alt

জাতীয়

উপজেলা : ক্ষমতাসীনদের আয়, সম্পদ বৃদ্ধি পাচ্ছে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : রোববার, ১৯ মে ২০২৪

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের প্রার্থীদের আয় ৫ বছরে ১ হাজার ৬৫০ শতাংশ থেকে ১০ হাজার ৯০০ শতাংশ আয় বৃদ্ধি পেয়েছে ১২০ জনের। আর এই সময়ের মধ্যে ২ হাজার ১৫৭ শতাংশ থেকে ১১ হাজার ৬৬৭ শতাংশ অস্থাবর সম্পদ বৃদ্ধি পেয়েছে ১৫৬ জনের। এছাড়া স্ত্রী/স্বামী ও নির্ভরশীলদের ৭৯১ শতাংশ থেকে ১২ হাজার ৪০০ শতাংশ পর্যন্ত অস্থাবর সম্পদ বৃদ্ধি পেয়েছে ৪২ জনের। এই তথ্য জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

টিআইবির পর্যবেক্ষণে বলা হয়, ক্ষমতায় থাকার সঙ্গে দ্রুত আয় ও সম্পদ বৃদ্ধির প্রবণতা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। শুধু নির্বাচিত ব্যক্তি নন, তাদের স্ত্রী/স্বামী ও নির্ভরশীলদের আয় ও সম্পদ বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। যারা দীর্ঘ সময় ধরে ক্ষমতায় আছেন, তাদের আয় ও সম্পদ বেশি বৃদ্ধি পাওয়ার প্রবণতাও স্পষ্ট।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ২০২৪ (২য় ধাপ) হললফনামা বিশ্লেষণ ও ফলাফল নিয়ে টিআইবি’র সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, অনেক প্রার্থীর হলফনামা ও আয়কর রিটার্ণে ঘোষিত সম্পদের বিবরনীতে গরমিল রয়েছে। এই বিষয়ে সংবাদের প্রশ্নের জবাবে মো: আলমগীর জানান, ‘হলফনামায় ভুল তথ্য দিলে নির্বাচন কমিশনের করার কিছু নাই। হলফনামায় প্রার্থী শপথ করে মিথ্যা তথ্য দিলে যে কোনো নাগরিক আদালতে যেতে পারবেন। প্রমাণ হলে আদালত তখন শাস্তি দিতে পারেন।’

আজ রোববার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডির মাইডাস সেন্টারে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) কর্তৃক ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২য় ধাপে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের হলফনামা বিশ্লেষণ ও ফলাফলে এই তথ্য জানায় সংস্থাটি। টিআইবি জানায়, দ্বিতীয় ধাপে ১৫৭ উপজেলায় চেয়ারম্যান ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান মিলে মোট প্রার্থী ১ হাজার ৮১১ জন। এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৫৯৯ জন, ভাইস চেয়ারম্যান ৬৮৯ জন, নারী ভাইস চেয়ারম্যান ৫২৩ জনসহ মোট ৪৬২ জন।

টিআইবির তথ্য অনুযায়ী ১ হাজার ৮১১ জন প্রার্থীর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২৩৫ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৬৭ জন, নারী ভাইস চেয়ারম্যান ৬০ জনসহ মোট ৪৬২ জন প্রার্থী ঋণগ্রস্ত।

গবেষনা সংস্থাটি জানায়, পদে যারা ছিলেন তাদের আয় ও অস্থাবর সম্পদ বৃদ্ধির হার পদে যারা ছিলেন না তাদের তুলনায় অনেক বেশী। এদের মধ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রয়েছেন।

সংস্থাটি জানায়, বিরোধীদল বিএনপি নির্বাচন বর্জন করলেও কমপক্ষে মোট প্রার্থীর ৩ শতাংশ নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এছাড়া দ্বিতীয় পর্বের উপজেলা নির্বাচনে মন্ত্রী-এমপিদের অন্তত ১৭ জন স্বজন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে নারীর অংশগ্রহণ আশঙ্কাজনক হারে কম। এমনকি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নারীর অংশগ্রহণ জাতীয় নির্বাচনের তুলনায়ও কম। প্রথম ধাপের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নারী প্রার্থী ছিলেন ২৫ জন, দ্বিতীয় ধাপে তা কমে হয়েছে ২৪ জন। শতকরা হিসেবে যা মাত্র ১ দশমিক ৮৬ শতাংশ।

সংস্থাটির তথ্যমতে, দ্বিতীয় ধাপে নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীদের ৩৫ দশমিক ২৪ শতাংশ ডিগ্রিধারী। ভাইসচেয়ারম্যান পদে ২৮ দশমিক ৬৭ শতাংশ ¯œাতক ডিগ্রিধারী আর সংরক্ষিত নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদের মাত্র ২৪ দশমিক ৩৮ শতাংশ প্রার্থী নি¤œ মাধ্যমিক পর্যন্ত লেখাপড়া করেছেন।

টিআইবি বলছে, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতো স্থানীয় সরকার নির্বাচনেও ব্যবসায়ী প্রার্থীদের দাপট ক্রমেই বেড়ে চলেছে। ২০১৪ সালের চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তুলনায় ব্যবসায়ী প্রার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ৮ শতাংশ। অন্যদিকে গৃহিণী, কৃষিজীবী ও শিক্ষক প্রার্থীদের পরিমাণ দিন দিন কমছে।

সংস্থাটি জানায়, দ্বিতীয় ধাপে অংশ নেয়া চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীদের ৭০ দশমিক ৫১ শতাংশই নিজেকে ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন। কৃষিকাজকে পেশা হিসেবে দেখিয়েছেন ১২ দশমিক ১৭ শতাংশ। এছাড়া আইনজীবী ৪ দশমিক১৭ ও শিক্ষক ৪ দশমিক ১৭ শতাংশ পেশা হিসেবে দেখিয়েছেন।

একইভাবে ভাইসচেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে ৬৮ দশমিক ৭৩ শতাংশ ব্যবসায়ী, ১৬ দশমিক ৯৭ শতাংশ কৃষি ৩ দশমিক ৪৮ শতাংশ শিক্ষক ও ৩ দশমিক ৩৫ শতাংশ আইনজীবি।

সংরক্ষিত নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের ৫১ দশমিক ৬২ শতাংশ গৃহিনী, ২৯ দশমিক ২৬ শতাংশ ব্যবসা, ৫ দশমিক ৯৩ শতাংশ শিক্ষক, ৩.২৫ শতাংশ কৃষি ও ২.৮৭ শতাংশ রাজনীতি হিসেবে তাদের পেশা দেখিয়েছেন। তবে মজার ব্যাপার হলো পেমা হিসেবে গৃহিনী দেখানো প্রার্থীদের ১৪ শতাংশই আয়ের উৎস দেখিয়েছেন ব্যবসা, কৃষি থেকে আয় দেখিয়েছেন ১৬.৩৬ শতাংশ এবং নিজেদের কোন আয়ের উৎস নেই দেখিয়েছেন ৪৭.২৭ শতাংশ এবংকোন আয় নেই এমন দেখিয়েছেন ১০.৯২ শতাংশ।

ছবি

সবুজ বাংলাদেশ গড়ে তোলার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ছবি

২০ বছরে হেফাজতে মৃত্যুর সংখ্যা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

ছবি

খালেদা জিয়া কৃষকের ভাগ্য নিয়েও ছিনিমিনি খেলেছিল

ছবি

ঈদ নিরাপত্তায় যেসব পরামর্শ দিলো পুলিশ

ছবি

সাভার-আশুলিয়া সড়কে কমেছে যানবাহনের চাপ

ছবি

আজ পবিত্র হজ

ছবি

চোরাইপথে আসা চিনি ছিনতাইচেষ্টায় ‘ছাত্রলীগের’ ৫ জন আটক

রঞ্জন সেনের চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ ২ বছর বাড়ানো হলো

ছবি

মিঠা পানির মাছ উৎপাদনে চীনকে ছাড়িয়ে দ্বিতীয় বাংলাদেশ

ছবি

ওয়াশিংটন অ্যাকর্ডের সিগনেটরি স্বীকৃতি পেলো আইইবি

ছবি

এ বছরের পর আর টিকিট কালোবাজারি থাকবে না: র‌্যাব

ছবি

সৌদিতে আরও দুই বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

ওমানের ভিসা নিষেধাজ্ঞা শিথিলের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে বাংলাদেশ

ছবি

মাসুমা খান মজলিস ইন্তেকাল করেছেন

মজলিসের স্ত্রী মাসুমা খান মজলিস আজ সকালে ইন্তেকাল করে

ছবি

আরও ৭০ উপজেলা ‘ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত’

ছবি

১৫২ কোটি টাকার সুদ মওকুফ করায় সাবেক ভ্যাট কমিশনারের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

ছবি

এয়ার অ্যারাবিয়ার ফ্লাইট ‘জরুরি অবস্থা’ ঘোষণা করে ঢাকায় ফিরল

ছবি

কক্সবাজারকে গৃহহীন ও ভূমিহীন মুক্ত ঘোষণা করলেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

নেপাল থেকে ৪০ মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ কিনবে সরকার

ছবি

প্রতিরক্ষা খাতে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করতে চায় ইইউ : রাষ্ট্রদূত

ছবি

ভূমিহীন-গৃহহীনমুক্ত হলো আরও ৭০ উপজেলা

ছবি

এমপি আজিম চোরাচালানে যুক্ত ছিল, কখনোই বলিনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি তৈরি করে দেব : প্রধানমন্ত্রী

ছবি

নতুন সেনাপ্রধান ওয়াকার-উজ-জামান

ছবি

আজিজ আহমেদের স্বজনদের পাসপোর্ট অনুসন্ধানে দুদকের চিঠি, ইসির তদন্ত কমিটি গঠন

ছবি

স্কাইডাইভে আশিক চৌধুরীর বিশ্বরেকর্ড উদযাপন করল স্পন্সর ইউসিবি

দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ছবি

জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলুন- সিলেটে আইজিপি

ছবি

শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস আগামী কাল

ছবি

পাকিস্তানে হামলায় সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেনসহ ৭ সৈন্য নিহত

ছবি

চেনা দুর্যোগগুলো অচেনা হয়ে উঠছে : দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ডিজি

ছবি

নরেন্দ্র মোদিকে বাংলাদেশে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন শেখ হাসিনা

ছবি

বাজেট ডিব্রিফিং সেশনের উদ্বোধন করলেন স্পীকার

ছবি

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আন্তর্জাতিক সদিচ্ছার প্রয়োজন- সুইডেনের রাষ্ট্রদূতকে স্পিকার

আপাতত চাঁদপুর জেলায় কোন ভূমিহীন নেই

tab

জাতীয়

উপজেলা : ক্ষমতাসীনদের আয়, সম্পদ বৃদ্ধি পাচ্ছে

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

রোববার, ১৯ মে ২০২৪

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপের প্রার্থীদের আয় ৫ বছরে ১ হাজার ৬৫০ শতাংশ থেকে ১০ হাজার ৯০০ শতাংশ আয় বৃদ্ধি পেয়েছে ১২০ জনের। আর এই সময়ের মধ্যে ২ হাজার ১৫৭ শতাংশ থেকে ১১ হাজার ৬৬৭ শতাংশ অস্থাবর সম্পদ বৃদ্ধি পেয়েছে ১৫৬ জনের। এছাড়া স্ত্রী/স্বামী ও নির্ভরশীলদের ৭৯১ শতাংশ থেকে ১২ হাজার ৪০০ শতাংশ পর্যন্ত অস্থাবর সম্পদ বৃদ্ধি পেয়েছে ৪২ জনের। এই তথ্য জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

টিআইবির পর্যবেক্ষণে বলা হয়, ক্ষমতায় থাকার সঙ্গে দ্রুত আয় ও সম্পদ বৃদ্ধির প্রবণতা স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। শুধু নির্বাচিত ব্যক্তি নন, তাদের স্ত্রী/স্বামী ও নির্ভরশীলদের আয় ও সম্পদ বাড়ছে পাল্লা দিয়ে। যারা দীর্ঘ সময় ধরে ক্ষমতায় আছেন, তাদের আয় ও সম্পদ বেশি বৃদ্ধি পাওয়ার প্রবণতাও স্পষ্ট।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ২০২৪ (২য় ধাপ) হললফনামা বিশ্লেষণ ও ফলাফল নিয়ে টিআইবি’র সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, অনেক প্রার্থীর হলফনামা ও আয়কর রিটার্ণে ঘোষিত সম্পদের বিবরনীতে গরমিল রয়েছে। এই বিষয়ে সংবাদের প্রশ্নের জবাবে মো: আলমগীর জানান, ‘হলফনামায় ভুল তথ্য দিলে নির্বাচন কমিশনের করার কিছু নাই। হলফনামায় প্রার্থী শপথ করে মিথ্যা তথ্য দিলে যে কোনো নাগরিক আদালতে যেতে পারবেন। প্রমাণ হলে আদালত তখন শাস্তি দিতে পারেন।’

আজ রোববার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডির মাইডাস সেন্টারে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) কর্তৃক ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ২য় ধাপে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের হলফনামা বিশ্লেষণ ও ফলাফলে এই তথ্য জানায় সংস্থাটি। টিআইবি জানায়, দ্বিতীয় ধাপে ১৫৭ উপজেলায় চেয়ারম্যান ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান মিলে মোট প্রার্থী ১ হাজার ৮১১ জন। এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৫৯৯ জন, ভাইস চেয়ারম্যান ৬৮৯ জন, নারী ভাইস চেয়ারম্যান ৫২৩ জনসহ মোট ৪৬২ জন।

টিআইবির তথ্য অনুযায়ী ১ হাজার ৮১১ জন প্রার্থীর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২৩৫ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ১৬৭ জন, নারী ভাইস চেয়ারম্যান ৬০ জনসহ মোট ৪৬২ জন প্রার্থী ঋণগ্রস্ত।

গবেষনা সংস্থাটি জানায়, পদে যারা ছিলেন তাদের আয় ও অস্থাবর সম্পদ বৃদ্ধির হার পদে যারা ছিলেন না তাদের তুলনায় অনেক বেশী। এদের মধ্যে উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রয়েছেন।

সংস্থাটি জানায়, বিরোধীদল বিএনপি নির্বাচন বর্জন করলেও কমপক্ষে মোট প্রার্থীর ৩ শতাংশ নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এছাড়া দ্বিতীয় পর্বের উপজেলা নির্বাচনে মন্ত্রী-এমপিদের অন্তত ১৭ জন স্বজন চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তবে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে নারীর অংশগ্রহণ আশঙ্কাজনক হারে কম। এমনকি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নারীর অংশগ্রহণ জাতীয় নির্বাচনের তুলনায়ও কম। প্রথম ধাপের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নারী প্রার্থী ছিলেন ২৫ জন, দ্বিতীয় ধাপে তা কমে হয়েছে ২৪ জন। শতকরা হিসেবে যা মাত্র ১ দশমিক ৮৬ শতাংশ।

সংস্থাটির তথ্যমতে, দ্বিতীয় ধাপে নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীদের ৩৫ দশমিক ২৪ শতাংশ ডিগ্রিধারী। ভাইসচেয়ারম্যান পদে ২৮ দশমিক ৬৭ শতাংশ ¯œাতক ডিগ্রিধারী আর সংরক্ষিত নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদের মাত্র ২৪ দশমিক ৩৮ শতাংশ প্রার্থী নি¤œ মাধ্যমিক পর্যন্ত লেখাপড়া করেছেন।

টিআইবি বলছে, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতো স্থানীয় সরকার নির্বাচনেও ব্যবসায়ী প্রার্থীদের দাপট ক্রমেই বেড়ে চলেছে। ২০১৪ সালের চতুর্থ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তুলনায় ব্যবসায়ী প্রার্থীর সংখ্যা বেড়েছে ৮ শতাংশ। অন্যদিকে গৃহিণী, কৃষিজীবী ও শিক্ষক প্রার্থীদের পরিমাণ দিন দিন কমছে।

সংস্থাটি জানায়, দ্বিতীয় ধাপে অংশ নেয়া চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীদের ৭০ দশমিক ৫১ শতাংশই নিজেকে ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচয় দিয়েছেন। কৃষিকাজকে পেশা হিসেবে দেখিয়েছেন ১২ দশমিক ১৭ শতাংশ। এছাড়া আইনজীবী ৪ দশমিক১৭ ও শিক্ষক ৪ দশমিক ১৭ শতাংশ পেশা হিসেবে দেখিয়েছেন।

একইভাবে ভাইসচেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে ৬৮ দশমিক ৭৩ শতাংশ ব্যবসায়ী, ১৬ দশমিক ৯৭ শতাংশ কৃষি ৩ দশমিক ৪৮ শতাংশ শিক্ষক ও ৩ দশমিক ৩৫ শতাংশ আইনজীবি।

সংরক্ষিত নারী ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের ৫১ দশমিক ৬২ শতাংশ গৃহিনী, ২৯ দশমিক ২৬ শতাংশ ব্যবসা, ৫ দশমিক ৯৩ শতাংশ শিক্ষক, ৩.২৫ শতাংশ কৃষি ও ২.৮৭ শতাংশ রাজনীতি হিসেবে তাদের পেশা দেখিয়েছেন। তবে মজার ব্যাপার হলো পেমা হিসেবে গৃহিনী দেখানো প্রার্থীদের ১৪ শতাংশই আয়ের উৎস দেখিয়েছেন ব্যবসা, কৃষি থেকে আয় দেখিয়েছেন ১৬.৩৬ শতাংশ এবং নিজেদের কোন আয়ের উৎস নেই দেখিয়েছেন ৪৭.২৭ শতাংশ এবংকোন আয় নেই এমন দেখিয়েছেন ১০.৯২ শতাংশ।

back to top