alt

বাংলাদেশ

লকডাউন ঢিলেঢালা, গণপরিবহন ছাড়া সব চলছে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১

করোনাভাইরাসে প্রতিদিন মৃত্যুর নতুন রেকর্ড করছে, অন্যদিকে দিন যত যাচ্ছে কঠোর বিধিনিষেধ ততই শিথিল হচ্ছে। সড়ক-মহাসড়কে বাড়ছে ঢাকামুখী মানুষ এবং যানবাহনের চাপ। গণপরিবহন না চললেও সিএনজি অটোরিকশাসহ ছোট ছোট সব ধরনের যানবাহনই আস্তে আস্তে রাস্তায় বের হয়ে আসছে। মানুষ ও যানবাহনের চাপ বেড়ে যাওয়ায় রাজধানীর ভেতরে পুলিশের চেকপোস্টগুলো এখন অনেকটাই ঢিলেঢালা।

কঠোর বিধিনিষেধের ৭ম দিনে বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, লকডাউনের কারণে প্রধান সড়কগুলোতে মানুষের ভিড় কম থাকলেও ব্যক্তিগত গাড়ি বেশি। আবার অলিগলিতে ব্যক্তিগত যানবহন কম দেখা গেলেও মানুষের উপস্থিতি বেশি দেখা গেছে। গলিগুলোতে দোকানের শাটার অর্ধেক খোলা রেখে বিক্রি চলছে। ছোট কয়েকটি হোটেলে বসে খাওয়ার সুযোগও দেয়া হচ্ছে। বিশেষ করে গলিতে গলিতে চায়ের দোকানগুলোতে আড্ডা থেমে নেই। কল্যাণপুরের এক চা দোকানদারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পুলিশ দুইবার টহলে আসে তখন দোকানের ঝাপ বন্ধ রেখে দেই।

কঠোর বিধিনিষেধের ৭ম দিনে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সব সড়কে যানবাহন এবং মানুষের চাপ বেড়েছে। নানা প্রয়োজনে মানুষ ঘর থেকে বেরিয়ে পড়েছেন। ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক লগ্নিকারী প্রতিষ্ঠান, বেশকিছু সরকারি এবং স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের অফিস খোলা থাকায় এসব প্রতিষ্ঠানের লোকজন অফিসে যাওয়ার জন্য রাস্তায় বের হয়েছেন।

ফার্মগেটে দাঁড়ানো রফিক মিয়া জানান, পুলিশ দেখলে মানুষ একটু সর্তক হলেও বাজারের অবস্থা ভিন্ন। সেখানে কেউ যেমন স্বাস্থ্যবিধি মানছে না তেমনি অবাধে চলাচল করছে। বিক্রেতাদের কারও মুখে মাস্ক নেই। দুই একজনের থাকলেও সেটা গালায় ঝোলানো বা থুতনিতে আটকানো।

রাজধানীর শ্যামলি, কলেজগেট, ধানমণ্ডি, পাস্থপথ, শাহবাগ, কাওরানবাজার, বাংলামটর, ইন্দিরা রোডসহ নগরীর প্রতিটি প্রতিটি পয়েন্টেই দায়িত্ব পালন করছেন ট্রাফিক পুলিশরা। রাস্তায় যানবাহন এবং মানুষের চাপ বেড়ে যাওয়ায় নগরীর বিভিন্ন স্থানের চেকপোস্টগুলোতেও শিথিলতা লক্ষ্য করা গেছে। তেজগাঁও এলাকায় পুলিশ চেকপোস্টে অবস্থান নিলেও সব যানবাহন এবং লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের ব্যাপারে তাদের কোন আগ্রহ দেখা যায়নি।

গণভবন এলাকায় দায়িত্বরত ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) আতিক মাহমুদ বলেন, আমরা অন্যান্য সময়ের চেয়ে বেশি এক্টিভলি কাজ করছি। কিন্তু মানুষ যদি মিথ্যা বলে তো করার কিছু থাকে না। তিনি আরও বলেন, গণপরিবহন চললে আমরা বুঝি এটা চলছে কেন। কিন্ত কেউ প্রাইভেট কারে এসে যদি বলে আমি চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজে নিযোজিত, হাসপাতালে যাব। তাহলে এদের থামাবো কি করে।

তিনি আরও বলেন, আমরা নিজেরাও সাধ্যমতো বোঝানোর চেষ্টা করছি মানুষদের তারা যেন অকারণে বের না হন। যতক্ষণ না মানুষ নিজেরা সচেতন না হয় ততদিন লকডাউন আইন দিয়ে বাস্তবায়ন সম্ভাবনা।

সংক্রমণ পরিস্থিতি উদ্বেগজনক পর্যায়ে চলে যাওয়ায় গত কয়েক মাস ধরে বিধিনিষেধ আরোপ করে তা নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে সরকার। ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে আটদিনের জন্য শিথিল করা হয়েছিল বিধিনিষেধ। এরপর আবার গত ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে আগামী ৫ আগস্ট মধ্যরাত পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ দিয়েছে সরকার।

বিধিনিষেধের মধ্যে খাদ্য ও খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন/প্রক্রিয়াজাতকরণ মিল কারখানা, কোরবানির পশুর চামড়া পরিবহন, সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণ এবং ওষুধ, অক্সিজেন ও কোভিড-১৯ প্রতিরোধে ব্যবহারের জন্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য উৎপাদনকারী শিল্প-কারখানা ছাড়া বন্ধ আছে সব ধরনের গণপরিবহন, সরকারি ও বেসরকারি অফিস এবং শিল্পকারখানা। বন্ধ রয়েছে দোকান ও শপিংমলও। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া মানুষের বাইরে বের হওয়াও নিষেধ।

ছবি

ঝুমন দাসের জামিন আদেশ বৃহস্পতিবার

লক্ষ্মীপুর যুবলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে নেতাকর্মীদের মারধরের অভিযোগ

ছবি

জাতিসংঘের অধিবেশনের উদ্বোধনী দিনে প্রধানমন্ত্রীর যোগদান

ছবি

সিলেটে দুই বোনের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, নেপথ্যে বিয়ে?

ছবি

হাউজকিপার মরিয়ম হত্যায় ২ কাঠমিস্ত্রির মৃত্যুদণ্ড

ছবি

রাজশাহীতে চার দফা দাবিতে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং এর বিক্ষোভ মিছিল সমাবেশ

ছবি

প্রতারণামূলক বিজ্ঞাপন প্রচার-প্রকাশে নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের নিষ্ক্রিয়তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে হাইকোর্ট

ছবি

‘মুকুট মণি’ আখ্যায়িত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ছবি

জলবায়ু বিজ্ঞান প্রতিযোগিতার শীর্ষ দশ কমিউনিকেটদের মধ্যে রয়েছে এক বাংলাদেশি শিক্ষার্থী

ছবি

শেখ হাসিনার সঙ্গে বার্বাডোজের প্রধানমন্ত্রীর সৌজন্য সাক্ষাৎ

ছবি

রাজশাহীতে সড়ক নির্মাণ চার লেনে উন্নীতকরণ কাজের উদ্বোধন

বেরোবিতে জাতীয় পতাকা বিকৃত প্রদর্শন, ১৯ শিক্ষক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন

ছবি

১৮ অক্টোবর শেখ রাসেল দিবস পালনের নির্দেশ

ছবি

ঢাকা-নিউ ইয়র্ক ফ্লাইট দ্রুত সময়ে চালু হবে, আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

ছবি

বদলগাছীর কোলা হাট-বাজার ইজারায় অনিয়ম

কাপাসিয়ায় বিদ্যুতে চালকের মৃত্যু

টেকনাফ ইউপি নির্বাচনে সহিংসতা : ১৩ পুলিশসহ আহত ১৫

নৌকা প্রতীকে ৩৩ স্বতন্ত্র ৮ বিনা ভোটে ৩৮ চেয়ারম্যান প্রার্থী বিজয়ী

সোনারগাঁয়ে করোনা সংকট মোকাবিলায় নগদ অর্থ বিতরণ

মহেশখালীতে মকছুদ চকরিয়ায় আলমগীর নৌকা প্রতীকে মেয়র নির্বাচিত

ছবি

কীর্তনখোলায় জোয়ার এলেই ডুবে যায় চরবাড়িয়ার সড়ক

কিশোরগঞ্জে গত সপ্তাহের সংক্রমণ হার ২.৪৬ ভাগ আগস্টে ছিল ৩৩ ভাগ

ছবি

লালমনিরহাটে পানিতে পড়ে শিশুর মৃত্যু

ছবি

ময়মনসিংহে ভিজিডির ৮৪ বস্তা চাল পাচারের সময় জব্দ

ছবি

বিমানবন্দরে কবে নাগাদ ল্যাব চালু হবে, জানেন না দুই মন্ত্রী

ছবি

শূন্য পদে কারা চিকিৎসক নিয়োগে হাইকোর্টের নির্দেশ

ছবি

ডা. জাফরুল্লাহর রিট মামলা শুনতে হাইকোর্টের অপারগতা

ছবি

নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ন্যায় বিচারের প্রার্থনা: আদালতে বাবর

ছবি

শ্রেণিকক্ষে টিকটক ভিডিও ধারন, অভিভাবকদের ডেকে সতর্ক

ছবি

বাগেরহাটের সব ইউনিয়নে আ. লীগের জয়

ছবি

বিমানবন্দরে খোলা জায়গায় করোনা পরীক্ষার ল্যাব বসানোর বিপক্ষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ছবি

প্রধানমন্ত্রী পেলেন এসডিজি পুরস্কার

ছবি

রাসেলের মুক্তি চেয়ে আদালত প্রাঙ্গনে ইভ্যালির গ্রাহকদের মানববন্ধন

ছবি

জলবায়ু ইস্যুতে বলিষ্ঠ পদক্ষেপের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ছবি

টঙ্গীতে ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত, ঢাকার সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ

কক্সবাজারে ইউপি নির্বাচনে যারা বেসরকারিভাবে নির্বাচিত

tab

বাংলাদেশ

লকডাউন ঢিলেঢালা, গণপরিবহন ছাড়া সব চলছে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১

করোনাভাইরাসে প্রতিদিন মৃত্যুর নতুন রেকর্ড করছে, অন্যদিকে দিন যত যাচ্ছে কঠোর বিধিনিষেধ ততই শিথিল হচ্ছে। সড়ক-মহাসড়কে বাড়ছে ঢাকামুখী মানুষ এবং যানবাহনের চাপ। গণপরিবহন না চললেও সিএনজি অটোরিকশাসহ ছোট ছোট সব ধরনের যানবাহনই আস্তে আস্তে রাস্তায় বের হয়ে আসছে। মানুষ ও যানবাহনের চাপ বেড়ে যাওয়ায় রাজধানীর ভেতরে পুলিশের চেকপোস্টগুলো এখন অনেকটাই ঢিলেঢালা।

কঠোর বিধিনিষেধের ৭ম দিনে বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, লকডাউনের কারণে প্রধান সড়কগুলোতে মানুষের ভিড় কম থাকলেও ব্যক্তিগত গাড়ি বেশি। আবার অলিগলিতে ব্যক্তিগত যানবহন কম দেখা গেলেও মানুষের উপস্থিতি বেশি দেখা গেছে। গলিগুলোতে দোকানের শাটার অর্ধেক খোলা রেখে বিক্রি চলছে। ছোট কয়েকটি হোটেলে বসে খাওয়ার সুযোগও দেয়া হচ্ছে। বিশেষ করে গলিতে গলিতে চায়ের দোকানগুলোতে আড্ডা থেমে নেই। কল্যাণপুরের এক চা দোকানদারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, পুলিশ দুইবার টহলে আসে তখন দোকানের ঝাপ বন্ধ রেখে দেই।

কঠোর বিধিনিষেধের ৭ম দিনে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সব সড়কে যানবাহন এবং মানুষের চাপ বেড়েছে। নানা প্রয়োজনে মানুষ ঘর থেকে বেরিয়ে পড়েছেন। ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক লগ্নিকারী প্রতিষ্ঠান, বেশকিছু সরকারি এবং স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের অফিস খোলা থাকায় এসব প্রতিষ্ঠানের লোকজন অফিসে যাওয়ার জন্য রাস্তায় বের হয়েছেন।

ফার্মগেটে দাঁড়ানো রফিক মিয়া জানান, পুলিশ দেখলে মানুষ একটু সর্তক হলেও বাজারের অবস্থা ভিন্ন। সেখানে কেউ যেমন স্বাস্থ্যবিধি মানছে না তেমনি অবাধে চলাচল করছে। বিক্রেতাদের কারও মুখে মাস্ক নেই। দুই একজনের থাকলেও সেটা গালায় ঝোলানো বা থুতনিতে আটকানো।

রাজধানীর শ্যামলি, কলেজগেট, ধানমণ্ডি, পাস্থপথ, শাহবাগ, কাওরানবাজার, বাংলামটর, ইন্দিরা রোডসহ নগরীর প্রতিটি প্রতিটি পয়েন্টেই দায়িত্ব পালন করছেন ট্রাফিক পুলিশরা। রাস্তায় যানবাহন এবং মানুষের চাপ বেড়ে যাওয়ায় নগরীর বিভিন্ন স্থানের চেকপোস্টগুলোতেও শিথিলতা লক্ষ্য করা গেছে। তেজগাঁও এলাকায় পুলিশ চেকপোস্টে অবস্থান নিলেও সব যানবাহন এবং লোকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের ব্যাপারে তাদের কোন আগ্রহ দেখা যায়নি।

গণভবন এলাকায় দায়িত্বরত ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) আতিক মাহমুদ বলেন, আমরা অন্যান্য সময়ের চেয়ে বেশি এক্টিভলি কাজ করছি। কিন্তু মানুষ যদি মিথ্যা বলে তো করার কিছু থাকে না। তিনি আরও বলেন, গণপরিবহন চললে আমরা বুঝি এটা চলছে কেন। কিন্ত কেউ প্রাইভেট কারে এসে যদি বলে আমি চিকিৎসা সংক্রান্ত কাজে নিযোজিত, হাসপাতালে যাব। তাহলে এদের থামাবো কি করে।

তিনি আরও বলেন, আমরা নিজেরাও সাধ্যমতো বোঝানোর চেষ্টা করছি মানুষদের তারা যেন অকারণে বের না হন। যতক্ষণ না মানুষ নিজেরা সচেতন না হয় ততদিন লকডাউন আইন দিয়ে বাস্তবায়ন সম্ভাবনা।

সংক্রমণ পরিস্থিতি উদ্বেগজনক পর্যায়ে চলে যাওয়ায় গত কয়েক মাস ধরে বিধিনিষেধ আরোপ করে তা নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে সরকার। ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে আটদিনের জন্য শিথিল করা হয়েছিল বিধিনিষেধ। এরপর আবার গত ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে আগামী ৫ আগস্ট মধ্যরাত পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ দিয়েছে সরকার।

বিধিনিষেধের মধ্যে খাদ্য ও খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন/প্রক্রিয়াজাতকরণ মিল কারখানা, কোরবানির পশুর চামড়া পরিবহন, সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াজাতকরণ এবং ওষুধ, অক্সিজেন ও কোভিড-১৯ প্রতিরোধে ব্যবহারের জন্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য উৎপাদনকারী শিল্প-কারখানা ছাড়া বন্ধ আছে সব ধরনের গণপরিবহন, সরকারি ও বেসরকারি অফিস এবং শিল্পকারখানা। বন্ধ রয়েছে দোকান ও শপিংমলও। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া মানুষের বাইরে বের হওয়াও নিষেধ।

back to top