alt

সারাদেশ

বাঁশখালী ছনুয়া-কুতুবদিয়া জেটিঘাট এখন মরণ ফাঁদ

প্রতিনিধি, বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) : শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

চট্টগ্রামের বাঁশখালী ছনুয়া-কুতুবদিয়া জেটিঘাট এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। বাঁশখালীর সাগরপাড়ে অবস্থিত কুতুবদিয়া ও বাঁশখালীর মানুষের পারাপারের অন্যতম মাধ্যম এ ছনুয়া-কুতুবদিয়া টার্মিনাল জেটিঘাটটি কয়েক যুগ পেরিয়ে গেলেও সংস্কারের মুখ দেখেনি। অযত্ন অবহেলায় পড়ে থাকা এ কাঠের তৈরি জেটি ঘাট যেন কালের সাক্ষী। দেশের সব জায়গায় কমবেশি আধুনিকতার ছোঁয়া লাগলেও ছনুয়া জেটিঘাট এখনও সেই মান্ধাতার আমলের কাঠের তৈরি। বাঁশ ও কাঠের তৈরি নড়বড়ে জেটিঘাটটি মাঝখান বরাবর দেবে গেছে। সাগরের সঙ্গে সংযোগ ঘাটের ১০ থেকে ১২ ফুটের মতো দীর্ঘ অংশ মূল জেটিঘাট থেকে ঝুলে আছে।

জোয়ার ভাঁটার দোল খেয়ে নড়বড়ে হয়ে গেছে কাঠের নাট বল্টু, মারাত্মক ঝুঁকি মাথায় নিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার যাত্রী পারাপার হচ্ছে। অথচ বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন (বিআইডব্লিউটিএ) চট্টগ্রাম এর অধীনে প্রতি বছর লাখ লাখ টাকার ডাক হয়। সরকারি রাজস্ব আদায় হলেও ছনুয়া জেটিঘাটটি সংস্কার না হওয়ায় ঝুলে আছে উভয় অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা। প্রয়োজনের তাগিদে জীবনের চরম ঝুঁকি নিয়ে ছনুয়া জেটিঘাটকেই ব্যবহার করছে শিশু থেকে বৃদ্ধাসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ।

চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনের সংসদ সদস্য, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ মুজিবুর রহমান সিআইপি এমপি বলেছেন, ‘ছনুয়াঘাট আরসিসি হওয়ার বিষয়ে সব কাগজপত্র চলে আসছে। ইনশাআল্লাহ ঘাট হয়ে যাবে। কুতুবদিয়া থেকে যে চ্যানেলে আপনারা বোট নিয়ে চলাচল করেন, সে সমস্যা সমাধানের জন্য টেম্পু স্থাপন করা হবে। ফেরির নতুন ভার্সন টেম্পু। ১০০ থেকে ২০০ মতো মানুষ ও কয়েকটা গাড়ি চলাচল করতে পারবে টেম্পুর মাধ্যমে। ছনুয়ার উন্নয়ন মানে বাঁশখালীর উন্নয়ন বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

ছনুয়া জেটিঘাটটি সংস্কার হলে উভয় অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থার বৈপ্লবিক পরিবর্তন হবে।

জানা যায়, ছনুয়া টার্মিনাল জেটিঘাট হয়ে প্রতিনিয়ত লোকজন করেন। এছাড়া কুতুবদিয়ার প্রখ্যাত আউলিয়া, পীরে কামেল আবদুল মালেক শাহ (রহ.)’র মাজার শরীফ জিয়ারত করার জন্য প্রতিদিন দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে হাজার হাজার ভক্ত-আশেক ও মুরিদানরা মাজার জিয়ারত করতে আসেন এই জেটি দিয়ে। অধিকাংশ মানুষের কুতুবদিয়া-বাঁশখালী যাতায়তের একমাত্র মাধ্যম এই ছনুয়া জেটিঘাট। অন্যদিকে কুতুবদিয়া-ছনুয়ার অধিকাংশ লবণ ও বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার ট্রলার প্রতিনিয়ত এ ঘাটই ব্যবহার করে থাকে।

বাঁশখালীর ব্যবসায়ী আনছার, ফজলুল কাদের ও আবদু ছোবহান জানান, ছনুয়া জেটিঘাট দিয়ে কুতুবদিয়ার ধুরুংঘাট ও আকবলীর ঘাটে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করছে উভয় অঞ্চলের লোকজন। বিশেষ করে শহর থেকে ব্যবসায়ের জন্য বিভিন্ন মালামাল বহন করতে, নিয়মিত যাতায়াতে এ ঘাটটিই আমরা ব্যবহার করছি চরম ঝুঁকি নিয়ে। যে কোনো সময় ভয়ানক দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে বলেও আশঙ্কা করেন ব্যবসায়ীরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে জেটিঘাটের রাস্তায় সরকারি জায়গা দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে ২টি দোকান। সরকারি জায়গা দখল করে নির্মিত ওই দোকান গুলোতে প্রকাশ্যে মালামাল বিক্রি হলেও রহস্যজনক কারণে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন যেন নীরব দর্শক।

ছনুয়া টার্মিনাল জেটিঘাটের সাবেক ইজারাদার শমসের শরিফী বলেন, বিআইডব্লিটি-এর অধীনে অন্যান্য স্থানের ঘাটগুলো পাকা থাকলেও বাঁশখালী অংশে ছনুয়া মনু মিয়াজিঘাট এখনও পর্যন্ত জরাজীর্ণ অবস্থায় আছে।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন (বিআইডব্লিউটিএ) চট্টগ্রামের উপ-পরিচালক নয়ন শীল দৈনিক সংবাদকে বলেন, কুতুবদিয়া-বাঁশখালী সংযোগ ছনুয়া মনুমিয়াজি জেটিঘাটটির বেহাল অবস্থার বিষয়ে আমি অবগত হয়েছি। ছনুয়া জেটিঘাট সংস্কার করার জন্য টেন্ডার আহবান করা হয়েছে। টেন্ডার বাস্তবায়ন হলে খুব শীঘ্রই সংস্কার করা হবে।

ছবি

সুনামগঞ্জে ঈদের আনন্দ মলিন হয়ে গেছে আকস্মিক বন্যায়

ঈশ্বরগঞ্জে ঈদ আনন্দ উপভোগ করা হলনা চাচা ভাতিজার

সখীপুরে গৃহবধূ নিখোঁজের পর পুকুর থেকে লাশ উদ্ধার

দুই ভাইয়ের চিরদিনের ছুটি

সিলেটে তিন নদীর পানি বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে

ছবি

ঘড়ি ছাড়াই হাতের দিকে তাকিয়েই সময় বলে দেন ইয়াছিন!

নড়াইলে এবারও ঈদ করতে পারছেন না ২০০ পরিবার,আজাদ হত্যা মামলা নিয়ে উত্তেজনা

ছবি

রংপুরে ঈদ উপলক্ষে বরাদ্দ চাল কালোবাজারে বিক্রি,৪ হাজার কেজি ভিজিএফের চাল উদ্ধার

ছবি

রংপুরে ১৫ কিলোমিটার যানজট, যাত্রীদের চরম দূর্ভোগ

ছবি

বরিশাল জেলাকে ভূমিহীন ও গৃহহীন ঘোষণা

ছবি

তিস্তার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, ডুবেছে ফসলি জমি

ছবি

ঈদের দিন ৩ বিভাগে ভারী বৃষ্টির আভাস

রাঙ্গামাটিতে বজ্রপাতে চারজনের মৃত্যু

চাঁদাবাজির অভিয়োগে ৫ পুলিশ সদস্য বরখাস্ত

ছবি

বাড়তি ভাড়ায় ফিটনেসবিহীন লঞ্চে দ্বিগুণ যাত্রী পারাপার

ছবি

জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে খুলে দেওয়া হলো বেনজীরের সাভানা পার্ক

ছবি

সেন্ট মার্টিনে ২৩০০ পরিবারকে চাল সহায়তা

ফরিদপুরে পুলিশের কাছে চাঁদা বন্ধের আবেদন বরলো ইউপি চেয়ারম্যান

সোনারগাঁয়ে গরু বিক্রেতাদের মেরে নগদ টাকা মোবাইল ও গরু ছিনতাই, আহত ৫

ছবি

দেশকে রক্ষার সক্ষমতা আছে: সেনাপ্রধান

ছবি

নাফনদীতে মায়ানমারের ৩টি জাহাজ, নেই কোনো বিস্ফোরণের শব্দ

ছবি

বরিশালে অটোরিকশা-ইজিবাইক মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী নিহত

শেষ সময়ে ঈদে বাড়ি যেতে ঘরমুখো মানুষের ভিড় বেড়েছে সড়ক মহাসড়কে

ছবি

বনানীতে বাসের ধাক্কায় বাইকচালক নিহত

ছবি

কাভার্ডভ্যানের পেছনে লিচুবাহী ট্রাকের ধাক্কা, নিহত ২

ছবি

সামিট-ওরিয়নের দুটিসহ রেন্টাল ৬ বিদ্যুৎকেন্দ্রের মেয়াদ ফের বাড়ছে

ছবি

ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি: র‌্যাবের অভিযানে ১০ জনকে গ্রেপ্তার

ফরিদপুরে পুকুর থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার

ছবি

নিত্যপণ্য নিয়ে কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিন যাচ্ছে জাহাজ

ছবি

রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে অস্ত্র ও গুলিসহ আরসা সন্ত্রাসী গ্রেপ্তার

ছবি

গাজীপুরে পুকুরে ডুবে দুই মাদ্রাসা শিক্ষার্থীর মৃত্যু

ছবি

বেতন-বোনাসের দাবিতে কুমিল্লায় শ্রমিক বিক্ষোভ, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ধীরগতি

ছবি

টাঙ্গাইলে মহাসড়‌কে ট্রাক উল্টে ১৫ কিলোমিটার যানজট

ছবি

মাদকের টাকার জন্য ছোট ভাইয়ের সঙ্গে ঝগড়া, নিজের বুকে ছুরি চালাল কিশোর

ছবি

দুম্বা পালন করে স্বাবলম্বী ভৈরবের সবুজ

আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে প্রথমবার জিরা আমদানি

tab

সারাদেশ

বাঁশখালী ছনুয়া-কুতুবদিয়া জেটিঘাট এখন মরণ ফাঁদ

প্রতিনিধি, বাঁশখালী (চট্টগ্রাম)

শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪

চট্টগ্রামের বাঁশখালী ছনুয়া-কুতুবদিয়া জেটিঘাট এখন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। বাঁশখালীর সাগরপাড়ে অবস্থিত কুতুবদিয়া ও বাঁশখালীর মানুষের পারাপারের অন্যতম মাধ্যম এ ছনুয়া-কুতুবদিয়া টার্মিনাল জেটিঘাটটি কয়েক যুগ পেরিয়ে গেলেও সংস্কারের মুখ দেখেনি। অযত্ন অবহেলায় পড়ে থাকা এ কাঠের তৈরি জেটি ঘাট যেন কালের সাক্ষী। দেশের সব জায়গায় কমবেশি আধুনিকতার ছোঁয়া লাগলেও ছনুয়া জেটিঘাট এখনও সেই মান্ধাতার আমলের কাঠের তৈরি। বাঁশ ও কাঠের তৈরি নড়বড়ে জেটিঘাটটি মাঝখান বরাবর দেবে গেছে। সাগরের সঙ্গে সংযোগ ঘাটের ১০ থেকে ১২ ফুটের মতো দীর্ঘ অংশ মূল জেটিঘাট থেকে ঝুলে আছে।

জোয়ার ভাঁটার দোল খেয়ে নড়বড়ে হয়ে গেছে কাঠের নাট বল্টু, মারাত্মক ঝুঁকি মাথায় নিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার যাত্রী পারাপার হচ্ছে। অথচ বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন (বিআইডব্লিউটিএ) চট্টগ্রাম এর অধীনে প্রতি বছর লাখ লাখ টাকার ডাক হয়। সরকারি রাজস্ব আদায় হলেও ছনুয়া জেটিঘাটটি সংস্কার না হওয়ায় ঝুলে আছে উভয় অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা। প্রয়োজনের তাগিদে জীবনের চরম ঝুঁকি নিয়ে ছনুয়া জেটিঘাটকেই ব্যবহার করছে শিশু থেকে বৃদ্ধাসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ।

চট্টগ্রাম-১৬ (বাঁশখালী) আসনের সংসদ সদস্য, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ মুজিবুর রহমান সিআইপি এমপি বলেছেন, ‘ছনুয়াঘাট আরসিসি হওয়ার বিষয়ে সব কাগজপত্র চলে আসছে। ইনশাআল্লাহ ঘাট হয়ে যাবে। কুতুবদিয়া থেকে যে চ্যানেলে আপনারা বোট নিয়ে চলাচল করেন, সে সমস্যা সমাধানের জন্য টেম্পু স্থাপন করা হবে। ফেরির নতুন ভার্সন টেম্পু। ১০০ থেকে ২০০ মতো মানুষ ও কয়েকটা গাড়ি চলাচল করতে পারবে টেম্পুর মাধ্যমে। ছনুয়ার উন্নয়ন মানে বাঁশখালীর উন্নয়ন বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

ছনুয়া জেটিঘাটটি সংস্কার হলে উভয় অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থার বৈপ্লবিক পরিবর্তন হবে।

জানা যায়, ছনুয়া টার্মিনাল জেটিঘাট হয়ে প্রতিনিয়ত লোকজন করেন। এছাড়া কুতুবদিয়ার প্রখ্যাত আউলিয়া, পীরে কামেল আবদুল মালেক শাহ (রহ.)’র মাজার শরীফ জিয়ারত করার জন্য প্রতিদিন দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে হাজার হাজার ভক্ত-আশেক ও মুরিদানরা মাজার জিয়ারত করতে আসেন এই জেটি দিয়ে। অধিকাংশ মানুষের কুতুবদিয়া-বাঁশখালী যাতায়তের একমাত্র মাধ্যম এই ছনুয়া জেটিঘাট। অন্যদিকে কুতুবদিয়া-ছনুয়ার অধিকাংশ লবণ ও বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার ট্রলার প্রতিনিয়ত এ ঘাটই ব্যবহার করে থাকে।

বাঁশখালীর ব্যবসায়ী আনছার, ফজলুল কাদের ও আবদু ছোবহান জানান, ছনুয়া জেটিঘাট দিয়ে কুতুবদিয়ার ধুরুংঘাট ও আকবলীর ঘাটে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করছে উভয় অঞ্চলের লোকজন। বিশেষ করে শহর থেকে ব্যবসায়ের জন্য বিভিন্ন মালামাল বহন করতে, নিয়মিত যাতায়াতে এ ঘাটটিই আমরা ব্যবহার করছি চরম ঝুঁকি নিয়ে। যে কোনো সময় ভয়ানক দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে বলেও আশঙ্কা করেন ব্যবসায়ীরা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে জেটিঘাটের রাস্তায় সরকারি জায়গা দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে ২টি দোকান। সরকারি জায়গা দখল করে নির্মিত ওই দোকান গুলোতে প্রকাশ্যে মালামাল বিক্রি হলেও রহস্যজনক কারণে সংশ্লিষ্ট প্রশাসন যেন নীরব দর্শক।

ছনুয়া টার্মিনাল জেটিঘাটের সাবেক ইজারাদার শমসের শরিফী বলেন, বিআইডব্লিটি-এর অধীনে অন্যান্য স্থানের ঘাটগুলো পাকা থাকলেও বাঁশখালী অংশে ছনুয়া মনু মিয়াজিঘাট এখনও পর্যন্ত জরাজীর্ণ অবস্থায় আছে।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন (বিআইডব্লিউটিএ) চট্টগ্রামের উপ-পরিচালক নয়ন শীল দৈনিক সংবাদকে বলেন, কুতুবদিয়া-বাঁশখালী সংযোগ ছনুয়া মনুমিয়াজি জেটিঘাটটির বেহাল অবস্থার বিষয়ে আমি অবগত হয়েছি। ছনুয়া জেটিঘাট সংস্কার করার জন্য টেন্ডার আহবান করা হয়েছে। টেন্ডার বাস্তবায়ন হলে খুব শীঘ্রই সংস্কার করা হবে।

back to top