alt

জাতীয়

শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ও নির্বাচন চেয়ে ইইউ ও ১৪ দেশের বিবৃতি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক: : বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২

‘আগামী ১০ ডিসেম্বর মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে আমরা মানবাধিকার সুরক্ষা ও উন্নয়ন উৎসাহিত করার ক্ষেত্রে গণতন্ত্রের মৌলিক ভূমিকাকে তুলে ধরতে চাই’।

বাংলাদেশে অবস্থিত ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ও ১৪ দেশের রাষ্ট্রদূত এই দিবস উপলক্ষে এক যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন। এতে তারা শান্তিপূর্ণ সমাবেশ এবং নির্বাচনি প্রক্রিয়ার গুরুত্ব পুনর্ব্যক্ত করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশ দূতাবাসের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে মঙ্গলবার রাতে বাংলা ও ইংরেজিতে এ বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, “আমরা বাংলাদেশের বন্ধু ও অংশীদার হিসেবে এদেশের সাফল্যকে আরও উৎসাহিত করতে আগ্রহী এবং মানবাধিকারের সার্বজনীন ঘোষণার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে অবাধ, সুষ্ঠু, অন্তর্ভুক্তিমূলক ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন প্রক্রিয়ার গুরুত্ব পুনর্ব্যক্ত করছি।”

বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া বজায় থাকার প্রত্যাশা জানিয়ে বিবৃতিতে আরও বলা হয়, “অর্থপূর্ণ অংশগ্রহণ, সমতা, নিরাপত্তা ও অন্তর্ভুক্তিমূলক মানবিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য অনুসরণীয় মূল্যবোধ ও নীতি হিসেবে আমরা গণতান্ত্রিক শাসনকে সমর্থন ও উৎসাহিত করি।”

পরবর্তী সংসদ নির্বাচনের বছর খানেক আগে বাংলাদেশে যখন রাজনীতির মাঠে উত্তপ্ত হয়ে উঠছে, তখন বেশ কয়েকজন রাষ্ট্রদূত ভোট নিয়ে বক্তব্য রাখেন, যা নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া আসে সরকারের কাছ থেকে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে কূটনীতিকদের শিষ্টাচার মেনে চলার পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি বলেন, বাংলাদেশ এখন কারও উপনিবেশ নয়।

মঙ্গলবার বিদেশি কূটনীতিকদের বিবৃতিতে আরও বলা হয়, “আগামী ১০ ডিসেম্বর মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে আমরা মানবাধিকার সুরক্ষা ও উন্নয়ন উৎসাহিত করার ক্ষেত্রে গণতন্ত্রের মৌলিক ভূমিকাকে তুলে ধরতে চাই।

“আমরা মানবাধিকারের সার্বজনীন ঘোষণাপত্রে সংরক্ষিত স্বাধীনতা উদযাপন করি এবং ঘোষণাপত্রে বর্ণিত বিভিন্ন অঙ্গীকারের মধ্যে স্বাধীন মতপ্রকাশ, শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ও নির্বাচন বিষয়ে জাতিসংঘের সব সদস্য রাষ্ট্রের অঙ্গীকার রক্ষার গুরুত্ব তুলে ধরি।”

বিবৃতিদাতা মিশনগুলো হলো- যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, জাপান, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়া।

ছবি

আবার বাড়লো বিদ্যুতের দাম

শিশু হাসপাতালের বনভোজন, ওষুধ কোম্পানির কাছে চাঁদা দাবির অভিযোগ

ছবি

দেশে অবৈধ ইটভাটা ৪ হাজার ৬৩৩: সংসদে পরিবেশ মন্ত্রী

ছবি

দুর্নীতি কমাতে রাজনৈতিক অঙ্গনে দরকার বৈপ্লবিক পরিবর্তন : টিআইবি

ছবি

সেব্রিনা ফ্লোরাসহ স্বাস্থ্যের চার পরিচালক বদলি

ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্বতন্ত্র প্রার্থী আসিফ ‘আত্মগোপনে’ আছেন ধারণা ইসির

ছবি

বায়ুদূষণ রোধে কাল থেকে বিশেষ অভিযান

ছবি

দেশে কোভিডে আরও ১৩ জন আক্রান্ত

ছবি

দেশ দলমত নির্বিশেষে সবার জন্যই কাজ করেছি : প্রধানমন্ত্রী

ছবি

তাপমাত্রা বাড়তে পারে, সাগরে নিম্নচাপ

ছবি

দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ১২তম

ছবি

১৯১ নিউজ পোর্টালের ডোমেইন বাতিলে চিঠি দেয়া হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

ছবি

অমর একুশের বইমেলা কাল শুরু

ছবি

পাঠ্যপুস্তকে ভুলত্রুটি শনাক্তে কমিটি গঠন

ছবি

হঠাৎ বেড়ে গেছে এলপি গ্যাসের দাম বিপাকে ভোক্তারা

ছবি

দেশবিরোধী ও বিভ্রান্তিকর প্রচারণা: ১৯১টি নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ

ছবি

বুধবার শুরু হচ্ছে একুশে বইমেলা, চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

ছবি

সাগরে লঘুচাপ, আরও ঘণীভূত হওয়ার শঙ্কা

ছবি

এই ফেব্রুয়ারিতে ঢাকায় দূতাবাস খুলছে আর্জেন্টিনা

ছবি

জমজমের পানি বিক্রি বন্ধ, কেনা-বেচার যৌক্তিকতা জানাবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন

ছবি

গত ২৪ ঘন্টায় ১১ জন করোনায় আক্রান্ত

ছবি

গণতন্ত্রর ধারাবাহিক না থাকলে দেশ উন্নয়ন হতো না: প্রধানমন্ত্রী

ছবি

২৭ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় আর্জেন্টিনা দূতাবাস চালু হচ্ছে

ছবি

আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

দূষিত শহরের তালিকায় টানা ১০ দিন শীর্ষে ঢাকা

সরকারের হাতে ক্ষমতা দিয়ে সংসদে বিল পাস

ছবি

বিজিবির নতুন মহাপরিচালক নাজমুল হাসান

ছবি

দেশে করোনা পজেটিভ ১৬জন, সবাই ঢাকার

ছবি

দেশের রাজনীতি নিয়ে অন্যদের বাড়াবাড়ি করার সুযোগ নেই:পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

খেজুরের রস: নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত ৮ জনের মধ্যে ৫ মৃত্যু, অসতর্কতাকে দায়ী করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ছবি

প্রবাসী ইমরানের মামলা খারিজ, দুই শিশু থাকবে জাপানি মায়ের কাছে

ছবি

রাজশাহীতে ২৬ প্রকল্প উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

জনসভায় যোগ দিয়ে বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

উন্নয়নকাজ হলে বায়ুদূষণ হবেই : পরিবেশমন্ত্রী

ছবি

সারদা পুলিশ একাডেমিতে প্রধানমন্ত্রী

ছবি

সারদায় প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

tab

জাতীয়

শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ও নির্বাচন চেয়ে ইইউ ও ১৪ দেশের বিবৃতি

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক:

বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২

‘আগামী ১০ ডিসেম্বর মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে আমরা মানবাধিকার সুরক্ষা ও উন্নয়ন উৎসাহিত করার ক্ষেত্রে গণতন্ত্রের মৌলিক ভূমিকাকে তুলে ধরতে চাই’।

বাংলাদেশে অবস্থিত ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ও ১৪ দেশের রাষ্ট্রদূত এই দিবস উপলক্ষে এক যৌথ বিবৃতি দিয়েছেন। এতে তারা শান্তিপূর্ণ সমাবেশ এবং নির্বাচনি প্রক্রিয়ার গুরুত্ব পুনর্ব্যক্ত করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশ দূতাবাসের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে মঙ্গলবার রাতে বাংলা ও ইংরেজিতে এ বিবৃতি প্রকাশ করা হয়।

বিবৃতিতে বলা হয়, “আমরা বাংলাদেশের বন্ধু ও অংশীদার হিসেবে এদেশের সাফল্যকে আরও উৎসাহিত করতে আগ্রহী এবং মানবাধিকারের সার্বজনীন ঘোষণার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে অবাধ, সুষ্ঠু, অন্তর্ভুক্তিমূলক ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন প্রক্রিয়ার গুরুত্ব পুনর্ব্যক্ত করছি।”

বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া বজায় থাকার প্রত্যাশা জানিয়ে বিবৃতিতে আরও বলা হয়, “অর্থপূর্ণ অংশগ্রহণ, সমতা, নিরাপত্তা ও অন্তর্ভুক্তিমূলক মানবিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নের জন্য অনুসরণীয় মূল্যবোধ ও নীতি হিসেবে আমরা গণতান্ত্রিক শাসনকে সমর্থন ও উৎসাহিত করি।”

পরবর্তী সংসদ নির্বাচনের বছর খানেক আগে বাংলাদেশে যখন রাজনীতির মাঠে উত্তপ্ত হয়ে উঠছে, তখন বেশ কয়েকজন রাষ্ট্রদূত ভোট নিয়ে বক্তব্য রাখেন, যা নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া আসে সরকারের কাছ থেকে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে কূটনীতিকদের শিষ্টাচার মেনে চলার পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি বলেন, বাংলাদেশ এখন কারও উপনিবেশ নয়।

মঙ্গলবার বিদেশি কূটনীতিকদের বিবৃতিতে আরও বলা হয়, “আগামী ১০ ডিসেম্বর মানবাধিকার দিবস উপলক্ষে আমরা মানবাধিকার সুরক্ষা ও উন্নয়ন উৎসাহিত করার ক্ষেত্রে গণতন্ত্রের মৌলিক ভূমিকাকে তুলে ধরতে চাই।

“আমরা মানবাধিকারের সার্বজনীন ঘোষণাপত্রে সংরক্ষিত স্বাধীনতা উদযাপন করি এবং ঘোষণাপত্রে বর্ণিত বিভিন্ন অঙ্গীকারের মধ্যে স্বাধীন মতপ্রকাশ, শান্তিপূর্ণ সমাবেশ ও নির্বাচন বিষয়ে জাতিসংঘের সব সদস্য রাষ্ট্রের অঙ্গীকার রক্ষার গুরুত্ব তুলে ধরি।”

বিবৃতিদাতা মিশনগুলো হলো- যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ডেনমার্ক, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ডস, নরওয়ে, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, জাপান, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়া।

back to top