alt

জাতীয়

একধাপ এগোলেও বাসযোগ্য শহরের তলানিতে ঢাকা

১৪০টি দেশের মধ্যে অবস্থান ১৩৭

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক : বৃহস্পতিবার, ১০ জুন ২০২১
image

বিশ্বের বাসযোগ্য শহরের তালিকায় এক ধাপ এগিয়েছে ঢাকা। সূচকের তেমন পরিবর্তন হয়নি। এগোলেও তালিকার তলানিতেই রয়েছে ঢাকা। ইকোনোমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (ইআইইউ) ২০২১ সালের ১৪০টি বাসযোগ্য শহরের তালিকায় ঢাকার নাম রয়েছে ১৩৭ নম্বরে।

মোট ১৪০টি শহর নিয়ে এই তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এই তালিকায় শীর্ষে রয়েছে নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ড। এরপর রয়েছে যথাক্রমে জাপানের ওসাকা, অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেড, নিউজিল্যান্ডের ওয়েলিংটন ও জাপানের রাজধানী টোকিও। শীর্ষ ১০-এ থাকা বাকি শহরগুলো হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার পার্থ, সুইজারল্যান্ডের জুরিখ ও জেনেভা, অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন ও ব্রিসবেন। অর্থাৎ, টপটেনে থাকা ১০টি শহর মূলত পাঁচটি দেশের।

অকল্যান্ড শীর্ষে উঠে এসেছে কোভিড নিয়ন্ত্রণের জন্য। যেভাবে চটজলদি ভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলা করে দেশের প্রশাসন এতদিন নাগরিক জীবন সচল রেখেছে, তাতে তাদের স্কোর অনেকটাই বেড়েছে। ঠিক একই কাজ ইউরোপের দেশগুলো সফলভাবে করতে পারেনি। তাই তারা ক্রমশ পিছিয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন পর্যবেক্ষকরা।

নিচের দিক থেকে ঢাকার অবস্থান চতুর্থ। যা গত বছর ছিল তৃতীয় অবস্থানে। সূচক বিবেচনায় নিচের শহরগুলো বাস অযোগ্য শহর হিসেবে গণ্য করা হলো। এ বছর লকডাউনের কারণে কিছুদিন যানবাহন ও কলকারখানা বন্ধ থাকায় পরিবেশ দূষণ কিছু কম হয়েছে। তাই বাসযোগ্য শহরের তালিকায় ঢাকা এক ধাপ এগিয়েছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

এই তালিকায় সবার নিচে রয়েছে সিরিয়ার রাজধানী দামেস্ক। ১৪০টি শহরের তালিকায় এর অবস্থান ১৪০তম। ১৩৯তম অবস্থানে রয়েছে নাইজেরিয়ার লাগোস। ১৩৮তম অবস্থানে পাপুয়া নিউগিনির পোর্ট মোরেসবি। এছাড়া ১৩৬তম অবস্থানে আলজেরিয়ার আলজিয়ার্স, ১৩৫তম অবস্থানে লিবিয়ার ত্রিপোলি ও ১৩৪তম অবস্থানে রয়েছে পাকিস্তানের করাচি।

স্থিতিশীলতা, স্বাস্থ্যসেবা, সংস্কৃতি ও পরিবেশ, শিক্ষা এবং অবকাঠামোর ওপর ভিত্তি করে এই তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। গত বছরের ওই তালিকায় ঢাকার নাম ছিল ১৩৮ নম্বরে। তার আগের বছর ছিল ১৩৯ নম্বরে। এ বছর তালিকায় স্থিতিশীলতায় ৫৫ পয়েন্ট পেয়েছে ঢাকা। স্বাস্থ্যসেবায় ১৬ দশমিক ৭, সংস্কৃতি ও পরিবেশে ৩০ দশমিক ৮, শিক্ষায় ৩৩ দশমিক ৩ এবং অবকাঠামোতে পেয়েছে ২৬ দশমিক ৮ পয়েন্ট।

তবে ঢাকার পরিবেশ দূষণ রোধ ও অপরিকল্পিত নগরায়ন বন্ধসহ কিছু ব্যবস্থা গ্রহণ করলে এই সূচকের পরিবর্তন করা সম্ভব্য বলে মনে করে বিশেষজ্ঞরা।

এ বিষয়ে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ও বাপার যুগ্ম সম্পাদক আহমদ কামরুজ্জামান মজুমদার সংবাদকে বলেন, ‘শহরের বায়ু দূষণের প্রধান কারণ হলো যানবাহনের ধোয়া। গত বছর লকডাউনের বিধিনিষেধের কারণে বায়ু দূষণ ৪০ শতাংশ কমে গিয়েছিল। যখন যানবাহন চালু হলো তখন তা আবার বৃদ্ধি পায়। এ বছর একই অবস্থা। লকডাউনের কারণে কিছুদিন কম ছিল। এখন আবার বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়া শহরে ২৫ শতাংশ সবুজ স্থান থাকার কথা। কিন্তু রয়েছে ১০ শতাংশের নিচে। তাই সার্বিকভাবে অযোগ্য শহরের তালিকায় এ বছর ঢাকার অবস্থান এক ধাপ এগিয়েছে। কিন্তু সূচকের তেমন পরিবহন হয়নি।’

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এ প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, করোনাভাইরাসের মহামারীর কারণে বসবাসযোগ্য শহরের ক্রমে ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে। অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা এ তালিকায় শীর্ষে ছিল ২০১৮ সাল থেকে। কিন্তু এবার শীর্ষ ১০ শহরের মধ্যে স্থান পায়নি ভিয়েনা। ২০১৯ সালে ভিয়েনার সঙ্গে একই পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থান ছিল অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন। সেই মেলবোর্ন এবার আট নম্বরে নেমে এসেছে। যে ১০টি শহর সবচেয়ে বেশি পিছিয়ে পড়েছে, তার মধ্যে আটটিই ইউরোপের কোন না কোন শহর। এই পতনের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে জার্মানির হামবুর্গ। ৩৪ সিঁড়ি বেয়ে ৪৭তম স্থানে নেমে এসেছে শহরটি।

ছবি

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তির বৈধতা প্রশ্নে হাইকোর্টের রুল

ছবি

মঙ্গলবার থেকে ৭ জেলায় লকডাউন ঘোষণা

ছবি

পদোন্নতি পেলেন ৬৯ বিচারক

ছবি

রাজধানীতে ফাইজার টিকা দেওয়া শুরু, ৩ কেন্দ্রে ভিড়

ছবি

ব্যয় কমাতে নতুন কোন বিদ্যুৎকেন্দ্র না করার সুপারিশ সিপিডির

ছবি

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় ২৬টিতে নৌকার জয়

ছবি

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এর সাথে ই-ক্যাবের যৌথসভা

ছবি

দেশে করোনায় আরও ৮২ জনের মৃত্যু, সাত সপ্তাহে সর্বোচ্চ

ছবি

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পেল আরও ৫৩ হাজার ভূমিহীন পরিবার

ছবি

অতিভারী বৃষ্টির প্রভাবে ভূমিধসের শঙ্কা

ছবি

আজ বিশ্ব বাবা দিবস

ছবি

কোরবানির জন্য দেশে পর্যাপ্ত পশু রয়েছে

ছবি

কবি সুফিয়া কামালের জন্মদিন আজ

ছবি

আজ ৫৩ হাজার পরিবার আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের ঘরের চাবি পাচ্ছে

ছবি

দেশে করোনায় ৪৮ দিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু

ছবি

ঢাকায় বেড়েছে শনাক্তের হার মৃত্যু কমেছে

ছবি

আজ থেকে আবারও টিকাদান শুরু

ছবি

দেশে করোনায় দুই মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্তের হার, মৃত্যু ৫৪

ছবি

নিখোঁজের ৮ দিন পর খোঁজ মিলেছে আবু ত্ব-হার

ছবি

ঢাকায় পাতালরেল চলবে ২০২৬ সালে

ছবি

ঢাকায় করোনার ৬৮ শতাংশ ভারতীয় ধরন

ছবি

পুলিশ ও ইসি কর্মকর্তাসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

ছবি

মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্তদের বেশির ভাগ দরিদ্র, স্বল্পশিক্ষিত ও সুবিধাবঞ্চিত

ছবি

সাশ্রয়ী মূল্যে সবার জন্য টিকা নিশ্চিত করতে জাতিসংঘকে বাংলাদেশের আহ্বান

ছবি

ঢাকায় করোনার ৬৮ শতাংশ সংক্রমণই ভারতীয় ধরন

ছবি

দেশে করোনায় মৃত্যু আজও ঊর্ধ্বমুখী

ছবি

ক্লাব, মদ ও জুয়া নিয়ে জাতীয় সংসদে উত্তপ্ত বিতর্ক

ছবি

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবের মৃত্যু

ছবি

দ্বিতীয় পর্যায়ে ভূমিসহ ঘর পাচ্ছে আরও ৫৩ হাজার পরিবার

ছবি

রোহিঙ্গা শরণার্থী প্রত্যাবর্তনে জাতিসংঘের স্পষ্ট রোডম্যাপ চায় বাংলাদেশ

ছবি

টিকা সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে: চীনা রাষ্ট্রদূত

ছবি

গুলশানে অল কমিউনিটি ক্লাবে ভাঙচুরের অভিযোগ পরীমনির বিরুদ্ধে

ছবি

ট্রান্সফরমার আতঙ্কে জুরাইন এলাকাবাসী

ছবি

চীনের সিনোফার্মের টিকা: কারা পাবেন তার তালিকা বললেন মন্ত্রী

ছবি

‘ত্রাণ চাই না বাঁধ চাই’, গলায় প্ল্যাকার্ড ঝুলিয়ে সংসদে

ছবি

দেশে করোনায় মৃত্যু-শনাক্ত আরও ঊর্ধ্বমুখী

tab

জাতীয়

একধাপ এগোলেও বাসযোগ্য শহরের তলানিতে ঢাকা

১৪০টি দেশের মধ্যে অবস্থান ১৩৭

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
image

বৃহস্পতিবার, ১০ জুন ২০২১

বিশ্বের বাসযোগ্য শহরের তালিকায় এক ধাপ এগিয়েছে ঢাকা। সূচকের তেমন পরিবর্তন হয়নি। এগোলেও তালিকার তলানিতেই রয়েছে ঢাকা। ইকোনোমিস্ট ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের (ইআইইউ) ২০২১ সালের ১৪০টি বাসযোগ্য শহরের তালিকায় ঢাকার নাম রয়েছে ১৩৭ নম্বরে।

মোট ১৪০টি শহর নিয়ে এই তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। এই তালিকায় শীর্ষে রয়েছে নিউজিল্যান্ডের অকল্যান্ড। এরপর রয়েছে যথাক্রমে জাপানের ওসাকা, অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেড, নিউজিল্যান্ডের ওয়েলিংটন ও জাপানের রাজধানী টোকিও। শীর্ষ ১০-এ থাকা বাকি শহরগুলো হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার পার্থ, সুইজারল্যান্ডের জুরিখ ও জেনেভা, অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন ও ব্রিসবেন। অর্থাৎ, টপটেনে থাকা ১০টি শহর মূলত পাঁচটি দেশের।

অকল্যান্ড শীর্ষে উঠে এসেছে কোভিড নিয়ন্ত্রণের জন্য। যেভাবে চটজলদি ভাইরাসের সংক্রমণ মোকাবিলা করে দেশের প্রশাসন এতদিন নাগরিক জীবন সচল রেখেছে, তাতে তাদের স্কোর অনেকটাই বেড়েছে। ঠিক একই কাজ ইউরোপের দেশগুলো সফলভাবে করতে পারেনি। তাই তারা ক্রমশ পিছিয়ে পড়েছে বলে জানিয়েছেন পর্যবেক্ষকরা।

নিচের দিক থেকে ঢাকার অবস্থান চতুর্থ। যা গত বছর ছিল তৃতীয় অবস্থানে। সূচক বিবেচনায় নিচের শহরগুলো বাস অযোগ্য শহর হিসেবে গণ্য করা হলো। এ বছর লকডাউনের কারণে কিছুদিন যানবাহন ও কলকারখানা বন্ধ থাকায় পরিবেশ দূষণ কিছু কম হয়েছে। তাই বাসযোগ্য শহরের তালিকায় ঢাকা এক ধাপ এগিয়েছে বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

এই তালিকায় সবার নিচে রয়েছে সিরিয়ার রাজধানী দামেস্ক। ১৪০টি শহরের তালিকায় এর অবস্থান ১৪০তম। ১৩৯তম অবস্থানে রয়েছে নাইজেরিয়ার লাগোস। ১৩৮তম অবস্থানে পাপুয়া নিউগিনির পোর্ট মোরেসবি। এছাড়া ১৩৬তম অবস্থানে আলজেরিয়ার আলজিয়ার্স, ১৩৫তম অবস্থানে লিবিয়ার ত্রিপোলি ও ১৩৪তম অবস্থানে রয়েছে পাকিস্তানের করাচি।

স্থিতিশীলতা, স্বাস্থ্যসেবা, সংস্কৃতি ও পরিবেশ, শিক্ষা এবং অবকাঠামোর ওপর ভিত্তি করে এই তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। গত বছরের ওই তালিকায় ঢাকার নাম ছিল ১৩৮ নম্বরে। তার আগের বছর ছিল ১৩৯ নম্বরে। এ বছর তালিকায় স্থিতিশীলতায় ৫৫ পয়েন্ট পেয়েছে ঢাকা। স্বাস্থ্যসেবায় ১৬ দশমিক ৭, সংস্কৃতি ও পরিবেশে ৩০ দশমিক ৮, শিক্ষায় ৩৩ দশমিক ৩ এবং অবকাঠামোতে পেয়েছে ২৬ দশমিক ৮ পয়েন্ট।

তবে ঢাকার পরিবেশ দূষণ রোধ ও অপরিকল্পিত নগরায়ন বন্ধসহ কিছু ব্যবস্থা গ্রহণ করলে এই সূচকের পরিবর্তন করা সম্ভব্য বলে মনে করে বিশেষজ্ঞরা।

এ বিষয়ে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ও বাপার যুগ্ম সম্পাদক আহমদ কামরুজ্জামান মজুমদার সংবাদকে বলেন, ‘শহরের বায়ু দূষণের প্রধান কারণ হলো যানবাহনের ধোয়া। গত বছর লকডাউনের বিধিনিষেধের কারণে বায়ু দূষণ ৪০ শতাংশ কমে গিয়েছিল। যখন যানবাহন চালু হলো তখন তা আবার বৃদ্ধি পায়। এ বছর একই অবস্থা। লকডাউনের কারণে কিছুদিন কম ছিল। এখন আবার বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়া শহরে ২৫ শতাংশ সবুজ স্থান থাকার কথা। কিন্তু রয়েছে ১০ শতাংশের নিচে। তাই সার্বিকভাবে অযোগ্য শহরের তালিকায় এ বছর ঢাকার অবস্থান এক ধাপ এগিয়েছে। কিন্তু সূচকের তেমন পরিবহন হয়নি।’

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের এ প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, করোনাভাইরাসের মহামারীর কারণে বসবাসযোগ্য শহরের ক্রমে ব্যাপক পরিবর্তন হয়েছে। অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা এ তালিকায় শীর্ষে ছিল ২০১৮ সাল থেকে। কিন্তু এবার শীর্ষ ১০ শহরের মধ্যে স্থান পায়নি ভিয়েনা। ২০১৯ সালে ভিয়েনার সঙ্গে একই পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থান ছিল অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন। সেই মেলবোর্ন এবার আট নম্বরে নেমে এসেছে। যে ১০টি শহর সবচেয়ে বেশি পিছিয়ে পড়েছে, তার মধ্যে আটটিই ইউরোপের কোন না কোন শহর। এই পতনের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে জার্মানির হামবুর্গ। ৩৪ সিঁড়ি বেয়ে ৪৭তম স্থানে নেমে এসেছে শহরটি।

back to top