alt

জাতীয়

যুক্তরাষ্ট্রে পুনর্বাসনের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন ২৪ রোহিঙ্গা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক: : বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

প্রথম দফায় যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে রওনা হ‌য়ে‌ছেন ২৪ রো‌হিঙ্গা। ২০১৭ সালে রোহিঙ্গা ঢলের পর প্রথম কোনো তৃতীয় দেশে রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসন শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) ভোরে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে রওয়ানা দেন তারা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র।

দেশটিতে ১ লাখ ২৫ হাজার রোহিঙ্গাকে আশ্রয়ের সিদ্ধান্ত নেয় যুক্তরাষ্ট্র। সেই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে রওয়ানা দেন ২৪ রোহিঙ্গা।

এরআগে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে দেশটির দূতাবাসের মুখপাত্র জেফ রিডেইনর বলেন, প্রেসিডেন্ট বাইডেন শরণার্থীদের স্বাগত জানানোর জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতি নিশ্চিত করেছেন। তিনি দেশটিতে ১ লাখ ২৫ হাজার রোহিঙ্গাকে আশ্রয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যার মধ্যে পূর্ব এশিয়ার দেশগুলো থেকে ১৫ হাজার রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেবে যুক্তরাষ্ট্র সরকার।

রোহিঙ্গা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে গত ৩ ডিসেম্বর বাংলাদেশে আসেন মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের জনসংখ্যা, শরণার্থী ও অভিবাসন বিষয়ক সহকারী মন্ত্রী জুলিয়েটা ভেলস নয়েস। এ সময় রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন তিনি।

দেশে ফেরার আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যান নয়েস। এ সময় তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে কিছু সংখ্যক রোহিঙ্গাকে যুক্তরাষ্ট্রে পুনর্বাসনের কথা জানান। যুক্তরাষ্ট্রের বাইরেও অন্যান্য দেশে রোহিঙ্গা পুনর্বাসনের সুযোগ তৈরিতে মার্কিন সরকার কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

সাক্ষাৎ শেষে জুলিয়েটা ভেলস নয়েস সাংবাদিকদের বলেছিলেন, রোহিঙ্গাদের সমর্থন এবং পুনর্বাসন করতে পারায় যুক্তরাষ্ট্র গর্বিত। রোহিঙ্গাসহ বিশ্বব্যাপী শরণার্থীদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা বাইডেন সরকারের অগ্রাধিকার।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের বাইরেও অন্যান্য দেশে রোহিঙ্গা পুনর্বাসনের সুযোগ তৈরিতে কাজ করছে মার্কিন সরকার। একইসঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গেও কাজ করছে ‍যুক্তরাষ্ট্র।

পরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সংবাদিকদের জানান, ৮ ডিসেম্বর রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রথম ব্যাচ যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা রয়েছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন ছাড়াও শক্তিশালী কয়েকটি দেশের কাছে রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের আবেদন জানিয়েছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

মায়ানমারে মানবিক বিপর্যয়ের শিকার হয়ে গত ৫ বছর ধরে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে বিশাল রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী। মায়ানমারের জান্তা সরকারের অস্বীকৃতিতে নিজ দেশে ফিরতে পারেনি একজন রোহিঙ্গাও। সময়ের বিবর্তনে বাংলাদেশে এই রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সংখ্যা এখন ১২ লাখ।

ছবি

আবার বাড়লো বিদ্যুতের দাম

শিশু হাসপাতালের বনভোজন, ওষুধ কোম্পানির কাছে চাঁদা দাবির অভিযোগ

ছবি

দেশে অবৈধ ইটভাটা ৪ হাজার ৬৩৩: সংসদে পরিবেশ মন্ত্রী

ছবি

দুর্নীতি কমাতে রাজনৈতিক অঙ্গনে দরকার বৈপ্লবিক পরিবর্তন : টিআইবি

ছবি

সেব্রিনা ফ্লোরাসহ স্বাস্থ্যের চার পরিচালক বদলি

ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্বতন্ত্র প্রার্থী আসিফ ‘আত্মগোপনে’ আছেন ধারণা ইসির

ছবি

বায়ুদূষণ রোধে কাল থেকে বিশেষ অভিযান

ছবি

দেশে কোভিডে আরও ১৩ জন আক্রান্ত

ছবি

দেশ দলমত নির্বিশেষে সবার জন্যই কাজ করেছি : প্রধানমন্ত্রী

ছবি

তাপমাত্রা বাড়তে পারে, সাগরে নিম্নচাপ

ছবি

দুর্নীতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান ১২তম

ছবি

১৯১ নিউজ পোর্টালের ডোমেইন বাতিলে চিঠি দেয়া হয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

ছবি

অমর একুশের বইমেলা কাল শুরু

ছবি

পাঠ্যপুস্তকে ভুলত্রুটি শনাক্তে কমিটি গঠন

ছবি

হঠাৎ বেড়ে গেছে এলপি গ্যাসের দাম বিপাকে ভোক্তারা

ছবি

দেশবিরোধী ও বিভ্রান্তিকর প্রচারণা: ১৯১টি নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ

ছবি

বুধবার শুরু হচ্ছে একুশে বইমেলা, চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

ছবি

সাগরে লঘুচাপ, আরও ঘণীভূত হওয়ার শঙ্কা

ছবি

এই ফেব্রুয়ারিতে ঢাকায় দূতাবাস খুলছে আর্জেন্টিনা

ছবি

জমজমের পানি বিক্রি বন্ধ, কেনা-বেচার যৌক্তিকতা জানাবে ইসলামিক ফাউন্ডেশন

ছবি

গত ২৪ ঘন্টায় ১১ জন করোনায় আক্রান্ত

ছবি

গণতন্ত্রর ধারাবাহিক না থাকলে দেশ উন্নয়ন হতো না: প্রধানমন্ত্রী

ছবি

২৭ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় আর্জেন্টিনা দূতাবাস চালু হচ্ছে

ছবি

আজ ১১ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

দূষিত শহরের তালিকায় টানা ১০ দিন শীর্ষে ঢাকা

সরকারের হাতে ক্ষমতা দিয়ে সংসদে বিল পাস

ছবি

বিজিবির নতুন মহাপরিচালক নাজমুল হাসান

ছবি

দেশে করোনা পজেটিভ ১৬জন, সবাই ঢাকার

ছবি

দেশের রাজনীতি নিয়ে অন্যদের বাড়াবাড়ি করার সুযোগ নেই:পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

খেজুরের রস: নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত ৮ জনের মধ্যে ৫ মৃত্যু, অসতর্কতাকে দায়ী করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ছবি

প্রবাসী ইমরানের মামলা খারিজ, দুই শিশু থাকবে জাপানি মায়ের কাছে

ছবি

রাজশাহীতে ২৬ প্রকল্প উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

জনসভায় যোগ দিয়ে বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি

উন্নয়নকাজ হলে বায়ুদূষণ হবেই : পরিবেশমন্ত্রী

ছবি

সারদা পুলিশ একাডেমিতে প্রধানমন্ত্রী

ছবি

সারদায় প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী

tab

জাতীয়

যুক্তরাষ্ট্রে পুনর্বাসনের উদ্দেশে রওনা হয়েছেন ২৪ রোহিঙ্গা

নিজস্ব বার্তা পরিবেশক:

বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

প্রথম দফায় যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে রওনা হ‌য়ে‌ছেন ২৪ রো‌হিঙ্গা। ২০১৭ সালে রোহিঙ্গা ঢলের পর প্রথম কোনো তৃতীয় দেশে রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসন শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ ডিসেম্বর) ভোরে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে রওয়ানা দেন তারা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র।

দেশটিতে ১ লাখ ২৫ হাজার রোহিঙ্গাকে আশ্রয়ের সিদ্ধান্ত নেয় যুক্তরাষ্ট্র। সেই ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে রওয়ানা দেন ২৪ রোহিঙ্গা।

এরআগে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে দেশটির দূতাবাসের মুখপাত্র জেফ রিডেইনর বলেন, প্রেসিডেন্ট বাইডেন শরণার্থীদের স্বাগত জানানোর জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতি নিশ্চিত করেছেন। তিনি দেশটিতে ১ লাখ ২৫ হাজার রোহিঙ্গাকে আশ্রয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যার মধ্যে পূর্ব এশিয়ার দেশগুলো থেকে ১৫ হাজার রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেবে যুক্তরাষ্ট্র সরকার।

রোহিঙ্গা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে গত ৩ ডিসেম্বর বাংলাদেশে আসেন মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের জনসংখ্যা, শরণার্থী ও অভিবাসন বিষয়ক সহকারী মন্ত্রী জুলিয়েটা ভেলস নয়েস। এ সময় রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন তিনি।

দেশে ফেরার আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যান নয়েস। এ সময় তিনি পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে কিছু সংখ্যক রোহিঙ্গাকে যুক্তরাষ্ট্রে পুনর্বাসনের কথা জানান। যুক্তরাষ্ট্রের বাইরেও অন্যান্য দেশে রোহিঙ্গা পুনর্বাসনের সুযোগ তৈরিতে মার্কিন সরকার কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

সাক্ষাৎ শেষে জুলিয়েটা ভেলস নয়েস সাংবাদিকদের বলেছিলেন, রোহিঙ্গাদের সমর্থন এবং পুনর্বাসন করতে পারায় যুক্তরাষ্ট্র গর্বিত। রোহিঙ্গাসহ বিশ্বব্যাপী শরণার্থীদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা বাইডেন সরকারের অগ্রাধিকার।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের বাইরেও অন্যান্য দেশে রোহিঙ্গা পুনর্বাসনের সুযোগ তৈরিতে কাজ করছে মার্কিন সরকার। একইসঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সঙ্গেও কাজ করছে ‍যুক্তরাষ্ট্র।

পরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সংবাদিকদের জানান, ৮ ডিসেম্বর রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রথম ব্যাচ যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা রয়েছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন ছাড়াও শক্তিশালী কয়েকটি দেশের কাছে রোহিঙ্গাদের পুনর্বাসনের আবেদন জানিয়েছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

মায়ানমারে মানবিক বিপর্যয়ের শিকার হয়ে গত ৫ বছর ধরে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে বিশাল রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী। মায়ানমারের জান্তা সরকারের অস্বীকৃতিতে নিজ দেশে ফিরতে পারেনি একজন রোহিঙ্গাও। সময়ের বিবর্তনে বাংলাদেশে এই রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর সংখ্যা এখন ১২ লাখ।

back to top