alt

অপরাধ ও দুর্নীতি

হাইকোর্টে প্রতিবেদন

ইভ্যালির ৩৬ ব্যাংক হিসাবে ৩৮’শ কোটি টাকার লেনদেন

আদালত বার্তা পরিবেশক: : বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২১

ই-কমার্স প্লাটফর্ম ইভ্যালি ডটকমের ৩৬টি ব্যাংক হিসাবে গত বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৩ হাজার ৮৯৮ কোটি ৮২ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে। এখন ব্যাংক হিসাবগুলোতে প্রায় ২ কোটি ১৩ কোটি টাকা জমা রয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে হাইকোর্টে জানিয়েছে বাংলাদেশ ফিনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চে ওই প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। পরে আদালত এ বিষয়ে অধিকতর প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি শুনানির দিন নির্ধারণ করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইভ্যালির চেয়ারম্যান, এমডি এবং তাদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নামে ১৩টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ৬৭টি হিসাবের আনুষঙ্গিক দলিলাদি বিশ্লেষণ করা হয়েছে। হিসাবগুলোতে লেনদেনের বিবরণী থেকে দেখা যায় যে, ইভ্যালি ডটকম লিমিটেড ও তার স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানের নামে প্রাপ্ত ৩৬টি হিসাবে (সঞ্চয়ী, চলতি) মোট ৩ হাজার ৮৯৮ কোটি ৮২ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে। তার মধ্যে জমা প্রায় ১ হাজার ৯৫৬ কোটি ১৯ লাখ টাকা ও উত্তোলন হয়েছে প্রায় ১ হাজার ৯৪২ কোটি ৬৩ লাখ টাকা। এসব হিসাবে ২০২০ সালের ৩০ আগস্ট পর্যন্ত স্থিতির পরিমাণ ২ কোটি ১৩ লাখ টাকা।

এর মধ্যে আরও ১০টি হিসাব শনাক্ত হওয়ায় চলতি বছরের ১০ আগস্ট সিআইডির কাছে ৭৭টি (৬৭ ও ১০) হিসাবের তথ্য পাঠানো হয়েছে। কার কার নামে কখন এসব টাকা উত্তোলন করা হয়েছে তাও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পৃথক তিনটি রিটের বিপরীতে প্রতিবেদন দাখিলের পর বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছে।

এর আগে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান থেকে মানিলন্ডারিংয়ের অভিযোগ বিষয়ে বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট কী পদক্ষেপ নিয়েছে, ই-কর্মাস প্রতিষ্ঠান থেকে ভ্যাট-ট্যাক্স আদায়ে এনবিআরের পলিসি কী এবং ই-কমার্স খাতের স্বার্থে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের করা ১৬ সদস্যের কারিগরি কমিটির কার্যপরিধি কী তাও জানতে চেয়েছিল হাইকোর্ট।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী হুমায়ন কবির পল্লব, মোহাম্মদ শিশির মনির ও আনোয়ারুল ইসলাম বাধন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার। গত ২০ সেপ্টেম্বর ই-কমার্সের গ্রাহকদের স্বার্থ ও অধিকার রক্ষায় জাতীয় ডিজিটাল কমার্স পলিসির ম্যান্ডেট অনুসারে একটি স্বাধীন ই-কমার্স নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠার নির্দেশনা চেয়ে রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. আনোয়ারুল ইসলাম।

আর ২৩ সেপ্টেম্বর ই-অরেঞ্জের ৩৩ জন গ্রাহক ডিজিটাল বা ই–প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকদের অধিকার ও স্বার্থ সুরক্ষায় সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব তৈরির জন্য অর্থনীতিবিদ, তথ্যপ্রযুক্তিবিদ, ব্যবসায়ী ও অন্য অংশীজনদের নিয়ে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন এবং ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট করেন। তাদের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মোহাম্মদ শিশির মনির।

এর আগে ২২ সেপ্টেম্বর মানবাধিকার সংগঠন ল’ অ্যান্ড লাইফ ফাউন্ডেশন, ইভ্যালি ও ই-অরেঞ্জের দুজন গ্রাহকের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোহাম্মদ হুমায়ন কবির আরেকটি রিট করেন। রিটে কোন ব্যক্তি বা সরকারি কর্তৃপক্ষের অবহেলা বা ব্যর্থতায় ইভ্যালি, আলেশা মার্ট, ই–অরেঞ্জ, ধামাকা, দারাজ, কিউকম, আলাদিনের প্রদীপ ও দালাল প্লাসের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে পণ্য কিনতে গিয়ে লাখ লাখ গ্রাহকের আর্থিক ক্ষতি হয়েছে, তা নির্ণয়ে সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত একজন বিচারকের নেতৃত্বে এক সদস্যবিশিষ্ট অনুসন্ধান কমিটি গঠনের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

ছবি

জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে ১০০ কোটি টাকার মানহানি মামলা

ছবি

কুয়েতে মানবপাচার মামলায় পাপুলের ৭ বছর কারাদণ্ড

ছবি

পুলিশের অপরাধ তদন্তে ‘স্বাধীন কমিশন’ কেন নয়: হাইকোর্টের রুল

ছবি

পিছিয়ে গেলো আবরার হত্যা মামলার রায়

ছবি

আবরার হত্যা : আদালতে ২২ আসামি

রাজশাহীতে বিভিন্ন অপরাধে আটক ১৯

সীতাকুন্ডে জমি বিবাদে দোকান-গাড়িতে আগুন, বাড়িতে হামলা

ছবি

আহসান কবীরের মৃত্যু: উত্তর সিটির সেই ময়লার গাড়ির চালক গ্রেপ্তার

ছবি

আবরার হত্যা মামলার রায় রোববার

ইউপি নির্বাচন-পরবর্তী সহিংসতায় নিহত ২

ছবি

বরাদ্দের চাল ও টাকা ঢুকেছে ইউপি চেয়ারম্যানের পকেটে

সোনারগাঁয়ে ২ প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ-গুলি : আহত ২০

হবিগঞ্জে নির্বাচনী সংঘর্ষ-ভাংচুর, আহত ১৫

ছবি

নাঈমের মৃত্যু: ডিএসসিসি’র গাড়ির চালক হারুন গ্রেপ্তার

ছবি

নাঈমের মৃত্যু: আসল চালকের খোঁজ মিলল বরখাস্তের পর

কুমিল্লায় জোড়া খুন আরও এক আসামি মাসুম গ্রেপ্তার

ছবি

পুলিশের সামনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী চাচার ওপর ভাতিজার বাহিনীর হামলা

ছবি

জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে এবার পঞ্চগড়ে মামলা

আড়াইহাজারে স্বর্ণ দোকানে ভাঙচুর-লুট, হিন্দু পাড়ায় হামলার হুমকি : আতঙ্ক

শৈলকুপায় সংঘর্ষে আহত ২৫ আটক ৬

মুন্সীগঞ্জে অবাধে উৎপাদন হচ্ছে কারেন্ট জাল

ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টা মামলায় সাবেক মেয়র পুত্রের যাবজ্জীবন

ব্রাহ্মণপাড়ায় নৌকা না পেয়ে আ’লীগ অফিস ভাংচুর

শ্রেণী পরিবর্তণ করে রেজিস্ট্রি এক দলিলেই সতের লাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকি!

চট্টগ্রামে প্রতারণার অভিযোগে কাস্টমসের ২ কর্তাসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ঘর পুড়িয়ে মাকে মারধর : ছেলের বিরুদ্ধে মামলা

ছবি

পতাকা ইস্যু: পাকিস্তান দলের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন খারিজ

ছবি

কাউন্সিলর সোহেল হত্যা: ৯ নম্বর আসামি গ্রেপ্তার

ছবি

গোপালগঞ্জে ইজিবাইক চালক হত্যা: ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাইয়ে ১০ শতাংশ কোটা বাতিল: হাইকোর্ট

ছবি

নটর ডেম শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় পল্টন থানায় মামলা

ছবি

পতাকা নিয়ে অনুশীলন: পাকিস্তান দলের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন

ছবি

ড্রেনে পড়ে শিক্ষার্থীর মৃত্যু: ১০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট

ছবি

‘অসৎ উদ্দেশ্যে’ আসামিকে জামিন দিয়েছিলেন কামরুন্নাহার

ছবি

মহাসড়কে সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি ও দূর্ঘটনা তথ্য জানাতে চালু হচ্ছে অ্যাপ

ছবি

শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের হুমকি: বাস চালক-সহকারী কারাগারে

tab

অপরাধ ও দুর্নীতি

হাইকোর্টে প্রতিবেদন

ইভ্যালির ৩৬ ব্যাংক হিসাবে ৩৮’শ কোটি টাকার লেনদেন

আদালত বার্তা পরিবেশক:

বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২১

ই-কমার্স প্লাটফর্ম ইভ্যালি ডটকমের ৩৬টি ব্যাংক হিসাবে গত বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ৩ হাজার ৮৯৮ কোটি ৮২ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে। এখন ব্যাংক হিসাবগুলোতে প্রায় ২ কোটি ১৩ কোটি টাকা জমা রয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে হাইকোর্টে জানিয়েছে বাংলাদেশ ফিনান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চে ওই প্রতিবেদন দাখিল করা হয়। পরে আদালত এ বিষয়ে অধিকতর প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি শুনানির দিন নির্ধারণ করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইভ্যালির চেয়ারম্যান, এমডি এবং তাদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের নামে ১৩টি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে ৬৭টি হিসাবের আনুষঙ্গিক দলিলাদি বিশ্লেষণ করা হয়েছে। হিসাবগুলোতে লেনদেনের বিবরণী থেকে দেখা যায় যে, ইভ্যালি ডটকম লিমিটেড ও তার স্বার্থ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠানের নামে প্রাপ্ত ৩৬টি হিসাবে (সঞ্চয়ী, চলতি) মোট ৩ হাজার ৮৯৮ কোটি ৮২ লাখ টাকা লেনদেন হয়েছে। তার মধ্যে জমা প্রায় ১ হাজার ৯৫৬ কোটি ১৯ লাখ টাকা ও উত্তোলন হয়েছে প্রায় ১ হাজার ৯৪২ কোটি ৬৩ লাখ টাকা। এসব হিসাবে ২০২০ সালের ৩০ আগস্ট পর্যন্ত স্থিতির পরিমাণ ২ কোটি ১৩ লাখ টাকা।

এর মধ্যে আরও ১০টি হিসাব শনাক্ত হওয়ায় চলতি বছরের ১০ আগস্ট সিআইডির কাছে ৭৭টি (৬৭ ও ১০) হিসাবের তথ্য পাঠানো হয়েছে। কার কার নামে কখন এসব টাকা উত্তোলন করা হয়েছে তাও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে পৃথক তিনটি রিটের বিপরীতে প্রতিবেদন দাখিলের পর বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি পরবর্তী আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছে।

এর আগে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান থেকে মানিলন্ডারিংয়ের অভিযোগ বিষয়ে বাংলাদেশ ফিন্যান্সিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট কী পদক্ষেপ নিয়েছে, ই-কর্মাস প্রতিষ্ঠান থেকে ভ্যাট-ট্যাক্স আদায়ে এনবিআরের পলিসি কী এবং ই-কমার্স খাতের স্বার্থে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের করা ১৬ সদস্যের কারিগরি কমিটির কার্যপরিধি কী তাও জানতে চেয়েছিল হাইকোর্ট।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী হুমায়ন কবির পল্লব, মোহাম্মদ শিশির মনির ও আনোয়ারুল ইসলাম বাধন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমার। গত ২০ সেপ্টেম্বর ই-কমার্সের গ্রাহকদের স্বার্থ ও অধিকার রক্ষায় জাতীয় ডিজিটাল কমার্স পলিসির ম্যান্ডেট অনুসারে একটি স্বাধীন ই-কমার্স নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠার নির্দেশনা চেয়ে রিট করেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. আনোয়ারুল ইসলাম।

আর ২৩ সেপ্টেম্বর ই-অরেঞ্জের ৩৩ জন গ্রাহক ডিজিটাল বা ই–প্রতিষ্ঠানের গ্রাহকদের অধিকার ও স্বার্থ সুরক্ষায় সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব তৈরির জন্য অর্থনীতিবিদ, তথ্যপ্রযুক্তিবিদ, ব্যবসায়ী ও অন্য অংশীজনদের নিয়ে একটি বিশেষজ্ঞ কমিটি গঠন এবং ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট করেন। তাদের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মোহাম্মদ শিশির মনির।

এর আগে ২২ সেপ্টেম্বর মানবাধিকার সংগঠন ল’ অ্যান্ড লাইফ ফাউন্ডেশন, ইভ্যালি ও ই-অরেঞ্জের দুজন গ্রাহকের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোহাম্মদ হুমায়ন কবির আরেকটি রিট করেন। রিটে কোন ব্যক্তি বা সরকারি কর্তৃপক্ষের অবহেলা বা ব্যর্থতায় ইভ্যালি, আলেশা মার্ট, ই–অরেঞ্জ, ধামাকা, দারাজ, কিউকম, আলাদিনের প্রদীপ ও দালাল প্লাসের মতো প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে পণ্য কিনতে গিয়ে লাখ লাখ গ্রাহকের আর্থিক ক্ষতি হয়েছে, তা নির্ণয়ে সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত একজন বিচারকের নেতৃত্বে এক সদস্যবিশিষ্ট অনুসন্ধান কমিটি গঠনের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

back to top