alt

রাজনীতি

বিএনপি’র শাসনামলে দৈনিক ১৩-১৪ ঘণ্টা লোডশেডিং ছিল: ওবায়দুল কাদের

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : মঙ্গলবার, ০২ আগস্ট ২০২২

বিএনপি’র শাসনামলে দেশ অন্ধকারে নিমজ্জিত ছিল বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘তাদের (বিএনপি) শাসনামলে দেশে দিনে ১৩/১৪ ঘন্টা লোডশেডিং চলতো।’

মঙ্গলবার বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, ‘বিদ্যুৎ ও জ্বালানি নিয়ে বিএনপি যে অব্যাহত অপপ্রচার আর মিথ্যাচার করছে, তা নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকার অপপ্রয়াস ছাড়া আর কিছুই নয়।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘ক্ষমতায় আসার জন্য তারা দেশের মূল্যবান খনিজ সম্পদ বিদেশি প্রভুদের হাতে তুলে দিয়েছিল। বিদ্যুৎ সরবরাহের নামে শুধুমাত্র খাম্বা স্থাপন করে জাতির সঙ্গে প্রতারণা করেছিল। বিকল্প ক্ষমতা কেন্দ্র হাওয়া ভবন আর খোয়াব ভবন আলোকিত রাখতে গিয়ে সারাদেশকে অন্ধকারে রেখেছিলো বিএনপি। সেই অন্ধকারময় সময় পিছনে ফেলে শেখ হাসিনা দেশবাসীকে আলোকিত বাংলাদেশ উপহার দিয়েছেন।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সেক্টরে শেখ হাসিনা সরকার বৈপ্লবিক সাফল্য দেখিয়েছে। ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ভূমিধস বিজয়ের মধ্য দিয়ে যখন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ক্ষমতাসীন হয় তখন দেশে মাথাপিছু বিদ্যুৎ উৎপাদন ছিল ২২০ কিলোওয়াট, যা বর্তমানে দাঁড়িয়েছে ৫৬০ কিলোওয়াটে। ২০০৯ সালের শুরুতে দেশে বিদ্যুৎ সুবিধার আওতাভুক্ত ছিল মোট জনসংখ্যার মাত্র ৪৭ শতাংশ। ২০০৯ সালের শুরুতে বিদ্যুৎ উৎপাদন ছিলো ৩ হাজার ২৬৭ মেগাওয়াট। বর্তমানে বিদ্যুৎ সরবরাহের ক্ষমতা ২৫ হাজার ৫৬৬ মেগাওয়াটে উন্নীত হয়েছে। শুধু তাই নয়, ২০০৯ সালের শুরুতে দেশে বিদ্যুৎ গ্রাহক সংখ্যা ছিলো ১ কোটি ৮ লক্ষ। ২০২২ এর এপ্রিলে এসে গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ কোটি ২৭ লক্ষে। সরকারের এ সাফল্যে বিএনপি ঈর্ষান্বিত হয়ে বরাবরের ন্যায় নির্লজ্জ মিথ্যাচার ও অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যত অনিশ্চয়তার আশঙ্কা কাটাতে আগাম ব্যবস্থা হিসেবে বাংলাদেশকেও কিছু সতর্কতামূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হয়েছে। এর অংশ হিসেবে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে এবং বিদ্যুৎ সরবরাহে রেশনিং করা হচ্ছে। যা একটি সাময়িক পদক্ষেপ।’

তিনি আরও বলেন, ‘একটি মতলবি মহল ভারত থেকে বিদ্যুৎ আমদানির ভুঁয়া জিগির তুলছেন। প্রকৃতপক্ষে, ভারত থেকে দেশে আমদানিকৃত বিদ্যুতের পরিমাণ মোটের উপর মাত্র ১০ শতাংশ। আবার কেউ কেউ বলছেন, দেশে নাকি ১৩ দিনের অকটেন এবং ১৭ দিনের পেট্রোলের রিজার্ভ আছে। অথচ প্রকৃত সত্য হলো, সামান্য পরিমাণে বুস্টার ছাড়া দেশে অকটেন ও পেট্রোল আমদানি করা হয় না।’

ছবি

উন্নয়নের নৌকা এখন শ্রীলঙ্কার পথে: জিএম কাদের

ছবি

বিদেশি চাপে সমাবেশে ঝামেলা করছে না সরকার: মির্জা ফখরুল

ছবি

শ্রীলঙ্কা হওয়ার গুজব ভিত্তিহীন, দেশের মানুষ বেহেস্তে আছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ছবি

সরকার ও শাসনব্যবস্থা বদলাতে জনগণের বৃহত্তর ঐক্য গড়ে তোলার ডাক

‘জিনিসপত্রের দাম বাড়ায় এখনো কেউ মারা যায়নি’

ছবি

আন্দোলনে থাকবে বিএনপি, তবে বড় কর্মসূচি এখনই নয়

ছবি

নতুন রাজনৈতিক জোট ‘গণতন্ত্র মঞ্চে’র আনুষ্ঠানিক আত্মপ্রকাশ

ছবি

আমরা রাজপথের পুরাতন খেলোয়াড় : ওবায়দুল কাদের

ছবি

জ্বালানী তেলের মূল্য বৃদ্ধির ঘোষণা পুনঃবিবেচনার দাবি গণতন্ত্রী পার্টির

ছবি

আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমলে দেশেও জ্বালানিমূল্য সমন্বয় করা হবে : সেতুমন্ত্রী

ছবি

আইএমএফের ঋণ পেতে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি: মির্জা ফখরুল

ছবি

দেশের মানুষের প্রতি সরকারের কোন দরদ নেই: জিএম কাদের

নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেত্রী নীলাকে দল থেকে অব্যাহতি

ছাত্রলীগ : চিঠির ফাঁকা স্থানে নাম বসিয়ে দিলেই কেন্দ্রীয় কমিটির নেতা!

ছবি

বৃহস্পতিবার ভোলায় সকাল-সন্ধ্যা হরতাল বিএনপির

ছবি

ভোলায় সংঘর্ষে আহত ছাত্রদল নেতা নুরে আলম মারা গেছেন

ছবি

হারিকেন ধরার সময় এসেছে সরকারের: মির্জা ফখরুল

কৌশলপত্র তৈরির পর বিশেষ সংলাপে বসবে ইসি

ছবি

আওয়ামী লীগ ও বিএনপির প্রতিহিংসার রাজনীতির কারণে দেশে ভীতিকর পরিস্থিতি: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান

ছবি

হাজি সেলিমের লিভ টু আপিলের শুনানি ২৩ অক্টোবর

ছবি

৩০০ আসনেই ইভিএমে ভোট চায় আওয়ামী লীগ

রাতে ভোটের কাজ হয়, আমরাও করিয়েছি : ইসিকে জাপা

বিএনপির সংলাপ নিয়ে শরিকদের ক্ষোভ

ছবি

২০১৪-২০১৮ সালের ভোট নিয়ে অতিমাত্রায় বিতর্ক হচ্ছে: সিইসি

ছবি

ইসির সঙ্গে সংলাপ: ৩০০ আসনেই ইভিএম চায় আ.লীগ

ছবি

আ.লীগের ব্যয়ের থেকে আয় তিনগুণ বেশি

ধাক্কা দিয়ে সরকারকে সরাতে পারবে না বিএনপি: কৃষিমন্ত্রী

ছবি

রেলপথের দুর্ঘটনাগুলো প্রমাণ করে কতটা পিছিয়ে আমরা : জিএম কাদের

ছবি

বিদ্যুৎ নিয়ে বিএনপির বিক্ষোভ হাস্যকর : আবদুস সবুর

ছবি

সরকার পতনের ঘণ্টা বাজতে শুরু করেছে: ফখরুল

ছবি

জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে বিএনপির বিক্ষোভ, রাস্তায় যানজট

ছবি

শেষ পর্যন্ত ‘অস্তিত্ব’ রক্ষায় নির্বাচনে যাবে বিএনপি: ওবায়দুল কাদের

ছবি

রিমোট কন্ট্রোলের ডাকা আন্দোলনে জনগণ সাড়া দেবে না: কাদের

ছবি

আয়ের চেয়ে কোটি টাকা ব্যয় বেশি বিএনপির

ছবি

স্কুল মাঠে আ.লীগের সম্মেলন, বিব্রত ও লজ্জিত শিক্ষামন্ত্রী

ছবি

আজ ন্যাপের ৬৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী

tab

রাজনীতি

বিএনপি’র শাসনামলে দৈনিক ১৩-১৪ ঘণ্টা লোডশেডিং ছিল: ওবায়দুল কাদের

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

মঙ্গলবার, ০২ আগস্ট ২০২২

বিএনপি’র শাসনামলে দেশ অন্ধকারে নিমজ্জিত ছিল বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ‘তাদের (বিএনপি) শাসনামলে দেশে দিনে ১৩/১৪ ঘন্টা লোডশেডিং চলতো।’

মঙ্গলবার বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, ‘বিদ্যুৎ ও জ্বালানি নিয়ে বিএনপি যে অব্যাহত অপপ্রচার আর মিথ্যাচার করছে, তা নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকার অপপ্রয়াস ছাড়া আর কিছুই নয়।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘ক্ষমতায় আসার জন্য তারা দেশের মূল্যবান খনিজ সম্পদ বিদেশি প্রভুদের হাতে তুলে দিয়েছিল। বিদ্যুৎ সরবরাহের নামে শুধুমাত্র খাম্বা স্থাপন করে জাতির সঙ্গে প্রতারণা করেছিল। বিকল্প ক্ষমতা কেন্দ্র হাওয়া ভবন আর খোয়াব ভবন আলোকিত রাখতে গিয়ে সারাদেশকে অন্ধকারে রেখেছিলো বিএনপি। সেই অন্ধকারময় সময় পিছনে ফেলে শেখ হাসিনা দেশবাসীকে আলোকিত বাংলাদেশ উপহার দিয়েছেন।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সেক্টরে শেখ হাসিনা সরকার বৈপ্লবিক সাফল্য দেখিয়েছে। ২০০৮ সালের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ভূমিধস বিজয়ের মধ্য দিয়ে যখন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ক্ষমতাসীন হয় তখন দেশে মাথাপিছু বিদ্যুৎ উৎপাদন ছিল ২২০ কিলোওয়াট, যা বর্তমানে দাঁড়িয়েছে ৫৬০ কিলোওয়াটে। ২০০৯ সালের শুরুতে দেশে বিদ্যুৎ সুবিধার আওতাভুক্ত ছিল মোট জনসংখ্যার মাত্র ৪৭ শতাংশ। ২০০৯ সালের শুরুতে বিদ্যুৎ উৎপাদন ছিলো ৩ হাজার ২৬৭ মেগাওয়াট। বর্তমানে বিদ্যুৎ সরবরাহের ক্ষমতা ২৫ হাজার ৫৬৬ মেগাওয়াটে উন্নীত হয়েছে। শুধু তাই নয়, ২০০৯ সালের শুরুতে দেশে বিদ্যুৎ গ্রাহক সংখ্যা ছিলো ১ কোটি ৮ লক্ষ। ২০২২ এর এপ্রিলে এসে গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪ কোটি ২৭ লক্ষে। সরকারের এ সাফল্যে বিএনপি ঈর্ষান্বিত হয়ে বরাবরের ন্যায় নির্লজ্জ মিথ্যাচার ও অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যত অনিশ্চয়তার আশঙ্কা কাটাতে আগাম ব্যবস্থা হিসেবে বাংলাদেশকেও কিছু সতর্কতামূলক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হয়েছে। এর অংশ হিসেবে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয়ের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে এবং বিদ্যুৎ সরবরাহে রেশনিং করা হচ্ছে। যা একটি সাময়িক পদক্ষেপ।’

তিনি আরও বলেন, ‘একটি মতলবি মহল ভারত থেকে বিদ্যুৎ আমদানির ভুঁয়া জিগির তুলছেন। প্রকৃতপক্ষে, ভারত থেকে দেশে আমদানিকৃত বিদ্যুতের পরিমাণ মোটের উপর মাত্র ১০ শতাংশ। আবার কেউ কেউ বলছেন, দেশে নাকি ১৩ দিনের অকটেন এবং ১৭ দিনের পেট্রোলের রিজার্ভ আছে। অথচ প্রকৃত সত্য হলো, সামান্য পরিমাণে বুস্টার ছাড়া দেশে অকটেন ও পেট্রোল আমদানি করা হয় না।’

back to top