alt

সারাদেশ

কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচল শুরু

প্রথম দিনে শতাধিক পর্যটক অসুস্থ : হতাশ ব্যবসায়ীরা

জসিম সিদ্দিকী, কক্সবাজার : বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২

কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন নৌরুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হয়েছে। জাহাজ চলাচলের প্রথম দিনে মাঝ সাগরে শতাধিক পর্যটক অসুস্থ হয়ে পড়েছে। এসব পর্যটকের অভিযোগ, জাহাজ কর্তৃপক্ষের অবহেলা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) সকাল ৭ টায় কক্সবাজার শহরের বিআইডব্লিউটিএ ঘাট থেকে পর্যটকদের বহনকারি এমভি কর্ণফুলি এক্সপ্রেস জাহাজটি সেন্টমার্টিনের উদ্দ্যেশে রওনা দেয়।

এমভি কর্ণফুলি জাহাজের কক্সবাজার অফিসের ইনচার্জ হোসাইনুল ইসলাম বাহাদুর বলেন, সকালে কক্সবাজার থেকে সাড়ে ৭ শত যাত্রী নিয়ে কর্ণফুলি এক্সপ্রেস জাহাজটি রওনা দিয়েছে। বেলা ১২ টার মধ্যে জাহাজটি সেন্টমার্টিন জেটিঘাটে পৌঁছে। আর বিকাল সাড়ে ৩ টায় যাত্রীদের নিয়ে জাহাজটি সেন্টমার্টিন থেকে কক্সবাজারের উদ্দ্যেশে রওনা দেয়। রাত সাড়ে ১০ টার দিকে জাহাজটি কক্সবাজার শহরের বিআইডব্লিউটিএ ঘাটে পৌঁচাবে।

জাহাজের যাত্রীদের জন্য ১০ ক্যাটাগরিতে বিভিন্ন মূল্যের টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে। সর্বনিন্ম ৩ হাজার থেকে ২৮ হাজার টাকা পর্যন্ত টিকেটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাহাদুর আরও বলেন, মিয়ানমার সীমান্তে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি এবং নাফনদীতে নাব্যতা সংকটের কারণে সরকার চলতি মৌসুমে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে। তবে চট্টগ্রাম-সেন্টমার্টিন ও কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন জাহাজ চলাচল অব্যাহত থাকবে।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার অঞ্চলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চৌধুরী মিজানুজ্জামান বলেন, সেন্টমার্টিনগামী জাহাজে পর্যটকদের নিরাপত্তায় ট্যুরিস্ট পুলিশ সার্বিক ব্যবস্থা নিয়েছে। জাহাজে ট্যুরিস্ট পুলিশের একটি দলও পর্যটকদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত রয়েছে।

এদিকে, যাত্রা দেয়ার ৩ ঘন্টা পর মাঝ সাগরে শতাধিক পর্যটক অসুস্থ হয়ে পড়ার বিষয়টি জাহাজ থেকে কয়েকজন পর্যটক প্রতিবেদককে ফোনে জানান, জাহাজটিতে কতৃপক্ষের অবেহলা রয়েছে। অপরিচ্ছন্নতা, পর্যাপ্ত এসির সংকটে জাহাজে থাকা পর্যটকদের মধ্যে শতাধিক পর্যটক বমি করতে করতে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। জাহাজে ছিলো না কোনো চিকিৎসা ব্যবস্থা। অবশেষে জাহাজটি দুপুরে সেন্টমার্টিন পৌঁছার পর অসুস্থ পর্যটকদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দ্বীপের বাসিন্দা আব্দুর রহিম।

এ নিয়ে এমভি কর্ণফুলি জাহাজের কক্সবাজার অফিসের ইনচার্জ হোসাইনুল ইসলাম বাহাদুর জানান, তিনি কক্সবাজার রয়েছেন। জাহাজের পরিস্থিতি জেনে বলতে পারবেন। অসুস্থ হওয়ার কোনো কারণ নেই। তবে অনেক সময় জাহাজে ভ্রমণের অভিজ্ঞতা না থাকলে বমি হতে পারে। বিষয়টি তিনি দেখছেন বলেও জানান।

এদিকে বছরের প্রথম পর্যটকবাহী জাহাজ সেন্টমার্টিনে পৌঁছায় খুশি হয়েছেন দ্বীপের মানুষ। তবে দ্বীপবাসী ও পর্যটন ব্যবসায়ীরা টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচল না করায় চরম হতাশ হয়েছেন। বেকার হয়ে পড়েছেন অনেকে।

সেন্টমার্টিন হোটেল ব্যবসায়ীরা জানান, এ বছর টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিনে জাহাজ চলাচল না করলে হোটেল ব্যবসায়ীরা চরম ক্ষতির সম্মুখীন হবেন। মৌসুম সামনে রেখে অনেকে কোটি কোটি টাকা খরচ করে হোটেল-রেস্তোরাঁ করেছেন। সেখানে একটি জাহাজে ৬০০ থেকে ৭০০ পর্যটক গেলে কীভাবে ব্যবসা করবে? তাই অতি শীঘ্রই টেকনাফ থেকেও জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক হবে বলে আশা তাদের।

এ নিয়ে সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান জানান, আশানুরূপ জাহাজ চলাচলে অনুমতি না হাজারো মানুষ বেকার হয়ে পড়বে। তাই তিনি আশানুরূপ জাহাজ চলাচলে অনুমতি দিতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি অনুরোধ জানান।

এদিকে, নাফনদের নাব্যতার কারণে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হওয়ায় নতুন রুটে পর্যটকদের সেন্টমার্টিনস ভ্রমণ করাতে চায় সী-ক্রুজ অপারেটরস ওনার্স এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (স্কোয়াব) ও ট্যুর অপারেটর এসোসিয়েশন অফ কক্সবাজার (টুয়াক)। তারা মনে করেন, বিকল্প পথ হিসেবে টেকনাফের সাবরাং ট্যুরিজম পার্ক সংলগ্ন সৈকতে অস্থায়ী জেটি করে পল্টুন নির্মাণ করে সেন্টমার্টিন রুটে সেন্টমার্টিনে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল করা সম্ভব।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) দুপুরে কক্সবাজার শহরের একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন দাবি তোলা হয়েছে। এ ব্যাপারে স্কোয়াব ও টুয়াক প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা ও জেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও আইন শৃংখলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এ বিষয়ে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ বলেন, নাব্যতা সংকটের কারণে আপাতত টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিনে জাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে। শুধুমাত্র কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিন রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ কর্ণফুলী এক্সপ্রেস পরীক্ষামূলকভাবে চলাচল করেছে। অবস্থা বুঝে পর্যাক্রমে আবেদন করা জাহাজগুলোকে অনুমতি দেওয়া হবে। তবে জাহাজ কর্তৃপক্ষকে সরকারের দেওয়া নিয়মকানুন অব্যশ্যই মেনে চলতে হবে।

কুয়েতে প্রতারণার শিকার শতাধিক বাংলাদেশি

ছবি

গাইবান্ধা-৫ আসনে ভোটের তারিখ ঘোষণা

ছবি

ট্রেন চাপায় অটোরিকশার ৩ যাত্রী নিহত

ছবি

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে তৎপর যুক্তরাষ্ট্র: মার্কিন সহকারী সচিব

ছবি

এনামুল বাছিরের জামিন আপিলেও বহাল

ছবি

গুজরাটে ভোট প্রচারে বাংলাদেশি, রোহিঙ্গা প্রসঙ্গঃ বিতর্কিত মন্তব্য করে ক্ষমা চাইলেন অভিনেতা পরেশ রাওয়াল

ছবি

টাঙ্গাইলের ১৪৮ অবৈধ ইটভাটার কার্যক্রম বন্ধ হয়নি

ছবি

চাঁদপুরে লেগুনা থেকে ছিটকে পড়ে এক ছাত্রী নিহত

ছবি

মানিকগঞ্জ-রাজবাড়ী নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত

ছবি

হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর ৫৯তম মৃত্যুবার্ষিকী

ছবি

শিবচরে হত্যা করে পা বিচ্ছিন্ন, দুই প্রধান আসামি গ্রেপ্তার

ছবি

রুমা, রোয়াংছড়ি ও থানচি উপজেলায় ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বাড়ল

ছবি

শেরপুরে স্ত্রী হত্যা মামলার অভিযুক্ত স্বামী গাজীপুরে গ্রেপ্তার

ছবি

মাদকের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করেছে : মোমেন

ময়মনসিংহের ব্রহ্মপুত্র নদ থেকে কিশোরের মরদেহ উদ্ধার

ছবি

নড়াইলের কবি সাহিত্যিকদের সম্মাননা

ছবি

রেলশূন্য হচ্ছে রেলের শহর!

গৌরীপুরে জাতীয় বস্ত্র দিবস পালিত

হাতির ভয়ে কাঁচা ধান কাটছেন কৃষক, পাহারা

রূপগঞ্জে বিএনপি ও ছাত্রদলের আরও ৫ নেতাকর্মী গ্রেপ্তার

জেলেদের জালে আটকা পড়েছে শত শত জেলিফিস

মঠবাড়িয়ায় চুরি-ডাকাতির হিড়িক : আতঙ্কে মানুষ

কিশোরীকে অপহরণ করে ধর্ষণ আসামি গ্রেপ্তার

ছবি

হাসপাতালের পাশে, ভাগাড় জনস্বাস্থ্য-পরিবেশ হুমকিতে

চুরির অপবাদে শিশু নির্যাতনে মেম্বার গ্রেপ্তার

দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে সমন জারি

ঋণের কিস্তির চাপে গৃহবধূর আত্মহত্যা

ছবি

লালমনিরহাটে আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১০

ছবি

প্রধানমন্ত্রীর জনসভার উদ্দেশে সাগর পাড়ি দিয়ে এলেন নেতাকর্মীরা

ছবি

খালেদা জিয়ার বাসার সামনে পুলিশের তল্লাশিচৌকি

প্রতিপক্ষের গুলিতে নরসিংদীতে ইউপি চেয়ারম্যান নিহত

ছবি

জেলেদের জালে আটকা পড়েছে শত শত জেলিফিস

দুর্নীতির খবর সংগ্রহে গিয়ে মেম্বারের হামলার শিকার সাংবাদিকরা

ছবি

বিবাদে অর্ধশতাধিক ফলন্ত গাছ কর্তন

ছবি

নিলামের অভাবে নষ্ট হচ্ছে অর্ধশতাধিক পরিত্যক্ত ভবন, বাড়ছে দুর্ঘটনার ঝুঁকি

অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ৮ মেম্বারের অনাস্থা

tab

সারাদেশ

কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচল শুরু

প্রথম দিনে শতাধিক পর্যটক অসুস্থ : হতাশ ব্যবসায়ীরা

জসিম সিদ্দিকী, কক্সবাজার

বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২

কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন নৌরুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হয়েছে। জাহাজ চলাচলের প্রথম দিনে মাঝ সাগরে শতাধিক পর্যটক অসুস্থ হয়ে পড়েছে। এসব পর্যটকের অভিযোগ, জাহাজ কর্তৃপক্ষের অবহেলা রয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) সকাল ৭ টায় কক্সবাজার শহরের বিআইডব্লিউটিএ ঘাট থেকে পর্যটকদের বহনকারি এমভি কর্ণফুলি এক্সপ্রেস জাহাজটি সেন্টমার্টিনের উদ্দ্যেশে রওনা দেয়।

এমভি কর্ণফুলি জাহাজের কক্সবাজার অফিসের ইনচার্জ হোসাইনুল ইসলাম বাহাদুর বলেন, সকালে কক্সবাজার থেকে সাড়ে ৭ শত যাত্রী নিয়ে কর্ণফুলি এক্সপ্রেস জাহাজটি রওনা দিয়েছে। বেলা ১২ টার মধ্যে জাহাজটি সেন্টমার্টিন জেটিঘাটে পৌঁছে। আর বিকাল সাড়ে ৩ টায় যাত্রীদের নিয়ে জাহাজটি সেন্টমার্টিন থেকে কক্সবাজারের উদ্দ্যেশে রওনা দেয়। রাত সাড়ে ১০ টার দিকে জাহাজটি কক্সবাজার শহরের বিআইডব্লিউটিএ ঘাটে পৌঁচাবে।

জাহাজের যাত্রীদের জন্য ১০ ক্যাটাগরিতে বিভিন্ন মূল্যের টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে। সর্বনিন্ম ৩ হাজার থেকে ২৮ হাজার টাকা পর্যন্ত টিকেটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

বাহাদুর আরও বলেন, মিয়ানমার সীমান্তে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি এবং নাফনদীতে নাব্যতা সংকটের কারণে সরকার চলতি মৌসুমে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে। তবে চট্টগ্রাম-সেন্টমার্টিন ও কক্সবাজার-সেন্টমার্টিন জাহাজ চলাচল অব্যাহত থাকবে।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার অঞ্চলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চৌধুরী মিজানুজ্জামান বলেন, সেন্টমার্টিনগামী জাহাজে পর্যটকদের নিরাপত্তায় ট্যুরিস্ট পুলিশ সার্বিক ব্যবস্থা নিয়েছে। জাহাজে ট্যুরিস্ট পুলিশের একটি দলও পর্যটকদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত রয়েছে।

এদিকে, যাত্রা দেয়ার ৩ ঘন্টা পর মাঝ সাগরে শতাধিক পর্যটক অসুস্থ হয়ে পড়ার বিষয়টি জাহাজ থেকে কয়েকজন পর্যটক প্রতিবেদককে ফোনে জানান, জাহাজটিতে কতৃপক্ষের অবেহলা রয়েছে। অপরিচ্ছন্নতা, পর্যাপ্ত এসির সংকটে জাহাজে থাকা পর্যটকদের মধ্যে শতাধিক পর্যটক বমি করতে করতে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। জাহাজে ছিলো না কোনো চিকিৎসা ব্যবস্থা। অবশেষে জাহাজটি দুপুরে সেন্টমার্টিন পৌঁছার পর অসুস্থ পর্যটকদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন দ্বীপের বাসিন্দা আব্দুর রহিম।

এ নিয়ে এমভি কর্ণফুলি জাহাজের কক্সবাজার অফিসের ইনচার্জ হোসাইনুল ইসলাম বাহাদুর জানান, তিনি কক্সবাজার রয়েছেন। জাহাজের পরিস্থিতি জেনে বলতে পারবেন। অসুস্থ হওয়ার কোনো কারণ নেই। তবে অনেক সময় জাহাজে ভ্রমণের অভিজ্ঞতা না থাকলে বমি হতে পারে। বিষয়টি তিনি দেখছেন বলেও জানান।

এদিকে বছরের প্রথম পর্যটকবাহী জাহাজ সেন্টমার্টিনে পৌঁছায় খুশি হয়েছেন দ্বীপের মানুষ। তবে দ্বীপবাসী ও পর্যটন ব্যবসায়ীরা টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে জাহাজ চলাচল না করায় চরম হতাশ হয়েছেন। বেকার হয়ে পড়েছেন অনেকে।

সেন্টমার্টিন হোটেল ব্যবসায়ীরা জানান, এ বছর টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিনে জাহাজ চলাচল না করলে হোটেল ব্যবসায়ীরা চরম ক্ষতির সম্মুখীন হবেন। মৌসুম সামনে রেখে অনেকে কোটি কোটি টাকা খরচ করে হোটেল-রেস্তোরাঁ করেছেন। সেখানে একটি জাহাজে ৬০০ থেকে ৭০০ পর্যটক গেলে কীভাবে ব্যবসা করবে? তাই অতি শীঘ্রই টেকনাফ থেকেও জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক হবে বলে আশা তাদের।

এ নিয়ে সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান জানান, আশানুরূপ জাহাজ চলাচলে অনুমতি না হাজারো মানুষ বেকার হয়ে পড়বে। তাই তিনি আশানুরূপ জাহাজ চলাচলে অনুমতি দিতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি অনুরোধ জানান।

এদিকে, নাফনদের নাব্যতার কারণে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌ-রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হওয়ায় নতুন রুটে পর্যটকদের সেন্টমার্টিনস ভ্রমণ করাতে চায় সী-ক্রুজ অপারেটরস ওনার্স এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (স্কোয়াব) ও ট্যুর অপারেটর এসোসিয়েশন অফ কক্সবাজার (টুয়াক)। তারা মনে করেন, বিকল্প পথ হিসেবে টেকনাফের সাবরাং ট্যুরিজম পার্ক সংলগ্ন সৈকতে অস্থায়ী জেটি করে পল্টুন নির্মাণ করে সেন্টমার্টিন রুটে সেন্টমার্টিনে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল করা সম্ভব।

বৃহস্পতিবার (৬ অক্টোবর) দুপুরে কক্সবাজার শহরের একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন দাবি তোলা হয়েছে। এ ব্যাপারে স্কোয়াব ও টুয়াক প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা ও জেলা প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও আইন শৃংখলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এ বিষয়ে কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. মামুনুর রশীদ বলেন, নাব্যতা সংকটের কারণে আপাতত টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিনে জাহাজ চলাচল বন্ধ রয়েছে। শুধুমাত্র কক্সবাজার থেকে সেন্টমার্টিন রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ কর্ণফুলী এক্সপ্রেস পরীক্ষামূলকভাবে চলাচল করেছে। অবস্থা বুঝে পর্যাক্রমে আবেদন করা জাহাজগুলোকে অনুমতি দেওয়া হবে। তবে জাহাজ কর্তৃপক্ষকে সরকারের দেওয়া নিয়মকানুন অব্যশ্যই মেনে চলতে হবে।

back to top