alt

খেলা

সাফের ফাইনালে কেন যাননি, জানালেন সালাউদ্দিন

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক: : মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২

কাজী সালাউদ্দিন । ফাইল ছবি

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন সাফেরও সভাপতি। সেদিক থেকে মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে থাকাটা ছিল তার দায়িত্বের অংশ। বাফুফে সভাপতি হিসেবেও নেপাল যেতে পারতেন তিনি, আর মাঠে বসে বাংলাদেশের মেয়েদের শিরোপা জয়ের মুহূর্ত দেখার প্রবল ইচ্ছাও ছিল তার। কিন্তু সালাউদ্দিন জানিয়েছেন, মেয়েদের চাপে ফেলতে চাননি বলেই নেপাল যাননি তিনি।

প্রথমবারের মতো সাফের শিরোপাজয়ী দলটি বুধবার দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌছাঁবে। সাবিনা খাতুনের দলকে সংবর্ধনা জানাতে নানা আয়োজনের প্রস্তুতি সেরেছে বাফুফে। কিন্তু মেয়েদের বরণ করে নিতে বিমানবন্দরেও যাবেন না বাফুফে সভাপতি সালাউদ্দিন। লাইম লাইট থেকে মেয়েদের আড়াল করতে চান বলে এমন সিদ্ধান্ত তার।

সাফের এবারের আসরে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছিল বাংলাদেশ। ফাইনালে নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়নের মুকুট জিতেছেন কৃষ্ণা, সপ্না, সানজিদারা। ইতিহাস গড়ার মুহূর্তে সেখানে ছিলেন না সালাউদ্দিন। এমন বিশেষ মুহূর্তে দেশের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রধানের না থাকাটা প্রশ্নের জন্ম দেয়। মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) সংবাদ সম্মেলনে সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন সালাউদ্দিন।

বাফুফেতে এক সংবাদ সম্মেলনে সালাউদ্দিন বলেন, একেকজন কাজ করে একেক স্টাইলে ও মানসিকতায়। আমি নেপালে যাওয়ার টিকেট তিনবার করে তিনবারই আবার বাতিল করেছি। ফাইনালে যাওয়া আমার কর্তব্য ছিল, সাফের সভাপতি হিসেবে আমি কাপটা দেব। কিন্তু অনেক চিন্তা করে, নিজের সঙ্গে যুদ্ধ করে দেখলাম, আমি গেলে মেয়েগুলো বাড়তি চাপে পড়বে। কারণ তারা দারুণ ফুটবল খেলছে। যতোটা সুন্দর খেলা যায়, সবই আছে। আমি গেলে ভালো হতে পারে, খারাপও হতে পারে। আমি গেলে যদি তাদের বাড়তি চাপ হয়! তাই সবাইকে বললাম, বাফুফেতে বসে খেলা দেখব।

সাফের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনের চেয়ে দেশাত্ববোধ ও দেশের ফুটবলের প্রতি নিবেদন বেশি কাজ করেছে বলে দাবি সালাউদ্দিনের। তার ভাষায়, ‘সাফ সভাপতি হিসেবে কাপ দেওয়াটা আমার কর্তব্য। আমি গর্ব নিয়ে কাপটা দেব, কিন্তু এটার চেয়ে আমার দেশকে আমি বেশি ভালোবাসি। আমি চেয়েছি দলটা যেন জেতে। কারণ, এই দেশে ফুটবলের একটা ব্রেক দরকার। আমরা খুব ভালো করছি না, ভালো করার চেষ্টা করছি। আমি তাই ওটাকে স্যাক্রিফাইস করেছি।’

দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট জেতা দলটিকে বর্ণাঢ্য সংবর্ধানা দেওয়া হবে। ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ও বাফুফে যৌথভাবে মেয়েদের বরণ করে নেওয়ার আয়োজন করছে। বিমানবন্দর থেকে ছাদ খোলা বাসে শোভাযাত্রা করে বাফুফে ভবনে নিয়ে যাওয়া হবে সাবিনাদের। ছাদ খোলা বাসে উদযাপন বাংলাদেশে এবারই প্রথম হতে যাচ্ছে। থাকবে আরও কিছু আয়োজন। কিন্তু বিমানবন্দরে না গিয়ে বাফুফে ভবনে দলকে অভ্যর্থনা জানাবেন বাফুফে সভাপতি।

বিমানবন্দরে না যাওয়ার কারণ হিসেবে সালাউদ্দিন বলেন, আমি মেয়েদের বাফুফে ভবনে অভ্যর্থনা জানাব। এরপর ওদের সঙ্গে বসে ভালো-মন্দ আলাপ করব। এয়ারপোর্টে যাওয়া আমার জন্য সুবিধা। আমার বাসা থেকে ১৫-২০ মিনিট। কিন্তু আমি এখানে থাকব। কালকে বিমাবন্দরে যাবে বাফুফের কার্যনির্বাহী কমিটির একটি দল, ক্রীড়ামন্ত্রী ও সচিব, স্পন্সরদের অনেকে। আমি এখানে দলকে রিসিভ করব।

‘কেন আমি ওখানে যাব না, কারণটা বলি। আমার খুব ইচ্ছা যাওয়ার, চ্যাম্পিয়ন কাপ নিয়ে এসেছে প্রথমবারের মতো। কিন্তু আমি ওখানে যদি যাই, আপনারা (সংবাদমাধ্যম) আমাকে অনেক প্রশ্ন করবেন, অনেক কিছু করবেন। তাতে হবে কী, মেয়েদের লাইমলাইট ভাগ হয়ে যাবে। কিন্তু কাল মেয়েদের দিন। এটা সভাপতির দিন নয়, সাধারণ সম্পাদকের দিন নয়, সহ-সভাপতি, সদস্যদের দিন নয়।’ বলেন তিনি।

সব চোখ যেন মেয়েদের ওপর থাকে, এ কারণেই বিমানবন্দরে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাফুফে সভাপতি, ‘আমি চাই মেয়েরা যেন এক্সক্লুসিভ আপনাদের আদর পায়, মিডিয়া কভারেজ পায়। কারণ, আমরা জিতিনি, আমরা পেছন থেকে কাজ করেছি। কাল লাইমলাইট যেন মেয়েরা পায়। ইংরেজিতে একটা কথা বলে, ‘ডোন্ট স্টিল হার থান্ডার।’ কাল ওদের ওটাই, আমরা যেন ভাগ না নিই।’

ছবি

আফসোস হয়ে রইল রাব্বির ঝড়ো ব্যাটিং

ছবি

ফেভারিট ভারতকে হারালো পাকিস্তান

ছবি

সাকিব কেন এসেও খেললেন না, কারণ জানালেন ইউনুস

ছবি

কাতার বিশ্বকাপই মেসির শেষ বিশ্বকাপ, ঘোষণা মেসির

ছবি

ইয়াসিরের তাণ্ডবের পরও হারল বাংলাদেশ

ছবি

টি-টোয়েন্টি অভিষেকেই তৃষ্ণার হ্যাটট্রিকের স্বাদ

ছবি

মালয়েশিয়াকে ৪১ রানে গুটিয়ে বাংলাদেশের ‘বড়’ জয়

ছবি

ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার নেপালের ক্রিকেটার লামিচানে

ছবি

দুই সন্তান নিয়ে আদালতে আল আমিনের স্ত্রী

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

হামজাকে পেতে লেস্টার সিটিকে বাফুফের চিঠি

ছবি

শেষ মূহুর্তের আত্মঘাতী গোলে জয় বাংলাদেশের

ছবি

আইসিসি নারী মাসসেরার মনোনয়ন পেলেন জ্যোতি

ছবি

নারী এশিয়া কাপ: বাংলাদেশে আসছেন সৌরভ গাঙ্গুলি

ছবি

রেঞ্জার্সকে ২-০ গোলে হারিয়ে ঘুরে দাড়ানোর পথে লিভারপুল

ছবি

‘এ’ দলের অধিনায়ক মিঠুন, স্কোয়াডে আছেন মুমিনুল

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

ইন্টারের কাছে হেরে অনিশ্চয়তায় বার্সেলোনা

ছবি

প্রতিপক্ষের জন্য মেসি সবচেয়ে ভয়ঙ্কর খেলোয়াড়

ছবি

‘এতদিন পর ইংল্যান্ড এল, তাদেরকে কীভাবে খালি হাতে ফেরাই’

ছবি

সামান্য ভুলে বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ হেটমায়ার

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

পাকিস্তানের সঙ্গে পারল না বাংলার বাঘিনীরা

ছবি

হাল্যান্ড ও ফোডেনের জোড়া হ্যাটট্রিকে ম্যানসিটির ডার্বি জয়

ছবি

বেনজেমার পেনাল্টি মিস : রিয়ালকে রুখে দিল ওসাসুনা

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

হল্যান্ড-ফোডেনের হ্যাটট্রিক, ম্যানইউ’র জালে গোল বন্যা

ছবি

বিশ্বজুড়ে ফুটবল মাঠের ১০টি ভয়াবহ সংঘর্ষের ঘটনা

ছবি

এশিয়া কাপে মা-মেয়ের ইতিহাস

ছবি

নিসকে হারিয়ে শীর্ষ স্থান ধরে রেখেছে পিএসজি

ছবি

লেভানদভস্কির গোলে শীর্ষে উঠল বার্সেলোনা

ছবি

ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল মাঠে দাঙ্গা, নিহত ১২৯

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

ছবি

নাসিমের পর হায়দার আলীও হাসপাতালে

ছবি

থাইল্যান্ডকে উড়িয়ে এশিয়া কাপে দুর্দান্ত শুরু বাংলাদেশের

টিভিতে আজকের খেলার সূচি

tab

খেলা

সাফের ফাইনালে কেন যাননি, জানালেন সালাউদ্দিন

ক্রীড়া বার্তা পরিবেশক:

কাজী সালাউদ্দিন । ফাইল ছবি

মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি কাজী সালাউদ্দিন সাফেরও সভাপতি। সেদিক থেকে মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে থাকাটা ছিল তার দায়িত্বের অংশ। বাফুফে সভাপতি হিসেবেও নেপাল যেতে পারতেন তিনি, আর মাঠে বসে বাংলাদেশের মেয়েদের শিরোপা জয়ের মুহূর্ত দেখার প্রবল ইচ্ছাও ছিল তার। কিন্তু সালাউদ্দিন জানিয়েছেন, মেয়েদের চাপে ফেলতে চাননি বলেই নেপাল যাননি তিনি।

প্রথমবারের মতো সাফের শিরোপাজয়ী দলটি বুধবার দুপুর ১টা ৫০ মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌছাঁবে। সাবিনা খাতুনের দলকে সংবর্ধনা জানাতে নানা আয়োজনের প্রস্তুতি সেরেছে বাফুফে। কিন্তু মেয়েদের বরণ করে নিতে বিমানবন্দরেও যাবেন না বাফুফে সভাপতি সালাউদ্দিন। লাইম লাইট থেকে মেয়েদের আড়াল করতে চান বলে এমন সিদ্ধান্ত তার।

সাফের এবারের আসরে অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছিল বাংলাদেশ। ফাইনালে নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়নের মুকুট জিতেছেন কৃষ্ণা, সপ্না, সানজিদারা। ইতিহাস গড়ার মুহূর্তে সেখানে ছিলেন না সালাউদ্দিন। এমন বিশেষ মুহূর্তে দেশের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থার প্রধানের না থাকাটা প্রশ্নের জন্ম দেয়। মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) সংবাদ সম্মেলনে সেই প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন সালাউদ্দিন।

বাফুফেতে এক সংবাদ সম্মেলনে সালাউদ্দিন বলেন, একেকজন কাজ করে একেক স্টাইলে ও মানসিকতায়। আমি নেপালে যাওয়ার টিকেট তিনবার করে তিনবারই আবার বাতিল করেছি। ফাইনালে যাওয়া আমার কর্তব্য ছিল, সাফের সভাপতি হিসেবে আমি কাপটা দেব। কিন্তু অনেক চিন্তা করে, নিজের সঙ্গে যুদ্ধ করে দেখলাম, আমি গেলে মেয়েগুলো বাড়তি চাপে পড়বে। কারণ তারা দারুণ ফুটবল খেলছে। যতোটা সুন্দর খেলা যায়, সবই আছে। আমি গেলে ভালো হতে পারে, খারাপও হতে পারে। আমি গেলে যদি তাদের বাড়তি চাপ হয়! তাই সবাইকে বললাম, বাফুফেতে বসে খেলা দেখব।

সাফের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনের চেয়ে দেশাত্ববোধ ও দেশের ফুটবলের প্রতি নিবেদন বেশি কাজ করেছে বলে দাবি সালাউদ্দিনের। তার ভাষায়, ‘সাফ সভাপতি হিসেবে কাপ দেওয়াটা আমার কর্তব্য। আমি গর্ব নিয়ে কাপটা দেব, কিন্তু এটার চেয়ে আমার দেশকে আমি বেশি ভালোবাসি। আমি চেয়েছি দলটা যেন জেতে। কারণ, এই দেশে ফুটবলের একটা ব্রেক দরকার। আমরা খুব ভালো করছি না, ভালো করার চেষ্টা করছি। আমি তাই ওটাকে স্যাক্রিফাইস করেছি।’

দক্ষিণ এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট জেতা দলটিকে বর্ণাঢ্য সংবর্ধানা দেওয়া হবে। ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ও বাফুফে যৌথভাবে মেয়েদের বরণ করে নেওয়ার আয়োজন করছে। বিমানবন্দর থেকে ছাদ খোলা বাসে শোভাযাত্রা করে বাফুফে ভবনে নিয়ে যাওয়া হবে সাবিনাদের। ছাদ খোলা বাসে উদযাপন বাংলাদেশে এবারই প্রথম হতে যাচ্ছে। থাকবে আরও কিছু আয়োজন। কিন্তু বিমানবন্দরে না গিয়ে বাফুফে ভবনে দলকে অভ্যর্থনা জানাবেন বাফুফে সভাপতি।

বিমানবন্দরে না যাওয়ার কারণ হিসেবে সালাউদ্দিন বলেন, আমি মেয়েদের বাফুফে ভবনে অভ্যর্থনা জানাব। এরপর ওদের সঙ্গে বসে ভালো-মন্দ আলাপ করব। এয়ারপোর্টে যাওয়া আমার জন্য সুবিধা। আমার বাসা থেকে ১৫-২০ মিনিট। কিন্তু আমি এখানে থাকব। কালকে বিমাবন্দরে যাবে বাফুফের কার্যনির্বাহী কমিটির একটি দল, ক্রীড়ামন্ত্রী ও সচিব, স্পন্সরদের অনেকে। আমি এখানে দলকে রিসিভ করব।

‘কেন আমি ওখানে যাব না, কারণটা বলি। আমার খুব ইচ্ছা যাওয়ার, চ্যাম্পিয়ন কাপ নিয়ে এসেছে প্রথমবারের মতো। কিন্তু আমি ওখানে যদি যাই, আপনারা (সংবাদমাধ্যম) আমাকে অনেক প্রশ্ন করবেন, অনেক কিছু করবেন। তাতে হবে কী, মেয়েদের লাইমলাইট ভাগ হয়ে যাবে। কিন্তু কাল মেয়েদের দিন। এটা সভাপতির দিন নয়, সাধারণ সম্পাদকের দিন নয়, সহ-সভাপতি, সদস্যদের দিন নয়।’ বলেন তিনি।

সব চোখ যেন মেয়েদের ওপর থাকে, এ কারণেই বিমানবন্দরে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাফুফে সভাপতি, ‘আমি চাই মেয়েরা যেন এক্সক্লুসিভ আপনাদের আদর পায়, মিডিয়া কভারেজ পায়। কারণ, আমরা জিতিনি, আমরা পেছন থেকে কাজ করেছি। কাল লাইমলাইট যেন মেয়েরা পায়। ইংরেজিতে একটা কথা বলে, ‘ডোন্ট স্টিল হার থান্ডার।’ কাল ওদের ওটাই, আমরা যেন ভাগ না নিই।’

back to top