alt

সারাদেশ

হোটেলে বাড়তি ভাড়া আদায়, তবুও তিল ধারণের ঠাঁই নেই সাগরপাড়ে

জেলা বার্তা পরিবেশক, কক্সবাজার : রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

ঈদের টানা ছুটিতে সৈকত শহর কক্সবাজারে ভ্রমণে আসা পর্যটকরা মেতেছেন বাঁধ ভাঙা আনন্দ-উল্লাসে। তিল ধারণের ঠাঁই নেই সাগরপাড়ে। তীব্র গরমে প্রশান্তি খুঁজে পাচ্ছে নোনাজলে। পর্যটন সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এবার ঈদের ছুটির তৃতীয় দিনে কক্সবাজারে ভিড় করেছে ২ লাখের বেশি পর্যটক।

পর্যটকদের অভিযোগ, সুযোগ বুঝে অনেক হোটেল বাড়তি ভাড়া আদায় করছে। তবে প্রশাসন বলছে তারা এখন পর্যন্ত বাড়তি ভাড়া আদায়ের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বিকালে সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে তীব্র গরম অনুভূত হচ্ছে। নেই বাতাস, নেই কোনো কিছুর ছায়া। তারপরও লাখো মানুষের সমাগম। তিল ধারণের ঠাঁই নেই সাগরপাড়ে। তীব্র গরমকে উপেক্ষা করে সমুদ্র সৈকতে মেতেছেন পর্যটকরা। সৈকতের শৈবাল থেকে কলাতলী পয়েন্টে নোনাজলে যেনো মানুষের উপচে পড়া ভিড়। তীব্র গরমে সব প্রশান্তি যেনো সাগরপাড়ে।

ঢাকা থেকে আসা পর্যটক সাজ্জাদ বলেন, ‘তীব্র গরমও হার মানাতে পারছে না। কক্সবাজারে ঈদ আনন্দ করতে এসেছি। খুব ভালোভাবে ঈদ আনন্দ উদযাপন করছি পরিবারের সদস্যদের নিয়ে।’

আরেক পর্যটক ফারহানা বলেন, ‘ঈদ উদযাপন করতে প্রথমবারের মতো কক্সবাজার সৈকতে আসা। ঈদে তো সাধারণত আত্মীয়-স্বজনদের বাসায় যাওয়া হয়। কিন্তু এবার সমুদ্রে প্রথমবারের মতো ঈদ উদযাপন করছি পরিবারের সঙ্গে খুবই ভালো লাগছে।’

প্রতিবছর ঈদ মৌসুমকে কেন্দ্র করে বেপরোয়া হয়ে উঠে হোটেল, রেস্তোরাঁ ও যানবাহন চালকরা। পর্যটকদের অভিযোগ, এবার হয়রানির মাত্রা কিছুটা কম হলেও কিছু কিছু হোটেল বাড়তি ভাড়া আদায় করছে। সাইফুল নামের পর্যটক বলেন, ‘যেহেতু ঈদ মৌসুম, সেহেতু বাড়তি ভাড়া তো গুনতে হবে। এটা এখন স্বাভাবিক নিয়মে পরিণত হয়েছে।’

আরেক পর্যটক মাহিন বলেন, ‘যে রুম ২ হাজার টাকা এখন সে রুম ভাড়া নিতে হয়েছে ৬ হাজার ৫০০ টাকায়। হোটেল ব্যবসায়ীরা মানুষের দুর্বলতার সুযোগ নিচ্ছে। আমি হোটেল গ্রীস প্যারাডাইসে উঠেছি।’

তবে প্রশাসন বলছে, পর্যটকদের হয়রানি রোধে সব সময় মাঠে রয়েছেন তারা। এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (পর্যটন সেল) মাসুদ রানা বলেন, ঈদ পরবর্তী ১০ দিনের যে ছুটি এ ছুটিতে ভ্রাম্যমাণ টিম মাঠে রয়েছে। ট্যুরিস্ট পুলিশও কাজ করছে। প্রতিটি হোটেলে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ টিমের নম্বর দেয়া হয়েছে। এতে পর্যটকদের কোনো অভিযোগ থাকলে তা জানানোর জন্য। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো পর্যটক অভিযোগ করেননি।

ছবি

কক্সবাজারের তিন উপজেলায় শান্তিপূর্ণভাবে চলছে ভোট গ্রহণ

ছবি

পেটে গজ রেখেই সেলাই, রোগী আইসিইউতে

রামেকে দুদকের আকস্মিক অভিযান মিলেছে বহু অভিযোগের সত্যতা

রংপুরে জঙ্গি তৎপরতার দায়ে তিন জনের ৪ বছরের দণ্ড

ছবি

দোহারে ব্রি ধান-৮৯ এর ওপর মাঠ দিবস ও কারিগরি সেশন

ছবি

হাওরের প্রায় শতভাগ বোরো ধান কাটা শেষ

ছবি

সুন্দরগঞ্জে ইটভাটায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ভাটা বন্ধের নির্দেশ

ছবি

রায়গঞ্জে ভাঙা ব্রিজে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল, ঘটছে দুর্ঘটনা

ছবি

পোরশায় সড়ক দুর্ঘটনায় শিশু নিহত

ছবি

চট্টগ্রামে প্রবাসীর স্বর্ণ ছিনতাইকালে এসআই গ্রেপ্তার

ছবি

ডিমলায় সংস্কারের দুদিন পরই উঠে যাচ্ছে কোটি টাকার কার্পেটিং

ছবি

সিরাজগঞ্জে শিশু ধর্ষণ মামলায় বৃদ্ধের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

পেটে গজ রেখেই সেলাই, সংকটাপূর্ণ রোগী আইসিইউতে

ছবি

বাগাতিপাড়ায় চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকের বাড়িতে হামলা

জমি বিবাদে গৃহবধূকে হত্যা, গ্রেপ্তার ৪

ছবি

ইন্দুরকানীতে সংস্কারের অভাবে সড়ক বেহাল

সংবাদ-এর ৭৪ বর্ষে পদার্পণ উপলক্ষে আলোচনা

ছবি

কুড়িগ্রামে এক টাকায় ১০টি হাতপাখা বিক্রি

ছবি

করলা চাষে দ্বিগুণ লাভে খুশি কৃষক

ছবি

দেশ ছাড়িয়ে বিদেশেও কাউখালীর ঐতিহ্যবাহী শীতলপাটির কদর

ছবি

সাড়ে ৮ বিঘা জমির ফসল কাটল দুর্বৃত্তরা

ছবি

বগুড়ায় আলুর হিমাগার থেকে এক লাখ ডিম উদ্ধার

ছবি

মৌলভীবাজার সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচন স্থগিত

ছবি

সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাচন এমপি এক প্রার্থীকে সমর্থন উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় ভোটাররা

ছবি

সিরাজগঞ্জে হেরোইন রাখার দায়ে দুই যুবকের যাবজ্জীবন

সংবাদ প্রতিনিধি হারাধন পেলেন মাদার তেরেসা অ্যাওয়ার্ড

ছবি

আনোয়ারায় অধ্যক্ষের রুমে দুই শিক্ষকের মারামারি, শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

ছবি

মুন্সীগঞ্জ আব্দুল আজহার উচ্চ বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে দশগুণ বেশি মূল্যে মনোনয়নপত্র বিক্রি

ছবি

মুকসুদপুরে অজ্ঞাত নারীর মরদেহ উদ্ধার

ছবি

ডাকাতি করতে গিয়ে দলবেঁধে ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৪

ছবি

লক্ষ্মীছড়ির স্থগিত দুই কেন্দ্রের ভোট ২৯ মে

ছবি

অটোরিকশা চালকদের তাণ্ডবের ঘটনায় ৪ মামলা, আসামি প্রায় ২৫০০

ছবি

র‍্যাব হেফাজতে নারী মৃত্যুর ঘটনায় ক্যাম্প কমান্ডার প্রত্যাহার

ছবি

লিচু : তাপপ্রবাহে লোকসানের আশঙ্কায় বাগানি ও ব্যবসায়ীরা

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম ‘নিখোঁজ’ দাবি পরিবারের

ছবি

বান্দরবানে ৩ ‘কেএনএফ সদস্যের’ মরদেহ উদ্ধার

tab

সারাদেশ

হোটেলে বাড়তি ভাড়া আদায়, তবুও তিল ধারণের ঠাঁই নেই সাগরপাড়ে

জেলা বার্তা পরিবেশক, কক্সবাজার

রোববার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

ঈদের টানা ছুটিতে সৈকত শহর কক্সবাজারে ভ্রমণে আসা পর্যটকরা মেতেছেন বাঁধ ভাঙা আনন্দ-উল্লাসে। তিল ধারণের ঠাঁই নেই সাগরপাড়ে। তীব্র গরমে প্রশান্তি খুঁজে পাচ্ছে নোনাজলে। পর্যটন সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এবার ঈদের ছুটির তৃতীয় দিনে কক্সবাজারে ভিড় করেছে ২ লাখের বেশি পর্যটক।

পর্যটকদের অভিযোগ, সুযোগ বুঝে অনেক হোটেল বাড়তি ভাড়া আদায় করছে। তবে প্রশাসন বলছে তারা এখন পর্যন্ত বাড়তি ভাড়া আদায়ের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) বিকালে সৈকতের সুগন্ধা পয়েন্টে তীব্র গরম অনুভূত হচ্ছে। নেই বাতাস, নেই কোনো কিছুর ছায়া। তারপরও লাখো মানুষের সমাগম। তিল ধারণের ঠাঁই নেই সাগরপাড়ে। তীব্র গরমকে উপেক্ষা করে সমুদ্র সৈকতে মেতেছেন পর্যটকরা। সৈকতের শৈবাল থেকে কলাতলী পয়েন্টে নোনাজলে যেনো মানুষের উপচে পড়া ভিড়। তীব্র গরমে সব প্রশান্তি যেনো সাগরপাড়ে।

ঢাকা থেকে আসা পর্যটক সাজ্জাদ বলেন, ‘তীব্র গরমও হার মানাতে পারছে না। কক্সবাজারে ঈদ আনন্দ করতে এসেছি। খুব ভালোভাবে ঈদ আনন্দ উদযাপন করছি পরিবারের সদস্যদের নিয়ে।’

আরেক পর্যটক ফারহানা বলেন, ‘ঈদ উদযাপন করতে প্রথমবারের মতো কক্সবাজার সৈকতে আসা। ঈদে তো সাধারণত আত্মীয়-স্বজনদের বাসায় যাওয়া হয়। কিন্তু এবার সমুদ্রে প্রথমবারের মতো ঈদ উদযাপন করছি পরিবারের সঙ্গে খুবই ভালো লাগছে।’

প্রতিবছর ঈদ মৌসুমকে কেন্দ্র করে বেপরোয়া হয়ে উঠে হোটেল, রেস্তোরাঁ ও যানবাহন চালকরা। পর্যটকদের অভিযোগ, এবার হয়রানির মাত্রা কিছুটা কম হলেও কিছু কিছু হোটেল বাড়তি ভাড়া আদায় করছে। সাইফুল নামের পর্যটক বলেন, ‘যেহেতু ঈদ মৌসুম, সেহেতু বাড়তি ভাড়া তো গুনতে হবে। এটা এখন স্বাভাবিক নিয়মে পরিণত হয়েছে।’

আরেক পর্যটক মাহিন বলেন, ‘যে রুম ২ হাজার টাকা এখন সে রুম ভাড়া নিতে হয়েছে ৬ হাজার ৫০০ টাকায়। হোটেল ব্যবসায়ীরা মানুষের দুর্বলতার সুযোগ নিচ্ছে। আমি হোটেল গ্রীস প্যারাডাইসে উঠেছি।’

তবে প্রশাসন বলছে, পর্যটকদের হয়রানি রোধে সব সময় মাঠে রয়েছেন তারা। এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট (পর্যটন সেল) মাসুদ রানা বলেন, ঈদ পরবর্তী ১০ দিনের যে ছুটি এ ছুটিতে ভ্রাম্যমাণ টিম মাঠে রয়েছে। ট্যুরিস্ট পুলিশও কাজ করছে। প্রতিটি হোটেলে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ টিমের নম্বর দেয়া হয়েছে। এতে পর্যটকদের কোনো অভিযোগ থাকলে তা জানানোর জন্য। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোনো পর্যটক অভিযোগ করেননি।

back to top