alt

সারাদেশ

ডেঙ্গু : আক্রান্ত ১৮ হাজার ছাড়ালো

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট : বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২

২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩৪৪ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকায় ২৭০ জন ভর্তি হয়েছে। এ নিয়ে হাসপাতালে এখন ভর্তি আছে ২ হাজার ১৫৬ জন। ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে দুইজন। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৬৩ জন।

মহাখালী স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমাজেন্সি অ্যান্ড অপারেশন সেন্টারের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডা. জাহিদুল ইসলাম জানান, চলতি বছরের বুধবার (৫ অক্টোবর) সকাল পর্যন্ত ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ১৮ হাজার ৬৪৬ জন। চিকিৎসা শেষে ছাড়পত্র নিয়েছে ১৬ হাজার ৪২৭ জন।

হাসপাতালের তথ্য মতে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২১ জন, মিটফোর্ড হাসপাতালে ৫১ জন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ১৬ জন, কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালে ১৫ জন ভর্তি হয়েছে। ইউনাইটেড হাসপাতালে ১৫ জন, ইসলামী ব্যাংক সেন্ট্রাল হাসপাতালে ৯ জন ভর্তি হয়েছে।

ঢাকার বাইরে মাদারীপুরে ১৩ জন, চট্টগ্রামে ২০ জন, বরগুনায় ৪ জনসহ বিভিন্ন জেলা হাসপাতালে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত রোগ ভর্তি হয়েছে। মাসিক তথ্যে জানা গেছে, চলতি মাসের বুধবার সকাল পর্যন্ত ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ২ হাজার ৫৫৪জন।

কীটতত্ত্ব বিশেষজ্ঞদের মতে, বর্তমান আবহাওয়া ডেঙ্গুজ্বরের বাহক এডিশ মশার প্রজনন ও বংশ বিস্তারের জন্য উপযোগী। আর থেমে থেমে বৃষ্টির কারণে এডিশ মশার প্রজনন ও বংশবিস্তার ঘটছে।

হাসপাতাল ও বাসাবাড়িতে আক্রান্তরা অনেকেই মশারি টানিয়ে ঘুমান না। আবার অনেকের মশারিও নেই। আবার জেলা পর্যায়ে কক্সবাজার হোটেল-মোটেল জোনে পর্যটকদের মশারি ছাড়াই ঘুমাতে দেয়া হয়। আবার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অনেকেই মশারি ছাড়াই ঘুমায়। এ কারণে আক্রান্ত ব্যক্তিকে নতুন করে কোন মশা কামড় দিয়ে আবার সুস্থ ব্যক্তিকে একই মশা কামড় দিলে সেও নতুন করে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এখন গ্রামগঞ্জে পাকা রাস্তা ও বাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে। সেখানে নির্মণাধীন ভবনের ছাদে বা রাস্তায় জমে থাকা পানিতে ডেঙ্গুজ্বরের বাহক এডিশ মশার প্রজনন ও বংশবিস্তার ঘটছে। এভাবে ডেঙ্গুজ্বর এখন শহর থেকে গ্রামগঞ্জ পর্যন্ত পৌঁছেছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, বছরজুড়ে এডিশ মশা দমন করতে হয়। কিন্তু তা না করায় সর্বত্রই মশার বিস্তার, বাসাবাড়ি, প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, স্কুল-কলেজ, এমনকি যানবাহনে মশা এক স্থান থেকে অন্য স্থানে ছড়ায়। ফলে দিন দিন পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাচ্ছে।

তাই মশা থেকে বাঁচতে নিজেদের সতর্ক হয়ে থাকতে হবে। নিজের বাসাবাড়ি নিজেদের পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করতে হবে। সবাই সচেতন ও সতর্ক হলে পরিস্থিতির উন্নতি হবে বলে বিশেষজ্ঞরা মন্তব্য করেন।

দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে সমন জারি

ঋণের কিস্তির চাপে গৃহবধূর আত্মহত্যা

ছবি

লালমনিরহাটে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১০

ছবি

প্রধানমন্ত্রীর জনসভার উদ্দেশে সাগর পাড়ি দিয়ে এলেন নেতাকর্মীরা

ছবি

খালেদা জিয়ার বাসার সামনে পুলিশের তল্লাশিচৌকি

প্রতিপক্ষের গুলিতে নরসিংদীতে ইউপি চেয়ারম্যান নিহত

ছবি

জেলেদের জালে আটকা পড়েছে শত শত জেলিফিস

দুর্নীতির খবর সংগ্রহে গিয়ে মেম্বারের হামলার শিকার সাংবাদিকরা

ছবি

বিবাদে অর্ধশতাধিক ফলন্ত গাছ কর্তন

ছবি

নিলামের অভাবে নষ্ট হচ্ছে অর্ধশতাধিক পরিত্যক্ত ভবন, বাড়ছে দুর্ঘটনার ঝুঁকি

অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৮ মেম্বারের অনাস্থা

নসিমন উল্টে নিহত ১ আহত ১০ জন

ছবি

যমুনার চরে ক্যাপসিকাম বিপ্লব

সিংড়ায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধসহ আহত ২০

বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে সমন্বয় সভা

ছবি

বেনারসি পল্লী ১৮ বছর পরও ধুঁকে ধুঁকে চলছে!

ছবি

চুনারুঘাটে জমে উঠেছে গরম কাপড়ের বাজার

ছবি

মুঠোফোনের নেটওয়ার্ক দুর্বল, ইন্টারনেট নেই

ছবি

চবিতে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে আহত ১৫

ছবি

মিডিয়া কার্ডে খালেদা-তারেকের ছবি, সাংবাদিকদের আপত্তি

ছবি

কুষ্টিয়ার ট্রাকচাপায় ২ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ছবি

বিস্ফোরণে উড়ে গেল তৃণমূল নেতার বাড়ি, নিহত ৩

ছবি

বরিশালে পার্বত্য শান্তি চুক্তি দিবসে সমাবেশ ও র‌্যালি অনুষ্ঠিত

প্রতিবন্ধী ভাতা ৫ হাজার টাকা করার দাবি

২০ দিন পর শিশুর মরদেহ উদ্ধার

মৃত বাবাকে বাড়িতে রেখে এইচএসসি পরীক্ষা দিল লিপি

ছবি

প্রাথমিক বিদ্যালয় উচ্ছেদের পাঁয়তারা

ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মেম্বারদের অনাস্থা

ঈশ্বরদীতে পরিচ্ছন্নতাকর্মী নিহত

ছবি

পাখি শিকারীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার পরিবেশ কর্মীরা

মাদ্রাসা সভাপতির বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ

ছবি

মুক্তিযোদ্ধা দিবসে নারায়ণগঞ্জে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা

ছবি

সওজের জমিতে লক্ষ লক্ষ টাকার দোকান বাণিজ্য

সড়কে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে বোমা বিস্ফোরণ ৪ বোমা উদ্ধার

সড়কে ঝরল বাইক আরোহীসহ তিনজন

ছবি

ঢাকা আহছানিয়া মিশনের আয়োজনে বিশ্ব এইডস দিবস পালিত

tab

সারাদেশ

ডেঙ্গু : আক্রান্ত ১৮ হাজার ছাড়ালো

সংবাদ অনলাইন রিপোর্ট

বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২

২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩৪৪ জন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকায় ২৭০ জন ভর্তি হয়েছে। এ নিয়ে হাসপাতালে এখন ভর্তি আছে ২ হাজার ১৫৬ জন। ২৪ ঘণ্টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে দুইজন। এ নিয়ে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ৬৩ জন।

মহাখালী স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমাজেন্সি অ্যান্ড অপারেশন সেন্টারের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ডা. জাহিদুল ইসলাম জানান, চলতি বছরের বুধবার (৫ অক্টোবর) সকাল পর্যন্ত ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ১৮ হাজার ৬৪৬ জন। চিকিৎসা শেষে ছাড়পত্র নিয়েছে ১৬ হাজার ৪২৭ জন।

হাসপাতালের তথ্য মতে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২১ জন, মিটফোর্ড হাসপাতালে ৫১ জন, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে ১৬ জন, কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালে ১৫ জন ভর্তি হয়েছে। ইউনাইটেড হাসপাতালে ১৫ জন, ইসলামী ব্যাংক সেন্ট্রাল হাসপাতালে ৯ জন ভর্তি হয়েছে।

ঢাকার বাইরে মাদারীপুরে ১৩ জন, চট্টগ্রামে ২০ জন, বরগুনায় ৪ জনসহ বিভিন্ন জেলা হাসপাতালে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত রোগ ভর্তি হয়েছে। মাসিক তথ্যে জানা গেছে, চলতি মাসের বুধবার সকাল পর্যন্ত ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে ২ হাজার ৫৫৪জন।

কীটতত্ত্ব বিশেষজ্ঞদের মতে, বর্তমান আবহাওয়া ডেঙ্গুজ্বরের বাহক এডিশ মশার প্রজনন ও বংশ বিস্তারের জন্য উপযোগী। আর থেমে থেমে বৃষ্টির কারণে এডিশ মশার প্রজনন ও বংশবিস্তার ঘটছে।

হাসপাতাল ও বাসাবাড়িতে আক্রান্তরা অনেকেই মশারি টানিয়ে ঘুমান না। আবার অনেকের মশারিও নেই। আবার জেলা পর্যায়ে কক্সবাজার হোটেল-মোটেল জোনে পর্যটকদের মশারি ছাড়াই ঘুমাতে দেয়া হয়। আবার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অনেকেই মশারি ছাড়াই ঘুমায়। এ কারণে আক্রান্ত ব্যক্তিকে নতুন করে কোন মশা কামড় দিয়ে আবার সুস্থ ব্যক্তিকে একই মশা কামড় দিলে সেও নতুন করে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, এখন গ্রামগঞ্জে পাকা রাস্তা ও বাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে। সেখানে নির্মণাধীন ভবনের ছাদে বা রাস্তায় জমে থাকা পানিতে ডেঙ্গুজ্বরের বাহক এডিশ মশার প্রজনন ও বংশবিস্তার ঘটছে। এভাবে ডেঙ্গুজ্বর এখন শহর থেকে গ্রামগঞ্জ পর্যন্ত পৌঁছেছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, বছরজুড়ে এডিশ মশা দমন করতে হয়। কিন্তু তা না করায় সর্বত্রই মশার বিস্তার, বাসাবাড়ি, প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল, স্কুল-কলেজ, এমনকি যানবাহনে মশা এক স্থান থেকে অন্য স্থানে ছড়ায়। ফলে দিন দিন পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাচ্ছে।

তাই মশা থেকে বাঁচতে নিজেদের সতর্ক হয়ে থাকতে হবে। নিজের বাসাবাড়ি নিজেদের পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করতে হবে। সবাই সচেতন ও সতর্ক হলে পরিস্থিতির উন্নতি হবে বলে বিশেষজ্ঞরা মন্তব্য করেন।

back to top