alt

সারাদেশ

সাভারে জমি নিয়ে বিরোধে দুইজন গুলিবিদ্ধ

প্রতিনিধি, সাভার : সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩

সাভারের আশুলিয়ায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের গুলিতে দুইজন আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সোমবার (৩০ জানুয়ারি) দুপুরে আশুলিয়ার চারাবাগ এলাকায় ১০ বিঘা জমি নিয়ে বিরোধের জেরে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গুলিবর্ষণকারী এম এ মতিন ও তার ছেলেকে গণধোলাই দিয়েছে। তাদেরকে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

গুলিবিদ্ধরা হলেন- আশুলিয়ার চারাবাগ এলাকার কুদ্দুস ও তার প্রতিবেশী হুমায়ূন। হুমায়ূনের বাম হাতে গুলি লেগেছে বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সায়েমুল হুদা।

গুলিবর্ষণকারী এমএ মতিন আশুলিয়ার গাজিরচটের ঊষাপোল্ট্রি মোড় এলাকার বাসিন্দা। তিনি ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে এর আগেও ঊষাপোল্ট্রি এলাকার সাবেক সেনাকর্মকর্তাসহ বিভিন্ন ব্যক্তির জমি দখলের অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া তিনি জমি দখলের একাধিক মামলার আসামি।

স্থানীয়রা জানান, ওই এলাকায় ১০ বিঘা জমি নিয়ে দুই পক্ষের বিরোধ চলে আসছিল। আজ এমএ মতিন, তার স্ত্রী ও ছেলে বিদেশি অস্ত্র নিয়ে জমিতে প্রবেশ করেন। এ সময় হুমায়ূন, কুদ্দুসসহ বেশ কয়েকজন বাধা দিলে মতিন তার ও তার ছেলে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়েন। এ সময় কুদ্দুস ও হুমায়ুন দুইজনই গুলিবিদ্ধ হন। পরে স্থানীয়রা এমএ মতিনকে গণধোলাই দিয়ে গুলিবিদ্ধ হুমায়ুন ও কুদ্দুসকে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য হোসেন আলী বলেন, আমি ঘটনা শুনে ঘটনাস্থলে এসেছি। ঘটনা সত্য। আমি যতদূর জানি মতিনের বিরুদ্ধে জমি সংক্রান্ত মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী মতিন ও তার ছেলেকে গণধোলাই দিলে পুলিশ তাদের গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করে।

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সায়েমুল হুদা বলেন, দুপুরে হুমায়ুন নামের এক ব্যক্তি বাম হাতে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এসেছিলেন। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আল-মামুন কবির বলেন, এ ঘটনায় দুই পক্ষই আহত হয়েছে। আমরা তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসা দিচ্ছি। এখনই কাউকে আটক বলা যাবে না। আমরা আগে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করার চেষ্টা করছি। বিস্তারিত পরে জানাবো।

পীরগাছায় নিখোজ হবার ৩ দিন পর বাড়ির কাছে পুকুর থেকে শিক্ষার্থীর লাশ উদ্ধার

মাদক ব্যবসার জের, দেনাদারের বাসায় পাওনাদারের লাশ

ছবি

নোয়াখালী ভাসানচরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে: আরও ২ রোহিঙ্গা শিশুর মৃত্যু

ছবি

রোহিঙ্গাদের জন্ম সনদ, এনআইডি, পাসপোর্ট দেয়া চক্রের ২৩ জন গ্রেপ্তার

ছবি

রমজানের সেহরি ও ইফতারের সময়সূচি

ছবি

৪ মাসের মধ্যে প্রাথমিকে ১০ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেয়া হবে : সচিব

ছবি

২৭ বছর পালিয়ে বেড়ানোর পর দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

ছবি

টেকনাফ সীমান্তে ফের গোলাগুলির শব্দ

ছবি

গ্যাস উৎপাদন বাড়াতে রাশিয়া-চীনে আস্থা সরকারের

ছবি

মুন্সীগঞ্জে দুই সন্তানকে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা

ছবি

গাজীপুরে সাধারণ আনসার মৌলিক প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত

ছবি

৩০ যাত্রী নিয়ে বাস খাদে, চালাচ্ছিলেন হেলপার

টেকনাফ সীমান্তে তিন দিন যুদ্ধ বন্ধের পর রাতভর গোলাগুলি

ছবি

বিএনপি নেতাদের সঙ্গে মার্কিন উপসহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক

ছবি

ভাসানচরে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের দগ্ধ ৯ রোহিঙ্গার মধ্যে এক শিশুর মৃত্যু

ছবি

৯৫০ টন কয়লা ভর্তি জাহাজ ডুবল পশুর নদীতে

ছবি

গাজীপুরে শ্রমিক নিহত: ৪ ঘণ্টা পর ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক

ছবি

পার্বতীপুরে বগি লাইনচ্যুত, প্রায় ৯ ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক

নোয়াখালী ভাসানচর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে সিলিন্ডার বিস্ফোরণে দগ্ধ ৯

কুমিল্লায় বাড়ি ফেরার পথে এক ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

ছবি

তিন দিনের সফরে ঢাকায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধিদল

ছবি

পার্বতীপুরে বগি লাইনচ্যুত, ট্রেন চলাচল বন্ধ

রংপুর নগরীতে প্রতিদিনই ইলেকট্রিক পোল থেকে বিদ্যুতের তার চুরি হচ্ছে

ছবি

৮ মাস ধরে পলিথিনে বন্দি অ্যাম্বুলেন্স, ভোগান্তিতে রোগীরা

ছবি

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের গাড়িচাপায় শ্রমিক নিহত, মহাসড়ক অবরোধ-ভাঙচুর

ছবি

রাজধানীতে মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ৩ জন নিহত

ছবি

মুন্সিগঞ্জে হত্যা মামলার আসামী রফিকুল গ্রেপ্তার

ছবি

সাতক্ষীরা নদী থেকে বিএসএফ সদস্যের মরদেহ উদ্ধার

ছবি

মাতৃভাষা রক্ষায় অন্যরকম সংগ্রাম অন্তর হাজংয়ের

ছবি

প্রথমবারের মতো ভারত থেকে এলো ৫০ মেট্রিক টন নারিকেল

ছবি

চিনির দাম বাড়ানোর কয়েক ঘণ্টা পর সিদ্ধান্ত বাতিল

ছবি

মায়ের জানাজায় ইতালি থেকে এসে নিজেই লাশ হলেন শাহ আলম

ছবি

নরসিংদীতে কলেজ ছাত্র নিহত

ছবি

অবসরের ৬ মাসের মধ্যে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদেরকে ভাতা দেওয়ার নির্দেশ

৯ রোহিঙ্গাকে অনুপ্রবেশের সময় মায়ানমারে ফেরত পাঠাল বিজিবি

ছবি

নোয়াখালীতে খৎনায় ভুল, অতিরিক্ত রক্তপাতে সংকটে শিশুর স্বাস্থ্য

tab

সারাদেশ

সাভারে জমি নিয়ে বিরোধে দুইজন গুলিবিদ্ধ

প্রতিনিধি, সাভার

সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩

সাভারের আশুলিয়ায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের গুলিতে দুইজন আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সোমবার (৩০ জানুয়ারি) দুপুরে আশুলিয়ার চারাবাগ এলাকায় ১০ বিঘা জমি নিয়ে বিরোধের জেরে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় গুলিবর্ষণকারী এম এ মতিন ও তার ছেলেকে গণধোলাই দিয়েছে। তাদেরকে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

গুলিবিদ্ধরা হলেন- আশুলিয়ার চারাবাগ এলাকার কুদ্দুস ও তার প্রতিবেশী হুমায়ূন। হুমায়ূনের বাম হাতে গুলি লেগেছে বলে নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সায়েমুল হুদা।

গুলিবর্ষণকারী এমএ মতিন আশুলিয়ার গাজিরচটের ঊষাপোল্ট্রি মোড় এলাকার বাসিন্দা। তিনি ও তার স্ত্রীর বিরুদ্ধে এর আগেও ঊষাপোল্ট্রি এলাকার সাবেক সেনাকর্মকর্তাসহ বিভিন্ন ব্যক্তির জমি দখলের অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া তিনি জমি দখলের একাধিক মামলার আসামি।

স্থানীয়রা জানান, ওই এলাকায় ১০ বিঘা জমি নিয়ে দুই পক্ষের বিরোধ চলে আসছিল। আজ এমএ মতিন, তার স্ত্রী ও ছেলে বিদেশি অস্ত্র নিয়ে জমিতে প্রবেশ করেন। এ সময় হুমায়ূন, কুদ্দুসসহ বেশ কয়েকজন বাধা দিলে মতিন তার ও তার ছেলে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়েন। এ সময় কুদ্দুস ও হুমায়ুন দুইজনই গুলিবিদ্ধ হন। পরে স্থানীয়রা এমএ মতিনকে গণধোলাই দিয়ে গুলিবিদ্ধ হুমায়ুন ও কুদ্দুসকে হাসপাতালে পাঠিয়ে দেন।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য হোসেন আলী বলেন, আমি ঘটনা শুনে ঘটনাস্থলে এসেছি। ঘটনা সত্য। আমি যতদূর জানি মতিনের বিরুদ্ধে জমি সংক্রান্ত মামলা রয়েছে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী মতিন ও তার ছেলেকে গণধোলাই দিলে পুলিশ তাদের গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করে।

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সায়েমুল হুদা বলেন, দুপুরে হুমায়ুন নামের এক ব্যক্তি বাম হাতে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এসেছিলেন। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আল-মামুন কবির বলেন, এ ঘটনায় দুই পক্ষই আহত হয়েছে। আমরা তাদের উদ্ধার করে চিকিৎসা দিচ্ছি। এখনই কাউকে আটক বলা যাবে না। আমরা আগে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করার চেষ্টা করছি। বিস্তারিত পরে জানাবো।

back to top