alt

জাতীয়

সিলেটে বিপৎসীমার উপরে বইছে ৫ নদী, বন্যার শঙ্কা

প্রতিনিধি, সিলেট : বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

সিলেটে বৃষ্টিপাত কিছুটা কমলেও পাহাড়ি ঢলের কারণে নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধির মাত্রা অব্যাহত রয়েছে। নতুন করে পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে জৈন্তাপুর, কানাঘাট, কোম্পানীগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা। তলিয়ে গেছে গ্রামীণ রাস্তাঘাট ও বাড়িঘর।

বুধবার (২৯ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৬টায় বিপৎসীমা ছাড়িয়ে যায় পাঁচটি নদীর পানি। এর আগে দুপুর ১২টা পর্যন্ত তিনটি নদীর পানি ছিল বিপৎসীমার উপরে। পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এদিকে, প্রবল স্রোতের কারণে বিভিন্ন স্থানে সুরমা নদীর ডাইকে (নদী প্রতিরক্ষা বাঁধ) ভাঙনের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। যেকোনো বাঁধ ভেঙে লোকালয়ে পানি প্রবেশ করতে পারে। এতে চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছেন সুরমা নদীর তীরবর্তী এলাকার বাসিন্দারা।

উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঝুঁকিপূর্ণ ডাইক পরিদর্শন করা হয়েছে। ডাইক ভেঙে যাতে পানি প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট উপজেলা গুলোর সবকয়টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সিলেটের তথ্যমতে, বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় সুরমা নদীর কানাইঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার ১২০ সেন্টিমিটার, কুশিয়ারা নদীর পানি জকিগঞ্জের অমলশীদ পয়েন্টে ১২০ সেন্টিমিটার, সারি নদীর পানি জৈন্তাপুরের সারিঘাট পয়েন্টে ৯১ সেন্টিমিটার, সারিগোয়াইন নদীর পানি গোয়াইনঘাট পয়েন্টে ১২ সেন্টিমিটার ও ডাউকি নদীর পানি জাফলংয়ে ৪১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

এর আগে বুধবার দুপুর ১২টায় সুরমা নদীর কানাইঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার ৮৫ সেন্টিমিটার, কুশিয়ারা নদীর পানি জকিগঞ্জের অমলশীদ পয়েন্টে ৩৭ সেন্টিমিটার, সারি নদীর পানি জৈন্তাপুরের সারিঘাট পয়েন্টে ৫৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

এদিকে, নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সীমান্তবর্তী কানাইঘাট উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সুরমা নদীর ডাইকে ভাঙনের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বিভিন্ন স্থানে নদীর পানি ঢুকে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এতে দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও রাস্তাঘাট তলিয়ে গেছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন বিভিন্ন এলাকার মানুষ।

বুধবার বেলা ১১টা থেকে কানাইঘাট বাজারে সুরমা নদীর পানি প্রবেশ করে উত্তর বাজার, দক্ষিণ বাজার ও পূর্ব বাজার তলিয়ে যায়। অসংখ্য ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হাঁটুসমান পানি হতে দেখা গেছে। এতে বেশ ক্ষতির মুখে পড়েছেন ব্যবসায়ীরা।

এদিকে, কানাইঘাট-সুরইঘাট সড়কের গড়াইখাই সেতু থেকে বিজিবি ক্যাম্প পর্যন্ত সড়ক উজানের পাহাড়ি ঢলের পানিতে তলিয়ে গেছে। ২ নম্বর লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউনিয়নের লোকালয়সহ নিম্নাঞ্চল পানিতে তলিয়ে গেছে। এছাড়া পৌরসভার কানাইঘাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন সুরমা ডাইকের পাকা সড়কে পূর্বের ভাঙনের স্থানে প্রবল স্রোতের কারণে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। যেকোনো সময় বাঁধ ভেঙে লোকালয়ে পানি প্রবেশ করতে পারে।

এসব কানাইঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারজানা নাসরিন বলেন, উজান থেকে আসা আকস্মিক পাহাড়ি ঢল ও বৃষ্টিপাতের কারনে সুরমা ও লোভা নদীর পানি বেড়ে গিয়ে বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক পরিস্থিতি মনিটরিং করা হচ্ছে।

ইউএনও আরও বলেন, সুরমা ডাইকের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা ভেঙে পানি যাতে লোকালয়ে প্রবেশ করতে না পারে, সেজন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিলে তা মোকাবিলায় উপজেলার সবকয়টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

অন্যদিকে, সিলেটের জৈন্তাপুরে টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে নদনদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। নতুন করে বিভিন্ন এলাকা পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। উপজেলার নিজপাট লামাপড়া, বন্দরহাটি, ময়নাহাটি, জাঙ্গালহাটি, বড়খেল, মেঘলী, তিলকৈপাড়া, ফুলবাড়ী, নয়াবাড়ী, হর্নি, বাইরাখেল, গোয়াবাড়ী, ডিবির হাওর, ঘিলাতৈল, মুক্তাপুর, বিরাইমারা হাওর, খারুবিল, লমানীগ্রাম, কাটাখাল, বাউরভাগ, চাতলারপাড়, ডুলটিরপাড়, ১ নম্বর লক্ষীপুর, ২ নম্বর লক্ষীপুর, আমবাড়ী, ঝিঙ্গাবাড়ী, কাঠালবাড়ী, নলজুরী, কেন্দ্রী, থুবাং, কালিঞ্জি, লালা, তুমইর, শেওলারটুক, বাওন হাওরসহ নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

জৈন্তাপুরের ইউএনও উম্মে সালিক রুমাইয়া বলেন, পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যায় নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে। বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। নিম্নাঞ্চলের জনসাধারণকে নিরাপদ আশ্রয়ে গবাদি পশু সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে।

ছবি

নেতাদের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন শেখ হাসিনা

ছবি

আজ পবিত্র ঈদুল আজহা

ছবি

বঙ্গভবনে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন রাষ্ট্রপতি

ছবি

ঈদুল আজহার ত্যাগের চেতনায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ছবি

সবুজ বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ছবি

২০ বছরে হেফাজতে মৃত্যুর সংখ্যা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

ছবি

খালেদা জিয়া কৃষকের ভাগ্য নিয়েও ছিনিমিনি খেলেছিল

ছবি

ঈদ নিরাপত্তায় যেসব পরামর্শ দিলো পুলিশ

ছবি

সাভার-আশুলিয়া সড়কে কমেছে যানবাহনের চাপ

ছবি

আজ পবিত্র হজ

ছবি

চোরাইপথে আসা চিনি ছিনতাইচেষ্টায় ‘ছাত্রলীগের’ ৫ জন আটক

রঞ্জন সেনের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ ২ বছর বাড়ানো হলো

ছবি

মিঠা পানির মাছ উৎপাদনে চীনকে ছাড়িয়ে দ্বিতীয় বাংলাদেশ

ছবি

ওয়াশিংটন অ্যাকর্ডের সিগনেটরি স্বীকৃতি পেলো আইইবি

ছবি

এ বছরের পর আর টিকিট কালোবাজারি থাকবে না: র‌্যাব

ছবি

সৌদিতে আরও দুই বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

ওমানের ভিসা নিষেধাজ্ঞা শিথিলের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে বাংলাদেশ

ছবি

মাসুমা খান মজলিস ইন্তেকাল করেছেন

মজলিসের স্ত্রী মাসুমা খান মজলিস আজ সকালে ইন্তেকাল করে

ছবি

আরও ৭০ উপজেলা ‘ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত’

ছবি

১৫২ কোটি টাকার সুদ মওকুফ করায় সাবেক ভ্যাট কমিশনারের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

ছবি

এয়ার অ্যারাবিয়ার ফ্লাইট ‘জরুরি অবস্থা’ ঘোষণা করে ঢাকায় ফিরল

ছবি

কক্সবাজারকে গৃহহীন ও ভূমিহীন মুক্ত ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

নেপাল থেকে ৪০ মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ কিনবে সরকার

ছবি

প্রতিরক্ষা খাতে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করতে চায় ইইউ : রাষ্ট্রদূত

ছবি

ভূমিহীন-গৃহহীনমুক্ত হলো আরও ৭০ উপজেলা

ছবি

এমপি আজিম চোরাচালানে যুক্ত ছিল, কখনোই বলিনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী

ছবি

নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান

ছবি

আজিজ আহমেদের স্বজনদের পাসপোর্ট অনুসন্ধানে দুদকের চিঠি, ইসির তদন্ত কমিটি গঠন

ছবি

স্কাইডাইভে আশিক চৌধুরীর বিশ্বরেকর্ড উদযাপন করল স্পন্সর ইউসিবি

দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ছবি

জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলুন- সিলেটে আইজিপি

ছবি

শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আগামী কাল

ছবি

পাকিস্তানে হামলায় সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেনসহ ৭ সৈন্য নিহত

ছবি

চেনা দুর্যোগগুলো অচেনা হয়ে উঠছে : দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ডিজি

tab

জাতীয়

সিলেটে বিপৎসীমার উপরে বইছে ৫ নদী, বন্যার শঙ্কা

প্রতিনিধি, সিলেট

বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

সিলেটে বৃষ্টিপাত কিছুটা কমলেও পাহাড়ি ঢলের কারণে নদ-নদীতে পানি বৃদ্ধির মাত্রা অব্যাহত রয়েছে। নতুন করে পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে জৈন্তাপুর, কানাঘাট, কোম্পানীগঞ্জের বিভিন্ন এলাকা। তলিয়ে গেছে গ্রামীণ রাস্তাঘাট ও বাড়িঘর।

বুধবার (২৯ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৬টায় বিপৎসীমা ছাড়িয়ে যায় পাঁচটি নদীর পানি। এর আগে দুপুর ১২টা পর্যন্ত তিনটি নদীর পানি ছিল বিপৎসীমার উপরে। পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এদিকে, প্রবল স্রোতের কারণে বিভিন্ন স্থানে সুরমা নদীর ডাইকে (নদী প্রতিরক্ষা বাঁধ) ভাঙনের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। যেকোনো বাঁধ ভেঙে লোকালয়ে পানি প্রবেশ করতে পারে। এতে চরম দুশ্চিন্তায় পড়েছেন সুরমা নদীর তীরবর্তী এলাকার বাসিন্দারা।

উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ঝুঁকিপূর্ণ ডাইক পরিদর্শন করা হয়েছে। ডাইক ভেঙে যাতে পানি প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। এছাড়া সংশ্লিষ্ট উপজেলা গুলোর সবকয়টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সিলেটের তথ্যমতে, বুধবার সন্ধ্যা ৬টায় সুরমা নদীর কানাইঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার ১২০ সেন্টিমিটার, কুশিয়ারা নদীর পানি জকিগঞ্জের অমলশীদ পয়েন্টে ১২০ সেন্টিমিটার, সারি নদীর পানি জৈন্তাপুরের সারিঘাট পয়েন্টে ৯১ সেন্টিমিটার, সারিগোয়াইন নদীর পানি গোয়াইনঘাট পয়েন্টে ১২ সেন্টিমিটার ও ডাউকি নদীর পানি জাফলংয়ে ৪১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

এর আগে বুধবার দুপুর ১২টায় সুরমা নদীর কানাইঘাট পয়েন্টে বিপৎসীমার ৮৫ সেন্টিমিটার, কুশিয়ারা নদীর পানি জকিগঞ্জের অমলশীদ পয়েন্টে ৩৭ সেন্টিমিটার, সারি নদীর পানি জৈন্তাপুরের সারিঘাট পয়েন্টে ৫৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

এদিকে, নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় সীমান্তবর্তী কানাইঘাট উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সুরমা নদীর ডাইকে ভাঙনের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। বিভিন্ন স্থানে নদীর পানি ঢুকে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। এতে দোকানপাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও রাস্তাঘাট তলিয়ে গেছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন বিভিন্ন এলাকার মানুষ।

বুধবার বেলা ১১টা থেকে কানাইঘাট বাজারে সুরমা নদীর পানি প্রবেশ করে উত্তর বাজার, দক্ষিণ বাজার ও পূর্ব বাজার তলিয়ে যায়। অসংখ্য ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হাঁটুসমান পানি হতে দেখা গেছে। এতে বেশ ক্ষতির মুখে পড়েছেন ব্যবসায়ীরা।

এদিকে, কানাইঘাট-সুরইঘাট সড়কের গড়াইখাই সেতু থেকে বিজিবি ক্যাম্প পর্যন্ত সড়ক উজানের পাহাড়ি ঢলের পানিতে তলিয়ে গেছে। ২ নম্বর লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউনিয়নের লোকালয়সহ নিম্নাঞ্চল পানিতে তলিয়ে গেছে। এছাড়া পৌরসভার কানাইঘাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন সুরমা ডাইকের পাকা সড়কে পূর্বের ভাঙনের স্থানে প্রবল স্রোতের কারণে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। যেকোনো সময় বাঁধ ভেঙে লোকালয়ে পানি প্রবেশ করতে পারে।

এসব কানাইঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ফারজানা নাসরিন বলেন, উজান থেকে আসা আকস্মিক পাহাড়ি ঢল ও বৃষ্টিপাতের কারনে সুরমা ও লোভা নদীর পানি বেড়ে গিয়ে বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সার্বিক পরিস্থিতি মনিটরিং করা হচ্ছে।

ইউএনও আরও বলেন, সুরমা ডাইকের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা ভেঙে পানি যাতে লোকালয়ে প্রবেশ করতে না পারে, সেজন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বন্যা পরিস্থিতি দেখা দিলে তা মোকাবিলায় উপজেলার সবকয়টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

অন্যদিকে, সিলেটের জৈন্তাপুরে টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে নদনদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। নতুন করে বিভিন্ন এলাকা পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। উপজেলার নিজপাট লামাপড়া, বন্দরহাটি, ময়নাহাটি, জাঙ্গালহাটি, বড়খেল, মেঘলী, তিলকৈপাড়া, ফুলবাড়ী, নয়াবাড়ী, হর্নি, বাইরাখেল, গোয়াবাড়ী, ডিবির হাওর, ঘিলাতৈল, মুক্তাপুর, বিরাইমারা হাওর, খারুবিল, লমানীগ্রাম, কাটাখাল, বাউরভাগ, চাতলারপাড়, ডুলটিরপাড়, ১ নম্বর লক্ষীপুর, ২ নম্বর লক্ষীপুর, আমবাড়ী, ঝিঙ্গাবাড়ী, কাঠালবাড়ী, নলজুরী, কেন্দ্রী, থুবাং, কালিঞ্জি, লালা, তুমইর, শেওলারটুক, বাওন হাওরসহ নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে।

জৈন্তাপুরের ইউএনও উম্মে সালিক রুমাইয়া বলেন, পাহাড়ি ঢল ও টানা বৃষ্টিতে সৃষ্ট বন্যায় নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে। বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। নিম্নাঞ্চলের জনসাধারণকে নিরাপদ আশ্রয়ে গবাদি পশু সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে।

back to top