alt

বাংলাদেশ

ইয়াবা পাচারের মামলায় নারায়ণগঞ্জের সাবেক ওসি কারাগারে

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, নারায়ণগঞ্জ
image
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০

৪৯ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধারের মামলায় নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার সাবেক ওসি কামরুল ইসলাম এখন কারাগারে। গত ২২ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিন আবেদন করেন কামরুল ইসলাম। পরে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) ওয়াজেদ আলী খোকন সংবাদকে জানান, গত ২২ অক্টোবর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাওসার আলমের আদালত জামিন নামঞ্জুর করে আদালতে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন। ৪৯ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় সদর থানার সাবেক ওসি কামরুল ইসলাম বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারে আছেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক (সুপার) মো. মাহবুবুল আলম সংবাদকে বলেন, ইয়াবা মামলায় কামরুল ইসলাম কারাগারেই আছেন।

উল্লেখ্য, ওসি কামরুল ইসলাম প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল (পিপিএম) প্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা।

২০১৮ সালের ৭ মার্চ নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আলম সরোয়ার্দী রুবেলকে বন্দর থানার রূপালী আবাসিক এলাকার বাসা থেকে ৪৯ হাজার ইয়াবা ও ৫ লাখ টাকাসহ গ্রেফতার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই মাসুদ রানা। পরদিন বন্দর থানায় চারজনকে আসামি করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা করা হয়। এই মামলায় পুলিশ কনস্টেবল আসাদুজ্জামানসহ কয়েকজনকে আটক করা হয়। পরে সরোয়ার্দী ও আসাদুজ্জামানের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলামের নাম উঠে আসে। জবানবন্দিতে এএসআই রুবেল ও কনস্টেবল আসাদুজ্জামান বলেন, ওসি কামরুল ইসলামের নির্দেশেই টাকা ও ইয়াবা রেখে আসামিদের ছেড়ে দিয়েছেন তারা।

গত বছরের ৪ মার্চ উচ্চ আদালতের নির্দেশে সদর থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয় ওসি কামরুল ইসলামকে। কিন্তু মামলার অভিযোগপত্রে (চার্জশিটে) ওসি কামরুল ইসলামকে অব্যাহতি দেয় সিআইডি। ফলে প্রত্যাহারের এক মাসের মাথায় ২ এপ্রিল আবারও একই পদে বহাল করা হয় তাকে। এরপর তিন মাস ওসির দায়িত্ব পালন করেন তিনি। পরে তাকে বদলি করে জেলা গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি) আনা হয়। তবে বর্তমানে তিনি নারায়ণঞ্জ জেলা পুলিশে নেই বলে জানান জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার কর্মকর্তা (ডিআইও-১) ইকবাল হোসেন। তিনি বলেন, ‘তিনি নারায়ণগঞ্জ থেকে অন্যত্র পোস্টিং পেয়েছিলেন। বর্তমানে কোথায় আছেন জানি না। তবে তিনি নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশে নেই।’

এদিকে দুই পুলিশ সদস্যের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে তৎকালীন ওসি কামরুল ইসলামের নাম আসার পরেও অভিযোগপত্রে তাকে আসামি না করায় গত বছরের ২৯ আগস্ট এক আদেশে মামলার অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দেন উচ্চ আদালত। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে আদালতে এই মামলার অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজিম উদ্দিন আজাদ। এবার অভিযোগপত্রে ওসি কামরুল ইসলামকে অভিযুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) সন্ধ্যায় নাজিম উদ্দিন আজাদ মুঠোফোনে সংবাদকে বলেন, ‘দেড় মাস পূর্বে চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে। এই চার্জশিটে ওসি কামরুল ইসলামকেও অভিযুক্ত করা হয়েছে।’

ছবি

ঈদকে ঘিরে তৃতীয় ঢেউয়ের শঙ্কা

ছবি

মিতু হত্যা, স্বামী বাবুল আক্তার আটক

দুর্ভোগের যাত্রা যেতেই হবে বাড়ি

ছবি

করোনায় জাফলং পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ, বিপাকে ব্যবসায়ীরা

ছবি

জনস্বাস্থ্য রক্ষায় তামাক পণ্যে সুনির্দিষ্ট কর আরোপের দাবি

ছবি

ঈদে ৬ দিন বন্ধ থাকবে বুড়িমারী স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি

ছবি

ঘরের পাকা দেয়াল ভাংচুর এবং ৩ লাখ টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ

ছবি

পাঠশালায় ঈদ আনন্দ ছড়ালো সময় ফাউন্ডেশন

ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাড়ে ৪শ পরিবার পেল ঈদ খাদ্য সামগ্রী

ছবি

সরকারি দপ্তরগুলোতে গাজী গ্রুপের ৫০ লাখ টাকার অনুদান

ছবি

বন্ধুদের ইফতারের টাকায় দুস্থদের মধ্যে ঈদ সামগ্রী বিতরণ

ছবি

বাগেরহাটে খাবার পানির তীব্র সংকট

ছবি

সুন্দরবনে বারবার আগুন কেন?

ছবি

নতুন গ্যাস সংযোগ : আবাসিক খাতে বন্ধ, অবৈধ চলছে

ছবি

বাক্কোর উদ্যোগে বিপিও কর্মীদের কর্মদক্ষতা বৃদ্ধিতে দিনব্যাপী কর্মশালা

ছবি

বাবার লাশ দেখতে মাওয়া ঘাটে মিনি ট্রাকে অপেক্ষায় ১০ যাত্রী

ছবি

ফেরিঘাটে ঘরমুখী মানুষের ঢল, ৬ ট্রলার আটক

ছবি

ঈদের ছুটি বৃদ্ধির দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ

ছবি

লকডাউন ও করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত রূপগঞ্জের কর্মহীনদের মাঝে ঈদসামগ্রী বিতরণ

ছবি

চট্টগ্রামের দুর্গম পাহাড়ে ভেজাল মদের কারখানা

ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তাণ্ডব : আরও ৩ জন গ্রেফতার

ছবি

বাসচাপায় প্রাণ গেল দুই মোটরসাইকেল আরোহীর

ছবি

উপাচার্যদের দুর্নীতির তদন্ত, কোন ব্যবস্থা নেয়া হয় না

ছবি

বিজিবি দিয়েও ঠেকানো যাচ্ছে না জনস্রোত

ছবি

ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট : সতর্ক বার্তা জনস্বাস্থ্যবিদদের

ছবি

কক্সবাজার শহরে অস্ত্র-গুলিসহ ৩ সন্ত্রাসী আটক

ছবি

ভাড়াটিয়া কর্তৃক অবরুদ্ধ হোটেল কল্লোল’র মালিক!

ছবি

ময়মনসিংহে সিটি কর্পোরেশনের ঈদ উপহার বিতরণ

ছবি

এনার্জিপ্যাকের ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক উদ্বোধন

ছবি

অর্ধেক দামে মোটরসাইকেল দিচ্ছে থলে ডট এক্সওয়াইজেড

ছবি

করোনাকালে অসহায় মানুষের জন্য তাসাউফ ফাউন্ডেশনের “পাশেই আছি” কর্মসূচী পালন

ছবি

অব্যবহৃতই থাকছে আবু নাসের হাসপাতালের পরিচালক, উপ-পরিচালকের বাসভবন

ছবি

বিয়ানীবাজারে ঈদ শপিংয়ে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভিড়, মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধি

ছবি

চেয়ারম্যানের অত্যাচার নির্যাতন থেকে বাচঁতে প্রধানমন্ত্রীর সহানুভূতি কামনা

ছবি

নওগাঁয় বিভিন্ন রোগিদের সরকারী সহায়তা প্রদান

ছবি

নারায়ণগঞ্জে করোনা হাসপাতালে বসেছে অক্সিজেন ট্যাংক

tab

বাংলাদেশ

ইয়াবা পাচারের মামলায় নারায়ণগঞ্জের সাবেক ওসি কারাগারে

সংবাদ :
  • প্রতিনিধি, নারায়ণগঞ্জ
image
বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০

৪৯ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধারের মামলায় নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার সাবেক ওসি কামরুল ইসলাম এখন কারাগারে। গত ২২ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিন আবেদন করেন কামরুল ইসলাম। পরে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা আদালতের রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি (পিপি) ওয়াজেদ আলী খোকন সংবাদকে জানান, গত ২২ অক্টোবর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাওসার আলমের আদালত জামিন নামঞ্জুর করে আদালতে প্রেরণের নির্দেশ দিয়েছেন। ৪৯ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় সদর থানার সাবেক ওসি কামরুল ইসলাম বর্তমানে নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারে আছেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারের তত্ত্বাবধায়ক (সুপার) মো. মাহবুবুল আলম সংবাদকে বলেন, ইয়াবা মামলায় কামরুল ইসলাম কারাগারেই আছেন।

উল্লেখ্য, ওসি কামরুল ইসলাম প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল (পিপিএম) প্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা।

২০১৮ সালের ৭ মার্চ নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) আলম সরোয়ার্দী রুবেলকে বন্দর থানার রূপালী আবাসিক এলাকার বাসা থেকে ৪৯ হাজার ইয়াবা ও ৫ লাখ টাকাসহ গ্রেফতার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের এসআই মাসুদ রানা। পরদিন বন্দর থানায় চারজনকে আসামি করে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা করা হয়। এই মামলায় পুলিশ কনস্টেবল আসাদুজ্জামানসহ কয়েকজনকে আটক করা হয়। পরে সরোয়ার্দী ও আসাদুজ্জামানের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলামের নাম উঠে আসে। জবানবন্দিতে এএসআই রুবেল ও কনস্টেবল আসাদুজ্জামান বলেন, ওসি কামরুল ইসলামের নির্দেশেই টাকা ও ইয়াবা রেখে আসামিদের ছেড়ে দিয়েছেন তারা।

গত বছরের ৪ মার্চ উচ্চ আদালতের নির্দেশে সদর থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয় ওসি কামরুল ইসলামকে। কিন্তু মামলার অভিযোগপত্রে (চার্জশিটে) ওসি কামরুল ইসলামকে অব্যাহতি দেয় সিআইডি। ফলে প্রত্যাহারের এক মাসের মাথায় ২ এপ্রিল আবারও একই পদে বহাল করা হয় তাকে। এরপর তিন মাস ওসির দায়িত্ব পালন করেন তিনি। পরে তাকে বদলি করে জেলা গোয়েন্দা শাখায় (ডিবি) আনা হয়। তবে বর্তমানে তিনি নারায়ণঞ্জ জেলা পুলিশে নেই বলে জানান জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার কর্মকর্তা (ডিআইও-১) ইকবাল হোসেন। তিনি বলেন, ‘তিনি নারায়ণগঞ্জ থেকে অন্যত্র পোস্টিং পেয়েছিলেন। বর্তমানে কোথায় আছেন জানি না। তবে তিনি নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশে নেই।’

এদিকে দুই পুলিশ সদস্যের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে তৎকালীন ওসি কামরুল ইসলামের নাম আসার পরেও অভিযোগপত্রে তাকে আসামি না করায় গত বছরের ২৯ আগস্ট এক আদেশে মামলার অধিকতর তদন্তের নির্দেশ দেন উচ্চ আদালত। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে আদালতে এই মামলার অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাজিম উদ্দিন আজাদ। এবার অভিযোগপত্রে ওসি কামরুল ইসলামকে অভিযুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) সন্ধ্যায় নাজিম উদ্দিন আজাদ মুঠোফোনে সংবাদকে বলেন, ‘দেড় মাস পূর্বে চার্জশিট দাখিল করা হয়েছে। এই চার্জশিটে ওসি কামরুল ইসলামকেও অভিযুক্ত করা হয়েছে।’

back to top