alt

বাংলাদেশ

তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি প্রশ্নে বাংলাদেশকে সতর্ক থাকতে হবে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি প্রশ্নে বাংলাদেশকে পর্যবেক্ষণ ও সতর্ক সিদ্ধান্ত নেওয়ার জায়গায় থাকতে হবে। ভূরাজনৈতিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে দেশের স্বার্থ নিশ্চিত করে এগোতে হবে বাংলাদেশকে। সেই সঙ্গে তালেবান সরকারের আগামী মতাদর্শ কী হবে, সে সম্পর্কেও একটি ধারণা নেওয়ার চেষ্টা করতে হবে।

আজ বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ‘আফগানিস্তানে তালেবান সরকার: চ্যালেঞ্জ ও এর আঞ্চলিক প্রভাব–প্রতিক্রিয়া’ শীর্ষক এক ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন বক্তারা।

‘স্টাডি গ্রুপ অন রিজিওনাল অ্যাফেয়ার্স’ নামে বেসরকারি একটি সংগঠন আলোচনা সভাটির আয়োজন করে ।

সভাটি আয়োজক সংগঠনের প্রধান নির্বাহী আমীর খসরু সঞ্চালনা করেন। সূচনা বক্তব্যে তিনি আফগানিস্তানের পটপরিবর্তনের তথ্য তুলে ধরে বলেন, আফগানিস্তানে নতুন প্রবণতা থেকে বোঝা যাচ্ছে, সেখানে যুদ্ধ একেবারে শেষ হয়ে যায়নি। সেখানে এখন মানবিক বিপর্যয় শুরু হয়েছে। নতুন তালেবান আর গোঁড়া তালেবানের মধ্যে দ্বন্দ্বে সরকার গঠন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। তালেবান জঙ্গিবাদে মদদ দেবে না বললেও তাতে কেউ আস্থা রাখতে পারছে না। আফগানিস্তানের এই পরিস্থিতিতে পার্শ্ববর্তী দেশগুলোকে কী কী ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে, তা নিয়েও আলোচনা শুরু হয়েছে।

আলোচনায় অংশ নিয়ে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, আফগানিস্তানের বিষয়টি চলমান বলে এখনই বিশ্লেষণাত্মক সিদ্ধান্ত নেওয়া ঠিক হবে না। তিনটি সম্ভাব্য বিষয় নিয়ে আলোচনা হচ্ছে, এটা ধর্মযুদ্ধ নয়, জাতীয়তাবাদী যুদ্ধ ছিল। দ্বিতীয়ত, উগ্রবাদ ও সন্ত্রাসবাদের বাস্তবতায় ক্ষমতাধর বিশ্ব ঘটনাটিকে কীভাবে ব্যবহার করবে, আর নতুন তালেবান সরকারে সুশাসন ও উদারতা প্রাধান্য পাবে কি না। বাংলাদেশকে এ জন্য তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি প্রশ্নে সতর্ক পর্যবেক্ষণ ও সতর্ক সিদ্ধান্ত নেওয়ার অবস্থায় থাকতে হবে। আফগানিস্তানে পটপরিবর্তনের ঘটনায় ভূরাজনৈতিক বিবেচনায় বিভিন্ন জোট হবে। বাংলাদেশকে নিশ্চিত হতে হবে, কোন দিকে অবস্থান নিলে দেশের স্বার্থ নিশ্চিত হবে।

সাবেক পররাষ্ট্রসচিব শমসের মবিন চৌধুরী বলেন, একটি রাষ্ট্র অপর একটি রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দেয়, সরকার নয়। রাষ্ট্র হিসেবে আফগানিস্তানকে বহু আগেই বাংলাদেশ স্বীকৃতি দিয়েছে। এখন তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি নয়, সম্পর্ক কী হবে, সেটা নিয়ে এখনই ভাবতে হবে এবং তালেবানের সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনা শুরু করার মাধ্যমে নারীশিক্ষা, উন্নয়নসহ অন্যান্য ইস্যুতে তারা কতটা দায়িত্বশীল হবে, সেটা বুঝে নিতে হবে।

২০ বছর আগের তালেবান সরকারের সঙ্গে নতুন তালেবান সরকারের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যে খুব একটা পরিবর্তন নাও থাকতে পারে বলে মনে করেন শান্তি ও নিরাপত্তাবিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিস অ্যান্ড সিকিউরিটি স্টাডিজের (বিআইপিএসএস) প্রেসিডেন্ট মেজর জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) আ ন ম মুনিরুজ্জামান। তিনি বলেন, ‘আফগানিস্তান প্রশ্নে বাংলাদেশের নিজস্ব বৈদেশিক নীতি থাকতে হবে। ভার–চীনের বৈরিতা যাতে বাংলাদেশকে প্রভাবিত করতে না পারে। সতর্কতার সঙ্গে এগোতে হবে। আমাদের সিদ্ধান্ত যাতে আমরা (বাংলাদেশ) নেই।’ এ ছাড়াও তিনি বলেন, তালেবানের উত্থানে দেশের কিছু উগ্রবাদী গোষ্ঠী পুনরুজ্জীবিত হওয়ার চেষ্টা করছে। এ ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

এদিকে সাবেক পররাষ্ট্রসচিব মো. তৌহিদ হোসেন বলেন, আফগানিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের সীমান্ত নেই বলে তালেবান উত্থানে এখানে কম প্রভাব পড়তে পারে। এরপরও উগ্রবাদীদের কথা মাথায় রেখে সতর্ক থাকতে হবে। তালেবান আগের মতাদর্শ ও কর্মপদ্ধতি থেকে কতটা সরে এসেছে, তা পর্যবেক্ষণ করতে হবে।

ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ বলেন, ২০ বছর আগের তালেবানের তুলনায় নতুন তালেবানের নারীর অধিকার ও মানবাধিকারবিষয়ক মনোভাবে পরিবর্তন এসেছে। ইসলামি দলগুলোর জন্য তালেবানের উত্থান আনন্দ, তৃপ্তি ও প্রেরণার জায়গা তৈরি করেছে। তবে এটাকে পুঁজি করে দেশে বিশৃঙ্খলা ও উগ্রবাদ সৃষ্টি করার কোনো ভাবনা দলগুলোর নেই।

ছবি

ফের শুরু হচ্ছে গণটিকা

ছবি

এম গার্লস নিয়ে আইকনিক ফ্যাশন গ্যারেজ

ছবি

নাটোরের সিংড়ায় বন্যার্তদের মাঝে হুয়াওয়ের ত্রাণসামগ্রী বিতরণ

ছবি

বইমেলায় সেরা পেমেন্ট গ্রহণকারী প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলোকে পুরস্কৃত করলো বিকাশ

ছবি

আকাশ কিনে আরও তিন গ্রাহক টি-২০ বিশ্বকাপে

ছবি

ফেইসবুকের মাধ্যমে ৭০ বছর পর শতবর্ষী মা ফিরে পেলেন সন্তানকে

ছবি

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধিদল মাতারবাড়ি সমুদ্রবন্দর পরিদর্শন করবেন

ছবি

সঠিক তথ্যের দাবীতে পাল্টা জরিপ

ছবি

চলন্ত ট্রেনে পাথর ছোড়া রোধে আরও জনবল চায় মন্ত্রণালয়

ছবি

ফল ও শাকসব্জি সংরক্ষণের জন্য রাজশাহীতে মিনি কোল্ড স্টোরেজ উদ্বোধন

ছবি

বন্ধ কারখানা খুলে বকেয়া পরিশোধের দাবিতে বিক্ষোভ

ছবি

আলীরচর কাপাসাটিয়া সর. প্রা. স্কুলের রাস্তা-খেলার মাঠ নেই!

রাজশাহীতে স্কুলছাত্র করোনায় আক্রান্ত

ছবি

সরকারি চাকরিজীবীদের গ্রেফতারে পূর্বানুমতি কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

ছবি

পুলিশের পরিবর্তে নিজস্ব জনবলে সড়ক-মহাসড়কের নিরাপত্তা চায় সংসদীয় কমিটি

ছবি

ডব্লিউএইচও এখনও বুস্টার ডোজের অনুমোদন দেয়নি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ছবি

গণমানুষের সমর্থনই প্রধানমন্ত্রীর রাজনীতির মূল চালিকাশক্তি: স্পিকার

ছবি

বাঁশখালী পাহাড়ি ঢলে ইকোপার্ক সড়কে ধস, ভোগান্তিতে পর্যটক

কলমাকান্দায় বাল্যবিয়ে বন্ধ করল প্রশাসন

দুই বছর ধরে মাসে একবার এসে বেতন তোলেন ভূমিকর্তা

ছবি

এক ফুট না কেটেও ৬৫ হাজার ঘনফুটের বিল উত্তোলন

ভালুকায় টপ লেডি পেপের মাঠ দিবস

সিংগাইরে ডুবে ও আত্মহত্যায় দুই ব্যক্তির মৃত্যু

নিজের বাল্যবিয়ে বন্ধ করল ১০ম শ্রেণীর ছাত্রী

ঝালকাঠিতে কমিউনিস্ট পার্টির মাস্ক বিতরণ

বাগেরহাটে করোনা শনাক্ত ১০

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড়ি ছড়া থেকে মৃত বন্যহাতি উদ্ধার

পোরশায় সড়কে ঝরল বৃদ্ধের প্রাণ

নর-নারীর অনৈতিক সম্পর্কে ভাঙছে সুখের সংসার

ছবি

মৌলভীবাজারে ভাইয়ের হাতে সৌদি প্রবাসী খুন

ছবি

মমেকে করোনা ও উপসর্গ নিয়ে আরও ৮ জনের মৃত্যু

ছবি

অবশেষে বিমানবন্দরে বসল করোনা টেস্টিং ল্যাব

ছবি

শিক্ষার্থীদের সংক্রমণ নিয়ে শঙ্কা

ছবি

পঞ্চগড়-দিনাজপুর-পাবনা ৩৬ বছর বন্ধ নৌপথ

ছবি

জীবন দিয়ে দায়িত্ব পালন করলেন পুলিশ কর্মকর্তা পেয়ারুল

ছবি

কক্সবাজারে বিচার বিভাগীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত

tab

বাংলাদেশ

তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি প্রশ্নে বাংলাদেশকে সতর্ক থাকতে হবে

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বুধবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি প্রশ্নে বাংলাদেশকে পর্যবেক্ষণ ও সতর্ক সিদ্ধান্ত নেওয়ার জায়গায় থাকতে হবে। ভূরাজনৈতিক অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে দেশের স্বার্থ নিশ্চিত করে এগোতে হবে বাংলাদেশকে। সেই সঙ্গে তালেবান সরকারের আগামী মতাদর্শ কী হবে, সে সম্পর্কেও একটি ধারণা নেওয়ার চেষ্টা করতে হবে।

আজ বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) ‘আফগানিস্তানে তালেবান সরকার: চ্যালেঞ্জ ও এর আঞ্চলিক প্রভাব–প্রতিক্রিয়া’ শীর্ষক এক ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন বক্তারা।

‘স্টাডি গ্রুপ অন রিজিওনাল অ্যাফেয়ার্স’ নামে বেসরকারি একটি সংগঠন আলোচনা সভাটির আয়োজন করে ।

সভাটি আয়োজক সংগঠনের প্রধান নির্বাহী আমীর খসরু সঞ্চালনা করেন। সূচনা বক্তব্যে তিনি আফগানিস্তানের পটপরিবর্তনের তথ্য তুলে ধরে বলেন, আফগানিস্তানে নতুন প্রবণতা থেকে বোঝা যাচ্ছে, সেখানে যুদ্ধ একেবারে শেষ হয়ে যায়নি। সেখানে এখন মানবিক বিপর্যয় শুরু হয়েছে। নতুন তালেবান আর গোঁড়া তালেবানের মধ্যে দ্বন্দ্বে সরকার গঠন চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। তালেবান জঙ্গিবাদে মদদ দেবে না বললেও তাতে কেউ আস্থা রাখতে পারছে না। আফগানিস্তানের এই পরিস্থিতিতে পার্শ্ববর্তী দেশগুলোকে কী কী ধরনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে, তা নিয়েও আলোচনা শুরু হয়েছে।

আলোচনায় অংশ নিয়ে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, আফগানিস্তানের বিষয়টি চলমান বলে এখনই বিশ্লেষণাত্মক সিদ্ধান্ত নেওয়া ঠিক হবে না। তিনটি সম্ভাব্য বিষয় নিয়ে আলোচনা হচ্ছে, এটা ধর্মযুদ্ধ নয়, জাতীয়তাবাদী যুদ্ধ ছিল। দ্বিতীয়ত, উগ্রবাদ ও সন্ত্রাসবাদের বাস্তবতায় ক্ষমতাধর বিশ্ব ঘটনাটিকে কীভাবে ব্যবহার করবে, আর নতুন তালেবান সরকারে সুশাসন ও উদারতা প্রাধান্য পাবে কি না। বাংলাদেশকে এ জন্য তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি প্রশ্নে সতর্ক পর্যবেক্ষণ ও সতর্ক সিদ্ধান্ত নেওয়ার অবস্থায় থাকতে হবে। আফগানিস্তানে পটপরিবর্তনের ঘটনায় ভূরাজনৈতিক বিবেচনায় বিভিন্ন জোট হবে। বাংলাদেশকে নিশ্চিত হতে হবে, কোন দিকে অবস্থান নিলে দেশের স্বার্থ নিশ্চিত হবে।

সাবেক পররাষ্ট্রসচিব শমসের মবিন চৌধুরী বলেন, একটি রাষ্ট্র অপর একটি রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দেয়, সরকার নয়। রাষ্ট্র হিসেবে আফগানিস্তানকে বহু আগেই বাংলাদেশ স্বীকৃতি দিয়েছে। এখন তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি নয়, সম্পর্ক কী হবে, সেটা নিয়ে এখনই ভাবতে হবে এবং তালেবানের সঙ্গে প্রাথমিক আলোচনা শুরু করার মাধ্যমে নারীশিক্ষা, উন্নয়নসহ অন্যান্য ইস্যুতে তারা কতটা দায়িত্বশীল হবে, সেটা বুঝে নিতে হবে।

২০ বছর আগের তালেবান সরকারের সঙ্গে নতুন তালেবান সরকারের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যে খুব একটা পরিবর্তন নাও থাকতে পারে বলে মনে করেন শান্তি ও নিরাপত্তাবিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিস অ্যান্ড সিকিউরিটি স্টাডিজের (বিআইপিএসএস) প্রেসিডেন্ট মেজর জেনারেল (অবসরপ্রাপ্ত) আ ন ম মুনিরুজ্জামান। তিনি বলেন, ‘আফগানিস্তান প্রশ্নে বাংলাদেশের নিজস্ব বৈদেশিক নীতি থাকতে হবে। ভার–চীনের বৈরিতা যাতে বাংলাদেশকে প্রভাবিত করতে না পারে। সতর্কতার সঙ্গে এগোতে হবে। আমাদের সিদ্ধান্ত যাতে আমরা (বাংলাদেশ) নেই।’ এ ছাড়াও তিনি বলেন, তালেবানের উত্থানে দেশের কিছু উগ্রবাদী গোষ্ঠী পুনরুজ্জীবিত হওয়ার চেষ্টা করছে। এ ব্যাপারে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে।

এদিকে সাবেক পররাষ্ট্রসচিব মো. তৌহিদ হোসেন বলেন, আফগানিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের সীমান্ত নেই বলে তালেবান উত্থানে এখানে কম প্রভাব পড়তে পারে। এরপরও উগ্রবাদীদের কথা মাথায় রেখে সতর্ক থাকতে হবে। তালেবান আগের মতাদর্শ ও কর্মপদ্ধতি থেকে কতটা সরে এসেছে, তা পর্যবেক্ষণ করতে হবে।

ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ বলেন, ২০ বছর আগের তালেবানের তুলনায় নতুন তালেবানের নারীর অধিকার ও মানবাধিকারবিষয়ক মনোভাবে পরিবর্তন এসেছে। ইসলামি দলগুলোর জন্য তালেবানের উত্থান আনন্দ, তৃপ্তি ও প্রেরণার জায়গা তৈরি করেছে। তবে এটাকে পুঁজি করে দেশে বিশৃঙ্খলা ও উগ্রবাদ সৃষ্টি করার কোনো ভাবনা দলগুলোর নেই।

back to top