alt

জাতীয়

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বেড়েছে ২৯ মে পর্যন্ত, এরপরও খোলা অনিশ্চিত

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : সোমবার, ১৭ মে ২০২১
image

করোনা সংক্রমণের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি আরেক দফা বাড়াল সরকার। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ২৯ মে পর্যন্ত ছুটি থাকবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। টানা এক বছরের বেশি সময় বন্ধ থাকায় আগামী ২৩ মে থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত ছিল।

এদিকে দীর্ঘ ছুটির কারণে সীমিত পরিসরে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থী এবং গত বছর একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের শ্রেণী কার্যক্রম চালু করার চিন্তাভাবনা করছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)।

দেশে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে মানুষের চলাচল ও সার্বিক কাজকর্মে চলমান বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়িয়ে গতকাল প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। এর আলোকেই দেশের প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান ছুটি আরেক দফা বাড়িয়ে ২৯ মে পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিভাগ এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় গতকাল এ সংক্রান্ত পৃথক আদেশ জারি করেছে। তবে আগামী ২৯ মে’র পরও স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে বলে মনে করছেন শিক্ষা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

মাউশির পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) প্রফেসর শাহেদুল কবির চৌধুরী গতকাল সংবাদকে জানিয়েছেন, ‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি ২৯ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া অনেকটাই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। ২৯ মে’র পরও কবে নাগাদ স্কুল-কলেজ খোলা যাবে সেটি এখনই বলা যাচ্ছে না। এই অনিশ্চিত পরিস্থিতির কারণে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থী এবং গতবার যারা একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হয়েছে, তাদের ক্লাস কিভাবে নেয়া যায় সেটা বিশেষভাবে বিবেচনা করা হচ্ছে। কারণ গতবার যারা একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হয়েছে তারা একদিনও ক্লাসে বসার সুযোগ পায়নি।’

পূর্বঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ থেকে দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল খুলে দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির কারণে সেখান থেকে সরে এসেছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা বলছেন, সরকার বিধিনিষেধ আগামী ২৩ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এই অবস্থায় হল খুলে দেয়া সম্ভব নয়। কবে নাগাদ তা খুলে দেয়া হবে তাও নিশ্চিত করে কেউ বলতে পারছেন না। তাছাড়া দেশের সব শিক্ষক, কর্মচারী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের এক লাখ ৩০ হাজার আবাসিক শিক্ষার্থীর টিকা গ্রহণ নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি। এ কারণে পূর্বনির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী ২৪ মে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলছে না।

করোনা পরিস্থিতিতে আগামী ২৪ মে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খোলার যাবে কিনা- তা পর্যালোচনা করতে গত ৫ মে বৈঠকে বসেন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা। ওই বৈঠকেও করোনা পরিস্থিতিতে কী করণীয় তা নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েন তারা। এ কারণে ১৭ মে আবাসিক হল খুলে দেয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে বৈঠকে উপস্থিত একাধিক ভিসি তখন জানিয়েছিলেন। আগামী জুন থেকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ২০২০-২১ সালের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তা যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি শীঘ্রই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার নতুন তারিখ ঘোষণা দেবেন বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

মাউশি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সরকারি বিধিনিষেধ প্রত্যাহার হলে পুনরায় ‘অ্যাসাইনমেন্ট’ শুরু করা যাবে। সংক্রমণ কমতে থাকলে একটা সময় সীমিত আকারে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার জন্য তৈরি সংক্ষিপ্ত সিলেবাস পড়ানো শুরু করা যাবে। অন্যান্য ক্লাসও শুরু করা হবে পর্যায়ক্রমে।

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি গত ২২ ফেব্রুয়ারি সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, দেশের সরকারি বা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রেণীকক্ষে সরাসরি ক্লাস শুরু হবে ঈদুল ফিতরের পর আগামী ২৪ মে থেকে। তার এক সপ্তাহ আগে ১৭ মে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আবাসিক হল খুলে দেয়া হবে। তার আগে অবশ্যই করোনার টিকা নিতে হবে। হল খোলার আগেই আবাসিক শিক্ষার্থী, আবাসিক হলের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের টিকার ব্যবস্থা করা হবে।

করোনার কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে একটানা ১৪ মাস ধরে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এর ফলে প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষা পর্যন্ত প্রায় চার কোটি শিক্ষার্থী মারাত্মক সমস্যা পড়েছে। ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের অনেকে ঘাটতি নিয়ে ওপরের ক্লাসে উঠছে। কতটুকু শিখল, সেটাও যাচাই করা যাচ্ছে না।

সর্বশেষ গত ১৫ মে রাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা এমএ খায়ের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে অতি সম্প্রতি চলমান কোভিড-১৯ অতিমারীতে সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি পরিলক্ষিত হওয়ায় শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মচারী ও অভিভাবকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও সার্বিক নিরাপত্তার বিবেচনায় এবং কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় পরামর্শক কমিটির সঙ্গে পরামর্শক্রমে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি আগামী ২৯ মে পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। এই সময়ে অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে এবং শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন’।

ছবি

গুলশানে অল কমিউনিটি ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগ পরীমনির বিরুদ্ধে

ছবি

ট্রান্সফরমার আতঙ্কে জুরাইন এলাকাবাসী

ছবি

চীনের সিনোফার্মের টিকা: কারা পাবেন তার তালিকা বললেন মন্ত্রী

ছবি

গলায় প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে সংসদে বক্তব্য দিলেন আ. লীগ এমপি

ছবি

দেশে করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত আরও ঊর্ধ্বমুখী

ছবি

চলমান বিধি-নিষেধ আরও এক মাস বাড়লো

ছবি

দাম প্রকাশ করায় চীন থেকে টিকা পেতে দেরী হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ছবি

‘রিসোর্ট কিংবা বার হোক, আইন ভঙ্গ হলেই ব্যবস্থা’

ছবি

সুন্দরবনের আয়তন বাড়ছে: প্রধানমন্ত্রী

ছবি

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে জাতিসংঘের জরুরি পদক্ষেপ চায় বাংলাদেশ

ছবি

সীমান্ত জেলা থেকে আম কিনে লক্ষ্মীপুরে সংক্রমণ ধরা পড়ল ব্যবসায়ীর

ছবি

রাজধানীর আশপাশে, বিভিন্ন জেলায় বাড়ছে সংক্রমণ

ছবি

জনসনের টিকার অনুমোদন দিল বাংলাদেশ

ছবি

দেশে করোনায় আরও ৫০ জনের মৃত্যু,শনাক্ত ৩৩১৯

ছবি

হজ ও ওমরা নিয়ে অনিয়ম করলে বিচারের বিধান রেখে বিল পাস

ছবি

‘গার্ড অব অনার’ নারী থাকা নিয়ে আপত্তির বিষয়ে সংসদে ক্ষোভ

ছবি

আজ বর্ষার প্রথম দিন

ছবি

ঢাকায় দুই সিটিতে বসবে ২৪টি পশুর হাট

ছবি

ফাইজার ও সিনোফার্মের টিকা দেয়া আগামী সপ্তাহ থেকে শুরু :স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

ছবি

দিনাজপুর-চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদায় আজ থেকে কঠোর লকডাউন

ছবি

ফরিদপুরে একদিনে শনাক্ত বেড়েছে ৩০০ শতাংশ

ছবি

বোট ক্লাব থেকে নাসির উদ্দিনসহ ৩ জনকে বহিষ্কার

ছবি

মুক্তিযুদ্ধ মন্ত্রণালয়ের সুপারিশ নারী বিদ্বেষী ও সংবিধানবিরোধী: নির্মূল কমিটি

ছবি

টিকা ক্রয়ের পাশপাশি দেশে উৎপাদন ও উদ্ভাবনের পরামর্শ ফারুক খানের

ছবি

সংসদীয় কমিটি পুনর্গঠন: আইনে শহীদুজ্জামান-বিদ্যুতে ওয়াসিকা সভাপতি

ছবি

দেশে ৩৬ দিন পর করোনায় সর্বাধিক মৃত্যু, শনাক্ত ৩ হাজার ছাড়ালো

ছবি

এবার ঢাকা মেডিক্যালে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত

ছবি

১৯ জুন থেকে দেওয়া হবে ফাইজার-সিনোফার্মের টিকা: স্বাস্থ্য অধিদফতর

ছবি

রোগীদের হয়রানি রোধে ঢাকা মেডিকেলে ৫ বিশেষ ব্যবস্থা

ছবি

ঈদুল আজহায় বৈধ বা অবৈধ কোন গরু ভারত থেকে আনা যাবে না

ছবি

৩ দিন গ্যাস সংকটে থাকবে রাজধানীসহ পুরো দেশ

ছবি

বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ‘গার্ড অব অনারে’ নারী কর্মকর্তায় আপত্তি সংসদীয় কমিটির

ছবি

চীনের উপহারের আরও ৬ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন ঢাকায়

ছবি

দেশে করোনায় ৪৭ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৪৩৬

ছবি

লিবিয়ায় ভূমধ্যসাগর থেকে ১৬৪ বাংলাদেশিকে উদ্ধার

ছবি

‌এসএসসি, এইচএসসি পরীক্ষা না হলে বিকল্প চিন্তা : শিক্ষামন্ত্রী

tab

জাতীয়

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বেড়েছে ২৯ মে পর্যন্ত, এরপরও খোলা অনিশ্চিত

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

সোমবার, ১৭ মে ২০২১

করোনা সংক্রমণের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি আরেক দফা বাড়াল সরকার। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ২৯ মে পর্যন্ত ছুটি থাকবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। টানা এক বছরের বেশি সময় বন্ধ থাকায় আগামী ২৩ মে থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত ছিল।

এদিকে দীর্ঘ ছুটির কারণে সীমিত পরিসরে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থী এবং গত বছর একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের শ্রেণী কার্যক্রম চালু করার চিন্তাভাবনা করছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)।

দেশে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতিতে মানুষের চলাচল ও সার্বিক কাজকর্মে চলমান বিধিনিষেধ আরও এক সপ্তাহ বাড়িয়ে গতকাল প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার। এর আলোকেই দেশের প্রাথমিক, মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান ছুটি আরেক দফা বাড়িয়ে ২৯ মে পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিভাগ এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় গতকাল এ সংক্রান্ত পৃথক আদেশ জারি করেছে। তবে আগামী ২৯ মে’র পরও স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে বলে মনে করছেন শিক্ষা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

মাউশির পরিচালক (কলেজ ও প্রশাসন) প্রফেসর শাহেদুল কবির চৌধুরী গতকাল সংবাদকে জানিয়েছেন, ‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি ২৯ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। করোনা পরিস্থিতির কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া অনেকটাই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। ২৯ মে’র পরও কবে নাগাদ স্কুল-কলেজ খোলা যাবে সেটি এখনই বলা যাচ্ছে না। এই অনিশ্চিত পরিস্থিতির কারণে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থী এবং গতবার যারা একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হয়েছে, তাদের ক্লাস কিভাবে নেয়া যায় সেটা বিশেষভাবে বিবেচনা করা হচ্ছে। কারণ গতবার যারা একাদশ শ্রেণীতে ভর্তি হয়েছে তারা একদিনও ক্লাসে বসার সুযোগ পায়নি।’

পূর্বঘোষিত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আজ থেকে দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল খুলে দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির কারণে সেখান থেকে সরে এসেছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা বলছেন, সরকার বিধিনিষেধ আগামী ২৩ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এই অবস্থায় হল খুলে দেয়া সম্ভব নয়। কবে নাগাদ তা খুলে দেয়া হবে তাও নিশ্চিত করে কেউ বলতে পারছেন না। তাছাড়া দেশের সব শিক্ষক, কর্মচারী ও বিশ্ববিদ্যালয়ের এক লাখ ৩০ হাজার আবাসিক শিক্ষার্থীর টিকা গ্রহণ নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি। এ কারণে পূর্বনির্ধারিত তারিখ অনুযায়ী ২৪ মে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলছে না।

করোনা পরিস্থিতিতে আগামী ২৪ মে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খোলার যাবে কিনা- তা পর্যালোচনা করতে গত ৫ মে বৈঠকে বসেন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা। ওই বৈঠকেও করোনা পরিস্থিতিতে কী করণীয় তা নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়েন তারা। এ কারণে ১৭ মে আবাসিক হল খুলে দেয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে বৈঠকে উপস্থিত একাধিক ভিসি তখন জানিয়েছিলেন। আগামী জুন থেকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ২০২০-২১ সালের স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও তা যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে না। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি শীঘ্রই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার নতুন তারিখ ঘোষণা দেবেন বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

মাউশি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সরকারি বিধিনিষেধ প্রত্যাহার হলে পুনরায় ‘অ্যাসাইনমেন্ট’ শুরু করা যাবে। সংক্রমণ কমতে থাকলে একটা সময় সীমিত আকারে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার জন্য তৈরি সংক্ষিপ্ত সিলেবাস পড়ানো শুরু করা যাবে। অন্যান্য ক্লাসও শুরু করা হবে পর্যায়ক্রমে।

শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি গত ২২ ফেব্রুয়ারি সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, দেশের সরকারি বা বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রেণীকক্ষে সরাসরি ক্লাস শুরু হবে ঈদুল ফিতরের পর আগামী ২৪ মে থেকে। তার এক সপ্তাহ আগে ১৭ মে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আবাসিক হল খুলে দেয়া হবে। তার আগে অবশ্যই করোনার টিকা নিতে হবে। হল খোলার আগেই আবাসিক শিক্ষার্থী, আবাসিক হলের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের টিকার ব্যবস্থা করা হবে।

করোনার কারণে গত বছরের ১৭ মার্চ থেকে একটানা ১৪ মাস ধরে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এর ফলে প্রাথমিক থেকে উচ্চশিক্ষা পর্যন্ত প্রায় চার কোটি শিক্ষার্থী মারাত্মক সমস্যা পড়েছে। ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের অনেকে ঘাটতি নিয়ে ওপরের ক্লাসে উঠছে। কতটুকু শিখল, সেটাও যাচাই করা যাচ্ছে না।

সর্বশেষ গত ১৫ মে রাতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা এমএ খায়ের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ‘বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে অতি সম্প্রতি চলমান কোভিড-১৯ অতিমারীতে সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি পরিলক্ষিত হওয়ায় শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মচারী ও অভিভাবকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা ও সার্বিক নিরাপত্তার বিবেচনায় এবং কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় পরামর্শক কমিটির সঙ্গে পরামর্শক্রমে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি আগামী ২৯ মে পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। এই সময়ে অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে এবং শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবেন’।

back to top