alt

আন্তর্জাতিক

অর্থাভাবে আফগানরা বিক্রি করছেন ঘরের হাঁড়ি-পাতিলও

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আফগানিস্তানে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় তালেবান আসার পর যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন পশ্চিমা দেশ অর্থসহায়তা বন্ধ করে দেওয়ায় সেখানকার জনসাধারনের অর্থনৈতিক সংকট আরও নাজুক হয়েছে। খাবার ছাড়াও অর্থের অভাবে পড়েছে লাখ লাখ আফগান। আল–জাজিরার খবর।

দুর্দশাগ্রস্ত এই দেশটিতে বিপুলসংখ্যক মানুষ অসহায় হয়ে এদিক সেদিক ছুটোছুটি করছে। গৃহস্থালির ব্যবহার্য সামগ্রীসমূহ বেচতে মরিয়া হাজারো মানুষ। সবারই অর্থ দরকার। অথচ ২০ বছর ধরে এসব সামগ্রী ছিল তাদের নিত্যদিনের সঙ্গীর মতো।

তাদের মধ্যে একজন শুকরুল্লাহ। অর্থের সংকুলান করতে বাসা থেকে চারটি কার্পেট কাবুলের চমন ই হোজোরি এলাকায় বেচতে এনেছেন তিনি। যেখানে এসেছেন সেখানে ফ্রিজ, কুশন, ফ্যান, বালিশ, কম্বল, চামচ, থালাবাটি, পর্দা, বিছানার চাদর, ম্যাট্রেস, হাঁড়ি-পাতিল, তাক-কী নেই।

শুকরুল্লাহ জানান, ‘আমি কার্পেটগুলো কিনেছিলাম ৪৮ হাজার আফগানিতে (৫৫৬ মার্কিন ডলার)। এখন এগুলো বেচে বড়জোর ৫ হাজারের কিছু বেশি আফগানি (৫৮ মার্কিন ডলার) পেতে পারি।’

চলতি বছরের গতমাসের (১৫ আগস্ট) তালেবান আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর দেশটিতে অর্থপ্রবাহ বন্ধ করে দেয় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। এরপর আফগানিস্তানের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভের প্রায় এক হাজার কোটি ডলার আটকে দেয় যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে জরুরি সহায়তা তহবিলের ৪৪ কোটি ডলারও আটকে দিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)।

তাছাড়া গত সপ্তাহে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জাতিসংঘ সতর্ক করে বলেছে, আগামী বছরের মাঝামাঝি আফগানিস্তানের জনগণের ৯৭ শতাংশের বেশি দারিদ্র্যসীমার নিচে নেমে যাতে পারে।

আফগানিস্তান সম্পর্কিত জাতিসংঘের বিশেষ দূত ডেবোরাহ লিওনস গত বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আফগানিস্তানে অর্থপ্রবাহ চালু করার একটি উপায় বের করার অনুরোধ জানিয়েছেন। এমন প্রেক্ষাপটে দেশটি মহাবিপর্যয়ের মুখে পড়তে পারে সতর্ক করে দেন বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে রয়টার্স ও এএনআই জানায়, আফগানিস্তানে মানবিক সংকট এড়াতে ৬০ কোটি (৬০০ মিলিয়ন) মার্কিন ডলার সহায়তা চায় জাতিসংঘ।

সূত্রমতে, পশ্চিমা সমর্থিত সরকারের পতনের আগে আফগানিস্তান আর্থিক অঙ্কে কয়েক শ কোটি ডলার বিদেশি সহায়তা পেয়ে আসছিল। কিন্তু তালেবানের ক্ষমতা দখলের পর সেই সহায়তা হঠাৎ বন্ধ করে দেয় যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদেশগুলো। এ কারণে আফগানিস্তানে জাতিসংঘ পরিচালিত বিভিন্ন কর্মসূচির ওপর আর্থিক ঘাটতির চাপ বেড়েছে।

দেশটি তালেবানের নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার আগে থেকেই দেশটির ১ কোটি ৮০ লাখ মানুষ আন্তর্জাতিক সহায়তার ওপর নির্ভরশীল ছিল, যা দেশটির মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেক। জাতিসংঘসহ বিভিন্ন সাহায্য সংস্থার কর্মকর্তারা সতর্ক করে বলেছেন, খরা, নগদ অর্থের স্বল্পতা ও খাদ্যের অভাবের কারণে মানবিক সংকটে পড়া মানুষের এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

গত শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, তাঁর সংস্থা বর্তমানে আর্থিক সংকটে রয়েছে। অর্থের অভাবে আফগানিস্তানে জাতিসংঘের কর্মীদের বেতন পর্যন্ত দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

আজ সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) আফগানিস্তানকে সহায়তার লক্ষ্যে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনও আয়োজন করেছে জাতিসংঘ। এর আগে সংস্থাটি সতর্ক করে বলেছে, নতুন শাসকগোষ্ঠী তালেবানের নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে আফগানিস্তানে মানবিক সংকট দেখা দিয়েছে।

জাতিসংঘের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে যে ৬০ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা চাওয়া হয়েছে, তার এক-তৃতীয়াংশ খরচ করা হবে আফগানিস্তানে জাতিসংঘ বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির (ডব্লিউএফপি) বিভিন্ন প্রকল্পে।

এদিকে গত আগস্ট ও চলতি মাসে ১ হাজার ৬০০ আফগানের ওপর একটি জরিপ পরিচালনা করে ডব্লিউএফপি। এ জরিপে দেখা যায়, ৯৩ শতাংশ আফগান পর্যাপ্ত খাবার পাচ্ছে না। কারণ, দেশটির বেশির ভাগ মানুষের কাছে খাবার কেনার মতো অর্থ নেই।

ছবি

রাশিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুকধারীর এলোপাতাড়ি গুলি, নিহত ৮

ছবি

অনলাইন থেকে শুক্রাণু কিনে নারী জন্ম দিলেন ‘ই-বেবি’

ছবি

রাশিয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ে বন্দুক হামলা, ৮ জন নিহত

ছবি

রাশিয়ায় নির্বাচন : পুতিনের দল এগিয়ে, ২য় স্থানে কমিউনিস্ট পার্টি

ছবি

যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ফ্রান্সের প্রতিরক্ষা বৈঠক বাতিল

ছবি

মেয়েদের সমর্থনে স্কুলে যাচ্ছে না অনেক আফগান ছেলে

ছবি

জাতিসংঘে বিশ্ব নেতারা, মনোযোগ করোনা মহামারী ও জলবায়ুতে

অতিরিক্ত কাজের চাপে বছরে মৃত্যু ১৯ লাখ: ডব্লিউএইচও-আইএলও’র গবেষণা

ছবি

তালেবানের সঙ্গে সংলাপ শুরু করেছে পাকিস্তান

ছবি

জেল থেকে পালানো ২ ফিলিস্তিনি আটক

ছবি

কাবুলে মার্কিন ড্রোন হামলা : নিহতদের পরিবারের জন্য ক্ষতিপূরণ দাবি

ছবি

শুধু ছেলেদের জন্য স্কুল খোলার অনুমতি দিয়েছে তালেবান

ছবি

ফ্রান্সের অভিযোগ যুক্তরাষ্ট্র-অস্ট্রেলিয়া মিথ্যা বলছে

ছবি

আফগানিস্তানে তিনটি শক্তিশালী বিস্ফোরণ, নিহত ২

ছবি

আফগানিস্তানে নারী মন্ত্রণালয়ের নামফলক মুছে ফেলে বসানো হচ্ছে নৈতিকতা মন্ত্রণালয়

ছবি

কাবুলে মার্কিন বাহিনীর ‘ড্রোন হামলার সিদ্ধান্ত ছিল ভুল’

ছবি

চলে গেলেন আলজেরিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট আব্দেল আজিজ

ছবি

আফগানিস্তানে শুধু ছেলেদের জন্য স্কুল খুলছে

ছবি

ইতালিতে টিকা না নেওয়ায় বহিষ্কার ৭২৮ ডাক্তার!

ছবি

করোনায় বিশ্বে মৃত্যুতে শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র-ব্রাজিল

ছবি

অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য নতুন জোট, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তীব্র সমালোচনা

ছবি

তালেবানের ভয়ে আফগান সঙ্গীতশিল্পীরা পালিয়ে গেছেন পাকিস্তানে

ছবি

আফগানিস্তানের কালোবাজারে ভিসা বাণিজ্য রমরমা

ছবি

শিশুদের ক্ষেত্রে মিশ্র টিকার কার্যকারিতা পরখ করবে যুক্তরাজ্য

ছবি

ট্রাম্পের মতো আচরণ করছেন বাইডেন

ছবি

টিকাবিহীন হওয়ায় ফ্রান্সে তিন হাজার স্বাস্থ্যকর্মী বরখাস্ত!

ছবি

রাশিয়া: এবারের নির্বাচনে জনপ্রিয়তা কমলেও বড় জয়ের প্রত্যাশা ক্ষমতাসীন দলের

ছবি

আফগানিস্তানে মন্ত্রণালয়ে নারীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা

ছবি

চীনের ৭১ শতাংশ জনগণ পেয়েছে টিকার পূর্ণ ডোজ

ছবি

অনিশ্চতার মধ্যে বিদেশেই আশ্রয় খুঁজছে আফগান কূটনীতিকরা

ছবি

আজ মোদির জন্মদিন, ভারতজুড়ে বিজেপির ২০ দিনের কর্মসূচি

ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিরাজুদ্দিন হাক্কানির সঙ্গে জাতিসংঘ দূতের বৈঠক

ছবি

করোনা টিকা না নেওয়ায় ফ্রান্সে ৩ হাজার স্বাস্থ্যকর্মী বরখাস্ত

ছবি

আইএস প্রধান সাহারা অঞ্চলের নিহত হয়েছেন: ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট

ছবি

তালেবানের ক্ষমতা গ্রহণের একমাসে আফগানদের জন জীবন

ছবি

টাইমে বিশ্বের ১০০ প্রভাবশালী ব্যক্তির তালিকায় মমতাসহ আছেন মোদি-পুনাওয়ালা

tab

আন্তর্জাতিক

অর্থাভাবে আফগানরা বিক্রি করছেন ঘরের হাঁড়ি-পাতিলও

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আফগানিস্তানে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় তালেবান আসার পর যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন পশ্চিমা দেশ অর্থসহায়তা বন্ধ করে দেওয়ায় সেখানকার জনসাধারনের অর্থনৈতিক সংকট আরও নাজুক হয়েছে। খাবার ছাড়াও অর্থের অভাবে পড়েছে লাখ লাখ আফগান। আল–জাজিরার খবর।

দুর্দশাগ্রস্ত এই দেশটিতে বিপুলসংখ্যক মানুষ অসহায় হয়ে এদিক সেদিক ছুটোছুটি করছে। গৃহস্থালির ব্যবহার্য সামগ্রীসমূহ বেচতে মরিয়া হাজারো মানুষ। সবারই অর্থ দরকার। অথচ ২০ বছর ধরে এসব সামগ্রী ছিল তাদের নিত্যদিনের সঙ্গীর মতো।

তাদের মধ্যে একজন শুকরুল্লাহ। অর্থের সংকুলান করতে বাসা থেকে চারটি কার্পেট কাবুলের চমন ই হোজোরি এলাকায় বেচতে এনেছেন তিনি। যেখানে এসেছেন সেখানে ফ্রিজ, কুশন, ফ্যান, বালিশ, কম্বল, চামচ, থালাবাটি, পর্দা, বিছানার চাদর, ম্যাট্রেস, হাঁড়ি-পাতিল, তাক-কী নেই।

শুকরুল্লাহ জানান, ‘আমি কার্পেটগুলো কিনেছিলাম ৪৮ হাজার আফগানিতে (৫৫৬ মার্কিন ডলার)। এখন এগুলো বেচে বড়জোর ৫ হাজারের কিছু বেশি আফগানি (৫৮ মার্কিন ডলার) পেতে পারি।’

চলতি বছরের গতমাসের (১৫ আগস্ট) তালেবান আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর দেশটিতে অর্থপ্রবাহ বন্ধ করে দেয় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। এরপর আফগানিস্তানের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভের প্রায় এক হাজার কোটি ডলার আটকে দেয় যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে জরুরি সহায়তা তহবিলের ৪৪ কোটি ডলারও আটকে দিয়েছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)।

তাছাড়া গত সপ্তাহে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জাতিসংঘ সতর্ক করে বলেছে, আগামী বছরের মাঝামাঝি আফগানিস্তানের জনগণের ৯৭ শতাংশের বেশি দারিদ্র্যসীমার নিচে নেমে যাতে পারে।

আফগানিস্তান সম্পর্কিত জাতিসংঘের বিশেষ দূত ডেবোরাহ লিওনস গত বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে আফগানিস্তানে অর্থপ্রবাহ চালু করার একটি উপায় বের করার অনুরোধ জানিয়েছেন। এমন প্রেক্ষাপটে দেশটি মহাবিপর্যয়ের মুখে পড়তে পারে সতর্ক করে দেন বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে রয়টার্স ও এএনআই জানায়, আফগানিস্তানে মানবিক সংকট এড়াতে ৬০ কোটি (৬০০ মিলিয়ন) মার্কিন ডলার সহায়তা চায় জাতিসংঘ।

সূত্রমতে, পশ্চিমা সমর্থিত সরকারের পতনের আগে আফগানিস্তান আর্থিক অঙ্কে কয়েক শ কোটি ডলার বিদেশি সহায়তা পেয়ে আসছিল। কিন্তু তালেবানের ক্ষমতা দখলের পর সেই সহায়তা হঠাৎ বন্ধ করে দেয় যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্রদেশগুলো। এ কারণে আফগানিস্তানে জাতিসংঘ পরিচালিত বিভিন্ন কর্মসূচির ওপর আর্থিক ঘাটতির চাপ বেড়েছে।

দেশটি তালেবানের নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার আগে থেকেই দেশটির ১ কোটি ৮০ লাখ মানুষ আন্তর্জাতিক সহায়তার ওপর নির্ভরশীল ছিল, যা দেশটির মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেক। জাতিসংঘসহ বিভিন্ন সাহায্য সংস্থার কর্মকর্তারা সতর্ক করে বলেছেন, খরা, নগদ অর্থের স্বল্পতা ও খাদ্যের অভাবের কারণে মানবিক সংকটে পড়া মানুষের এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

গত শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলেন জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, তাঁর সংস্থা বর্তমানে আর্থিক সংকটে রয়েছে। অর্থের অভাবে আফগানিস্তানে জাতিসংঘের কর্মীদের বেতন পর্যন্ত দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।

আজ সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) আফগানিস্তানকে সহায়তার লক্ষ্যে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনও আয়োজন করেছে জাতিসংঘ। এর আগে সংস্থাটি সতর্ক করে বলেছে, নতুন শাসকগোষ্ঠী তালেবানের নিয়ন্ত্রণে যাওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে আফগানিস্তানে মানবিক সংকট দেখা দিয়েছে।

জাতিসংঘের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে যে ৬০ কোটি মার্কিন ডলার সহায়তা চাওয়া হয়েছে, তার এক-তৃতীয়াংশ খরচ করা হবে আফগানিস্তানে জাতিসংঘ বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচির (ডব্লিউএফপি) বিভিন্ন প্রকল্পে।

এদিকে গত আগস্ট ও চলতি মাসে ১ হাজার ৬০০ আফগানের ওপর একটি জরিপ পরিচালনা করে ডব্লিউএফপি। এ জরিপে দেখা যায়, ৯৩ শতাংশ আফগান পর্যাপ্ত খাবার পাচ্ছে না। কারণ, দেশটির বেশির ভাগ মানুষের কাছে খাবার কেনার মতো অর্থ নেই।

back to top