alt

সারাদেশ

দুমকীতে অধিকাংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার

প্রতিনিধি, দুমকী (পটুয়াখালী) : বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার। উপজেলা শিক্ষা ও মাধ্যমিক শিক্ষা দপ্তর সূত্রে জানা যায়, দুমকী উপজেলায় ৬০টি প্রাথমিক, ২৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ২৩টি মাদ্রাসা ও ৯টি কলেজ রয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার। সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায, ৬০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ২৬টিতে, ২৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ১১টিতে, ২৩টি মাদ্রাসার মধ্যে ৩টিতে এবং ৯টি কলেজের মধ্যে মাত্র ৩টিতে শহীদ মিনার রয়েছে। কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার থাকলেও রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচর্যার অভাবে অরক্ষিত অবস্থায় আছে। উল্লেখ্য গত ৩১ আগস্ট ২০২৩ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)’র এক পরিপত্রে বলা হয়, যে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নাই, তাদেরকে স্ব-ব্যবস্থাপনায় অবিলম্বে শহীদ মিনার নির্মাণ করে ছবিসহ আঞ্চলিক উপ-পরিচালকের মাধ্যমে পাঠানোর অনুরোধ জানানো হলো। বর্তমানে উপজেলা পরিষদের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শ্রদ্ধা নিবেদন করায় উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শহীদ মিনারগুলো অরক্ষিত অবস্থায় পড়ে আছে বলে সুধীজনরা মনে করেন। তবে শিক্ষকরা ও অভিভাবকরা মনে করেন, প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মাণ করা হলে শিক্ষার্থীদের ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবসের’ ইতিহাস সম্পর্কে অধিকতর জ্ঞান অর্জন হবে। উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানরা জানান, সরকারি নির্দেশনা থাকলেও আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে স্থায়ীভাবে শহীদ মিনার নির্মাণ করা সম্ভব হচ্ছে না। উপজেলার কিছু দানবীর ও সমাজসেবকদের মাধ্যমে স্থায়ীভাবে নির্মাণ করা হলেও অধিকাংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার। এছাড়া প্রতি বছর অনেক বিদ্যালয়ে সাময়িকভাবে কলাগাছ, কাঠ ও বিভিন্ন ধরনের উপকরণ দিয়ে শহীদ মিনার তৈরি করে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করতে দেখা যায়। উপজেলা শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি কাজী মাকসুদুর রহমান সরকারিভাবে প্রত্যেকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মাণ করা দাবি করেন। এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বদরুন নাহার ইয়াসমিন বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের পত্র পেয়ে শহীদ মিনার নির্মাণের জন্য সব প্রতিষ্ঠান প্রধানের কাছে পত্র প্রেরণ করেছি এবং মৌখিকভাবেও পরামর্শ দিচ্ছি।

ছবি

মায়ের জানাজায় ইতালি থেকে এসে নিজেই লাশ হলেন শাহ আলম

ছবি

নরসিংদীতে কলেজ ছাত্র নিহত

ছবি

অবসরের ৬ মাসের মধ্যে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদেরকে ভাতা দেওয়ার নির্দেশ

৯ রোহিঙ্গাকে অনুপ্রবেশের সময় মায়ানমারে ফেরত পাঠাল বিজিবি

ছবি

নোয়াখালীতে খৎনায় ভুল, অতিরিক্ত রক্তপাতে সংকটে শিশুর স্বাস্থ্য

ছবি

রাজধানীর আকাশ মেঘলা আকাশ, কয়েকটি স্থানে বৃষ্টির পূর্বাভাস

ছবি

রাজবাড়ীর শহীদ মিনারে বেদির ফুল নি‌য়ে যাওয়ার ভি‌ডিও ধারণ, সাংবাদিককে মারধর

ছবি

রাজবাড়ীর শহীদ মিনারে বেদির ফুল নি‌য়ে যাওয়ার ভি‌ডিও ধারণ, সাংবাদিককে মারধর

ছবি

গাজীপুরে নিখোঁজ মাদ্রাসা ছাত্রের লাশ উদ্ধার

ছবি

বারি’তে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপিত হয়েছে

ছবি

শহীদ মিনার থেকে ফুল দিয়ে ফেরার পথে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

ছবি

১ কোটি ৬০ লাখ টাকা মূল্যের সোনাসহ এক যাত্রী আটক

ছবি

গাজীপুরে নদী থেকে নিখোঁজ মাদরাসা ছাত্রের লাশ উদ্ধার

ছবি

বরিশালে নিজের ফাঁদে প্রাণ গেল কৃষকের

দুই মেয়েকে বিষ পান করিয়ে মায়েরও বিষ পান, মায়ের মৃত্যু

ছবি

পর্যটকবাহী বাস-পিকআপ সংঘর্ষে দুই নারী নিহত, আহত ১৫

ছবি

টেকনাফ সীমান্তে ফের গোলাগুলির শব্দ, আতঙ্কে সাধারণ মানুষ

ছবি

ফুল দেয়া নিয়ে মৌলভীবাজারে শহীদ মিনারে বাক-বিতন্ডা

ছবি

বারি ও মদিনা টেক এর মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর

ছবি

গাজীপু‌রে সোয়া লাখ পিস ইয়াব উদ্ধার, আটক ৪ মাদক কারবারী

ছবি

গাজীপুরে কারখানা শ্রমিকদের মাঝে নিত্যপণ্য সামগ্রী বিতরণ

ছবি

নওগাঁয় ভয়াবহ ‘প্রক্সিকাণ্ড’ ৫৯ দাখিল পরীক্ষার্থীই ভুয়া

ছবি

অস্ত্রসহ পালিয়ে আসা রোহিঙ্গারা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে : পুলিশ

ছবি

উপজেলা নির্বাচনে জামানত ‘বহুগুণ’ বাড়াতে চায় ইসি

ছবি

নগরীর সমস্যা নিয়ে পোস্টার: কবি ও গ্রাফিক ডিজাইনার শামীম কারাগারে

ছবি

চাঁপাইনবাবগঞ্জে স্কুলছাত্র হত্যায় দুজনের যাবজ্জীবন

ছবি

দাখিল পরীক্ষা দিচ্ছিল অন্যের হয়ে, নওগাঁয় ৫৯ জন আটক

ছবি

কক্সবাজারের সুগন্ধ্যা বীচের নতুন নাম ‘বঙ্গবন্ধু বীচ’

ছবি

গাইবান্ধার ডিসিকে প্রত্যাহারের দাবিতে মানববন্ধন, না মানলে বৃহত্তর কর্মসুচি

ছবি

হত্যার ১৪ বছর পর ৫ জনের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

ঢাকা-কক্সবাজার রুটে ‘বিশেষ ট্রেন’

মোল্লাহাটে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই গ্রুপে সংঘর্ষ, নিহত ১, পুলিশসহ আহত ২৮

শরীয়তপুরে ধুতুরাপাতা খেয়ে নারী ও শিশুসহ একই পরিবারের ৬ জন অসুস্থ, দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

ছবি

মিরপুরে ঝিলপাড় বস্তিতে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৮ ইউনিট

ছবি

জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় মা-ছেলেসহ পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড

ছবি

ঢাকা-কক্সবাজার পথে পাঁচ দিনে ৫ ‘বিশেষ ট্রেন’

tab

সারাদেশ

দুমকীতে অধিকাংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার

প্রতিনিধি, দুমকী (পটুয়াখালী)

বুধবার, ২৯ নভেম্বর ২০২৩

পটুয়াখালীর দুমকি উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার। উপজেলা শিক্ষা ও মাধ্যমিক শিক্ষা দপ্তর সূত্রে জানা যায়, দুমকী উপজেলায় ৬০টি প্রাথমিক, ২৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, ২৩টি মাদ্রাসা ও ৯টি কলেজ রয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার। সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায, ৬০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ২৬টিতে, ২৩টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে ১১টিতে, ২৩টি মাদ্রাসার মধ্যে ৩টিতে এবং ৯টি কলেজের মধ্যে মাত্র ৩টিতে শহীদ মিনার রয়েছে। কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার থাকলেও রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচর্যার অভাবে অরক্ষিত অবস্থায় আছে। উল্লেখ্য গত ৩১ আগস্ট ২০২৩ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)’র এক পরিপত্রে বলা হয়, যে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নাই, তাদেরকে স্ব-ব্যবস্থাপনায় অবিলম্বে শহীদ মিনার নির্মাণ করে ছবিসহ আঞ্চলিক উপ-পরিচালকের মাধ্যমে পাঠানোর অনুরোধ জানানো হলো। বর্তমানে উপজেলা পরিষদের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে শ্রদ্ধা নিবেদন করায় উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শহীদ মিনারগুলো অরক্ষিত অবস্থায় পড়ে আছে বলে সুধীজনরা মনে করেন। তবে শিক্ষকরা ও অভিভাবকরা মনে করেন, প্রত্যেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মাণ করা হলে শিক্ষার্থীদের ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবসের’ ইতিহাস সম্পর্কে অধিকতর জ্ঞান অর্জন হবে। উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানরা জানান, সরকারি নির্দেশনা থাকলেও আর্থিক অসচ্ছলতার কারণে স্থায়ীভাবে শহীদ মিনার নির্মাণ করা সম্ভব হচ্ছে না। উপজেলার কিছু দানবীর ও সমাজসেবকদের মাধ্যমে স্থায়ীভাবে নির্মাণ করা হলেও অধিকাংশ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার। এছাড়া প্রতি বছর অনেক বিদ্যালয়ে সাময়িকভাবে কলাগাছ, কাঠ ও বিভিন্ন ধরনের উপকরণ দিয়ে শহীদ মিনার তৈরি করে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করতে দেখা যায়। উপজেলা শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি কাজী মাকসুদুর রহমান সরকারিভাবে প্রত্যেকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মাণ করা দাবি করেন। এ ব্যাপারে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বদরুন নাহার ইয়াসমিন বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের পত্র পেয়ে শহীদ মিনার নির্মাণের জন্য সব প্রতিষ্ঠান প্রধানের কাছে পত্র প্রেরণ করেছি এবং মৌখিকভাবেও পরামর্শ দিচ্ছি।

back to top