alt

সারাদেশ

স্কুলে থাকা উচিত দীপ্তি রানীর, বন্দিশালায় নয়: অ্যামনেস্টি

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক: : বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২১

কলেজ ছাত্রী দীপ্তি রানী দাস ফেইসবুকে ‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত’ এনে পোস্ট দেওয়ার অভিযোগে এক বছরের বেশি সময় সংশোধন কেন্দ্রে আটকে রাখায় মুক্তি দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) এক বিবৃতিতে এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘জরুরি পদক্ষেপ’ চেয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

গত বছরের ২৮ অগাস্ট ফেইসবুকে দেওয়া একটি ছবিতে ‘কোরআন অবমাননা’ হয়েছে অভিযোগ করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় দিনাজপুরের পার্বতীপুরের ১৭ বছর বয়সী দীপ্তি রানীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর পর থেকে তিনি রাজশাহীর একটি সংশোধন কেন্দ্রে আছেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত’ দেওয়ার এই ‘ভুয়া অভিযোগে’ দোষী সাব্যস্ত হলে তার সাত বছরের জেলও হতে পারে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের দক্ষিণ এশিয়ার ক্যাম্পেইনার সাদ হামাদি বলেন, “কেবলমাত্র ফেইসবুক পোস্টের কারণে একটি শিশুর বিকাশের সময়টিতে সাজা দিয়ে আটকে রাখায় উদ্বিগ্ন না হয়ে উপায় নেই। তিনি আরও বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মত নিবর্তনমূলক আইন কাউকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে তুলতে কতটা কার্যকর, এখানে সেটাই দেখা যাচ্ছে।

রাষ্ট্রকে জনগণের অভিভাবক হিসেবে বর্ণনা করে বিবৃতিতে তিনি বলেন, “নিরাপত্তা না দিয়ে, কিশোর বয়সী একটি মেয়েকে এক বছরের বেশি সময় সংশোধন কেন্দ্রে দুর্ভোগে রাখা হয়েছে। দীপ্তি রানীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে থাকা উচিত, বন্দিশালায় নয়।”

অ্যামনেস্টি জানিয়েছে, গত বছর অগাস্টে দীপ্তি রানী পার্বতীপুর সরকারি কলেজে মানবিক শাখায় ভর্তি হয়েছিলেন। কিন্তু আটকের পর থেকে তিনি পড়ালেখা চালিয়ে যেতে পারছেন না।

বিজ্ঞান বিভাগে পড়তে চাইলেও পরিবারের আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে মানবিকে ভর্তি হওয়া দীপ্তি রানী ছবি আঁকতে এবং গল্প লিখতে ভালবাসেন।

গ্রেপ্তারের পর নিম্ন আদালতে তিনবার তার জামিন আবেদন খারিজ করা হয়। পরে চলতি বছর ১১ মে হাই কোর্ট তার জামিন মঞ্জুর করলেও রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনে সে আদেশ স্থগিত করে আদালত।

দীপ্তি, তার পরিবার এবং বাংলাদেশের ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ‘সাম্প্রদায়িক ও রাজনৈতিকভাবে প্রভাবিত’ সহিংসতা থেকে রক্ষার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

অ্যামনেস্টি আরও জানিয়েছে, মত প্রকাশের কারণে গ্রেপ্তার সবাইকে মুক্তি দেওয়ার পাশাপাশি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বিলোপ অথবা আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সংশোধনেরও আহ্বান জানানো হয়েছে।

ছবি

সড়কে ফের নিহত সাংবাদিক ও শিক্ষার্থী

নভেম্বরে সড়কে ঝরলো ৪১৩ জনের প্রাণ

ছবি

নারী শ্রমিকদের জন্য পোশাক কারখানায় স্যানিটারি ন্যাপকিন ভেন্ডিং মেশিন স্থাপন করছে বিকাশ

ছবি

সেন্টমার্টিনে জাহাজ চলাচল বন্ধ ঘোষণা

ছবি

ব্যঙ্গচিত্র নিয়ে রোববার রাস্তায় নামবে শিক্ষার্থীরা

ছবি

ডুমুরিয়ার শুঁটকি যাচ্ছে বিদেশে

তিন যমজ শিশু নিয়ে দিশেহারা হতদরিদ্র বাবা

বাগেরহাটে মাদরাসা থেকে ছাত্র নিখোঁজ : জিডি

ছবি

পাহাড়ে বসতি! মাটি চাপায় শিশুর মৃত্যু

ছবি

গেস্ট হাউসে পর্যটকের মরদেহ, তরুণী আটক

ছবি

সুপেয় পানির তীব্র সঙ্কট, দুর্ভোগে ৬০ হাজার মানুষ

ছবি

কক্সবাজার বিমানবন্দরে দায়িত্ব পালন করছেন বিমানবাহিনী

ছবি

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ এর প্রভাবে ঝালকাঠির আকাশ মেঘাচ্ছন্ন

ছবি

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাবে উত্তাল সাগর: ৩ নম্বর সংকেত

চাঁপাইনবাবগঞ্জে জমি বিবাদে নিহত এক

ছবি

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদের প্রভাব দেখা দিতে শুরু করেছে বরগুনায়

ছবি

কাটাখালির মেয়র আব্বাসের দুই ভবন ভেঙে দিয়েছে প্রশাসন

ছবি

হঠাৎ বিচ্ছিন্ন বগির সংযোগ, ১ ঘণ্টা রেল যোগাযোগ বন্ধ

ছবি

‘জঙ্গি আস্তানা’ সন্দেহে ঘিরে রাখা বাড়ি থেকে বোমা ও বোমার সরঞ্জাম উদ্ধার

ছবি

চট্টগ্রামে ট্রেনের ধাক্কায় অটোরিকশা চুরমার, ২ জন নিহত

ছবি

হাকিমপুরে ৮ গ্রামে পুরুষ শূন্য, আতঙ্কে শিশু ও মহিলারা

ছবি

লক্ষ্মীপুরে বিদ্রোহী প্রার্থীকে হত্যার হুমকির অভিযোগ থানায়

ছবি

নীলফামারীতে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে বাড়ি ঘিরে রেখেছে র‍্যাব

ছবি

ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ : পটুয়াখালীতে বৃষ্টি শুরু

ছবি

উন্নয়নে ৪০ প্রকল্পের কাজ শেষ হয়নি ১০ বছরেও

ছবি

সড়কে অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতির কারণে দুর্ঘটনা ঘটছে

ছবি

নারায়ণগঞ্জ সিটিতে আবারও নৌকার মাঝি আইভী

ছবি

পঞ্চাশোর্ধ জরাজীর্ণ ভবনে পাঠদান : দুর্ঘটনার আশঙ্কা

পঞ্চগড়ে প্রথম স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা ওড়ে : মুক্তিযুদ্ধমন্ত্রী

ছবি

নোয়াখালীতে দুই শিক্ষককে পরীক্ষার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি

ছবি

প্রয়াত স্বামীর মুক্তিযোদ্ধা স্বীকৃতি দেখে যেতে চান সত্তরোর্ধ্ব স্ত্রী

সীতাকুন্ডে ট্রাকের ধাক্কায় অটোযাত্রী নিহত আহত ৪

ছবি

ভাসানচরের ৬৫ রোহিঙ্গা স্বজনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে কক্সবাজারে

ছবি

কক্সবাজারে বর্ণাঢ্য আয়োজনে প্রতিবন্ধী দিবস পালন

চামড়া সংরক্ষণে অত্যাধুনিক কোল্ড স্টোরেজ হচ্ছে বিভিন্ন জেলায়

ভোটের ফল পরিবর্তনের অভিযোগ : পুনঃগণনার দাবি

tab

সারাদেশ

স্কুলে থাকা উচিত দীপ্তি রানীর, বন্দিশালায় নয়: অ্যামনেস্টি

সংবাদ অনলাইন ডেস্ক:

বৃহস্পতিবার, ২৫ নভেম্বর ২০২১

কলেজ ছাত্রী দীপ্তি রানী দাস ফেইসবুকে ‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত’ এনে পোস্ট দেওয়ার অভিযোগে এক বছরের বেশি সময় সংশোধন কেন্দ্রে আটকে রাখায় মুক্তি দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) এক বিবৃতিতে এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ‘জরুরি পদক্ষেপ’ চেয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

গত বছরের ২৮ অগাস্ট ফেইসবুকে দেওয়া একটি ছবিতে ‘কোরআন অবমাননা’ হয়েছে অভিযোগ করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় দিনাজপুরের পার্বতীপুরের ১৭ বছর বয়সী দীপ্তি রানীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর পর থেকে তিনি রাজশাহীর একটি সংশোধন কেন্দ্রে আছেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত’ দেওয়ার এই ‘ভুয়া অভিযোগে’ দোষী সাব্যস্ত হলে তার সাত বছরের জেলও হতে পারে।

অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের দক্ষিণ এশিয়ার ক্যাম্পেইনার সাদ হামাদি বলেন, “কেবলমাত্র ফেইসবুক পোস্টের কারণে একটি শিশুর বিকাশের সময়টিতে সাজা দিয়ে আটকে রাখায় উদ্বিগ্ন না হয়ে উপায় নেই। তিনি আরও বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মত নিবর্তনমূলক আইন কাউকে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত করে তুলতে কতটা কার্যকর, এখানে সেটাই দেখা যাচ্ছে।

রাষ্ট্রকে জনগণের অভিভাবক হিসেবে বর্ণনা করে বিবৃতিতে তিনি বলেন, “নিরাপত্তা না দিয়ে, কিশোর বয়সী একটি মেয়েকে এক বছরের বেশি সময় সংশোধন কেন্দ্রে দুর্ভোগে রাখা হয়েছে। দীপ্তি রানীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে থাকা উচিত, বন্দিশালায় নয়।”

অ্যামনেস্টি জানিয়েছে, গত বছর অগাস্টে দীপ্তি রানী পার্বতীপুর সরকারি কলেজে মানবিক শাখায় ভর্তি হয়েছিলেন। কিন্তু আটকের পর থেকে তিনি পড়ালেখা চালিয়ে যেতে পারছেন না।

বিজ্ঞান বিভাগে পড়তে চাইলেও পরিবারের আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে মানবিকে ভর্তি হওয়া দীপ্তি রানী ছবি আঁকতে এবং গল্প লিখতে ভালবাসেন।

গ্রেপ্তারের পর নিম্ন আদালতে তিনবার তার জামিন আবেদন খারিজ করা হয়। পরে চলতি বছর ১১ মে হাই কোর্ট তার জামিন মঞ্জুর করলেও রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনে সে আদেশ স্থগিত করে আদালত।

দীপ্তি, তার পরিবার এবং বাংলাদেশের ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের ‘সাম্প্রদায়িক ও রাজনৈতিকভাবে প্রভাবিত’ সহিংসতা থেকে রক্ষার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

অ্যামনেস্টি আরও জানিয়েছে, মত প্রকাশের কারণে গ্রেপ্তার সবাইকে মুক্তি দেওয়ার পাশাপাশি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বিলোপ অথবা আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সংশোধনেরও আহ্বান জানানো হয়েছে।

back to top