alt

প্রযুক্তি

নতুন অ্যান্টি-ফ্রড সিস্টেমের মাধ্যমে সুরক্ষা ব্যবস্থা আরো জোরদার করলো ইমো

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : রোববার, ২০ জুন ২০২১
image

তাৎক্ষণিক যোগাযোগের জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম ইমো বিস্তৃত পরিসরের একটি অ্যান্টি-ফ্রড সিকিউরিটি মেকানিজম উন্মোচন করা সহ এর সামগ্রিক সুরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করতে নতুন নানা ফিচার নিয়ে এসেছে।

ইমো’র ভাইস প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টোফার শু বলেন, ‘আমরা সুরক্ষার বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করি এবং নিজেদের প্ল্যাটফর্মের যেকোন অপব্যবহারের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ দিয়ে লড়াইয়ে প্রতিশ্রুতিতবদ্ধ ইমো।’ তিনি আরও বলেন, ‘ক্রমবর্ধমান প্রযুক্তিজ্ঞানসম্পন্ন অপরাধীদের বিনরুদ্ধে এ লড়াই নিরন্তর; আমরাও এক্ষেত্রে আমাদের বিনিয়োগ বৃদ্ধির পাশাপাশি দীর্ঘমেয়াদী এ সমস্যা সমাধানে শিল্পসংশ্লিষ্ট সহযোগী ও কর্তৃপক্ষের সাথে একসাথে কাজ করার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

ব্যবহারকারীরা ইমো থেকে যতোবার ভেরিফিকেশন কোড পাবেন, এই নতুন অ্যান্টি-ফ্রড সিস্টেম ততোবার তাদেরকে সিকিউরিটি রিমাইন্ডার দিবে। এই রিমাইন্ডারের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে ব্যবহারকারীদের কোড অন্যদের সাথে শেয়ার করাকে প্রতিরোধ করা। নতুন এ সুরক্ষা ব্যবস্থা মিউচুয়াল ফ্রেন্ড নয় এমন অপরিচিত কারও পাঠানো ইউআরএল প্রিভিউ ও লিঙ্ক অকার্যকর করে দিবে। কন্ট্যাক্ট লিস্টে নেই এমন ওয়ান-ওয়ে ফ্রেন্ডদের ব্যাপারে ব্যবহারকারীদের সাবধান করতে চ্যাট পেজে সিকিউরিটি রিমাইন্ডার প্রদর্শিত হবে, যাতে করে ব্যবহারকারী সাবধান হতে পারেন এবং কোনো ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার না করেন।

পাশাপাশি, ব্যবহারকারীদের আইডি হ্যাক করা থেকে সুরক্ষা দিতে বিভিন্ন ডিভাইসে লগ ইন করার চেষ্টা করা হলে ইমো ব্যবহারকারীকে সিকিউরিটি রিমাইন্ডার পাঠাবে এবং কারো সাথে ভেরিফিকেশন কোড শেয়ার না করতে অবহিত করবে। ইমো থেকে প্রদান করা সিকিউরিটি নোটিশে লগ ইন -এর চেষ্টা করার বিষয়ে নতুন ডিভাইসের তথ্যসহ বিস্তারিত দেয়া থাকবে। এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা ‘ম্যানেজ ডিভাইসেস’ অপশনে গিয়ে কোনো ডিভাইস সন্দেহজনক মনে হলে সেই ডিভাইসটি ডিলিট করে দিতে পারবেন। নতুন যুক্ত করা ডিভাইসের ক্ষেত্রেও ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্টের সাথে ব্যবহৃত নাম্বার পরিবর্তন কিংবা অ্যাকাউন্ট ডিলিট করার ব্যাপারও সীমাবদ্ধ করে দেয়া হবে।

ইমোর নীতিমালা লঙ্ঘন করে আপত্তিজনক এমন সব কন্টেন্ট বিরুদ্ধে অবস্থানে নিজেদের প্রচেষ্টা জোরদার করেছে ইমো এবং এর ধারাবাহিকতায় প্রতিষ্ঠানটি এর কন্টেন্ট মডারেশন টিম সম্প্রসারণ করেছে। ২০২১ সালের প্রথমার্ধে ৩ হাজারের বেশি কর্মীদের নিয়ে গঠিত কন্টেন্ট মডারেশন টিমে ১৩০ জনেরও বেশি বাংলাদেশি কর্মীকে যুক্ত করেছে ইমো। যেকোন ধরনের আপত্তিজনক কন্টেন্ট সরিয়ে ফেলতে এবং যেকোনো রিপোর্টেড কন্টেন্ট গড়ে ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে যেনো প্রসেস করা হয় তা নিশ্চিতে ইমো’র কন্টেন্ট মডারেশন টিম সবসময় নিরসল কাজ করছে।

ক্রিস্টোফার বলেন, ‘কন্টেন্ট কমপ্লায়েন্স নিশ্চিত করা আমাদের অন্যতম অগ্রাধিকারের বিষয়। আপত্তিজনক কন্টেন্টের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমরা স্থানীয় আইন মেনে এবং সংস্কৃতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে কঠোর কমিউনিটি নীতিমালা ও নির্দেশনা তৈরি করেছি। শুধুমাত্র এ বছরের অর্ধেক সময়ে আমরা সর্বমোট ৫.১ কোটি আপত্তিজনক পোস্ট ও ৮ লাখ অ্যাকাউন্ট সরিয়ে ফেলেছি। এর মধ্যে মোট সাড়ে ৩ কোটি পাবলিক কন্টেন্ট ব্যবহারকারীরা দেখার আগেই সরিয়ে ফেলা হয়েছে।’

ব্যবহারকারীরা অ্যাপে যদি নিষিদ্ধ কোনো কন্টেন্ট বা আচরণের প্রকাশ দেখতে পান তবে তা রিপোর্ট করার ব্যাপারে উৎসাহিত করে ইমো। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের দায়িত্বশীল ব্যবহারের ব্যাপারে উৎসাহিত করতে ইমো বাংলাদেশে একটি সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন শুরু করেছে।

ক্রিস্টোফার বলেন, ‘অশোভন বা অনুপযুক্ত যেকোন কন্টেন্ট শনাক্ত ও মডারেট করতে আমরা এআই-সমর্থিত সার্বক্ষণিক মাল্টি-স্টেপ কন্টেন্ট মডারেশন প্রক্রিয়া তৈরি করেছি, আমাদের ব্যবস্থা কেবল স্বয়ংক্রিয়ভাবে পাবলিক কন্টেন্ট শনাক্ত করতে পারে। প্রাইভেট চ্যাটের ক্ষেত্রে আমাদের কর্মীদল এই অশোভন আচরণ বন্ধে ব্যবহারকারীদের রিপোর্ট করার ওপর নির্ভর করে, কেননা, প্রাইভেট চ্যাট এনক্রিপ্ট করা থাকে। আর এজন্যই, আমরা আমাদের ব্যবহারকারীদের প্ল্যাটফর্মে যেকোন অশোভন আচরণ দেখলে তা রিপোর্ট করতে উৎসাহিত করতে এ ক্যাম্পেইন শুরু করেছি, যাতে আমরা অশোভন আচরণের ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারি।’

এর আগে, ইমোর ‘সিক্রেট চ্যাট’ ফিচারটি ব্যবহারকারীদের দ্বারা প্রশংসিত হয়েছে। ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট নিরাপদ ও সুরক্ষিত রাখতে ইমো ফোন নম্বর ভেরিফিকেশন পদ্ধতিও অন্তর্ভুক্ত করেছে। এ ধরণের প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের ফলে ইমোতে অনাকাঙ্ক্ষিত হয়রানিমূলক রিপোর্টের সংখ্যা কমেছে।

ক্রিস জোর দিয়ে বলেন, ‘কমিউনিটির সুরক্ষায় এবং কমিউনিটিতে সুস্থ পরিবেশ বজায়ে ইমো ধারাবাহিকভাবে রিসোর্স ও প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করবে। বাংলাদেশের ব্যবহারকারীদের জন্য সেরা ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হওয়া আগেও আমাদের লক্ষ্য ছিলো, ভবিষ্যতেও আমরা এ লক্ষ্যে কাজ করবো।’

লকডাউনে জরুরি সেবার আওতায় তথ্যপ্রযুক্তি খাত

ছবি

ডিজিটাল উদ্যোক্তা তৈরি করবে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ

ছবি

আইসিটি বিভাগের ২০২১-২২ অর্থ বছরের এডিপি পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

ছবি

ডিজিটাল বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২১ এর মনোনয়ন আহ্বান

ছবি

৬ আগস্ট অনুষ্ঠিত হবে ৭ম বাংলাদেশ জুনিয়র সায়েন্স অলিম্পিয়াডের আঞ্চলিক পর্ব

ছবি

ডিজিটালাইজ হতে যাচ্ছে দেশের ৭৩টি গণ গ্রন্থাগার

ছবি

ডককিউর হেলথ টেক লিমিটেড এবং গার্ডিয়ান লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এর মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর

ছবি

এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে সবার অন্তর্ভুুক্তিতে ভূমিকা রাখবে ডিজিটাল অর্থনীতি

ছবি

কনসার্ট ফর বাংলাদেশ অবলম্বনে রচিত ডিজিটাল বইয়ের উদ্বোধন করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

ছবি

শেষ হল বাংলাদেশ ক্লাইমেট সায়েন্স অলিম্পিয়াড-২০২১ এর ক্যাম্প

ছবি

নাসা স্পেস অ্যাপস চ্যালেঞ্জ ২০২১ এর রেজিস্ট্রেশন শুরু

ছবি

হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সংযোজন

ছবি

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী

ছবি

এখন ফেসবুকে জানা যাবে বাংলাদেশে কোথায় টিকাকেন্দ্র

ছবি

শিক্ষার্থীদের জন্য ডিজিটাল দক্ষতা বিষয়ক কর্মশালা আয়োজন করবে ইউনিভার্সাল কলেজ বাংলাদেশ ও মোনাশ কলেজ অস্ট্রেলিয়া

ছবি

টেক স্টার্টআপ: বাংলাদেশ-ভারত ওয়েবিনার সিরিজ শুরু

ছবি

বাংলাদেশের আইসিটি খাতে ভারতের সহযোগিতা আরো প্রসারিত হবে বলে আমরা আশাবাদী: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

ছবি

এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে দারিদ্র্য দূরীকরণে প্রান্তিক পর্যায়ে ডিজিটাল কানেক্টিভিটি বাড়ানোর আহ্বান বিশেষজ্ঞদের

ফেইসবুকের বিকল্প হিসেবে আসছে ‘যোগাযোগ’

ছবি

বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি মূল্যায়নে প্রথম পুরস্কার গ্রহণ করল আইসিটি বিভাগ

ছবি

মালয়েশিয়াতে প্রবাসী নারীদের নিয়ে ফ্রিল্যান্সিং কর্মশালা অনুষ্ঠিত

ছবি

২ হাজারের বেশি হাসপাতালকে ডিজিটাল পদ্ধতির আওতায় আনা হবে: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক

ছবি

শুরু হলো ৪র্থ বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াড ২০২১ এর একটিভেশন

ছবি

হুয়াওয়ের সাসটেইনেবিলিটি রিপোর্ট ২০২০ প্রকাশ

ছবি

শুরু হয়েছে অনলাইন শিশু-কিশোর বিজ্ঞান কংগ্রেস ২০২১-এর রেজিষ্ট্রেশন

ছবি

নারী উদ্যেক্তাদের প্রযুক্তিগত দক্ষতা উন্নয়ন ও ডিজিটালাইজেশনে সহায়তা দেবে লেনোভো

ছবি

ডিজিটাল উদ্ভাবন এবং পরিবেশ সুরক্ষায় অবদান রাখায় আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেলো রবি

ছবি

আইসিটি বিভাগের বিগত অর্থবছরের এডিপি পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত: অগ্রগতি ৮৮ শতাংশ

ছবি

দারাজের নতুন চিফ কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার এ.এইচ.এম. হাসিনুল কুদ্দুস (রুশো)

ছবি

বাংলাদেশের সিটি ইউনিভার্সিটি ও চীনের উহান ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি ইউনিভার্সিটির মধ্যে চুক্তি

ছবি

বাংলাদেশের সিটি ইউনিভার্সিটি ও চীনের উহান ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি ইউনিভার্সিটির মধ্যে চুক্তি

ছবি

মোবাইল ওয়ার্ল্ড কংগ্রেস ২০২১ এ হুয়াওয়ের পাঁচটি অ্যাওয়ার্ড অর্জন

ছবি

বিভিন্ন দেশের মধ্যে ডিজিটাল কোভিড ভ্যাকসিন পাসপোর্ট চালুর জন্য বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রতি পলকের আহ্বান

ছবি

বৈশ্বিক কার্বন নিঃসরণ ২০ শতাংশ পর্যন্ত কমিয়ে আনতে সক্ষম আইসিটি

ছবি

বঙ্গবন্ধুর জীবনী তুলে ধরার জন্য ডিজিটাল মিডিয়া সবচেয়ে শক্তিশালী মাধ্যম: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

ছবি

শুরু হচ্ছে ৬ দিনের বিআইটিএম এডমিশন সামিট জুলাই ২০২১

tab

প্রযুক্তি

নতুন অ্যান্টি-ফ্রড সিস্টেমের মাধ্যমে সুরক্ষা ব্যবস্থা আরো জোরদার করলো ইমো

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট
image

রোববার, ২০ জুন ২০২১

তাৎক্ষণিক যোগাযোগের জনপ্রিয় প্ল্যাটফর্ম ইমো বিস্তৃত পরিসরের একটি অ্যান্টি-ফ্রড সিকিউরিটি মেকানিজম উন্মোচন করা সহ এর সামগ্রিক সুরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করতে নতুন নানা ফিচার নিয়ে এসেছে।

ইমো’র ভাইস প্রেসিডেন্ট ক্রিস্টোফার শু বলেন, ‘আমরা সুরক্ষার বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করি এবং নিজেদের প্ল্যাটফর্মের যেকোন অপব্যবহারের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ দিয়ে লড়াইয়ে প্রতিশ্রুতিতবদ্ধ ইমো।’ তিনি আরও বলেন, ‘ক্রমবর্ধমান প্রযুক্তিজ্ঞানসম্পন্ন অপরাধীদের বিনরুদ্ধে এ লড়াই নিরন্তর; আমরাও এক্ষেত্রে আমাদের বিনিয়োগ বৃদ্ধির পাশাপাশি দীর্ঘমেয়াদী এ সমস্যা সমাধানে শিল্পসংশ্লিষ্ট সহযোগী ও কর্তৃপক্ষের সাথে একসাথে কাজ করার ব্যাপারে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

ব্যবহারকারীরা ইমো থেকে যতোবার ভেরিফিকেশন কোড পাবেন, এই নতুন অ্যান্টি-ফ্রড সিস্টেম ততোবার তাদেরকে সিকিউরিটি রিমাইন্ডার দিবে। এই রিমাইন্ডারের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে ব্যবহারকারীদের কোড অন্যদের সাথে শেয়ার করাকে প্রতিরোধ করা। নতুন এ সুরক্ষা ব্যবস্থা মিউচুয়াল ফ্রেন্ড নয় এমন অপরিচিত কারও পাঠানো ইউআরএল প্রিভিউ ও লিঙ্ক অকার্যকর করে দিবে। কন্ট্যাক্ট লিস্টে নেই এমন ওয়ান-ওয়ে ফ্রেন্ডদের ব্যাপারে ব্যবহারকারীদের সাবধান করতে চ্যাট পেজে সিকিউরিটি রিমাইন্ডার প্রদর্শিত হবে, যাতে করে ব্যবহারকারী সাবধান হতে পারেন এবং কোনো ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার না করেন।

পাশাপাশি, ব্যবহারকারীদের আইডি হ্যাক করা থেকে সুরক্ষা দিতে বিভিন্ন ডিভাইসে লগ ইন করার চেষ্টা করা হলে ইমো ব্যবহারকারীকে সিকিউরিটি রিমাইন্ডার পাঠাবে এবং কারো সাথে ভেরিফিকেশন কোড শেয়ার না করতে অবহিত করবে। ইমো থেকে প্রদান করা সিকিউরিটি নোটিশে লগ ইন -এর চেষ্টা করার বিষয়ে নতুন ডিভাইসের তথ্যসহ বিস্তারিত দেয়া থাকবে। এর মাধ্যমে ব্যবহারকারীরা ‘ম্যানেজ ডিভাইসেস’ অপশনে গিয়ে কোনো ডিভাইস সন্দেহজনক মনে হলে সেই ডিভাইসটি ডিলিট করে দিতে পারবেন। নতুন যুক্ত করা ডিভাইসের ক্ষেত্রেও ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্টের সাথে ব্যবহৃত নাম্বার পরিবর্তন কিংবা অ্যাকাউন্ট ডিলিট করার ব্যাপারও সীমাবদ্ধ করে দেয়া হবে।

ইমোর নীতিমালা লঙ্ঘন করে আপত্তিজনক এমন সব কন্টেন্ট বিরুদ্ধে অবস্থানে নিজেদের প্রচেষ্টা জোরদার করেছে ইমো এবং এর ধারাবাহিকতায় প্রতিষ্ঠানটি এর কন্টেন্ট মডারেশন টিম সম্প্রসারণ করেছে। ২০২১ সালের প্রথমার্ধে ৩ হাজারের বেশি কর্মীদের নিয়ে গঠিত কন্টেন্ট মডারেশন টিমে ১৩০ জনেরও বেশি বাংলাদেশি কর্মীকে যুক্ত করেছে ইমো। যেকোন ধরনের আপত্তিজনক কন্টেন্ট সরিয়ে ফেলতে এবং যেকোনো রিপোর্টেড কন্টেন্ট গড়ে ৬০ সেকেন্ডের মধ্যে যেনো প্রসেস করা হয় তা নিশ্চিতে ইমো’র কন্টেন্ট মডারেশন টিম সবসময় নিরসল কাজ করছে।

ক্রিস্টোফার বলেন, ‘কন্টেন্ট কমপ্লায়েন্স নিশ্চিত করা আমাদের অন্যতম অগ্রাধিকারের বিষয়। আপত্তিজনক কন্টেন্টের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমরা স্থানীয় আইন মেনে এবং সংস্কৃতির সাথে সামঞ্জস্য রেখে কঠোর কমিউনিটি নীতিমালা ও নির্দেশনা তৈরি করেছি। শুধুমাত্র এ বছরের অর্ধেক সময়ে আমরা সর্বমোট ৫.১ কোটি আপত্তিজনক পোস্ট ও ৮ লাখ অ্যাকাউন্ট সরিয়ে ফেলেছি। এর মধ্যে মোট সাড়ে ৩ কোটি পাবলিক কন্টেন্ট ব্যবহারকারীরা দেখার আগেই সরিয়ে ফেলা হয়েছে।’

ব্যবহারকারীরা অ্যাপে যদি নিষিদ্ধ কোনো কন্টেন্ট বা আচরণের প্রকাশ দেখতে পান তবে তা রিপোর্ট করার ব্যাপারে উৎসাহিত করে ইমো। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের দায়িত্বশীল ব্যবহারের ব্যাপারে উৎসাহিত করতে ইমো বাংলাদেশে একটি সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন শুরু করেছে।

ক্রিস্টোফার বলেন, ‘অশোভন বা অনুপযুক্ত যেকোন কন্টেন্ট শনাক্ত ও মডারেট করতে আমরা এআই-সমর্থিত সার্বক্ষণিক মাল্টি-স্টেপ কন্টেন্ট মডারেশন প্রক্রিয়া তৈরি করেছি, আমাদের ব্যবস্থা কেবল স্বয়ংক্রিয়ভাবে পাবলিক কন্টেন্ট শনাক্ত করতে পারে। প্রাইভেট চ্যাটের ক্ষেত্রে আমাদের কর্মীদল এই অশোভন আচরণ বন্ধে ব্যবহারকারীদের রিপোর্ট করার ওপর নির্ভর করে, কেননা, প্রাইভেট চ্যাট এনক্রিপ্ট করা থাকে। আর এজন্যই, আমরা আমাদের ব্যবহারকারীদের প্ল্যাটফর্মে যেকোন অশোভন আচরণ দেখলে তা রিপোর্ট করতে উৎসাহিত করতে এ ক্যাম্পেইন শুরু করেছি, যাতে আমরা অশোভন আচরণের ব্যাপারে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারি।’

এর আগে, ইমোর ‘সিক্রেট চ্যাট’ ফিচারটি ব্যবহারকারীদের দ্বারা প্রশংসিত হয়েছে। ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্ট নিরাপদ ও সুরক্ষিত রাখতে ইমো ফোন নম্বর ভেরিফিকেশন পদ্ধতিও অন্তর্ভুক্ত করেছে। এ ধরণের প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের ফলে ইমোতে অনাকাঙ্ক্ষিত হয়রানিমূলক রিপোর্টের সংখ্যা কমেছে।

ক্রিস জোর দিয়ে বলেন, ‘কমিউনিটির সুরক্ষায় এবং কমিউনিটিতে সুস্থ পরিবেশ বজায়ে ইমো ধারাবাহিকভাবে রিসোর্স ও প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করবে। বাংলাদেশের ব্যবহারকারীদের জন্য সেরা ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং প্ল্যাটফর্ম হওয়া আগেও আমাদের লক্ষ্য ছিলো, ভবিষ্যতেও আমরা এ লক্ষ্যে কাজ করবো।’

back to top