alt

জাতীয়

জাপান সফরে ব্যস্ত দিন কাটালেন স্পিকার

বাংলাদেশে অধিকতর বিনিয়োগের আহ্বান

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০২৩

বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার এবং তথ্য-প্রযুক্তি, মানবসম্পদ উন্নয়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে জাপানকে অধিকতর বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভস অব জাপানের স্পিকার হিরোইউকি হসোদারের সঙ্গে বৃহস্পতিবার (২৫ মে) জাপানের পার্লামেন্টে (ডায়েট) অবস্থিত স্পিকার্স কনফারেন্স কক্ষে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার এ আহ্বান জানান।

হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভস অব জাপানের স্পিকারের আমন্ত্রণে গত মঙ্গলবার জাপান সফরে যান ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। বৃহস্পতিবার তিনি হাউজ অব কাউন্সিলরস অব জাপানের প্রেসিডেন্ট হিদেহিসা ওতসুজি’র সঙ্গেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন এবং আরও কিছু কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে ব্যস্ত দিন কাটান।

হিরোইউকি হসোদা ও ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর মধ্যে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক জাপান সফর, জাপান বাংলাদেশ কূটনৈতিক সম্পর্কের পঞ্চাশ বছর, বাংলাদেশে জাপানের বিনিয়োগ বৃদ্ধি, মানবসম্পদ উন্নয়ন, দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক শক্তিশালীকরণ, ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, জাপান বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু। ১৯৭৩ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাপান-বাংলাদেশ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ভিত স্থাপন করেন, যা ইতোমধ্যে পঞ্চাশ বছর অতিবাহিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক জাপান সফর জাপান-বাংলাদেশ পঞ্চাশ বছরের কূটনৈতিক সম্পর্ককে নতুন মাত্রা দিয়েছে। জাপান বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন অংশীদার। রাজধানী ঢাকায় মেট্রোরেল জাপান-বাংলাদেশ সম্পর্কের অনন্য মাইলফলক। এ সময়, ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার এবং তথ্য-প্রযুক্তি, মানবসম্পদ উন্নয়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে জাপানকে অধিকতর বিনিয়োগের আহ্বান জানান স্পিকার।

২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত ডব্লিউ ও ডব্লিউ কনফারেন্সে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপির জাপান সফর স্মরণ করে জাপানের স্পিকার হিরোইউকি হসোদা বলেন, জাপান বাংলাদেশ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আগামী দিনে আরও জোরদার হবে। এ ধরনের সংসদীয় সফর বিনিময় দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করবে।

সাক্ষাৎ শেষে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর নেতৃত্বে বাংলাদেশের সংসদীয় প্রতিনিধিদল জাপানের পার্লামেন্ট পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে হিরোইউকি হসোদা বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকারকে জাপানের সংসদীয় কার্যক্রমের সার্বিক প্রক্রিয়া সম্পর্কে অবহিত করেন।

এরপর ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে টোকিও-এর হোটেল ক্যাপিটলে জাপান-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ লীগের প্রেসিডেন্ট আসো তারো সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাৎকালে স্পিকার বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের অব্যবহিত পর থেকেই অবকাঠামোগত উন্নয়ন, দারিদ্র্য বিমোচন, পানি ব্যবস্থাপনা, সেনিটেশন, রাস্তা-ঘাট নির্মাণ ও সংস্কার ইত্যাদি ক্ষেত্রে জাপান বাংলাদেশকে সহায়তা করে আসছে। জাপান বর্তমানে বাংলাদেশের একক বৃহত্তম উন্নয়ন অংশীদার। কোভিড মহামারীকালীন ভ্যাক্সিন প্রদানের মাধ্যমে জাপান বাংলাদেশকে সহায়তা করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বাংলাদেশে দারিদ্র্য দূরীকরণ, নারীর ক্ষমতায়ন ইত্যাদি অর্জনের পাশাপাশি অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বিরাজ করছে। বাংলাদেশ এখন ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ডের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে যার তরুণ জনসমষ্টি অত্যন্ত দক্ষ। তাদের অমিত সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে তথ্য-প্রযুক্তি খাতে জাপানের অধিকতর বিনিয়োগ কামনা করেন স্পিকার।

এরপর হাউজ অব কাউন্সিলরস অব জাপানের প্রেসিডেন্ট হিদেহিসা ওতসুজির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। সাক্ষাৎকালে স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে দারিদ্র্য দূরীকরণ, নারীর ক্ষমতায়ন, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচিসমূহের বাস্তবায়ন, শতভাগ বিদ্যুতায়ন, ল্যাকটেটিং মায়েদের ভাতা প্রদান, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প বাস্তবায়ন ইত্যাদি কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। বাংলাদেশের উন্নয়নে জাপানের অগ্রণী ভূমিকা রয়েছে। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে জাপান অধিক বিনিয়োগ করতে পারে। লিঙ্গ বৈষম্য, জলবায়ু পরিবর্তন ইত্যাদি ক্ষেত্রে দুই দেশ একসঙ্গে কাজ করতে পারে। এ সময় দুই দেশের সংসদীয় সম্পর্ক আরও জোরদারকরণে গুরুত্বারোপ করেন স্পিকার।

প্রথম নারী স্পিকার হিসেবে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর প্রশংসা করে প্রেসিডেন্ট হিদেহিসা ওতসুজি বলেন, বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়নে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক জাপান সফরের মাধ্যমে দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও দৃঢ় হয়েছে।

সবশেষে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভস অব জাপানের স্পিকার হিরোইউকি হসোদার আমন্ত্রণে নৈশভোজে অংশগ্রহণ করেন।

সাক্ষাৎকালে জাপানের এমপিদের মধ্যে- ইবায়াসি তাতসুনোরি, কাজিয়ামা হিরোসি, সুকাডা ইসিরো, মাকিসিমা কেরেন, ইয়ামামোতো হিরোনরি, জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ, বাংলাদেশের সংসদ সদস্যদের (এমপি) মধ্যে- আ ফ ম রুহুল হক, আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী, বদরুদ্দোজা মো. ফরহাদ হোসেন, খাদিজাতুল আনোয়ার ও কানিজ ফাতেমা আহমেদ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া অতিরিক্ত সচিব মো. নূরুজ্জামান, স্পিকারের একান্ত সচিব (অতিরিক্ত সচিব) এম এ কামাল বিল্লাহ, যুগ্মসচিব মো. তারিক মাহমুদ এবং স্পিকারের সহকারী একান্ত সচিব (উপসচিব) মো. রাশেদ ইকবাল চৌধুরী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

আগামী ২৯ মে স্পিকারের দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলন : রোববার গণপদযাত্রা, রাষ্ট্রপতিকে স্মারকলিপি

ছবি

কোটা সংস্কারের দাবিতে কাল রাষ্ট্রপতিকে স্মারকলিপি ও গণপদযাত্রা

ছবি

কোটাবিরোধীদের আন্দোলন থামানো উচিত : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

ভুল বোঝাবুঝি মিটেছে, শিক্ষকদের ‘প্রত্যয়’ স্কিম আগামী বছর চালু হবে

ছবি

বৈঠকে তিন দফা দাবি নিয়ে আলোচনা হয়েছে: শিক্ষক নেতা নিজামুল হক

ছবি

কোটা আন্দোলনে অনুপ্রবেশকারী, অন্যদিকে ধাবিত করার চেষ্টা : ডিবিপ্রধান

ছবি

রোববার সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী

আন্দোলনকারীদের উপর হামলার প্রতিবাদে ইবিতে বিক্ষোভ মিছিল

ছবি

কক্সবাজারে শুরু হয়েছে অষ্টাদশ বিডিনগ সম্মেলন

ছবি

ইন্টারনেটে দিনভর ধীরগতি থাকতে পারে

ছবি

কোটার হিসাব-নিকাশ, যেভাবে হয় প্রয়োগ

ছবি

কোটা সংস্কার ও হামলার বিচারের দাবিতে আবারো রাবি শিক্ষার্থীদের রেলপথ অবরোধ করে বিক্ষোভ

ছবি

কোটা সংস্কারের দাবি : ছুটির দিনেও শাহবাগ অবরোধ করলেন আন্দোলনকারীরা

ছবি

জাতির পিতার সমাধিতে মো: মোস্তাফিজুর রহমানের শ্রদ্ধা নিবেদন

ছবি

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরুতে ইতিবাচক মিয়ানমার, মোদির সাথে বিমসটেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাত

ছবি

সাধারণ মানুষের জানমালের ক্ষতি হলে আইন মোতাবেক ব্যবস্থা: আইনমন্ত্রী

ছবি

সেমিকন্ডাক্টর শিল্পের জন্য দক্ষ মানবসম্পদ প্রয়োজনঃ প্রতিমন্ত্রী পলক

আন্দোলনকারীকে ‘শিবির অ্যাখ্যা’ দিয়ে মারধরের অভিযোগ রাবি ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে

ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলন: জাবিতে পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে ঢাকা-আরিচা মহাসড়ক অবরোধ

ছবি

আদালতের রায় প্রকাশ : সরকার চাইলে কোটা পরিবর্তন-পরিবর্ধন করতে পারবে

ছবি

সমন্বয়কারীদের পদত্যাগ, প্রধান ফটক ভেঙে শাহবাগ গেলেন জবির শিক্ষার্থীরা

ছবি

পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে শাহবাগে শিক্ষার্থীরা

ছবি

গ্রন্থাগারের সামনে আন্দোলনকারীদের অবস্থান, মধুর ক্যানটিনের সামনে ছাত্রলীগ

ছবি

কোটা আন্দোলনকারীদের জন্য আদালতের দরজা সবসময় খোলা : প্রধান বিচারপতি

ছবি

কোটা নিয়ে আন্দোলনে জনদুর্ভোগ হলে ব্যবস্থা : ডিএমপি

ছবি

স্পীকারের সাথে ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূতের বিদায়ী সাক্ষাৎ

কাল অর্ধদিবস ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচি পালন করবে কোটাসংস্কার আন্দোলনকারীরা

ছবি

কোটাবিরোধীরা ফের অবরোধের ঘোষণা দিয়ে রাস্তা ছাড়লেন

ছবি

ইউনূসের মামলা: যুক্তরাষ্ট্রে শ্রম আইন অপব্যবহারের একটি উদাহরণ

ছবি

শেখ হাসিনার শিং জিনপিং সঙ্গে বৈঠক

ছবি

আদালত নয়, সরকারের কাছে চূড়ান্ত সমাধান চান আন্দোলনকারীরা

ছবি

কেন একদিন আগেই দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী, জানালেন কাদের

ছবি

চীনের গ্রেট হল অব দ্য পিপলে শেখ হাসিনাকে উষ্ণ সংবর্ধনা

ছবি

২১ সমঝোতা স্মারক-চুক্তি এবং ৭ ঘোষণাপত্র সই করল বাংলাদেশ-চীন

ছবি

হজে ৬৩ বাংলাদেশির মৃত্যু, ফিরেছেন ৬১ হাজার হাজি

ছবি

মুক্তিযোদ্ধা কোটা নিয়ে দুই আবেদনের শুনানি একসঙ্গে সাড়ে ১১টায়

tab

জাতীয়

জাপান সফরে ব্যস্ত দিন কাটালেন স্পিকার

বাংলাদেশে অধিকতর বিনিয়োগের আহ্বান

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বৃহস্পতিবার, ২৫ মে ২০২৩

বাংলাদেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার এবং তথ্য-প্রযুক্তি, মানবসম্পদ উন্নয়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে জাপানকে অধিকতর বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভস অব জাপানের স্পিকার হিরোইউকি হসোদারের সঙ্গে বৃহস্পতিবার (২৫ মে) জাপানের পার্লামেন্টে (ডায়েট) অবস্থিত স্পিকার্স কনফারেন্স কক্ষে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার এ আহ্বান জানান।

হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভস অব জাপানের স্পিকারের আমন্ত্রণে গত মঙ্গলবার জাপান সফরে যান ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। বৃহস্পতিবার তিনি হাউজ অব কাউন্সিলরস অব জাপানের প্রেসিডেন্ট হিদেহিসা ওতসুজি’র সঙ্গেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন এবং আরও কিছু কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে ব্যস্ত দিন কাটান।

হিরোইউকি হসোদা ও ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর মধ্যে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক জাপান সফর, জাপান বাংলাদেশ কূটনৈতিক সম্পর্কের পঞ্চাশ বছর, বাংলাদেশে জাপানের বিনিয়োগ বৃদ্ধি, মানবসম্পদ উন্নয়ন, দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক শক্তিশালীকরণ, ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, জাপান বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু। ১৯৭৩ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাপান-বাংলাদেশ দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ভিত স্থাপন করেন, যা ইতোমধ্যে পঞ্চাশ বছর অতিবাহিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক জাপান সফর জাপান-বাংলাদেশ পঞ্চাশ বছরের কূটনৈতিক সম্পর্ককে নতুন মাত্রা দিয়েছে। জাপান বাংলাদেশের অন্যতম উন্নয়ন অংশীদার। রাজধানী ঢাকায় মেট্রোরেল জাপান-বাংলাদেশ সম্পর্কের অনন্য মাইলফলক। এ সময়, ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার এবং তথ্য-প্রযুক্তি, মানবসম্পদ উন্নয়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে জাপানকে অধিকতর বিনিয়োগের আহ্বান জানান স্পিকার।

২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত ডব্লিউ ও ডব্লিউ কনফারেন্সে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপির জাপান সফর স্মরণ করে জাপানের স্পিকার হিরোইউকি হসোদা বলেন, জাপান বাংলাদেশ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আগামী দিনে আরও জোরদার হবে। এ ধরনের সংসদীয় সফর বিনিময় দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরও শক্তিশালী করবে।

সাক্ষাৎ শেষে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর নেতৃত্বে বাংলাদেশের সংসদীয় প্রতিনিধিদল জাপানের পার্লামেন্ট পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে হিরোইউকি হসোদা বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকারকে জাপানের সংসদীয় কার্যক্রমের সার্বিক প্রক্রিয়া সম্পর্কে অবহিত করেন।

এরপর ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সঙ্গে টোকিও-এর হোটেল ক্যাপিটলে জাপান-বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ লীগের প্রেসিডেন্ট আসো তারো সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সাক্ষাৎকালে স্পিকার বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের অব্যবহিত পর থেকেই অবকাঠামোগত উন্নয়ন, দারিদ্র্য বিমোচন, পানি ব্যবস্থাপনা, সেনিটেশন, রাস্তা-ঘাট নির্মাণ ও সংস্কার ইত্যাদি ক্ষেত্রে জাপান বাংলাদেশকে সহায়তা করে আসছে। জাপান বর্তমানে বাংলাদেশের একক বৃহত্তম উন্নয়ন অংশীদার। কোভিড মহামারীকালীন ভ্যাক্সিন প্রদানের মাধ্যমে জাপান বাংলাদেশকে সহায়তা করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় বাংলাদেশে দারিদ্র্য দূরীকরণ, নারীর ক্ষমতায়ন ইত্যাদি অর্জনের পাশাপাশি অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বিরাজ করছে। বাংলাদেশ এখন ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ডের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে যার তরুণ জনসমষ্টি অত্যন্ত দক্ষ। তাদের অমিত সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে তথ্য-প্রযুক্তি খাতে জাপানের অধিকতর বিনিয়োগ কামনা করেন স্পিকার।

এরপর হাউজ অব কাউন্সিলরস অব জাপানের প্রেসিডেন্ট হিদেহিসা ওতসুজির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। সাক্ষাৎকালে স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে দারিদ্র্য দূরীকরণ, নারীর ক্ষমতায়ন, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচিসমূহের বাস্তবায়ন, শতভাগ বিদ্যুতায়ন, ল্যাকটেটিং মায়েদের ভাতা প্রদান, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প বাস্তবায়ন ইত্যাদি কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। বাংলাদেশের উন্নয়নে জাপানের অগ্রণী ভূমিকা রয়েছে। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে জাপান অধিক বিনিয়োগ করতে পারে। লিঙ্গ বৈষম্য, জলবায়ু পরিবর্তন ইত্যাদি ক্ষেত্রে দুই দেশ একসঙ্গে কাজ করতে পারে। এ সময় দুই দেশের সংসদীয় সম্পর্ক আরও জোরদারকরণে গুরুত্বারোপ করেন স্পিকার।

প্রথম নারী স্পিকার হিসেবে ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর প্রশংসা করে প্রেসিডেন্ট হিদেহিসা ওতসুজি বলেন, বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়নে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাম্প্রতিক জাপান সফরের মাধ্যমে দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক আরও দৃঢ় হয়েছে।

সবশেষে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভস অব জাপানের স্পিকার হিরোইউকি হসোদার আমন্ত্রণে নৈশভোজে অংশগ্রহণ করেন।

সাক্ষাৎকালে জাপানের এমপিদের মধ্যে- ইবায়াসি তাতসুনোরি, কাজিয়ামা হিরোসি, সুকাডা ইসিরো, মাকিসিমা কেরেন, ইয়ামামোতো হিরোনরি, জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ, বাংলাদেশের সংসদ সদস্যদের (এমপি) মধ্যে- আ ফ ম রুহুল হক, আবুল কালাম মো. আহসানুল হক চৌধুরী, বদরুদ্দোজা মো. ফরহাদ হোসেন, খাদিজাতুল আনোয়ার ও কানিজ ফাতেমা আহমেদ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া অতিরিক্ত সচিব মো. নূরুজ্জামান, স্পিকারের একান্ত সচিব (অতিরিক্ত সচিব) এম এ কামাল বিল্লাহ, যুগ্মসচিব মো. তারিক মাহমুদ এবং স্পিকারের সহকারী একান্ত সচিব (উপসচিব) মো. রাশেদ ইকবাল চৌধুরী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

আগামী ২৯ মে স্পিকারের দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

back to top