alt

বাংলাদেশ

বিধিনিষেধ না মেনে নেতাকর্মী নিয়ে হাওর বিলাসে এমপি, মুখে নেই মাস্ক

জেলা বার্তা পরিবেশক, ময়মনসিংহ : বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১

দেশে বাড়ছে করোনায় মৃত্যু ও সংক্রমণের সংখ্যা। এমন সময়ে বিধিনিষেধকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ময়মনসিংহের নান্দাইল আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) নান্দইল উপজেলা চেয়ারম্যানসহ অনুগত দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে হাওর ভ্রমণে বেড়িয়েছেন। শুধু ভ্রমণে বেড়িয়েই ক্ষান্ত হননি, নিজের ফেসবুক আইডিতে এই ভ্রমণের ছবি পোস্ট দিয়ে সবাইকে জানিয়েছেনও ময়মনসিংহ-৯ (নান্দাইল) আসনের এমপি আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন।

গেল শনিবার (২৪ জুলাই) ফেসবুকে ব্যক্তিগত আইডি থেকে মাইক্রোবাসে করে কিশোরগঞ্জের নিকলী হাওর ভ্রমণের তিনটি ছবি পোস্ট করেন এমপি তুহিন। যেখানে এমপি ছাড়া আর কারো মুখেই মাস্ক নেই।

সেই পোস্টের ক্যাপশনে সংসদ সদস্য তুহিন লিখেছেন, ‘আমাদের জীবনে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে আনন্দ ভ্রমণ অনেক কষ্টসাধ্য ও সময় সাপেক্ষ, তাই বাড়ির কাছে কিশোরগঞ্জের বিশাল জলরাশি উপভোগ করতে যাচ্ছি, সঙ্গে আমার পরিবার, উপজেলা চেয়ারম্যান ও তার পরিবার, যুবনেতা সোহেল, ছাত্রনেতা ফয়সাল, সালাম, রয়েল, রাজু, সাইমুন ও বিডিআর রুহুল।’

ওই পোস্টে রবিবার (২৫ জুলাই) মধ্যরাত পর্যন্ত দুই হাজারেরও বেশি রিয়েক্ট পড়ে। সমালোচনা ও শুভ কামনা জানিয়ে মন্তব্য করেছেন তিন শতাধিক ফেসবুক ব্যবহারকারী।তারমধ্যে বিরূপ মন্তব্যকারীর সংখ্যাই বেশি। অনেকেই এ ঘটনাকে কাণ্ডজ্ঞানহীন কর্ম বলেও মন্তব্য করেছেন অনেকেই।

মাহমুদুল হাসান মিশাদ নামে একজন লিখেছেন, ‘লকডাউন এবং সরকারের বিধিনিষেধ অমান্য করার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত আপনি। আপনি জনপ্রতিনিধি হয়ে যদি এমন আইন ও নিয়ম ভাঙেন, তাহলে আমরা যারা সাধারণ জনগণ তারা তো সরকারের এমন আইন ও নিয়ম কানুন না মানাটাই স্বাভাবিক।’

সজীব উর রহমান নামে আরেকজন লিখেছেন, ‘সারাদেশে ১৪ দিনের কঠোর লকডাউন দিয়েছে সরকার। এই সময় দেশের জনগণকে সচেতন করে ঘরে রাখা প্রত্যেকটা জনপ্রতিনিধির দায়িত্ব। দায়িত্বশীল যায়গায় থেকে লকডাউন পালন না করে এভাবে দল বেধে ঘুরতে যাওয়াটা খুবই দৃষ্টিকটু দেখায়। আপনার সংসদীয় আসনের সর্বস্তরের জনগণ আপনাকে ফলো করে যদি রাস্তায় বের হয়ে আসে, তাহলে তো লকডাউনের ১২টা বাজবে!’

ব্যঙ্গ করে ফারহানা নাসিম নামে আরেক ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘বাহ্! আপনি নিজেই লকডাউন ভাঙছেন? চমৎকার। দলে দেখি সরকার দলীয় নেতাও আছে। সবাইকে এই লকডাউন ভাঙা উৎসবে সামিল হতে দেখে খুবই আনন্দিত হলাম। বেশি করে কোভিড আক্রান্ত হন, পারিবারিক সম্পত্তির ওপর চাপ কমান।’

শাহাদাত শিকদার লাবু নামে আরেকজন উপহাস করে লিখেছেন, ‘এমপি সাহেব, লকডাউনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখাতে পারার জন্য ধন্যবাদ। করোনার কারণে ভীতু ও ক্ষুধার্ত মানুষকে হতাশামুক্ত করার জন্য এমন বিনোদন খুবই প্রশংসনীয়। আপনার মত সাহসী ও জ্ঞানী এমপি/নেতা আছে বলে আওয়ামী লীগ টিকে আছে।’ এ ধরনের অনেক মন্তব্যই করেছেন ফেইসবুক ব্যাবহারকারীরা। সামজিক যোগাযোগমাধ্যম ছাড়াও সাধারণ মানুষ ও জেলা সদরের দলীয় নেতাকর্মীরাও এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানিযেছেন সাংবাদিকদের সাথে।

ময়মনসিংহের মানবাধিকার কর্মী জনউদ্যোগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম চুন্নু বলেন, সরকার যেখানে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে কঠোর লকডাউনের ঘোষণা দিয়ে প্রজ্ঞাপণ জারি করে জেল জরিমানা চালিযে যাচ্ছেন। সেখানে একজন আইন প্রণেতার কাছে এ ধরনের কাণ্ডজ্ঞানহীন কর্ম আশা করা যায় না। যেখানে একজন জনপ্রতিনিধি লকডাউনে কর্মহীন অসহায় মানুষকে সহায়তা দান করার কথা। সেসময় তিনি তার দলীয় নেতা কর্মীদেও নিয়ে হাউর ভ্রমণে যাওয়ার মতো দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছেন। এটা সাধারণ মানুষ মোটেও ভালোভাবে গ্রহণ করবে না, এটাই স্বাভাবিক।

এ বিষয়ে জানতে সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, আমি একটি রোগী দেখতে গিয়েছিলাম। আর আপনারা এটিকে রং লাগিয়ে বড় একটা নিউজ করেছেন। এ নিউজের জন্যে আমার ফাঁসি হবে না। আমি এলাকায় ভাল কাজ করছি সেটা নিউজ হয় না।

আজ ২৪ ঘণ্টা কর্মবিরতি অ্যাপ-বেইসড ড্রাইভারস ইউনিয়নের

২৩ শতাংশ নারী শ্রমিক বিদেশ থেকে ফিরেছেন বছর পূর্ণ না হতেই

কাদের মির্জার বিরুদ্ধে তালা মেরে মার্কেট বন্ধ করে দেয়ার অভিযোগ

ভাসানচর থেকে পালানোর সময় ৩৫ রোহিঙ্গা আটক

ছবি

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে ইন্ডাস্ট্রিয়াল টেকনোলজি বিষয়ক জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত

ছবি

অনলাইন ও অফলাইনে সেবা বাড়াচ্ছে ভিভো

ছবি

সাবেক ঢাবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ঢাবিতে ছাত্রলীগ নেতাকে পেটালেন আরেক সিনিয়র নেতা

ছবি

৬ দফা দাবিতে রাইড শেয়ার চালকদের কর্মবিরতি কাল

ছবি

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ,শিক্ষক নেতা আনোয়ারা সুলতানা মারা গেছেন

ছবি

মাদারীপুুরে ভুল চিকিৎসায় ইমামের মৃত্যুর অভিযোগ স্বজনদের

মুুন্সীগঞ্জে চাকরির খোঁজে বের হয়ে নিখোঁজ, লাশ মিলল ধলেশ্বরীর তীরে

ছবি

গবেষনাকে অনুপ্রেরণা হিসেবে আখ্যায়িত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত

ছবি

পরীমণির জব্দকৃত ১৬ আলামত ফেরত দিতে সুপারিশ

ছবি

বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা ব্যতীত দেশের উন্নয়ন-অর্জনের ইতিহাস নেই: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

ছবি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন জীবন্ত কিংবদন্তি: তথ্যমন্ত্রী

ছবি

দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা: পর্যবেক্ষণসহ আপিল বিভাগের নিষ্পত্তি

ছবি

আমরা আইনের ঊর্ধ্বে কোনো সরকার নই: পরিকল্পনামন্ত্রী

ছবি

হবিগঞ্জে প্রতারণার অভিযোগে চিকিৎসকসহ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জরিমানা

ছবি

গাজীপুরে ট্রেনে কাটা পড়ে নিহত ২

ছবি

নির্মাণাধীন ভবনের পাশে মিললো মালিকের লাশ

ছবি

হবিগঞ্জে বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার ৩ যাত্রী নিহত

ছবি

জটিলতা কাটলো সিরাজগঞ্জ-বগুড়া রেলপথ নির্মাণে

ছবি

মান্দায় অবৈধভাবে সরকারি গাছ কাটার অভিযোগ

ছবি

কক্সবাজারে বিশ্ব পর্যটন দিবস পালিত

সখীপুর থানায় ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত

ছবি

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশ-যুবদল কর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

সোনারগাঁয়ে আবাদী জমি রক্ষায় মানববন্ধন

ছবি

রামেক হাসপাতালে আরও ৪ জনের মৃত্যু

ছবি

ফের শুরু হচ্ছে গণটিকা

ছবি

এম গার্লস নিয়ে আইকনিক ফ্যাশন গ্যারেজ

ছবি

নাটোরের সিংড়ায় বন্যার্তদের মাঝে হুয়াওয়ের ত্রাণসামগ্রী বিতরণ

ছবি

বইমেলায় সেরা পেমেন্ট গ্রহণকারী প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলোকে পুরস্কৃত করলো বিকাশ

ছবি

আকাশ কিনে আরও তিন গ্রাহক টি-২০ বিশ্বকাপে

ছবি

ফেইসবুকের মাধ্যমে ৭০ বছর পর শতবর্ষী মা ফিরে পেলেন সন্তানকে

ছবি

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদল মাতারবাড়ি সমুদ্রবন্দর পরিদর্শন করবেন

tab

বাংলাদেশ

বিধিনিষেধ না মেনে নেতাকর্মী নিয়ে হাওর বিলাসে এমপি, মুখে নেই মাস্ক

জেলা বার্তা পরিবেশক, ময়মনসিংহ

বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১

দেশে বাড়ছে করোনায় মৃত্যু ও সংক্রমণের সংখ্যা। এমন সময়ে বিধিনিষেধকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ময়মনসিংহের নান্দাইল আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) নান্দইল উপজেলা চেয়ারম্যানসহ অনুগত দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে হাওর ভ্রমণে বেড়িয়েছেন। শুধু ভ্রমণে বেড়িয়েই ক্ষান্ত হননি, নিজের ফেসবুক আইডিতে এই ভ্রমণের ছবি পোস্ট দিয়ে সবাইকে জানিয়েছেনও ময়মনসিংহ-৯ (নান্দাইল) আসনের এমপি আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিন।

গেল শনিবার (২৪ জুলাই) ফেসবুকে ব্যক্তিগত আইডি থেকে মাইক্রোবাসে করে কিশোরগঞ্জের নিকলী হাওর ভ্রমণের তিনটি ছবি পোস্ট করেন এমপি তুহিন। যেখানে এমপি ছাড়া আর কারো মুখেই মাস্ক নেই।

সেই পোস্টের ক্যাপশনে সংসদ সদস্য তুহিন লিখেছেন, ‘আমাদের জীবনে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে আনন্দ ভ্রমণ অনেক কষ্টসাধ্য ও সময় সাপেক্ষ, তাই বাড়ির কাছে কিশোরগঞ্জের বিশাল জলরাশি উপভোগ করতে যাচ্ছি, সঙ্গে আমার পরিবার, উপজেলা চেয়ারম্যান ও তার পরিবার, যুবনেতা সোহেল, ছাত্রনেতা ফয়সাল, সালাম, রয়েল, রাজু, সাইমুন ও বিডিআর রুহুল।’

ওই পোস্টে রবিবার (২৫ জুলাই) মধ্যরাত পর্যন্ত দুই হাজারেরও বেশি রিয়েক্ট পড়ে। সমালোচনা ও শুভ কামনা জানিয়ে মন্তব্য করেছেন তিন শতাধিক ফেসবুক ব্যবহারকারী।তারমধ্যে বিরূপ মন্তব্যকারীর সংখ্যাই বেশি। অনেকেই এ ঘটনাকে কাণ্ডজ্ঞানহীন কর্ম বলেও মন্তব্য করেছেন অনেকেই।

মাহমুদুল হাসান মিশাদ নামে একজন লিখেছেন, ‘লকডাউন এবং সরকারের বিধিনিষেধ অমান্য করার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত আপনি। আপনি জনপ্রতিনিধি হয়ে যদি এমন আইন ও নিয়ম ভাঙেন, তাহলে আমরা যারা সাধারণ জনগণ তারা তো সরকারের এমন আইন ও নিয়ম কানুন না মানাটাই স্বাভাবিক।’

সজীব উর রহমান নামে আরেকজন লিখেছেন, ‘সারাদেশে ১৪ দিনের কঠোর লকডাউন দিয়েছে সরকার। এই সময় দেশের জনগণকে সচেতন করে ঘরে রাখা প্রত্যেকটা জনপ্রতিনিধির দায়িত্ব। দায়িত্বশীল যায়গায় থেকে লকডাউন পালন না করে এভাবে দল বেধে ঘুরতে যাওয়াটা খুবই দৃষ্টিকটু দেখায়। আপনার সংসদীয় আসনের সর্বস্তরের জনগণ আপনাকে ফলো করে যদি রাস্তায় বের হয়ে আসে, তাহলে তো লকডাউনের ১২টা বাজবে!’

ব্যঙ্গ করে ফারহানা নাসিম নামে আরেক ফেসবুক ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘বাহ্! আপনি নিজেই লকডাউন ভাঙছেন? চমৎকার। দলে দেখি সরকার দলীয় নেতাও আছে। সবাইকে এই লকডাউন ভাঙা উৎসবে সামিল হতে দেখে খুবই আনন্দিত হলাম। বেশি করে কোভিড আক্রান্ত হন, পারিবারিক সম্পত্তির ওপর চাপ কমান।’

শাহাদাত শিকদার লাবু নামে আরেকজন উপহাস করে লিখেছেন, ‘এমপি সাহেব, লকডাউনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখাতে পারার জন্য ধন্যবাদ। করোনার কারণে ভীতু ও ক্ষুধার্ত মানুষকে হতাশামুক্ত করার জন্য এমন বিনোদন খুবই প্রশংসনীয়। আপনার মত সাহসী ও জ্ঞানী এমপি/নেতা আছে বলে আওয়ামী লীগ টিকে আছে।’ এ ধরনের অনেক মন্তব্যই করেছেন ফেইসবুক ব্যাবহারকারীরা। সামজিক যোগাযোগমাধ্যম ছাড়াও সাধারণ মানুষ ও জেলা সদরের দলীয় নেতাকর্মীরাও এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানিযেছেন সাংবাদিকদের সাথে।

ময়মনসিংহের মানবাধিকার কর্মী জনউদ্যোগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট নজরুল ইসলাম চুন্নু বলেন, সরকার যেখানে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে কঠোর লকডাউনের ঘোষণা দিয়ে প্রজ্ঞাপণ জারি করে জেল জরিমানা চালিযে যাচ্ছেন। সেখানে একজন আইন প্রণেতার কাছে এ ধরনের কাণ্ডজ্ঞানহীন কর্ম আশা করা যায় না। যেখানে একজন জনপ্রতিনিধি লকডাউনে কর্মহীন অসহায় মানুষকে সহায়তা দান করার কথা। সেসময় তিনি তার দলীয় নেতা কর্মীদেও নিয়ে হাউর ভ্রমণে যাওয়ার মতো দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছেন। এটা সাধারণ মানুষ মোটেও ভালোভাবে গ্রহণ করবে না, এটাই স্বাভাবিক।

এ বিষয়ে জানতে সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আবেদীন খান তুহিনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, আমি একটি রোগী দেখতে গিয়েছিলাম। আর আপনারা এটিকে রং লাগিয়ে বড় একটা নিউজ করেছেন। এ নিউজের জন্যে আমার ফাঁসি হবে না। আমি এলাকায় ভাল কাজ করছি সেটা নিউজ হয় না।

back to top