alt

জাতীয়

চট্টগ্রাম মহানগর

চার দশকে ১২০ পাহাড় বিলুপ্ত

পাহাড় সংরক্ষণ ও ঝুঁকিপূর্ণ বসবাস উচ্ছেদের দাবি পরিবেশবাদীদের

চট্টগ্রাম ব্যুরো : শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২

গত চার দশকে চট্টগ্রাম মহানগরীতে ১২০টির মতো পাহাড় বিলুপ্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রামের ইতিহাস সংস্কৃতি গবেষণা কেন্দ্র ও বাংলাদেশ পরিবেশ ফোরাম। শনিবার (১৩ আগস্ট) বেলা ১২টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে এই দুইটি সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে জঙ্গল সলিমপুরসহ চট্টগ্রামের সব পাহাড় সংরক্ষণ ও ঝুঁকিপূর্ণ অবৈধ বসবাসকারীদের উচ্ছেদ এবং নদী রক্ষার দাবিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা এ তথ্য তুলে ধরেন।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ইংরেজ শাসনের পর পাকিস্থানে ২৪ বছরে কমেছে পাহাড়ের সংখ্যা। স্বাধীনতার পর ২০০৮ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রামের ৮৮টি পাহাড় পুরোটাই বিলুপ্ত হয়েছে। একই সময়ে আংশিক কাটা হয়েছে ৯৫টি। এরপরের ১২ বছরে পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার নিয়েছে। শহরের জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে পাহাড় নিধন। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ পরিবেশ ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আলিউর রহমান।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামের পাহাড় কাটা নিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বন ও পরিবেশবিদ্যা ইনস্টিটিউটের সাবেক অধ্যাপক এসএম সিরাজুল হক একটি বেসরকারি সংস্থার হয়ে ‘হিল কাটিং ইন অ্যান্ড অ্যারাউন্ড চিটাগং সিটি’ শীর্ষক গবেষণা করেন। ২০১১ সালে গবেষণাটি প্রকাশিত হয়। এতে বলা হয়, বেশিরভাগ পাহাড় কাটা হয় পাহাড়তলী, খুলশী, বায়েজিদ, লালখান বাজার মতিঝরনা, ষোলশহর এবং ফয়’জ লেকে। ১৯৭৬ থেকে ৩২ বছরে চট্টগ্রাম নগর ও আশপাশের ৮৮টি পাহাড় সম্পূর্ণ এবং ৯৫টি আংশিক কেটে ফেলা হয় বলে গবেষণায় উল্লেখ রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পাহাড়, নদী, সমুদ্র পরিবেষ্টিত এবং প্রাচ্যের রানী খ্যাত বন্দরনগরী চট্টগ্রামের সেই জৌলুস এখন ধংসের দ্বারপ্রান্তে। প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষার পাহাড়গুলো প্রতিনিয়ত কেটে ধ্বংস করা হচ্ছে। দেশের অন্যতম প্রধান নদী কর্ণফুলী, হালদা ও সাত নদী দখল, দূষণ, ভরাট, চর জাগা এবং পরিকল্পিত ড্রেজিং না করায় ভয়াবহ হুমকির মুখে। ইটপাথরের এই শহরের কাছে জঙ্গল সলিমপুর ও আলিনগর এলাকা ছিল একসময় পাহাড়ঘেরা নয়নাভিরাম গহীন সবুজে আচ্ছাদিত একটি অঞ্চল। সেখানে সরকারের খাস খতিয়ানভুক্ত পাহাড় ছিল ৩ হাজার ১০০ একর। কিন্তু গত ২ যুগের মধ্যে ৪০ থেকে ৫০ জনের চিহ্নিত ভূমিদস্যু বাহিনী জঙ্গল সলিমপুর এবং আলিনগর এলাকার পাহাড় কেটে আলাদা এক সাম্রাজ্য তৈরি করেছে। গড়ে তুলেছে দেশের ভেতরে আরেক দেশ। তাদের সহযোগী হিসেবে আছে আরও অন্তত ৩০০ জন দখলদার বাহিনী।

এই ভূমিদস্যুরা ২০০০ সাল থেকে যখন যে দল ক্ষমতায় ছিল, তখন সে দলের ব্যানার টাঙিয়ে নিজেদের সাম্রাজ্য সুদৃঢ় করেছে। তারা প্রতিনিয়ত সরকারের খাস খতিয়ানভুক্ত পাহাড় কেটে প্লট বানিয়ে হাজার হাজার ছিন্নমূলবাসীর কাছে ভাড়া কিংবা দখল বিক্রি করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। সেই সঙ্গে পাহাড়ের ভেতর ভূমিদস্যুরা গড়ে তুলেছিল অস্ত্র, সন্ত্রাস, মাদক ও চোরাচালানের ভয়ংকর কয়েকটি আস্তানা। এদের মধ্যে আবার ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে প্রতিনিয়ত চলত সংঘর্ষ, বন্ধুকযুদ্ধ, হত্যাকান্ডের মতো ঘটনা। সম্মেলনে বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) সাবেক উপাচার্য প্রফেসর মোজাম্মেল হক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ড. মঞ্জুরুল কিবরিয়া, বাংলাদেশ পরিবেশ ফোরামের সভাপতি চৌধুরী ফরিদ প্রমুখ।

ছবি

রোহিঙ্গাদের অবশ্যই নিজ দেশে ফিরে যেতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

ছবি

মিছিল-মিটিংয়ে লাঠিসোঁটা আনা যাবে না: পুলিশ

ছবি

ডেঙ্গু: ২৮ দিনে ৯ হাজার রোগী হাসপাতালে ভর্তি

শিশুদের নিয়ে শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপন

ছবি

বাংলাদেশের নির্দিষ্ট কোনো দলকে সমর্থন করি না: মার্কিন রাষ্ট্রদূত

ছবি

করোনা: ৩ অক্টোবরের পর টিকার প্রথম ডোজ বন্ধ

ছবি

করোনা: মৃত্যুশূন্য দিনে শনাক্ত কমে ৬৬৫

ছবি

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা র‍্যাবের কর্মকাণ্ডে কোনো প্রভাব ফেলেনি

ছবি

বিশ্ব জলাতঙ্ক দিবস আজ, ৫৯ হাজার মানুষ মারা যায় এই রোগে

ছবি

১৪ জেলায় ৪৫-৬০ কিমি বেগে ঝড়ের আবহাওয়ার পূর্বাভাস

ছবি

আজ আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস

ছবি

শেখ হাসিনা শুধু দেশেই নন, বহির্বিশ্বেও অন্যতম সেরা রাষ্ট্রনায়ক

ছবি

পঁচাত্তর পূর্ণ করলেন শেখ হাসিনা

ছবি

জ্বালানি তেল পরিশোধনের নতুন প্লান্ট, উদ্যোগ ঝুলে আছে এক যুগ

মুন্সীগঞ্জের মোল্লাকান্দিতে অস্ত্র নিয়ে সন্ত্রাসীদের মহড়া, আতংকে এলাকা ছাড়ছে মানুষ

৬ বছর পর স্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে এসে ধরা মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত আসামি

‘বৈষম্য কমিয়ে মাদকমুক্ত ব্যক্তিদের অনুপ্রাণিত করতে হবে’

ছবি

কৌতুক অভিনেতা রনি আগের চেয়ে সুস্থ

হাইকোর্টে তিন শতাধিক বিএনপির নেতাকর্মীর জামিন আবেদন

ছবি

চোখ ওঠা রোগীদের বিদেশ ভ্রমণ না করার অনুরোধ

ছবি

পর্যটনশিল্প এগিয়ে নিতে মহাপরিকল্পনা নেয়া হয়েছে : পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

ছবি

পুলিশের ১১ কর্মকর্তার বদলি

ছবি

দেশে বছরে পৌনে তিন লাখ মানুষের মৃত্যু হৃদরোগে

ছবি

করোনায় আক্রান্ত ৭৩৭, মৃত্যু ১

ছবি

হাফেজ তাকরিমকে সংবর্ধনা

ছবি

বাংলাদেশ বিপুল পর্যটন সম্ভাবনাময় দেশ : প্রধানমন্ত্রী

চীনা রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তের ঘটনাকে ‘দুর্ভাগ্যজনক’ বললেন

ছবি

ট্যানারি : বুড়িগঙ্গাকে বাঁচাতে এখন দূষিত হচ্ছে ধলেশ্বরী

ছবি

সীমান্তে যুদ্ধ বিমানের আনাগোনা : কাটছে না আতঙ্ক

ছবি

বাংলাদেশ ভ্রমণে বিদেশী পর্যটকদের ভ্যাকসিন সনদ দেখাতে হবে

ছবি

উন্মুক্ত হলো ‘শেখ হাসিনা-এ ট্রু লিজেন্ড’ প্রামাণ্য চলচ্চিত্র

ছবি

জাইকা ৬০ কোটি ডলার বাজেট সহায়তা দেবে, আশা পরিকল্পনামন্ত্রীর

ছবি

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী ৯ অক্টোবর

ছবি

মাদক কারবারে সাংবাদিক-পুলিশ-বিত্তবানরাও জড়িত: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

করোনা: একদিনে ৬ মৃত্যু, নতুন রোগী ৭১৮

ছবি

ফরিদপুর ২ আসনে উপনির্বাচন ৫ নভেম্বর

tab

জাতীয়

চট্টগ্রাম মহানগর

চার দশকে ১২০ পাহাড় বিলুপ্ত

পাহাড় সংরক্ষণ ও ঝুঁকিপূর্ণ বসবাস উচ্ছেদের দাবি পরিবেশবাদীদের

চট্টগ্রাম ব্যুরো

শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২

গত চার দশকে চট্টগ্রাম মহানগরীতে ১২০টির মতো পাহাড় বিলুপ্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রামের ইতিহাস সংস্কৃতি গবেষণা কেন্দ্র ও বাংলাদেশ পরিবেশ ফোরাম। শনিবার (১৩ আগস্ট) বেলা ১২টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে এই দুইটি সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে জঙ্গল সলিমপুরসহ চট্টগ্রামের সব পাহাড় সংরক্ষণ ও ঝুঁকিপূর্ণ অবৈধ বসবাসকারীদের উচ্ছেদ এবং নদী রক্ষার দাবিতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা এ তথ্য তুলে ধরেন।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ইংরেজ শাসনের পর পাকিস্থানে ২৪ বছরে কমেছে পাহাড়ের সংখ্যা। স্বাধীনতার পর ২০০৮ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রামের ৮৮টি পাহাড় পুরোটাই বিলুপ্ত হয়েছে। একই সময়ে আংশিক কাটা হয়েছে ৯৫টি। এরপরের ১২ বছরে পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার নিয়েছে। শহরের জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে পাহাড় নিধন। সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ পরিবেশ ফোরামের সাধারণ সম্পাদক আলিউর রহমান।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামের পাহাড় কাটা নিয়ে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বন ও পরিবেশবিদ্যা ইনস্টিটিউটের সাবেক অধ্যাপক এসএম সিরাজুল হক একটি বেসরকারি সংস্থার হয়ে ‘হিল কাটিং ইন অ্যান্ড অ্যারাউন্ড চিটাগং সিটি’ শীর্ষক গবেষণা করেন। ২০১১ সালে গবেষণাটি প্রকাশিত হয়। এতে বলা হয়, বেশিরভাগ পাহাড় কাটা হয় পাহাড়তলী, খুলশী, বায়েজিদ, লালখান বাজার মতিঝরনা, ষোলশহর এবং ফয়’জ লেকে। ১৯৭৬ থেকে ৩২ বছরে চট্টগ্রাম নগর ও আশপাশের ৮৮টি পাহাড় সম্পূর্ণ এবং ৯৫টি আংশিক কেটে ফেলা হয় বলে গবেষণায় উল্লেখ রয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পাহাড়, নদী, সমুদ্র পরিবেষ্টিত এবং প্রাচ্যের রানী খ্যাত বন্দরনগরী চট্টগ্রামের সেই জৌলুস এখন ধংসের দ্বারপ্রান্তে। প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষার পাহাড়গুলো প্রতিনিয়ত কেটে ধ্বংস করা হচ্ছে। দেশের অন্যতম প্রধান নদী কর্ণফুলী, হালদা ও সাত নদী দখল, দূষণ, ভরাট, চর জাগা এবং পরিকল্পিত ড্রেজিং না করায় ভয়াবহ হুমকির মুখে। ইটপাথরের এই শহরের কাছে জঙ্গল সলিমপুর ও আলিনগর এলাকা ছিল একসময় পাহাড়ঘেরা নয়নাভিরাম গহীন সবুজে আচ্ছাদিত একটি অঞ্চল। সেখানে সরকারের খাস খতিয়ানভুক্ত পাহাড় ছিল ৩ হাজার ১০০ একর। কিন্তু গত ২ যুগের মধ্যে ৪০ থেকে ৫০ জনের চিহ্নিত ভূমিদস্যু বাহিনী জঙ্গল সলিমপুর এবং আলিনগর এলাকার পাহাড় কেটে আলাদা এক সাম্রাজ্য তৈরি করেছে। গড়ে তুলেছে দেশের ভেতরে আরেক দেশ। তাদের সহযোগী হিসেবে আছে আরও অন্তত ৩০০ জন দখলদার বাহিনী।

এই ভূমিদস্যুরা ২০০০ সাল থেকে যখন যে দল ক্ষমতায় ছিল, তখন সে দলের ব্যানার টাঙিয়ে নিজেদের সাম্রাজ্য সুদৃঢ় করেছে। তারা প্রতিনিয়ত সরকারের খাস খতিয়ানভুক্ত পাহাড় কেটে প্লট বানিয়ে হাজার হাজার ছিন্নমূলবাসীর কাছে ভাড়া কিংবা দখল বিক্রি করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। সেই সঙ্গে পাহাড়ের ভেতর ভূমিদস্যুরা গড়ে তুলেছিল অস্ত্র, সন্ত্রাস, মাদক ও চোরাচালানের ভয়ংকর কয়েকটি আস্তানা। এদের মধ্যে আবার ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে প্রতিনিয়ত চলত সংঘর্ষ, বন্ধুকযুদ্ধ, হত্যাকান্ডের মতো ঘটনা। সম্মেলনে বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) সাবেক উপাচার্য প্রফেসর মোজাম্মেল হক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ড. মঞ্জুরুল কিবরিয়া, বাংলাদেশ পরিবেশ ফোরামের সভাপতি চৌধুরী ফরিদ প্রমুখ।

back to top