alt

রাজনীতি

সরকার ‘কাচের ঘরে’ বসে ‘লম্বা লম্বা’ কথা বলছে: মির্জা আব্বাস

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস মন্তব্য করেছেন, সরকার ‘কাচের ঘরে’ বসে ‘লম্বা লম্বা’ কথা বলছে।

দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে নিয়ে মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় শনিবার এক দোয়া মাহফিলে একথা বলেন তিনি।

মির্জা আব্বাস বলেন, “এই যে যারা লম্বা লম্বা কথা বলে, যাদেরকে চিনতে গেলে সার্চ লাইট দিয়ে খুঁজতে হয়, এরা কারা? নাম কী, বাপের পরিচয় কী?

“আসেন না সাহস করে আমাদের সঙ্গে একটু রাস্তার মধ্যে হাঁটেন। আমরা দেখি, কতজন আমাদেরকে ফুল দেয়, আপনাদের গায়ে থু থু দেয়, এটা আমরা দেখব।”

“ওই সাহস তো আপনাদের হবে না। আপনারা ওই কাচের ঘরে বন্দি হয়ে লম্বা লম্বা কথা বলেছেন আর বিএনপির নেতা-কর্মীদের ওপর অত্যাচার করছেন,” বলেন তিনি।

কুমিল্লার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে মির্জা আব্বাস বলেন, “আমাদের সময় ছিল ৫০ হাজার পুলিশ। আর এখন ৫ লক্ষ পুলিশ বাংলাদেশে। কাকে পেটানোর জন্য?

“যদি ডাকাত ধরা না যায়, যদি ব্যাংক লুটেরাদের ধরা যায়, যদি চোর ধরা যায়, যদি খুনি ধরা না যায়, যদি পূজামন্ডপে হামলাকারীদের ধরা যায় যায় তাহলে এই পু্লিশের কাজ কী? বিএনপি ঠেকানো?”

“এটা বোধহয় বেশিদিন চলবে না। কারণ সমস্ত কিছু বিরুদ্ধে প্রতিরোধ একটা আছে, প্রতিরোধ ব্যবস্থা কিন্তু নিজ থেকে গড়ে উঠে, গড়াতে হয় না,” সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলেন তিনি।

মির্জা আব্বাস বলেন, “আমরা পরিষ্কার ভাষায় বলতে চাই, এই সমস্ত নোংরামী ছাড়েন। ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য আপনারা বহু পন্থ অবলম্বন করেছেন, বুহ খুন করেছেন, বুহ ‍গুম করেছেন, আমাদের বিএনপ-যুবদল-স্বেচ্ছাসেবক দল-ছাত্র দলের নেতা-কর্মীদের হয়রানির মাধ্যমে জেলখানা ভরে ফেলেছেন। আছে শুধু পুলিশ, আছে শুধু কোর্ট- এটা দিয়ে আপনারা টিকে আছেন।”

বর্তমান অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে বলে নেতা-কর্মীদের ‘নিশিরাতের সরকার’কে হটাতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান মির্জা আব্বাস।

নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচ তলায় জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল ঢাকা মহানগর উত্তরের উদ্যোগে বসুন্ধরা এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় এই দোয়া মাহফিল হয়।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার প্রসঙ্গ টেনে মির্জা আব্বাস বলেন, “চিকিৎসকরা বলেছেন দেশনেত্রীর উন্নত চিকিৎসা দরকার। কিন্তু উনাকে উন্নত মানের চিকিৎসা দেবে না এই সরকার। তিলে তিলে উনাকে মেরে ফেলাই হলো সরকারের লক্ষ্য। সেই লক্ষ্যেই উনাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

“সরকারের আসল বিষয় হল উনাকে আটকিয়ে রাখা আর উনাকে তিলে তিলে কষ্ট দিয়ে হত্যা করা।”

ঢাকা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি ফখরুল ইসলাম রবিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক গাজী রেজওয়ানুল হোসেন রিয়াজের সঞ্চালনায় দোয়া মাহফিলপূর্ব আলোচনা সভায় বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসীন আলী, দক্ষিণের সভপতি এসএম জিলানী বক্তব্য রাখেন।

ছবি

কিছুদিনের মধ্যেই খালেদার বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে সিদ্ধান্ত: আইনমন্ত্রী

ছবি

খালেদা জিয়ার আবারও রক্তক্ষরণ হচ্ছে : ফখরুল

ছবি

নাসিক নির্বাচন: মনোনয়নপত্র নিলেন নৌকার প্রার্থী আইভী

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও চিকিৎসার জন্য বিদেশে পাঠানোর দাবিতে ২০ ডিসেম্বর থেকে বিএনপির জেলা পর্যায়ে সমাবেশ

ছবি

মুরাদের পদত্যাগপত্রেও ভুল

ছবি

শুধু পদত্যাগ না, মুরাদকে গ্রেপ্তার করতে হবে : রিজভী

ছবি

‘ব্যক্তিগত কারণ’ দেখিয়ে ইমেইলে পদত্যাগপত্র পাঠালেন মুরাদ

ছবি

প্রতিমন্ত্রী মুরাদকে নিয়ে ফখরুলের সঙ্গে তর্কে জড়ালেন যুবদল নেতা

ছবি

তথ্য প্রতিমন্ত্রীর পদত্যাগ চাইলেন মির্জা ফখরুল

ছবি

বক্তব্য প্রত্যাহারের প্রশ্নই ওঠে না : তথ্য প্রতিমন্ত্রী

ছবি

খালেদাকে মুক্তি না দিলে কোটি মানুষ রাস্তায় নেমে আসবে

ছবি

নেত্রীও স্কুল ড্রেস পরে আন্দোলন করছেন: তথ্যমন্ত্রী

ছবি

শিক্ষার্থীরা রাজনৈতিক দলের উস্কানিতে রাস্তায়: কাদের

ছবি

জনগণই আমার শক্তির উৎস: আইভী

ছবি

ছাত্র আন্দোলনে হয়রানি হলে রাজপথে জবাব দেব: নুর

ছবি

খালেদা জিয়াকে তিলে তিলে হত্যার ষড়যন্ত্র চলছে : ফখরুল

ছবি

দেশে ভালো ডাক্তার আছেন, খালেদা জিয়া সুস্থ হয়ে উঠবেন: তথ্যমন্ত্রী

ছবি

‘খালেদার বিদেশে যেতে বাধা আইন নয়, সরকার’

ছবি

খালেদার বিদেশে চিকিৎসার জটিলতার জন্য আ’লীগ দায়ী নয়: সেতুমন্ত্রী

ছবি

ইউপি নির্বাচন দিয়ে আ’লীগের পতন শুরু হয়ে গেছে: ফখরুল

ছবি

ইউপি নির্বাচনে চর দখলের মতোই কেন্দ্র দখল হচ্ছে: জিএম কাদের

ছবি

হেফাজতের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব সাজিদুর রহমান

ছবি

খালেদা জিয়ার অসুস্থতার জন্য বিএনপিই দায়ী: কাদের

ছবি

কে হচ্ছে হেফাজতের মহাসচিব

ছবি

মারা গেছেন হেফাজতের মহাসচিব নুরুল ইসলাম

ছবি

এমপিরা বেক্কলের মতো ঘোরেন: সংসদে জাপা মহাসচিব

ছবি

কেন্দ্রে গিয়ে শোনেন তার ভোট হয়ে গেছে

ছবি

বিএনপি দেশে অস্থিরতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে: কৃষিমন্ত্রী

ছবি

খালেদার পরিপাকতন্ত্রে রক্তক্ষরণ হচ্ছে: মির্জা ফখরুল

ছবি

পাবলিক আমাদের আ.লীগের দালাল বলে: জাপা মহাসচিব

রাজাকার পুত্র হাইমচরে নৌকার প্রার্থী

ছবি

আমি টাকা পাচার করি না, কারা করে কীভাবে জানবো : অর্থমন্ত্রী

ছবি

সংসদে পাকিস্তান ক্রিকেট দলের পক্ষে কথা বলে তোপে সাংসদ হারুন

ছবি

রাষ্ট্রপতি ক্ষমা করলেই খালেদার দণ্ড মওকুফ: হানিফ

ছবি

খালেদাকে স্লো পয়জনিং করলে ফখরুলরা করছেন: ওবায়দুল কাদের

ছবি

খালেদার চিকিৎসায় বিদেশ থেকে চিকিৎসক আনছেন না কেন: আইনমন্ত্রী

tab

রাজনীতি

সরকার ‘কাচের ঘরে’ বসে ‘লম্বা লম্বা’ কথা বলছে: মির্জা আব্বাস

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

শনিবার, ১৬ অক্টোবর ২০২১

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস মন্তব্য করেছেন, সরকার ‘কাচের ঘরে’ বসে ‘লম্বা লম্বা’ কথা বলছে।

দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে নিয়ে মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় শনিবার এক দোয়া মাহফিলে একথা বলেন তিনি।

মির্জা আব্বাস বলেন, “এই যে যারা লম্বা লম্বা কথা বলে, যাদেরকে চিনতে গেলে সার্চ লাইট দিয়ে খুঁজতে হয়, এরা কারা? নাম কী, বাপের পরিচয় কী?

“আসেন না সাহস করে আমাদের সঙ্গে একটু রাস্তার মধ্যে হাঁটেন। আমরা দেখি, কতজন আমাদেরকে ফুল দেয়, আপনাদের গায়ে থু থু দেয়, এটা আমরা দেখব।”

“ওই সাহস তো আপনাদের হবে না। আপনারা ওই কাচের ঘরে বন্দি হয়ে লম্বা লম্বা কথা বলেছেন আর বিএনপির নেতা-কর্মীদের ওপর অত্যাচার করছেন,” বলেন তিনি।

কুমিল্লার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে মির্জা আব্বাস বলেন, “আমাদের সময় ছিল ৫০ হাজার পুলিশ। আর এখন ৫ লক্ষ পুলিশ বাংলাদেশে। কাকে পেটানোর জন্য?

“যদি ডাকাত ধরা না যায়, যদি ব্যাংক লুটেরাদের ধরা যায়, যদি চোর ধরা যায়, যদি খুনি ধরা না যায়, যদি পূজামন্ডপে হামলাকারীদের ধরা যায় যায় তাহলে এই পু্লিশের কাজ কী? বিএনপি ঠেকানো?”

“এটা বোধহয় বেশিদিন চলবে না। কারণ সমস্ত কিছু বিরুদ্ধে প্রতিরোধ একটা আছে, প্রতিরোধ ব্যবস্থা কিন্তু নিজ থেকে গড়ে উঠে, গড়াতে হয় না,” সরকারকে হুঁশিয়ার করে বলেন তিনি।

মির্জা আব্বাস বলেন, “আমরা পরিষ্কার ভাষায় বলতে চাই, এই সমস্ত নোংরামী ছাড়েন। ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য আপনারা বহু পন্থ অবলম্বন করেছেন, বুহ খুন করেছেন, বুহ ‍গুম করেছেন, আমাদের বিএনপ-যুবদল-স্বেচ্ছাসেবক দল-ছাত্র দলের নেতা-কর্মীদের হয়রানির মাধ্যমে জেলখানা ভরে ফেলেছেন। আছে শুধু পুলিশ, আছে শুধু কোর্ট- এটা দিয়ে আপনারা টিকে আছেন।”

বর্তমান অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে বলে নেতা-কর্মীদের ‘নিশিরাতের সরকার’কে হটাতে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান মির্জা আব্বাস।

নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচ তলায় জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দল ঢাকা মহানগর উত্তরের উদ্যোগে বসুন্ধরা এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় এই দোয়া মাহফিল হয়।

খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থার প্রসঙ্গ টেনে মির্জা আব্বাস বলেন, “চিকিৎসকরা বলেছেন দেশনেত্রীর উন্নত চিকিৎসা দরকার। কিন্তু উনাকে উন্নত মানের চিকিৎসা দেবে না এই সরকার। তিলে তিলে উনাকে মেরে ফেলাই হলো সরকারের লক্ষ্য। সেই লক্ষ্যেই উনাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

“সরকারের আসল বিষয় হল উনাকে আটকিয়ে রাখা আর উনাকে তিলে তিলে কষ্ট দিয়ে হত্যা করা।”

ঢাকা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি ফখরুল ইসলাম রবিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক গাজী রেজওয়ানুল হোসেন রিয়াজের সঞ্চালনায় দোয়া মাহফিলপূর্ব আলোচনা সভায় বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসীন আলী, দক্ষিণের সভপতি এসএম জিলানী বক্তব্য রাখেন।

back to top