alt

সারাদেশ

দোহারে ব্রি ধান-৮৯ এর ওপর মাঠ দিবস ও কারিগরি সেশন

প্রতিনিধি, দোহার (ঢাকা) : সোমবার, ২০ মে ২০২৪

ঢাকার দোহার উপজেলায় তেলজাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় ব্রি ধান-৮৯ এর উপর মাঠ দিবস ও কারিগরি সেশনের আয়োজন করা হয়েছে।

রোববার দোহার উপজেলার বিলাশপুর ইউনিয়নের কুতুবপুর ব্লক এ প্রায় এক শত কৃষাণ-কৃষাণীর উপস্থিতিতে ২০২৩-২৪ অর্থবছরে তেলজাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় ব্রি ধান-৮৯ এর ওপর মাঠ দিবস ও কারিগরি সেশনের এ আয়োজন করা হয়।

দোহার উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আকতার ফারুক ফুয়াদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- দোহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জাকির হোসেন।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে আমরা সবাই বদ্ধপরিকর। বিভিন্ন ফসলের জাত ও প্রযুক্তি উদ্ভাবন, খামার যান্ত্রিকীকরণ, পরিবেশসম্মত চাষাবাদ প্রভৃতির মাধ্যমে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের মধ্যে পাট রফতানিতে প্রথম, পাট ও কাঁঠাল উৎপাদনে দ্বিতীয়, ধান, সবজি ও পেঁয়াজ উৎপাদনে তৃতীয়, আম ও আলু উৎপাদনে সপ্তম, পেয়ারা উৎপাদনে অষ্টম স্থান অধিকার করে কৃষি উন্নয়নের দৃষ্টান্ত হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দোহার উপজেলা মৎস্য অফিসার শিরিন সুলতানা মুন্নী বলেন, ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্তির লক্ষ্যে কৃষি দপ্তর এর অধীন কৃষিতে সবুজ বিপ্লব চলছে এবং বিজ্ঞানভিত্তিক চাষাবাদ কৌশল সম্প্রসারণ এর মাধ্যমে টেকসই কৃষির মাধ্যমে ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ এর যাত্রার সূচনা হবে বাংলার কৃষি দিয়েই ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দোহার উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার ডা. মো. শামীম হোসেন বলেন, প্রতি ইঞ্চি জমি চাষের আওতায় এনে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে নিরলসভাবে দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কৃষির উন্নয়নের মহাপরিকল্পনাসহ বিভিন্ন কৃষিবান্ধব নীতি, বহুমুখী কর্মসূচির মাধ্যমে কৃষকের পাশে থেকে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের ফলে দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। দোহারের কৃষির উন্নয়নের কর্ম পরিকল্পনার অংশ হিসেবে উপজেলা কৃষি অফিস থেকে তেলজাতীয় ফসলসহ অন্যান্য ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে উফশী জাতের সম্প্রসারণ ও মৌচাষ সম্প্রসারণের বিশেষ পদক্ষেপে কৃষকরা লাভবান হয়েছেন।

দোহার উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আকতার ফারুক ফুয়াদ বলেন, ২০১৮ সালে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক উদ্ভাবিত উচ্চ ফলনশীল নতুন ধানের জাত হলো ব্রি ধান-৮৯, যা বোরো ধানের জাত। ব্রি ধান-৮৯ এর জীবনকাল ব্রি ধান-২৯ এর জীবনকালের চেয়ে ৩-৫ দিন কম, কিন্তু ফলন বেশি। ফলন বেশি ও জীবনকাল কম হওয়ায় যেসব এলাকায় ব্রি ধান-২৯ চাষাবাদ করা হয় সেসব এলাকাতে সহজেই ব্রি ধান-৮৯ চাষ করা যাবে। এই জাতের ধান গাছের কাণ্ড শক্ত, পাতা হালকা সবুজ ও ডিগ পাতা চওড়া। পূর্ণ বয়স্ক গাছের উচ্চতা ১০৬ সেমি হয়ে থাকে। এই জাতের ধানের ছড়া লম্বা হয়। ধান পাকার সময় কাণ্ড ও পাতা সবুজ থাকে। এই জাতের ১ হাজারটি পুষ্ট ধানের ওজন প্রায় ২৪.৪ গ্রাম। এ ধানে অ্যামাইলোজের পরিমাণ শতকরা ২৮ দশমিক ৫। এ জাতের জীবনকাল ব্রি ধান-২৯ এর চেয়ে ৩-৫ দিন আগাম। ব্রি ধান-৮৯ এর জীবনকাল ১৫৪-১৫৮ দিন। এ জাতের গড় ফলন প্রতি হেক্টরে ৮ টন। তবে উপযুক্ত পরিচর্যা পেলে হেক্টর প্রতি ৯.৭ টন পর্যন্ত ফলন হতে পারে।

তিনি আরও জানান, দোহার এ শস্য উৎপাদন বৃদ্ধির পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এলাকা উপযোগী আধুনিক উফশী জাতের সম্প্রসারণ ও হাইব্রিড জাতের এলাকা বৃদ্ধি প্রচেষ্টা গ্রহণ করা হয়েছে। ফলে মানসম্পন্ন বীজের প্রাপ্যতা নিশ্চিতকরণ, কৃষক পর্যায়ে ডিএইর তত্ত্বাবধায়নে উৎপাদিত উফশী বীজ ব্যবহারে কৃষকদেরকে উদ্বুদ্ধকরণ, কৃষকদের পরামর্শ প্রদান, প্রশিক্ষণ এবং প্রদর্শনী প্রাপ্ত কৃষকদের হাতে কলমে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে।

কৃষক সমাবেশে প্রদর্শনী চাষি শহিদ মিয়া জানান, পূর্বে তিনি ব্রি ধান-২৯ আবাদ করতেন। এ মৌসুমে উপজেলা কৃষি দপ্তর থেকে এই জাতের বীজ, সার ও অন্যান্য সেবা পেয়ে তিনি এই জাত আবাদ করেন।

তিনি আরও জানান, অন্যান্য প্রচলিত জাতের চেয়ে ব্রি ধান-৮৯ এ রোগ বালাই ও পোকামাকড়ের আক্রমণ কম হয়। নমুনা শস্য কর্তনে(২০ বর্গমিটার) কর্তিত অংশের ফলন পাওয়া গেছে প্রায় ১৬.৫ কেজি। মাঠ আর্দ্রতা শতকরা ২১ দশমিক ৮, হেক্টর প্রতি ফলন ৮.১ টন এবং চাউলে ৫.৪ টন। এই ফলনে তিনি সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন এবং তিনি বীজ সংরক্ষণ করবেন এবং পরের বছর এ জাত আবার চাষ করবেন ।

ছবি

সুনামগঞ্জে ঈদের আনন্দ মলিন হয়ে গেছে আকস্মিক বন্যায়

ঈশ্বরগঞ্জে ঈদ আনন্দ উপভোগ করা হলনা চাচা ভাতিজার

সখীপুরে গৃহবধূ নিখোঁজের পর পুকুর থেকে লাশ উদ্ধার

দুই ভাইয়ের চিরদিনের ছুটি

সিলেটে তিন নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে

ছবি

ঘড়ি ছাড়াই হাতের দিকে তাকিয়েই সময় বলে দেন ইয়াছিন!

নড়াইলে এবারও ঈদ করতে পারছেন না ২০০ পরিবার,আজাদ হত্যা মামলা নিয়ে উত্তেজনা

ছবি

রংপুরে ঈদ উপলক্ষে বরাদ্দ চাল কালোবাজারে বিক্রি,৪ হাজার কেজি ভিজিএফের চাল উদ্ধার

ছবি

রংপুরে ১৫ কিলোমিটার যানজট, যাত্রীদের চরম দূর্ভোগ

ছবি

বরিশাল জেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন ঘোষণা

ছবি

তিস্তার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, ডুবেছে ফসলি জমি

ছবি

ঈদের দিন ৩ বিভাগে ভারী বৃষ্টির আভাস

রাঙ্গামাটিতে বজ্রপাতে চারজনের মৃত্যু

চাঁদাবাজির অভিয়োগে ৫ পুলিশ সদস্য বরখাস্ত

ছবি

বাড়তি ভাড়ায় ফিটনেসবিহীন লঞ্চে দ্বিগুণ যাত্রী পারাপার

ছবি

জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে খুলে দেওয়া হলো বেনজীরের সাভানা পার্ক

ছবি

সেন্ট মার্টিনে ২৩০০ পরিবারকে চাল সহায়তা

ফরিদপুরে পুলিশের কাছে চাঁদা বন্ধের আবেদন বরলো ইউপি চেয়ারম্যান

সোনারগাঁয়ে গরু বিক্রেতাদের মেরে নগদ টাকা মোবাইল ও গরু ছিনতাই, আহত ৫

ছবি

দেশকে রক্ষার সক্ষমতা আছে: সেনাপ্রধান

ছবি

নাফনদীতে মায়ানমারের ৩টি জাহাজ, নেই কোনো বিস্ফোরণের শব্দ

ছবি

বরিশালে অটোরিকশা-ইজিবাইক মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী নিহত

শেষ সময়ে ঈদে বাড়ি যেতে ঘরমুখো মানুষের ভিড় বেড়েছে সড়ক মহাসড়কে

ছবি

বনানীতে বাসের ধাক্কায় বাইকচালক নিহত

ছবি

কাভার্ডভ্যানের পেছনে লিচুবাহী ট্রাকের ধাক্কা, নিহত ২

ছবি

সামিট-ওরিয়নের দুটিসহ রেন্টাল ৬ বিদ্যুৎকেন্দ্রের মেয়াদ ফের বাড়ছে

ছবি

ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি: র‌্যাবের অভিযানে ১০ জনকে গ্রেপ্তার

ফরিদপুরে পুকুর থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার

ছবি

নিত্যপণ্য নিয়ে কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিন যাচ্ছে জাহাজ

ছবি

রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে অস্ত্র ও গুলিসহ আরসা সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার

ছবি

গাজীপুরে পুকুরে ডুবে দুই মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ছবি

বেতন-বোনাসের দাবিতে কুমিল্লায় শ্রমিক বিক্ষোভ, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ধীরগতি

ছবি

টাঙ্গাইলে মহাসড়‌কে ট্রাক উল্টে ১৫ কিলোমিটার যানজট

ছবি

মাদকের টাকার জন্য ছোট ভাইয়ের সঙ্গে ঝগড়া, নিজের বুকে ছুরি চালাল কিশোর

ছবি

দুম্বা পালন করে স্বাবলম্বী ভৈরবের সবুজ

আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে প্রথমবার জিরা আমদানি

tab

সারাদেশ

দোহারে ব্রি ধান-৮৯ এর ওপর মাঠ দিবস ও কারিগরি সেশন

প্রতিনিধি, দোহার (ঢাকা)

সোমবার, ২০ মে ২০২৪

ঢাকার দোহার উপজেলায় তেলজাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় ব্রি ধান-৮৯ এর উপর মাঠ দিবস ও কারিগরি সেশনের আয়োজন করা হয়েছে।

রোববার দোহার উপজেলার বিলাশপুর ইউনিয়নের কুতুবপুর ব্লক এ প্রায় এক শত কৃষাণ-কৃষাণীর উপস্থিতিতে ২০২৩-২৪ অর্থবছরে তেলজাতীয় ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি প্রকল্পের আওতায় ব্রি ধান-৮৯ এর ওপর মাঠ দিবস ও কারিগরি সেশনের এ আয়োজন করা হয়।

দোহার উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আকতার ফারুক ফুয়াদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- দোহার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জাকির হোসেন।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে আমরা সবাই বদ্ধপরিকর। বিভিন্ন ফসলের জাত ও প্রযুক্তি উদ্ভাবন, খামার যান্ত্রিকীকরণ, পরিবেশসম্মত চাষাবাদ প্রভৃতির মাধ্যমে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের মধ্যে পাট রফতানিতে প্রথম, পাট ও কাঁঠাল উৎপাদনে দ্বিতীয়, ধান, সবজি ও পেঁয়াজ উৎপাদনে তৃতীয়, আম ও আলু উৎপাদনে সপ্তম, পেয়ারা উৎপাদনে অষ্টম স্থান অধিকার করে কৃষি উন্নয়নের দৃষ্টান্ত হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দোহার উপজেলা মৎস্য অফিসার শিরিন সুলতানা মুন্নী বলেন, ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্তির লক্ষ্যে কৃষি দপ্তর এর অধীন কৃষিতে সবুজ বিপ্লব চলছে এবং বিজ্ঞানভিত্তিক চাষাবাদ কৌশল সম্প্রসারণ এর মাধ্যমে টেকসই কৃষির মাধ্যমে ২০৪১ সালের উন্নত বাংলাদেশ এর যাত্রার সূচনা হবে বাংলার কৃষি দিয়েই ।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দোহার উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসার ডা. মো. শামীম হোসেন বলেন, প্রতি ইঞ্চি জমি চাষের আওতায় এনে খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে নিরলসভাবে দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। কৃষির উন্নয়নের মহাপরিকল্পনাসহ বিভিন্ন কৃষিবান্ধব নীতি, বহুমুখী কর্মসূচির মাধ্যমে কৃষকের পাশে থেকে প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদানের ফলে দেশ আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। দোহারের কৃষির উন্নয়নের কর্ম পরিকল্পনার অংশ হিসেবে উপজেলা কৃষি অফিস থেকে তেলজাতীয় ফসলসহ অন্যান্য ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে উফশী জাতের সম্প্রসারণ ও মৌচাষ সম্প্রসারণের বিশেষ পদক্ষেপে কৃষকরা লাভবান হয়েছেন।

দোহার উপজেলা কৃষি অফিসার মো. আকতার ফারুক ফুয়াদ বলেন, ২০১৮ সালে বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট কর্তৃক উদ্ভাবিত উচ্চ ফলনশীল নতুন ধানের জাত হলো ব্রি ধান-৮৯, যা বোরো ধানের জাত। ব্রি ধান-৮৯ এর জীবনকাল ব্রি ধান-২৯ এর জীবনকালের চেয়ে ৩-৫ দিন কম, কিন্তু ফলন বেশি। ফলন বেশি ও জীবনকাল কম হওয়ায় যেসব এলাকায় ব্রি ধান-২৯ চাষাবাদ করা হয় সেসব এলাকাতে সহজেই ব্রি ধান-৮৯ চাষ করা যাবে। এই জাতের ধান গাছের কাণ্ড শক্ত, পাতা হালকা সবুজ ও ডিগ পাতা চওড়া। পূর্ণ বয়স্ক গাছের উচ্চতা ১০৬ সেমি হয়ে থাকে। এই জাতের ধানের ছড়া লম্বা হয়। ধান পাকার সময় কাণ্ড ও পাতা সবুজ থাকে। এই জাতের ১ হাজারটি পুষ্ট ধানের ওজন প্রায় ২৪.৪ গ্রাম। এ ধানে অ্যামাইলোজের পরিমাণ শতকরা ২৮ দশমিক ৫। এ জাতের জীবনকাল ব্রি ধান-২৯ এর চেয়ে ৩-৫ দিন আগাম। ব্রি ধান-৮৯ এর জীবনকাল ১৫৪-১৫৮ দিন। এ জাতের গড় ফলন প্রতি হেক্টরে ৮ টন। তবে উপযুক্ত পরিচর্যা পেলে হেক্টর প্রতি ৯.৭ টন পর্যন্ত ফলন হতে পারে।

তিনি আরও জানান, দোহার এ শস্য উৎপাদন বৃদ্ধির পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এলাকা উপযোগী আধুনিক উফশী জাতের সম্প্রসারণ ও হাইব্রিড জাতের এলাকা বৃদ্ধি প্রচেষ্টা গ্রহণ করা হয়েছে। ফলে মানসম্পন্ন বীজের প্রাপ্যতা নিশ্চিতকরণ, কৃষক পর্যায়ে ডিএইর তত্ত্বাবধায়নে উৎপাদিত উফশী বীজ ব্যবহারে কৃষকদেরকে উদ্বুদ্ধকরণ, কৃষকদের পরামর্শ প্রদান, প্রশিক্ষণ এবং প্রদর্শনী প্রাপ্ত কৃষকদের হাতে কলমে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে।

কৃষক সমাবেশে প্রদর্শনী চাষি শহিদ মিয়া জানান, পূর্বে তিনি ব্রি ধান-২৯ আবাদ করতেন। এ মৌসুমে উপজেলা কৃষি দপ্তর থেকে এই জাতের বীজ, সার ও অন্যান্য সেবা পেয়ে তিনি এই জাত আবাদ করেন।

তিনি আরও জানান, অন্যান্য প্রচলিত জাতের চেয়ে ব্রি ধান-৮৯ এ রোগ বালাই ও পোকামাকড়ের আক্রমণ কম হয়। নমুনা শস্য কর্তনে(২০ বর্গমিটার) কর্তিত অংশের ফলন পাওয়া গেছে প্রায় ১৬.৫ কেজি। মাঠ আর্দ্রতা শতকরা ২১ দশমিক ৮, হেক্টর প্রতি ফলন ৮.১ টন এবং চাউলে ৫.৪ টন। এই ফলনে তিনি সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন এবং তিনি বীজ সংরক্ষণ করবেন এবং পরের বছর এ জাত আবার চাষ করবেন ।

back to top