alt

জাতীয়

তথ্য প্রতিমন্ত্রীর অপসারণ দাবি ৪০ নারী অধিকারকর্মীর

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১

তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের অপসারণ দাবি করেছেন ৪০ নারী অধিকারকর্মী।

রবিবার (৫ ডিসেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তারা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার নাতনি জাইমা রহমানকে নিয়ে প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদের মন্তব্যের তীব্র নিন্দা জানান।

৪০ নারী অধিকারকর্মীর পক্ষে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলা হয়, রাষ্ট্রীয় পদে আসীন একজন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রীর মুখে এই ভাষা বাংলাদেশের আপামর নারীদের অপমান এবং অসম্মান করেছে বলে আমরা মনে করি। জনগণের করের টাকায় বেতনভুক্ত বাংলাদেশের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা বিভিন্ন সময় সংসদে, রাজনৈতিক সভায়, গণমাধ্যমে, সম্মেলনে এরকম নারীবিদ্বেষী মন্তব্য করে পার পেয়ে যায়। এরমধ্য দিয়ে নারীর প্রতি যৌন হয়রানিকে সমাজ এবং রাষ্ট্রে কাঠামোগত প্রতিষ্ঠিত করার বৈধতা দেওয়া হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘‘আমরা জানতে চাই, কীভাবে তথ্যপ্রতিমন্ত্রী ঔদ্ধত্যপূর্ণভাবে বলেন, ‘ক্ষমা চাওয়ার প্রশ্নই উঠে না?’। আমাদের পর্যবেক্ষণ বলে ক্ষমতাসীন দলগুলোর প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ মদদে প্রায়শই এই ধরনের জনপ্রতিনিধিরা রাষ্ট্র পরিচালনার নাম করে তাদের আধিপত্যমূলক ক্ষমতাকাঠামো টিকিয়ে রাখার জন্য এবং রাজনৈতিকভাবে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য ‘নারীকে’ই বিভিন্ন যৌন অসংবেদনশীল বক্তব্যের মাধ্যমে হেয় করে থাকে। আর এই রাষ্ট্রব্যবস্থা এভাবেই সংসদ, আদালত, প্রশাসন তথা রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় নারীদের নিয়ে বিভিন্ন রকম যৌন হয়রানিমুলক মন্তব্য, তামাশা এবং মতামত দেওয়ার মাধ্যমে সাধারণ নারীর জন্য ভীতির পরিবেশ তৈরিতে উৎসাহিত করে। বিগত বছরগুলোতে আমাদের গণতন্ত্রহীনতা এত চরমে পৌঁছেছে যে, নারীদেরকে নিয়ে এই ধরনের যৌনবাদী মন্তব্য করার পরেও বেশিরভাগ সময়ে কোনো প্রশাসন, রাষ্ট্রীয় বাহিনী, আদালত, সাংসদকে জবাবদিহিতার আওতায় আনা সম্ভব হয়নি।’’

তথ্যপ্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানকে যথাযথ জবাবদিহির আওতায় এনে অপসারণের দাবি জানিয়ে ওই বিবৃতিতে তারা আরও বলেন, আমরা বিশেষভাবে উল্লেখ করতে চাই যে, আমাদের দেশের নারীরা তাদের চলতি জীবনে বারবার এইসকল যৌন হয়রানিমূলক বক্তব্যের শিকার হয়ে থাকে। রাষ্ট্র পরিচালনার নাম করে একজন যৌন হেনস্থাকারী প্রতিমন্ত্রী কোনোভাবেই রাষ্ট্রের এই গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকতে পারে না। সসম্মানে এবং সমমর্যাদায় জীবন ধারণ করা বাংলাদেশের প্রতিটি নারীর নাগরিক অধিকার।

বিবৃতিদাতারা হলেন- ফরিদা আখতার, মির্জা তাসলিমা সুলতানা, জোবাইদা নাসরিন, নাসরিন খন্দকার, সায়দিয়া গুলরুখ, নাসরিন সিরাজ, স্নিগ্ধা রেজওয়ানা, সুপ্রীতি ধর, মিথিলা মাহফুজ, বীথি ঘোষ, তাসলিমা মিজি, মুনমুন শারমীন শামস, ইশরাত জাহান উর্মি, পূরবী তালুকদার, মোশফেক আরা শিমুল, নাসরিন আক্তার সুমি, সুমি রেক্সোনা, দিলশানা পারুল, মনজুন নাহার, ফেরদৌস আরা রুমী, মাহফুজা মালা, প্রমা ইসরাত, নাইমা খালেদ মনিকা, সীমা দত্ত, তানিয়াহ মাহমুদ তিন্নী, সুমাইয়া নাসরিন সুমু, অপরাজিতা সংগীতা, অর্ণি আনজুম, শ্রবণা শফিক দীপ্তি, রিমঝিম আহমেদ, শাফিনুর শাফিন, জেসমিন দীনা রায়, রেবেকা নীলা, লামিয়া ইসলাম, অপরাজিতা সংগীতা, মারজিয়া প্রভা, প্রাপ্তি তাপসী, ইসাবা শুহরাত, নাজিফা জান্নাত, মোরসালিনা আনিকা।

ছবি

ডিসিরাই জানেন, দুর্নীতির সুযোগ কোথায় আছে: দুদক চেয়ারম্যান

ছবি

পুলিশকে ‘সরি’ বলেছে সেই চীনা নাগরিক

ছবি

র‍্যাবকে শান্তিরক্ষা মিশন থেকে বাদ দিতে ১২ সংস্থার চিঠি

ছবি

র‌্যাবের প্রতি অবিচার হচ্ছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

মায়ের কবরে চিরনিদ্রায় সমাহিত কাজীদা

ছবি

করোনা: কমেছে মৃত্যু, শনাক্ত ছাড়াল ১০ হাজার

ছবি

‌‌‘বাঁধের উপর বসবাস বন্ধ না করলে লোহা দিয়ে বাঁধ দিলেও তা টিকবে না’

ছবি

আইপিটিভি-ইউটিউবে সংবাদ প্রচার করা যাবে না : তথ্যমন্ত্রী

ছবি

সস্ত্রীক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রধান বিচারপতি

ছবি

৮ পুলিশ কর্মকর্তা হচ্ছেন অতিরিক্ত আইজিপি

ছবি

সামরিক-বেসামরিক প্রশাসন একসঙ্গে কাজ করার বিকল্প নেই

ছবি

বিনা মূল্যে মাস্কসহ ৫ দফা সুপারিশ পরামর্শক কমিটির

ছবি

করোনা উপসর্গে ‘১০ দিনের আইসোলেশন’

ছবি

ওমিক্রন: ডিসিদের সর্বোচ্চ সতর্কতায় কাজ করার নির্দেশ

ছবি

‘মাসুদ রানা’র স্রষ্টা কাজী আনোয়ার হোসেন মারা গেছেন

ছবি

এক সপ্তাহে রোগী বেড়েছে ২২৮ শতাংশ: স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

ছবি

করোনা: একদিনে শনাক্ত সাড়ে ৯ হাজার, মৃত্যু ১২

ছবি

তেলের দাম নিয়ে সিদ্ধান্ত ৬ ফেব্রুয়ারি

ছবি

ওএমএসের চাল-আটা যাচ্ছে উপজেলায়

ছবি

অবৈধ ইটভাটা বন্ধে ডিসিদের নির্দেশ

ছবি

সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত এলে চুপ থাকবে না বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

ছবি

দেশের আরও ১০ জেলাকে রেড জোন ঘোষণা

ছবি

গ্যাসের দাম ‘এক লাফে দ্বিগুণ’ করার প্রস্তাব

ছবি

জনগণকে সেবাদান দয়া-দাক্ষিণ্য নয়: ডিসিদের রাষ্ট্রপতি

ছবি

করোনা: শনাক্তের হার ২৪ শতাংশ ছুঁইঁছুঁই, আক্রান্ত ৮৪০৭

ছবি

প্রকল্প তদারকিতে কমিটি চান ডিসিরা, সায় নেই সরকারের

ছবি

শনাক্ত রোগীর ২০ শতাংশই ওমিক্রনে আক্রান্ত

ছবি

শহিদ ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবার ভিক্ষা করবে আমি দেখতে চাই না : প্রধানমন্ত্রী

ছবি

বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে শিশুদের মেরুদন্ডের বাঁকা হাড় সোজা করণ ইউনিট চালু

ছবি

৫ জেলায় শৈত্যপ্রবাহ

ছবি

নির্বাচন কমিশনের জন্য সার্চ কমিটি গঠনের খসড়া আইন

প্রশিক্ষণ নিতে আসা ২২ জন বিচারক করোনাক্রান্ত

ছবি

জাপা এমপি বললেন, যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা পাওয়া র‌্যাব কর্মকর্তারা ‘দেশপ্রেমিক’

ছবি

ঢাকায় ৬৯% এখন ওমিক্রনে সংক্রমিত: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ছবি

আওয়ামী লীগ বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে অংশ নিল

‘নারায়নগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের মাধ্যমে দেশের মানুষ বুঝতে পেরেছে ভোট কতটা সুষ্ঠু হয় ইভিএমের মাধ্যমে। ’

tab

জাতীয়

তথ্য প্রতিমন্ত্রীর অপসারণ দাবি ৪০ নারী অধিকারকর্মীর

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১

তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানের অপসারণ দাবি করেছেন ৪০ নারী অধিকারকর্মী।

রবিবার (৫ ডিসেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তারা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তার নাতনি জাইমা রহমানকে নিয়ে প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদের মন্তব্যের তীব্র নিন্দা জানান।

৪০ নারী অধিকারকর্মীর পক্ষে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলা হয়, রাষ্ট্রীয় পদে আসীন একজন দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রতিমন্ত্রীর মুখে এই ভাষা বাংলাদেশের আপামর নারীদের অপমান এবং অসম্মান করেছে বলে আমরা মনে করি। জনগণের করের টাকায় বেতনভুক্ত বাংলাদেশের মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীরা বিভিন্ন সময় সংসদে, রাজনৈতিক সভায়, গণমাধ্যমে, সম্মেলনে এরকম নারীবিদ্বেষী মন্তব্য করে পার পেয়ে যায়। এরমধ্য দিয়ে নারীর প্রতি যৌন হয়রানিকে সমাজ এবং রাষ্ট্রে কাঠামোগত প্রতিষ্ঠিত করার বৈধতা দেওয়া হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘‘আমরা জানতে চাই, কীভাবে তথ্যপ্রতিমন্ত্রী ঔদ্ধত্যপূর্ণভাবে বলেন, ‘ক্ষমা চাওয়ার প্রশ্নই উঠে না?’। আমাদের পর্যবেক্ষণ বলে ক্ষমতাসীন দলগুলোর প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ মদদে প্রায়শই এই ধরনের জনপ্রতিনিধিরা রাষ্ট্র পরিচালনার নাম করে তাদের আধিপত্যমূলক ক্ষমতাকাঠামো টিকিয়ে রাখার জন্য এবং রাজনৈতিকভাবে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য ‘নারীকে’ই বিভিন্ন যৌন অসংবেদনশীল বক্তব্যের মাধ্যমে হেয় করে থাকে। আর এই রাষ্ট্রব্যবস্থা এভাবেই সংসদ, আদালত, প্রশাসন তথা রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় নারীদের নিয়ে বিভিন্ন রকম যৌন হয়রানিমুলক মন্তব্য, তামাশা এবং মতামত দেওয়ার মাধ্যমে সাধারণ নারীর জন্য ভীতির পরিবেশ তৈরিতে উৎসাহিত করে। বিগত বছরগুলোতে আমাদের গণতন্ত্রহীনতা এত চরমে পৌঁছেছে যে, নারীদেরকে নিয়ে এই ধরনের যৌনবাদী মন্তব্য করার পরেও বেশিরভাগ সময়ে কোনো প্রশাসন, রাষ্ট্রীয় বাহিনী, আদালত, সাংসদকে জবাবদিহিতার আওতায় আনা সম্ভব হয়নি।’’

তথ্যপ্রতিমন্ত্রী মুরাদ হাসানকে যথাযথ জবাবদিহির আওতায় এনে অপসারণের দাবি জানিয়ে ওই বিবৃতিতে তারা আরও বলেন, আমরা বিশেষভাবে উল্লেখ করতে চাই যে, আমাদের দেশের নারীরা তাদের চলতি জীবনে বারবার এইসকল যৌন হয়রানিমূলক বক্তব্যের শিকার হয়ে থাকে। রাষ্ট্র পরিচালনার নাম করে একজন যৌন হেনস্থাকারী প্রতিমন্ত্রী কোনোভাবেই রাষ্ট্রের এই গুরুত্বপূর্ণ পদে থাকতে পারে না। সসম্মানে এবং সমমর্যাদায় জীবন ধারণ করা বাংলাদেশের প্রতিটি নারীর নাগরিক অধিকার।

বিবৃতিদাতারা হলেন- ফরিদা আখতার, মির্জা তাসলিমা সুলতানা, জোবাইদা নাসরিন, নাসরিন খন্দকার, সায়দিয়া গুলরুখ, নাসরিন সিরাজ, স্নিগ্ধা রেজওয়ানা, সুপ্রীতি ধর, মিথিলা মাহফুজ, বীথি ঘোষ, তাসলিমা মিজি, মুনমুন শারমীন শামস, ইশরাত জাহান উর্মি, পূরবী তালুকদার, মোশফেক আরা শিমুল, নাসরিন আক্তার সুমি, সুমি রেক্সোনা, দিলশানা পারুল, মনজুন নাহার, ফেরদৌস আরা রুমী, মাহফুজা মালা, প্রমা ইসরাত, নাইমা খালেদ মনিকা, সীমা দত্ত, তানিয়াহ মাহমুদ তিন্নী, সুমাইয়া নাসরিন সুমু, অপরাজিতা সংগীতা, অর্ণি আনজুম, শ্রবণা শফিক দীপ্তি, রিমঝিম আহমেদ, শাফিনুর শাফিন, জেসমিন দীনা রায়, রেবেকা নীলা, লামিয়া ইসলাম, অপরাজিতা সংগীতা, মারজিয়া প্রভা, প্রাপ্তি তাপসী, ইসাবা শুহরাত, নাজিফা জান্নাত, মোরসালিনা আনিকা।

back to top