alt

রাজনীতি

খালেদা জিয়া জ্বরে আক্রান্ত

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক : শুক্রবার, ২৮ মে ২০২১
image

গত এক মাস ধরে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে চিকিৎসাধীন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শরীরে বৃহস্পতিবার রাতে জ্বর এসেছে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার (২৮ মে) গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, গতকাল থেকে সাংবাদিকরা আমার কাছে ম্যাডামের শারীরিক অবস্থায় কেমন জানতে চাইছেন। তার শারীরিক অবস্থা আগের মতই আছে। গতকাল রাত থেকে তার শরীরে জ্বর এসেছে। হঠাৎ জ্বর আসার কারণ ইনভেস্টিগেট করছেন চিকিৎসকরা। তবে রাত থেকেই জ্বর সারানোর চিকিৎসা শুরু হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে আবার তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড বৈঠকে বসবে। খালেদা জিয়ার পরবর্তী চিকিৎসা কেমন হবে সে বিষয়ে বৈঠকেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। সেদিন তার বাসভবন ফিরোজায় আরও আটজন ব্যক্তিগত স্টাফও করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হন। ২৪ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় খালেদা জিয়ার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। পরে ২৭ এপ্রিল রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় খালেদা জিয়াকে। ৯ মে তৃতীয়বার করোনা পরীক্ষার পর রিপোর্ট নেগেটিভ আসে তার।

চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার ‘খুব ধীর গতিতে’ উন্নতি হচ্ছে। এখনো তার শরীরে পোস্ট-কোভিড বেশকিছু জটিলতা রয়েছে। তার হার্ট ও কিডনি জটিলতা, আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস ও চোখের সমস্যার চিকিৎসা চলছে।

এ অবস্থায় ৭৬ বছর বয়সী খালেদা জিয়াকে সিসিইউর বাইরে রেখে চিকিৎসা দেওয়াটা এখনো নিরাপদ মনে করছেন না চিকিৎসকরা। তাই আরও কিছুদিন তাকে সিসিইউতে থাকতে হবে। এরপর শারীরিক অবস্থার আশানুরূপ উন্নতি হলে তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের একজন চিকিৎসক বলেন, খালেদা জিয়ার বর্তমান শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় তাকে সিসিইউর বাইরে রেখে চিকিৎসা দেওয়া নিরাপদ মনে করছি না আমরা। কারণ তার হার্ট, কিডনি ও ফুসফুসের যে অবস্থা, তাতে যে কোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে। ফলে, তাকে সিসিইউতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। আমরা তাকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দিচ্ছি।

চিকিৎসকরা বলছেন, উন্নত চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে বিদেশ নেওয়া আবশ্যক হয়ে পড়েছে। কারণ তিনি যেসব রোগে আক্রান্ত সেগুলোর উন্নত চিকিৎসা দেশে পর্যাপ্ত নয়। তার এসব রোগের চিকিৎসা আগে আমেরিকা, লন্ডন ও সৌদি আরবে হয়েছে। আগে যেসব চিকিৎসক তার চিকিৎসা দিয়েছেন, তারাই রোগের অতীত ইতিহাস সম্পর্কে ভালো বলতে পারবেন এবং ভালো চিকিৎসা দিতে পারবেন।

ছবি

আওয়ামীলীগের ৭২তম প্রতিষ্ঠা বাষির্কী এবং ৬ দফা দিবস পালিত

ছবি

৫৪ দিন পর নিজ বাসায় ফিরলেন খালেদা জিয়া

ছবি

বিএনপির রাজনীতি করোনার চেয়েও ভয়ঙ্কর:কাদের

ছবি

মুক্তি পেলেন বিএনপি নেত্রী নিপুণ রায়

ছবি

বিএনপিই এদেশে ধ্বংসাত্মক অপশক্তির পৃষ্ঠপোষক : কাদের

ছবি

‘আ.লীগ গণতন্ত্র যেভাবে ধ্বংস করেছে, সেভাবে পরিবেশও ধ্বংস করছে’

ছবি

মিটিংয়ে দাওয়াত না দেওয়ায় আ.লীগের ২ গ্রুপের সংঘর্ষ, গুলিবিদ্ধ ২

ছবি

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সংসদীয় কমিটির প্রস্তাবের নিন্দা ঐক্য ন্যাপের

ছবি

জিয়াই স্বাধীনতাযুদ্ধের প্রথম নায়ক: মির্জা ফখরুল

ছবি

সরকার বেপরোয়া গতিতে জুলুম-নির্যাতন চলছে: মির্জা ফখরুল

ছবি

আ.লীগ এমনি এমনি ক্ষমতা দেবে না: ফখরুল

ছবি

শাজাহান খান জামায়াত-বিএনপিকে পুনর্বাসিত করেছেন : মাদারীপুর আ.লীগ সভাপতি

ছবি

ব্যাপক পরিবর্তনে হেফাজতের নতুন কমিটি ঘোষণা

ছবি

বিএনপির নেতা আসলাম চৌধুরীর জামিন স্থগিত

ছবি

এবারের বাজেট অবাস্তবায়নযোগ্য: ফখরুল

ছবি

বিএনপি ভালো কিছু দেখতে পায় না: কাদের

ছবি

সিসিইউ থেকে খালেদা জিয়াকে কেবিনে স্থানান্তর

ছবি

প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য আরো বেশী বরাদ্দ প্রয়োজন : তরিকত ফেডারেশন

ছবি

তিন আসনে উপনির্বাচন: শুক্রবার থেকে আ.লীগের মনোনয়ন বিতরণ শুরু

ছবি

ফিলিস্তিনের জনগণের পাশে থাকবে তরীকত ফেডারেশন

ছবি

ঢাবিতে ছাত্রদলের কর্মসূচিতে ছাত্রলীগের হামলা, আহত ২০

ছবি

বিএনপির দায়িত্বশীলতা শূন্যের কোটায় পৌঁছে গেছে: কাদের

ছবি

বড় আকার নয়, জীবন বাঁচানোর বাজেট চায় বিএনপি

ছবি

‘সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীর পৃষ্ঠপোষক হচ্ছে বিএনপি’

ছবি

টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিলেন ওবায়দুল কাদের

ছবি

রোজিনার জামিনে প্রমাণিত আদালত সম্পূর্ণ স্বাধীন: কাদের

ছবি

ওবায়দুল কাদেরের বাসায় ফুল নিয়ে কাদের মির্জা

ছবি

গণমাধ্যমের শত্রুরা বন্ধু সেজে সরকারবিরোধী উস্কানি দিচ্ছে: কাদের

ছবি

বিএনপি গলাবাজি করলেই সরকার গণবিচ্ছিন্ন হবে না: কাদের

ছবি

এ সরকার রাজনৈতিক নয়, আমলাতান্ত্রিক: মির্জা ফখরুল

ছবি

সাংবাদিকদের ধৈর্য ধরতে বললেন ওবায়দুল কাদের

ছবি

সাংবাদিক রোজিনার সঙ্গে যা হয়েছে ন্যক্কারজনক: ফখরুল

ছবি

শেখ হাসিনা দেশে ফিরেছেন বলেই দেশ ডিজিটাল হয়েছে: আইসিটি প্রতিমন্ত্রী পলক

ছবি

শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ

ছবি

শেখ হাসিনার চলার পথ পুষ্প বিছানো ছিল না: কাদের

ছবি

রাজনৈতিক ব্লেম গেম থেকে বিরত থাকা সবার দায়িত্ব ও কর্তব্য: কাদের

tab

রাজনীতি

খালেদা জিয়া জ্বরে আক্রান্ত

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক
image

শুক্রবার, ২৮ মে ২০২১

গত এক মাস ধরে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালের সিসিইউতে চিকিৎসাধীন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার শরীরে বৃহস্পতিবার রাতে জ্বর এসেছে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার (২৮ মে) গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, গতকাল থেকে সাংবাদিকরা আমার কাছে ম্যাডামের শারীরিক অবস্থায় কেমন জানতে চাইছেন। তার শারীরিক অবস্থা আগের মতই আছে। গতকাল রাত থেকে তার শরীরে জ্বর এসেছে। হঠাৎ জ্বর আসার কারণ ইনভেস্টিগেট করছেন চিকিৎসকরা। তবে রাত থেকেই জ্বর সারানোর চিকিৎসা শুরু হয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে আবার তার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড বৈঠকে বসবে। খালেদা জিয়ার পরবর্তী চিকিৎসা কেমন হবে সে বিষয়ে বৈঠকেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ১১ এপ্রিল খালেদা জিয়ার শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। সেদিন তার বাসভবন ফিরোজায় আরও আটজন ব্যক্তিগত স্টাফও করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হন। ২৪ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় খালেদা জিয়ার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ আসে। পরে ২৭ এপ্রিল রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয় খালেদা জিয়াকে। ৯ মে তৃতীয়বার করোনা পরীক্ষার পর রিপোর্ট নেগেটিভ আসে তার।

চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার ‘খুব ধীর গতিতে’ উন্নতি হচ্ছে। এখনো তার শরীরে পোস্ট-কোভিড বেশকিছু জটিলতা রয়েছে। তার হার্ট ও কিডনি জটিলতা, আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস ও চোখের সমস্যার চিকিৎসা চলছে।

এ অবস্থায় ৭৬ বছর বয়সী খালেদা জিয়াকে সিসিইউর বাইরে রেখে চিকিৎসা দেওয়াটা এখনো নিরাপদ মনে করছেন না চিকিৎসকরা। তাই আরও কিছুদিন তাকে সিসিইউতে থাকতে হবে। এরপর শারীরিক অবস্থার আশানুরূপ উন্নতি হলে তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ডের একজন চিকিৎসক বলেন, খালেদা জিয়ার বর্তমান শারীরিক অবস্থা বিবেচনায় তাকে সিসিইউর বাইরে রেখে চিকিৎসা দেওয়া নিরাপদ মনে করছি না আমরা। কারণ তার হার্ট, কিডনি ও ফুসফুসের যে অবস্থা, তাতে যে কোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা রয়েছে। ফলে, তাকে সিসিইউতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। আমরা তাকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দিচ্ছি।

চিকিৎসকরা বলছেন, উন্নত চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে বিদেশ নেওয়া আবশ্যক হয়ে পড়েছে। কারণ তিনি যেসব রোগে আক্রান্ত সেগুলোর উন্নত চিকিৎসা দেশে পর্যাপ্ত নয়। তার এসব রোগের চিকিৎসা আগে আমেরিকা, লন্ডন ও সৌদি আরবে হয়েছে। আগে যেসব চিকিৎসক তার চিকিৎসা দিয়েছেন, তারাই রোগের অতীত ইতিহাস সম্পর্কে ভালো বলতে পারবেন এবং ভালো চিকিৎসা দিতে পারবেন।

back to top