alt

জাতীয়

গুজবে কান দেবেন না, অর্থনীতি এখনও স্থিতিশীল : প্রধানমন্ত্রী

বাসস : সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

https://sangbad.net.bd/images/2022/December/05Dec22/news/Skh-Hasina-1.jpg

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ এবং ব্যাংকে তারল্য নিয়ে কোন অপপ্রচারে কর্ণপাত না করার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, করোনা ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে অনেক উন্নত দেশ বিপদের মধ্যে থাকলেও বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে স্থিতিশীল রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আন্তর্জাতিকভাবে মূল্যস্ফীতি বেড়েছে। অনেক উন্নত দেশ অর্থনৈতিকভাবে বিপদে এবং সমস্যার সম্মুখীন, তাদের রিজার্ভ কমছে। সে অবস্থায় আমরা বলতে পারি যে বাংলাদেশকে স্থিতিশীল অবস্থায় রাখতে পেরেছি।’

প্রধানমন্ত্রী আজ মিরপুর সেনানিবাসের ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজের (ডিএসসিএসসি) শেখ হাসিনা কমপ্লেক্সে ‘ন্যাশনাল ডিফেন্স কোর্স-২০২২ ও ‘আমর্ড ফোর্সেস ওয়ার কোর্স’ এর গ্রাজুয়েশন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে একথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের দুর্ভাগ্য হচ্ছে যখনই দেশ একটা শান্তিপূর্ণ অবস্থার মধ্যে অর্থনৈতিক অগ্রগতির দিকে এগিয়ে যায় তখন সবার কাছে (স্বার্থান্বেষী মহল) এটা পছন্দ হয় না, এটা হলো বাস্তবতা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা একটি যুদ্ধ বিধ্বস্থ দেশ গড়ে তুলে প্রবৃদ্ধি ৯ ভাগে তুলতে সক্ষম হয়েছিলেন। আর কোভিডের আগে আওয়ামী লীগ তুলেছিল ৮ শতাংশের ওপরে। কিন্তু কোভিড-১৯ ও এর পরবর্তী রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ এবং একে কেন্দ্র করে স্যাংশনে অনেক উন্নত দেশের অর্থনৈতিক অবস্থাও বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশ^ব্যাপী মুদ্রাস্ফীতি বৃদ্ধি পেয়েছে। ধনী দেশগুলোও আজকে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ের ব্যবস্থা নিচ্ছে। তাদের খাদ্যপণ্যের দাম বেড়ে যাচ্ছে, রিজার্ভ কমে যাচ্ছে। এই অবস্থায়ও বাংলাদেশকে এখনও আমরা স্থিতিশীল অবস্থায় রাখতে সক্ষম হয়েছি।

এ সময় নানা কথা বলে ভয়-ভীতি ছড়ানোর অপচেষ্টায় কান না দেয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, যুদ্ধকালীন এই সংকটে অনেক ধনী দেশ জ্বালানি সাশ্রয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছে। আমরাও নানা পদক্ষেপ নিই। অথচ জ্বালানি নিয়ে নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে মানুষকে পক্ষে টানা হচ্ছে।

https://sangbad.net.bd/images/2022/December/05Dec22/news/Skh-Hasina-2.jpg

সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মিরপুর সেনানিবাসস্থ, শেখ হাসিনা কমপ্লেক্সে ডিফেন্স কোর্স ও আর্মড ফোর্সেস ওয়ার কোর্স-২০২২ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে এনডিসি এর কমান্ড্যান্ট শুছেচ্ছা প্রদান করেন। -আইএসপিআর

দেশের অতীত ও বর্তমান রিজার্ভের তুলনামুলক চিত্র তুলে দরে শেখ হাসিনা বলেন, ’৯৬ সালে একুশ বছর পর আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের সময় রিজার্ভ পেয়েছিল মাত্র ২ দশমিক ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তখন তার সরকার সেই রিজার্ভ বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়। ২০০৯ সালে দ্বিতীয়বার যখন সরকার গঠন করে তখন রিজার্ভ পায় ৫ বিলিয়ন ডলার যেটাকে টানা সরকারে থাকায় তারা ৪৮ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করতে সক্ষম হন।

তিনি বলেন, করোনার সময় যাতায়াত ও আমদানি বন্ধ ছিল। এ জন্য রিজার্ভ জমে যায়। পরে সব চ্যানেল খুলে গেলে আমাদের আমাদানিতে রিজার্ভ ব্যয় করতে হয়েছে। ভ্যাকসিন কেনা, টিকা গবেষণায় অর্থ দেয়াসহ করোনা চিকিৎসা সরঞ্জম ক্রয় করতে আমাদের অনেক টাকা লেগেছে। এগুলোর জন্য আমাদের ডলার খরচ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুদ্ধ এবং স্যাংশনের কারণে ইতোমধ্যে আমদানী ব্যয় বহুলাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি উদাহারণ দিয়ে বলেন, যে গম একসময় ২শ’ ডলারে পাওয়া যেত তা এখন ৬শ’ ডলারে কিনতে হচ্ছে। যে পরিবহন ব্যয় ৮শ’ ডলার ছিল তা ৩ হাজার ৮শ’ ডলারে গিয়ে ঠেকেছে। কিন্তু এখানে রিজার্ভ খরচ করতে হলেও তার সরকার দেশের জনগণের কথা বিবেচনা করে কোন কার্পন্য করেনি।

পাশাপাশি সরকারের রপ্তানি এবং বিনিয়োগ বৃদ্ধি পেয়েছে উল্লেখ করে তিনি দেশের প্রতি ইঞ্চি জমি কাজে লাগিয়ে উৎপাদন বৃদ্ধিতে তার সরকারের আহ্বান পুণর্ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, জাতির পিতা কেবল মাটি ও মানুষকে পুঁজি করেই একটি যুদ্ধ বিধ্বস্থ দেশ গড়ে তুলে বাংলাদেশকে স্বল্পোন্নত দেশের পর্যায়ে রেখে যান।

সেটা সবাইকে মনে রাখার মাধ্যমেই এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

ছবি

আবার বাড়লো বিদ্যুতের দাম

শিশু হাসপাতালের বনভোজন, ওষুধ কোম্পানির কাছে চাঁদা দাবির অভিযোগ

ছবি

দেশে অবৈধ ইটভাটা ৪ হাজার ৬৩৩: সংসদে পরিবেশ মন্ত্রী

ছবি

দুর্নীতি কমাতে রাজনৈতিক অঙ্গনে দরকার বৈপ্লবিক পরিবর্তন : টিআইবি

ছবি

সেব্রিনা ফ্লোরাসহ স্বাস্থ্যের চার পরিচালক বদলি

ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্বতন্ত্র প্রার্থী আসিফ ‘আত্মগোপনে’ আছেন ধারণা ইসির

ছবি

বায়ুদূষণ রোধে কাল থেকে বিশেষ অভিযান

ছবি

দেশে কোভিডে আরও ১৩ জন আক্রান্ত

ছবি

দেশ দলমত নির্বিশেষে সবার জন্যই কাজ করেছি : প্রধানমন্ত্রী

ছবি

তাপমাত্রা বাড়তে পারে, সাগরে নিম্নচাপ

ছবি

দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ১২তম

ছবি

১৯১ নিউজ পোর্টালের ডোমেইন বাতিলে চিঠি দেয়া হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

ছবি

অমর একুশের বইমেলা কাল শুরু

ছবি

পাঠ্যপুস্তকে ভুলত্রুটি শনাক্তে কমিটি গঠন

ছবি

হঠাৎ বেড়ে গেছে এলপি গ্যাসের দাম বিপাকে ভোক্তারা

ছবি

দেশবিরোধী ও বিভ্রান্তিকর প্রচারণা: ১৯১টি নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ

ছবি

বুধবার শুরু হচ্ছে একুশে বইমেলা, চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

ছবি

সাগরে লঘুচাপ, আরও ঘণীভূত হওয়ার শঙ্কা

ছবি

এই ফেব্রুয়ারিতে ঢাকায় দূতাবাস খুলছে আর্জেন্টিনা

ছবি

জমজমের পানি বিক্রি বন্ধ, কেনা-বেচার যৌক্তিকতা জানাবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন

ছবি

গত ২৪ ঘন্টায় ১১ জন করোনায় আক্রান্ত

ছবি

গণতন্ত্রর ধারাবাহিক না থাকলে দেশ উন্নয়ন হতো না: প্রধানমন্ত্রী

ছবি

২৭ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় আর্জেন্টিনা দূতাবাস চালু হচ্ছে

ছবি

আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

দূষিত শহরের তালিকায় টানা ১০ দিন শীর্ষে ঢাকা

সরকারের হাতে ক্ষমতা দিয়ে সংসদে বিল পাস

ছবি

বিজিবির নতুন মহাপরিচালক নাজমুল হাসান

ছবি

দেশে করোনা পজেটিভ ১৬জন, সবাই ঢাকার

ছবি

দেশের রাজনীতি নিয়ে অন্যদের বাড়াবাড়ি করার সুযোগ নেই:পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

খেজুরের রস: নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত ৮ জনের মধ্যে ৫ মৃত্যু, অসতর্কতাকে দায়ী করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ছবি

প্রবাসী ইমরানের মামলা খারিজ, দুই শিশু থাকবে জাপানি মায়ের কাছে

ছবি

রাজশাহীতে ২৬ প্রকল্প উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

জনসভায় যোগ দিয়ে বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

উন্নয়নকাজ হলে বায়ুদূষণ হবেই : পরিবেশমন্ত্রী

ছবি

সারদা পুলিশ একাডেমিতে প্রধানমন্ত্রী

ছবি

সারদায় প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

tab

জাতীয়

গুজবে কান দেবেন না, অর্থনীতি এখনও স্থিতিশীল : প্রধানমন্ত্রী

বাসস

সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২

https://sangbad.net.bd/images/2022/December/05Dec22/news/Skh-Hasina-1.jpg

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীকে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ এবং ব্যাংকে তারল্য নিয়ে কোন অপপ্রচারে কর্ণপাত না করার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, করোনা ও রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে অনেক উন্নত দেশ বিপদের মধ্যে থাকলেও বাংলাদেশ অর্থনৈতিকভাবে স্থিতিশীল রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আন্তর্জাতিকভাবে মূল্যস্ফীতি বেড়েছে। অনেক উন্নত দেশ অর্থনৈতিকভাবে বিপদে এবং সমস্যার সম্মুখীন, তাদের রিজার্ভ কমছে। সে অবস্থায় আমরা বলতে পারি যে বাংলাদেশকে স্থিতিশীল অবস্থায় রাখতে পেরেছি।’

প্রধানমন্ত্রী আজ মিরপুর সেনানিবাসের ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজের (ডিএসসিএসসি) শেখ হাসিনা কমপ্লেক্সে ‘ন্যাশনাল ডিফেন্স কোর্স-২০২২ ও ‘আমর্ড ফোর্সেস ওয়ার কোর্স’ এর গ্রাজুয়েশন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে একথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের দুর্ভাগ্য হচ্ছে যখনই দেশ একটা শান্তিপূর্ণ অবস্থার মধ্যে অর্থনৈতিক অগ্রগতির দিকে এগিয়ে যায় তখন সবার কাছে (স্বার্থান্বেষী মহল) এটা পছন্দ হয় না, এটা হলো বাস্তবতা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা একটি যুদ্ধ বিধ্বস্থ দেশ গড়ে তুলে প্রবৃদ্ধি ৯ ভাগে তুলতে সক্ষম হয়েছিলেন। আর কোভিডের আগে আওয়ামী লীগ তুলেছিল ৮ শতাংশের ওপরে। কিন্তু কোভিড-১৯ ও এর পরবর্তী রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ এবং একে কেন্দ্র করে স্যাংশনে অনেক উন্নত দেশের অর্থনৈতিক অবস্থাও বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে। বিশ^ব্যাপী মুদ্রাস্ফীতি বৃদ্ধি পেয়েছে। ধনী দেশগুলোও আজকে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ের ব্যবস্থা নিচ্ছে। তাদের খাদ্যপণ্যের দাম বেড়ে যাচ্ছে, রিজার্ভ কমে যাচ্ছে। এই অবস্থায়ও বাংলাদেশকে এখনও আমরা স্থিতিশীল অবস্থায় রাখতে সক্ষম হয়েছি।

এ সময় নানা কথা বলে ভয়-ভীতি ছড়ানোর অপচেষ্টায় কান না দেয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, যুদ্ধকালীন এই সংকটে অনেক ধনী দেশ জ্বালানি সাশ্রয়ে ব্যবস্থা নিচ্ছে। আমরাও নানা পদক্ষেপ নিই। অথচ জ্বালানি নিয়ে নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে মানুষকে পক্ষে টানা হচ্ছে।

https://sangbad.net.bd/images/2022/December/05Dec22/news/Skh-Hasina-2.jpg

সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে মিরপুর সেনানিবাসস্থ, শেখ হাসিনা কমপ্লেক্সে ডিফেন্স কোর্স ও আর্মড ফোর্সেস ওয়ার কোর্স-২০২২ এর সমাপনী অনুষ্ঠানে এনডিসি এর কমান্ড্যান্ট শুছেচ্ছা প্রদান করেন। -আইএসপিআর

দেশের অতীত ও বর্তমান রিজার্ভের তুলনামুলক চিত্র তুলে দরে শেখ হাসিনা বলেন, ’৯৬ সালে একুশ বছর পর আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের সময় রিজার্ভ পেয়েছিল মাত্র ২ দশমিক ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তখন তার সরকার সেই রিজার্ভ বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়। ২০০৯ সালে দ্বিতীয়বার যখন সরকার গঠন করে তখন রিজার্ভ পায় ৫ বিলিয়ন ডলার যেটাকে টানা সরকারে থাকায় তারা ৪৮ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করতে সক্ষম হন।

তিনি বলেন, করোনার সময় যাতায়াত ও আমদানি বন্ধ ছিল। এ জন্য রিজার্ভ জমে যায়। পরে সব চ্যানেল খুলে গেলে আমাদের আমাদানিতে রিজার্ভ ব্যয় করতে হয়েছে। ভ্যাকসিন কেনা, টিকা গবেষণায় অর্থ দেয়াসহ করোনা চিকিৎসা সরঞ্জম ক্রয় করতে আমাদের অনেক টাকা লেগেছে। এগুলোর জন্য আমাদের ডলার খরচ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুদ্ধ এবং স্যাংশনের কারণে ইতোমধ্যে আমদানী ব্যয় বহুলাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি উদাহারণ দিয়ে বলেন, যে গম একসময় ২শ’ ডলারে পাওয়া যেত তা এখন ৬শ’ ডলারে কিনতে হচ্ছে। যে পরিবহন ব্যয় ৮শ’ ডলার ছিল তা ৩ হাজার ৮শ’ ডলারে গিয়ে ঠেকেছে। কিন্তু এখানে রিজার্ভ খরচ করতে হলেও তার সরকার দেশের জনগণের কথা বিবেচনা করে কোন কার্পন্য করেনি।

পাশাপাশি সরকারের রপ্তানি এবং বিনিয়োগ বৃদ্ধি পেয়েছে উল্লেখ করে তিনি দেশের প্রতি ইঞ্চি জমি কাজে লাগিয়ে উৎপাদন বৃদ্ধিতে তার সরকারের আহ্বান পুণর্ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, জাতির পিতা কেবল মাটি ও মানুষকে পুঁজি করেই একটি যুদ্ধ বিধ্বস্থ দেশ গড়ে তুলে বাংলাদেশকে স্বল্পোন্নত দেশের পর্যায়ে রেখে যান।

সেটা সবাইকে মনে রাখার মাধ্যমেই এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

back to top