষক ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত

tab

প্রযুক্তি

‘বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনায় ব্যয় হ্রাস কার্যক্রমে চলমান সংষ্কার এবং ভবিষ্যতের প্রস্তুতি’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক
image

মঙ্গলবার, ২৭ এপ্রিল ২০২১

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) এবং বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) মধ্যকার ‘বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনায় ব্যয় হ্রাস কার্যক্রমে চলমান সংষ্কার এবং ভবিষ্যতের প্রস্তুতি’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা ২৭ এপ্রিল অনুষ্ঠিত হয়, যেখানে বিডা’র নির্বাহী চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজুল ইসলাম প্রধান অতিথি এবং বিডা’র নির্বাহী সদস্য মোঃ বিল্লাল হোসেন বিশেষ অতিথি হিসেবে যোগদান করেন।

ওয়েবিনারের স্বাগত বক্তব্যে ঢাকা চেম্বারের সভাপতি রিজওয়ান রাহমান বলেন, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির গতিধারা অব্যাহত রাখতে বেসরকারীখাতের অবদান নিশ্চিতকল্পে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষন, এসডিজি’র লক্ষ্যমাত্রা অর্জন, বৈশ্বিক প্রতিযোগিতায় টিকে থাকা এবং শিল্পায়ন সহায়ক পরিবেশ নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট নীতিমালার সহজীকরণ ও ব্যবসা সহায়ক পরিবেশ নিশ্চিতের কোন বিকল্প নেই। তিনি জানান, ২০২৬ সালে বাংলাদেশের উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার পর হতে, আমরা পণ্য রপ্তানিতে অগ্রাধিকারমূলক সহায়তা প্রাপ্তি হতে বঞ্চিত হব, যা আমাদেরকে রপ্তানি বাজারে প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ার সম্ভাবনা তৈরি করতে পারে এবং এ অবস্থা উত্তরণে পণ্যের উৎপাদন ব্যয় কমাতে আমাদেরকে অবশ্যই ব্যবসা পরিচলন ব্যয় হ্রাসের প্রতি আরো বেশি হারে মানোনিবেশ করতে হবে। ডিসিসিআই সভাপতি বলেন, ২০২০ সালে প্রকাশিত ‘ডুইং বিজনেস ইনডেক্স’ অনুযায়ী বাংলাদেশের অবস্থান ১৬৮তম, পূর্ববর্তী বছরে যা ছিল ১৭৬তম এবং এ সূচকে আমাদের ৮ ধাপের অগ্রগতি সম্ভব হয়েছিল সংশ্লিষ্ট নীতিমালার সংষ্কার কার্যক্রমের বাস্তবায়নের মাধ্যমে। তিনি উল্লেখ করেন, ভিয়েতনাম, ফিলিপাইন এবং ইন্দোনেশিয়ার মত আমাদের প্রতিযোগী দেশগুলো অধিক হারে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষন করতে পারছে, কারণ ‘ডুইং বিজনেস ইনডেক্স’-এ দেশগুলোর অবস্থান বাংলাদেশের চেয়ে বেশ ভালো, এমন বাস্তবতায় আমাদের অবশ্যক ব্যবসা পরিচালনার সূচকে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি অর্জনের কোন বিকল্প নেই এবং এলক্ষ্যে দেশের বেসরকারীখাত সরকারের সাথে একযোগে কাজ করতে আগ্রহী। দেশে একটি ব্যবসা সহায়ক পরিবেশ উন্নয়নে বিডা ইতোমধ্যে ‘ওয়ান স্টপ সার্ভিস’ প্রদানের কার্যক্রম চালু করছে পাশাপাশি কোম্পানী আইন ও ভ্যাট আইন সহ অন্যান্য আইনে বেশকিছু সংষ্কার করা হয়েছে এবং আশা করা যাচ্ছে আগামীতে প্রকাশিত ‘ডুইং বিজনেস ইনডেক্স’-এ আমাদের অবস্থানের আরো উন্নয়ন হবে।

প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে বিডা’র নির্বাহী চেয়ারম্যান মোঃ সিরাজুল ইসলাম বলেন, ব্যবসা পরিচালন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ডাবল ডিজিটে নামিয়ে আনতে হবে এবং এ লক্ষ্যে সরকারের গৃহীত সংষ্কার কার্যক্রম সম্পর্কে বেসরকারীখাতকে অবহিত করা জরুরী। তিনি বলেন, বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষনে ‘ডুইং বিজনেস ইনডেক্স’ গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে এবং বিশ্বব্যাংকের এ সূচকে ভালো করতে পারলে বাংলাদেশের একাগ্রতা ও উন্নয়নের মানসিকতাকেই প্রকাশ করবে। তিনি উল্লেখ করেন, বিডাকে আরো শক্তিশালী করতে হবে এবং সকল সীমাবদ্ধতা থাকা সত্বেও দেশে বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ তৈরিতে বিডা কাজ করে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এছাড়াও তিনি ব্যাণিজ্য বিষয়ক সংষ্কার কার্যক্রম বাস্তবে কতটা বিদ্যমান আছে, সেটা পর্যবেক্ষণ করার জন্য বেসরকারীখাতের প্রতি আহ্বান জানান। বিডা চেয়ারম্যান বলেন, সংষ্কারের ক্ষেত্রে নীতিমালা খুবই সহজেই সংশোধন হলেও মাঠ পর্যায়ে সেটার বাস্তবায়নে মাঝে মাঝে কিছু শিথীলতা দেখা যায়, তবে তা সমাধানে সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলোকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। তিনি জানান, এক কোম্পানী হতে অন্য কোম্পানীতে ভূমি হস্তান্তরের নথি নিবন্ধনে সারা দেশের ভূমি অফিসগুলোতে আলাদা বালাম বই ব্যবহার করা হচ্ছে এবং স্বল্প সময়েই ভূমি নিবন্ধনের প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যাচ্ছে এবং প্রক্রিয়াটি বিডা’র ওএসএস-এর মাধ্যমে করা যায় কিনা তা নিয়ে কাজ চলছে। তিনি জানান, ব্যবসায়িক বিরোধ সহজেই নিষ্পত্তি করার জন্য এডিআর কোন বিকল্প নেই এবং আরবিট্রেশনের নিষ্পত্তিতে সময় নির্ধারণ করা প্রয়োজন বলে, মত প্রকাশ করেন। সিরাজুল ইসলাম বলেন, ঢাকা ও চট্টগ্রামে আলাদ দুটি আদালত করা হবে, যারা শুধুমাত্র ব্যবসায়িক বিরোধ বিষয়ক মামলা পরিচালনা করবে। তিনি অবহিত করেন, বিডা’র ওএসএস সেবা দেওয়ার জন্য ইতোমধ্যে ২৫টি সংস্থার সাথে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে এবং শুধুমাত্র ১৫০টি সরকারি সেবা এর মাধ্যমে প্রদান করা সম্ভব হবে। দেশের সরকারী ও বেসরকারীখাত একযোগে কাজ করতে পারলেই ব্যবসা পরিচালনার সূচকে বাংলাদেশের অবস্থানের দৃশ্যমান অগ্রগতি পরিলক্ষিত হবে বলে, তিনি মত প্রকাশ করেন।

বিশেষ অতিথি’র বক্তব্যে বিডা’র নির্বাহী সদস্য মোঃ বিল্লাল হোসেন বলেন, দেশে শিল্প উন্নয়নের জন্য বিডা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং দেশের বিনিয়োগকারীরা কি ধরনের সমস্যার মুখোমুখি হন তা জেনে, বিডা করণীয় নির্ধারণে আগ্রহী। তিনি আরো বলেন, ব্যবসা পরিচালন সূচকে বাংলাদেশের অবস্থান ভালো করতে পারলে, বর্হিবিশ্বেবাংলাদেশের ভাবমূর্তি বহুলাংশে বাড়বে এবং এর ফলে দেশি-বিদেশী বিনিয়োগও বৃদ্ধি পাবে। বিল্লাহ হোসেন বলেন, বিডা’র ওএসএস-এর মাধ্যমে অনলাইনে বর্তমানে ৪৮টি সেবা প্রদান করা হচ্ছে এবং অনলাইনের মাধ্যমে এ ধরনের সেবা গ্রহণের জন্য তিনি সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

বিডা’র পরিচালক জীবন কৃষ্ণ সাহা রয় ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, বিশেষ করে ব্যবসা শুরু, ভূমি নিবন্ধন, বিদ্যুৎ সংযোগ প্রাপ্তি, ঋণ প্রাপ্তি, বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ সংরক্ষণ, অন্যান্য দেশের সাথে বাণিজ্য প্রক্রিয়া এবং করা প্রদান প্রক্রিয়া প্রভৃতি বিষয়ে বেশ কিছু সংষ্কার কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হয়েছে এবং দেশের বেসরকারীখাতে সরকার গৃহীত সংষ্কার কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করার মাধ্যমে সচেতন করতে হবে, যার মাধ্যমে সেবা প্রাপ্তি নিশ্চিত হবে। তিনি বিশ্বব্যাংক পরিচালিত জরিপে উত্তর প্রদানের সময় সরকার গৃহীত সংষ্কার কার্যক্রমসমূহ বিবেচনা নেওয়ার জন্য ব্যবসায়ী সমাজের প্রতি আহ্বান জানান।

মুক্ত আলোচনায় ডিসিসিআই পরিচালক মোঃ রাশেদুল করিম মুন্না, প্রাক্তন সভাপতি আসিফ ইব্রাহীম, প্রাক্তন পরিচালক দাতা মাগফুর, সদস্য এম এস সিদ্দিকী এবং বাংলাদেশ ফ্রেইট ফরওয়াডর্স এসোশিয়েন (বাফা)’র সভাপতি কবীর আহমেদ অংশগ্রহণ করেন। আলোচকবৃন্দ বাণিজ্য সংষ্কার বিষয়ক সরকারের কমিটিসমূহে বেসরকারীখাতের অংশগ্রহণ, আমাদের প্রতিযোগী দেশগুলো কি ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করছে তা মূল্যায়ন সাপেক্ষে আমাদের কার্যক্রমে আরো গতি আনায়ন, সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের ওয়েবসাইট ও সিটিজেন চার্টারে সংষ্কার কার্যক্রমের নথি সন্নিবেশিত করা, বাণিজ্য সহায়ক কর কাঠামো নিশ্চিতকরণ এবং দ্রুততম সময়ে ট্রেড লাইসেন্স প্রাপ্তির বিষয়ে সিটি কর্পোরেশনগুলো সহযোগিতার মনোভাব নিয়ে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

ডিসিসিআই এর ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি এন কে এ মবিন অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। ডিসিসিআই সহ-সভাপতি মনোয়ার হোসেন সহ পরিচালনা পর্ষদের সদস্যবৃন্দ ওয়েবিনারে যোগদান করেন।

back to top