alt

জাতীয়

সংকটকালে ১০ শতাংশ গ্যাস উৎপাদন বাড়ালো এসজিএফএল

ফয়েজ আহমেদ তুষার : মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

পরিত্যক্ত কূপ ওয়ার্কওভার (পুনর্খনন) করার ফলে সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানির দৈনিক গ্যাস উৎপাদন প্রায় ১০ শতাংশ বেড়েছে। রাষ্ট্রীয় এই কোম্পানি থেকে এখন প্রতিদিন প্রায় ৯৮ মিলিয়ন ঘনফুট (এমএমসিএফ) গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হচ্ছে, আগে হতো প্রায় ৮৮ এমএমসিএফ।

বিশ্ববাজারে জ্বালানির উচ্চমূল্য এবং দেশে চলামান গ্যাস সংকটের মধ্যে এই উৎপাদন বৃদ্ধি দেশের জ্বালানি খাতের জন্য স্বস্তির বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।

পেট্রোবাংলার অধীনস্থ প্রতিষ্ঠান সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি লিমিটেডের (এসজিএফএল) আওতায় পাঁচটি গ্যাসক্ষেত্র আছে। এগুলো হলো হরিপুর গ্যাস ফিল্ড, রশিদপুর গ্যাস ফিল্ড, কৈলাশটিলা গ্যাস ফিল্ড, বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ড ও ছাতক গ্যাস ফিল্ড। এরমধ্যে ছাতক বর্তমানে পরিত্যক্ত।

এরমধ্যে বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ডের পরিত্যক্ত একটি কূপ পুনর্খনন করে গতকাল সোমবার থেকে পুনরায় গ্যাস উৎপাদন (উত্তোলন) শুরু হয়েছে। এর আগেও দুটি কূপের সফল ওয়ার্কওভারের ফলে ৮০ লাখ ঘনফুট গ্যাস উৎপাদন বৃদ্ধি পায়।

সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি লিমিটেডের (এসজিএফএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. মিজানুর রহমান সংবাদকে বলেন, সোমবার সন্ধ্যা থেকে আমাদের বিয়ানীবাজারে পরিত্যক্ত ১ নম্বর কূপ থেকে গ্যাস উৎপাদন শুরু হয়েছে। এখান থেকে দৈনিক ৮ মিলিয়ন বা ৮০ লাখ ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হচ্ছে এবং এর সঙ্গে উপজাত হিসেবে ১৪০ ব্যারেল কনডেনসেট পাওয়া যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

পেট্রেবাংলা সূত্রে জানা যায়, বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ডের ১ নম্বর কূপ থেকে ১৯৯১ সালে গ্যাস উত্তোলন শুরু হয়। ২০১৪ সালে কূপটি বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৬ সালে আবার উত্তোলন শুরু হলেও ওই বছরের শেষ দিকে আবারও তা বন্ধ হয়ে যায়। কিছু রক্ষণাবেক্ষণের পর ২০১৭ সালে আরও সাত মাস গ্যাস উত্তোলন করা হয়। এরপর গ্যাস না পাওয়ায় কূপটিকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়।

এই কূপের তিন হাজার ২৫৪ মিটার গভীরে ৭০ বিলিয়ন ঘনফুটের বেশি গ্যাস মজুদ আছে বলে ধারণা করছেন এসজিএফএলের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

পেট্রোবাংলার অধীনস্থ রাষ্ট্রীয় অন্য প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন কোম্পানি লিমিটেড (বাপেক্স) ২০২০ সালে সিলেট গ্যাস ফিল্ডের তিনটি কূপ ওয়াকওভারের কাজ পায়। প্রকল্প ব্যয় ছিল ১৫৮ কোটি টাকা। বর্তমানে তিনটি কূপ থেকেই গ্যাস উৎপাদন হচ্ছে।

এ বিষয়ে এসজিএফএলের এমডি মিজানুর রহমান সংবাদকে জানান, এর আগে ওয়ার্কওভার করা কূপ সিলেট-৮ এবং কৈলাশটিলা-৭ থেকে দৈনিক প্রায় ৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস পাওয়া যাচ্ছে।

এসজিএফএলের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাইলে মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমাদের হাতে উৎপাদনের জন্য প্রক্রিয়াধীন থাকা ১৫টি কূপের মধ্যে ছয়টির খনন, আটটির ওয়ার্কওভার ও একটির পাইপলাইনের কাজ চলছে। সম্ভবত ২০২৫ সালের মধ্যেই আমরা কাক্সিক্ষত লক্ষ্য অর্জন করতে পারব।’ তখন সিলেট গ্যাস ফিল্ডের দৈনিক উৎপাদন ১৬ কোটি বা ১৬০ এমএমসিএল ঘনফুট ছাড়িয়ে যাবে বলেও জানান তিনি।

এসফিএফএল এমডি মিজানুর বলেন, ‘আমরা প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত নিয়ে জারিপ করেই এগুচ্ছি। এখন এটা শুধু সময়ের ব্যাপার।’

ছবি

হিরো আলমকে নিয়ে আ.লীগ-বিএনপির উপহাস করার অধিকার নেই: টিআইবি

ছবি

বুয়েট শিক্ষার্থী ফারদিন আত্মহত্যা করেছেন, উল্লেখ করে প্রতিবেদন তদন্ত কর্মকর্তার

ছবি

দেশের চূড়ান্ত জনসংখ্যা ১৬ কোটি ৯৮ লাখ

ছবি

নতুন করে ১৩ জন করোনায় আক্রান্ত

ছবি

বইমেলায় স্টল বরাদ্দ চেয়ে আদর্শ প্রকাশনীর রিটের শুনানি আগামীকাল

ছবি

সারাহ ইসলামের কিডনি নেওয়া দুই নারীর অবস্থা উন্নতির দিকে

ছবি

১৯৭১ সালের গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে সিএমএইচআরে বাংলাদেশের আবেদন

ছবি

জুট করপোরেশনের ১৯০ একর জমি বেদখলে

ছবি

বেলজিয়ামের রানি মাথিল্ডে ঢাকা পৌঁছেছেন

ছবি

বায়ুদূষণের দিক থেকে আজও শীর্ষে ঢাকা

ছবি

ভর্তুকি আর কত, গ্যাস-বিদ্যুৎ দেয়া যাবে ক্রয়মূল্যে : প্রধানমন্ত্রী

মার্চে আসবে আদানির বিদ্যুৎ, ‘কোন শঙ্কা নেই’ : নসরুল হামিদ

দেশে ১৫ লাখ ক্যান্সারের রোগী: ডা. শারফুদ্দিন

ছবি

হজের নিবন্ধন শুরু ৮ ফেব্রুয়ারি

ছবি

সবার মতামতের ভিত্তিতে সীমানা নির্ধারণ: ইসি

ছবি

বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাওয়ার বিষয় এড়িয়ে গেলেন হিনা রাব্বানি

ছবি

অভিবাসন ব্যয় কমানোর আশ্বাস মালয়েশিয়ান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর

ছবি

মানসিক স্বাস্থ্য বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানোর আহ্বান

ছবি

ক্যান্সারের চিকিৎসায় বৈষম্য কমানোর চেষ্টা করছি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ছবি

মালয়েশিয়ায় যাওয়ার খরচ কমানোর আশ্বাস

ছবি

দূষিত শহরের তালিকায় ফের শীর্ষে ঢাকা

ছবি

পাকিস্তানের আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চাওয়া উচিত, হিনাকে মোমেন

ছবি

গ্যাস-বিদ্যুতে কেন ভর্তুকি দেব, প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর

ছবি

ওয়াসার মিটারের গর্তে জমে থাকা পানি এডিস মশার বংশ বিস্তারের উৎস

ছবি

লাইব্রেরিতে শিক্ষার্থীদের পড়াশুনার পরিবেশ সৃষ্টিতে মনোযোগী হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

ছবি

সরকারকে গুম ও নির্যাতনের তদন্ত করতে আহ্বান হিউম্যান রাইটস ওয়াচের

ছবি

কলম্বোতে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে পাকিস্তানের প্রতিমন্ত্রী হিনা রাব্বানির বৈঠক

ছবি

একদিনে ১২ জন কোভিডে আক্রান্ত

ছবি

জানুয়ারিতে সড়ক দুর্ঘটনা: প্রতিদিন প্রায় ২০ জন নিহত, ৩৫ শতাংশই বাইক আরোহী

ছবি

সম্পর্ক আরও এগিয়ে নিতে চায় বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র

ছবি

নিপা ভাইরাস : সতর্কতামূলক ব্যবস্থার নির্দেশনা স্বাস্থ্যের

ছবি

এক সপ্তাহের মধ্যে ঢাকায় আসবেন দুই মার্কিন প্রতিনিধি

ছবি

রিজার্ভ চুরির ৭ বছর : টাকা পাওয়ার সম্ভাবনা কম

নকশায় ত্রুটি, প্রকৌশলীদের গাফিলতি ও পিডির ব্যর্থতায় শেষ হচ্ছে না প্রকল্পের কাজ

ছবি

নিপাহ ভাইরাসের সংক্রমণ ২৮ জেলায়: হাসপাতাল প্রস্তুতের নির্দেশ

ছবি

একদিনে ১০ জন করোনায় আক্রান্ত

tab

জাতীয়

সংকটকালে ১০ শতাংশ গ্যাস উৎপাদন বাড়ালো এসজিএফএল

ফয়েজ আহমেদ তুষার

মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

পরিত্যক্ত কূপ ওয়ার্কওভার (পুনর্খনন) করার ফলে সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানির দৈনিক গ্যাস উৎপাদন প্রায় ১০ শতাংশ বেড়েছে। রাষ্ট্রীয় এই কোম্পানি থেকে এখন প্রতিদিন প্রায় ৯৮ মিলিয়ন ঘনফুট (এমএমসিএফ) গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হচ্ছে, আগে হতো প্রায় ৮৮ এমএমসিএফ।

বিশ্ববাজারে জ্বালানির উচ্চমূল্য এবং দেশে চলামান গ্যাস সংকটের মধ্যে এই উৎপাদন বৃদ্ধি দেশের জ্বালানি খাতের জন্য স্বস্তির বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।

পেট্রোবাংলার অধীনস্থ প্রতিষ্ঠান সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি লিমিটেডের (এসজিএফএল) আওতায় পাঁচটি গ্যাসক্ষেত্র আছে। এগুলো হলো হরিপুর গ্যাস ফিল্ড, রশিদপুর গ্যাস ফিল্ড, কৈলাশটিলা গ্যাস ফিল্ড, বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ড ও ছাতক গ্যাস ফিল্ড। এরমধ্যে ছাতক বর্তমানে পরিত্যক্ত।

এরমধ্যে বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ডের পরিত্যক্ত একটি কূপ পুনর্খনন করে গতকাল সোমবার থেকে পুনরায় গ্যাস উৎপাদন (উত্তোলন) শুরু হয়েছে। এর আগেও দুটি কূপের সফল ওয়ার্কওভারের ফলে ৮০ লাখ ঘনফুট গ্যাস উৎপাদন বৃদ্ধি পায়।

সিলেট গ্যাস ফিল্ড কোম্পানি লিমিটেডের (এসজিএফএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মো. মিজানুর রহমান সংবাদকে বলেন, সোমবার সন্ধ্যা থেকে আমাদের বিয়ানীবাজারে পরিত্যক্ত ১ নম্বর কূপ থেকে গ্যাস উৎপাদন শুরু হয়েছে। এখান থেকে দৈনিক ৮ মিলিয়ন বা ৮০ লাখ ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হচ্ছে এবং এর সঙ্গে উপজাত হিসেবে ১৪০ ব্যারেল কনডেনসেট পাওয়া যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

পেট্রেবাংলা সূত্রে জানা যায়, বিয়ানীবাজার গ্যাস ফিল্ডের ১ নম্বর কূপ থেকে ১৯৯১ সালে গ্যাস উত্তোলন শুরু হয়। ২০১৪ সালে কূপটি বন্ধ হয়ে যায়। ২০১৬ সালে আবার উত্তোলন শুরু হলেও ওই বছরের শেষ দিকে আবারও তা বন্ধ হয়ে যায়। কিছু রক্ষণাবেক্ষণের পর ২০১৭ সালে আরও সাত মাস গ্যাস উত্তোলন করা হয়। এরপর গ্যাস না পাওয়ায় কূপটিকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়।

এই কূপের তিন হাজার ২৫৪ মিটার গভীরে ৭০ বিলিয়ন ঘনফুটের বেশি গ্যাস মজুদ আছে বলে ধারণা করছেন এসজিএফএলের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

পেট্রোবাংলার অধীনস্থ রাষ্ট্রীয় অন্য প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম এক্সপ্লোরেশন অ্যান্ড প্রোডাকশন কোম্পানি লিমিটেড (বাপেক্স) ২০২০ সালে সিলেট গ্যাস ফিল্ডের তিনটি কূপ ওয়াকওভারের কাজ পায়। প্রকল্প ব্যয় ছিল ১৫৮ কোটি টাকা। বর্তমানে তিনটি কূপ থেকেই গ্যাস উৎপাদন হচ্ছে।

এ বিষয়ে এসজিএফএলের এমডি মিজানুর রহমান সংবাদকে জানান, এর আগে ওয়ার্কওভার করা কূপ সিলেট-৮ এবং কৈলাশটিলা-৭ থেকে দৈনিক প্রায় ৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস পাওয়া যাচ্ছে।

এসজিএফএলের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাইলে মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমাদের হাতে উৎপাদনের জন্য প্রক্রিয়াধীন থাকা ১৫টি কূপের মধ্যে ছয়টির খনন, আটটির ওয়ার্কওভার ও একটির পাইপলাইনের কাজ চলছে। সম্ভবত ২০২৫ সালের মধ্যেই আমরা কাক্সিক্ষত লক্ষ্য অর্জন করতে পারব।’ তখন সিলেট গ্যাস ফিল্ডের দৈনিক উৎপাদন ১৬ কোটি বা ১৬০ এমএমসিএল ঘনফুট ছাড়িয়ে যাবে বলেও জানান তিনি।

এসফিএফএল এমডি মিজানুর বলেন, ‘আমরা প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত নিয়ে জারিপ করেই এগুচ্ছি। এখন এটা শুধু সময়ের ব্যাপার।’

back to top