alt

অর্থ-বাণিজ্য

আইপিও এবং ব্যাংক ঋণের অর্থ আত্মসাৎ

সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজের সাবেক এমডিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২

পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজের সাবেক তিন শীর্ষ কর্মকার্তার বিরুদ্ধে প্রায় ১৯ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলা করেছেন কোম্পানিটির বর্তমান চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদুল হাসান। আইপিও এবং ব্যাংক ঋণ থেকে পাওয়া এসব টাকা আত্মসাৎ করেছে সাবেক পর্ষদ সদস্যরা।

গত ১০ মে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই মামলা দায়ের করেন কোম্পানির বর্তমান চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদুল হাসান। কোম্পানিটির সাবেক এমডি জাহিদুল হক (৬০), চেয়ারম্যান মো. আনিছ আহমেদ (৫৪) এবং পরিচালক সাইয়েদা সাইমা আকতারের (৫২) বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়েছে। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশনা দিয়েছেন। আগামী ২০ জুনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সময় নির্ধারণ করেছে আদালত।

২০১০ সালের ১২ এপ্রিল সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ (প্রাইভেট) লিমিটেড কোম্পানি নাম পরিবর্তন করে রেজিস্ট্রার অফ জয়েন্ট স্টক কোম্পানি অ্যান্ড ফার্মস থেকে সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের নামে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে রূপান্তরিত হয়। পরবর্তীতে ২০১৪ সালের ২১ এপ্রিল বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) থেকে আইপিওয়ের অনুমোদন লাভ করে পুঁজিবাজার থেকে ১৪ কোটি টাকা উত্তোলন করে। পাশাপাশি আইপিও ফান্ডের ব্যাংক সুদ হিসেবে টাকা ৩ কোটি ৫৬ লাখ ৫৭ হাজার ২৬ টাকা পায়।

মামলার এজহার অনুযায়ী, ২০১১ সালের ২৪ ডিসেম্বর থেকে ৩০ জুলাই ২০১৭ সাল পর্যন্ত আসামি সুহৃদের এমডি জাহিদুল হক, সুহৃদ চেয়ারম্যান মো. আনিছ আহমেদ, ডারেক্টর সাইয়েদা সাইমা আকতার, ডাইরেক্টর হিসেবে সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ বোর্ড দায়িত্বরত ছিলেন।

তাদের যৌথ স্বাক্ষরে কোম্পানির সব ব্যাংক হিসাব পরিচালিত হতো। দায়িত্ব পালনকালে কোম্পানি ২০১৬-১৭ সালে বার্ষিক প্রতিবেদনে উল্লিখিত ৩০ জুন ২০১৭ সালের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনায় পাবলিক অর্থ ১৪ কোট ১৪ লাখ ১৩ হাজার ৬০৩ টাকার মিথ্যা একাউন্টিং হেড (সাসপেন্স একাউন্ট এবং ক্যাপিটাল ওয়ার্কিং প্রগ্রেস) তৈরি করে অর্থাৎ উক্ত অর্থ কোম্পানিতে বিনিয়োগ হনি, যা কোম্পানি থেকে আসামিরা আত্মসাৎ করেছেন।

আর্থিক প্রতিষ্ঠান এনআরবি ব্যাংক লিমিটেড বরাবর কোম্পানির সাবেক ম্যানেজিং ডাইরেক্টর আসামি জাহিদুল হক, মো. আনিছ আহমেদ এবং আসামি সাইয়েদা সাইমা আকতারের যোগসাজশে শেয়ারহোল্ডারদের অনুমতি ছাড়া বন্ধকি ঋণ আবেদন করলে আর্থক প্রতিষ্ঠন এনআরবি ব্যাংক ১২ জুলাই ২০১৫ তারিখে কোম্পানির মালিকানাধীন ৩৩ শতাংশ জমি, নির্মিত বিল্ডিং ও সব মেশিনারিজ পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে মূল্যায়ন করে গত ১৫ নভেম্বর ২০১৫ তারিখে ১২ কোটি টাকা ঋণ মঞ্জুরপত্র প্রদান করে। আসামিরা ৩৩ শতাংশ সম্পত্তির দলিল প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির নাম পরিবর্তন বা সংশোধন না করে এজিএম/ইজিএমের মাধ্যমে শেয়ারহোল্ডারদের অনুমিত না নিয়ে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির সম্পত্তি জানা সত্ত্বেও অবৈধভাবে গত ২৮ ডিসেম্বর ২০১৫ সাব রেজিস্টার ২য় যুগ্ম গাজীপুর জেলায় মর্টগেজ দলিল নং ১০১৯০ তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৫ তারিখ রেজিস্ট্রি দলিল সম্পাদন করেন। বন্ধকি দলিল রেজিস্ট্রি হওয়ার পর বিভিন্ন সময়ে এনআরবি ব্যাংক লিমিটেড হতে প্রায় ৯ কোটি টাকা উত্তোলন করে আসামিরা উক্ত অর্থ আত্মসাৎ করেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

আসামিদের পরস্পর যোগসাজশে এবং সহযোগিতায় পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির সম্পত্তি আত্মসাৎ করার সহযোগিতা এবং সম্পত্তি বন্ধকি ঋণ ও আইপিও করার পাবলিকের অর্থ প্রায় ১৯ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

ছবি

সরকারের ইঙ্গিতের মধ্যেই তড়িঘড়ি করে ভোজ্যতেলের দাম কমালো ব্যবসায়ীরা

ছবি

এলডিসি গ্রাজুয়েশনের পরও কয়েক বছর বাজার সুবিধা প্রাপ্তির আশা করছি

ডন গ্লোবালের হাত ধরে চালু হতে যাচ্ছে প্রথম ইটিএফ

বড় পতন শেয়ারবাজারে, লেনদেন নেমেছে এক মাস আগের অবস্থানে

সিলেট ও সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের জন্য এফবিসিসিআই’র ত্রাণ

ছবি

লিটারে ৬ টাকা কমল সয়াবিন তেলের দাম

ছবি

সয়াবিন তেলের দাম দুদিনের মধ্যে কমতে পারে : বাণিজ্য সচিব

ছবি

পদ্মা সেতু উদ্বোধন : বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানালো বিশ্বব্যাংক

ভোজ্যতেলের দাম কমানোর দাবি ক্যাবের

বেসিক বেতন ২০ হাজার টাকা চায় গার্মেন্ট শ্রমিকরা

সাপ্তাহিক লেনদেনের ২৮ শতাংশ ১০ কোম্পানির শেয়ারে

ছবি

ডুয়্যাল কারেন্সি মাস্টার কার্ড নিয়ে এলো ইসলামী ব্যাংক

শেষ হলো চতুর্থ ঢাকা কমার্শিয়াল অটোমোটিভ শো

ঢাকায় তিন দিনব্যাপী বাইক শো শুরু

‘শেয়ারবাজার থেকে মূলধন তুললে ব্যবসা পরিচালনা সহজ হবে’

ছবি

দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম সোয়েটার প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান ডিএসএসএল

ছবি

বিশ্ববাজারে কমেছে তেলের দাম, দেশে সমন্বয়ের দাবি

ছবি

ঊর্ধ্বমুখী আলু, ঝাঁজ বেড়েছে পেঁয়াজের

বন্ড ছাড়বে মালেক স্পিনিং

ছবি

পাকিস্তানের অর্থনীতি আমাদের চেয়ে ৪০ গুণ নিচে : বাণিজ্যমন্ত্রী

ব্যাংকে মুক্তিযোদ্ধা-বয়স্কদের দ্রুত সেবা দিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনা

দর পতনের শীর্ষে অ্যাপেক্স ট্যানারি

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে সূচক সামান্য বাড়লো

আগ্রহের শীর্ষে মেঘনা ইন্স্যুরেন্স

মেরিকোর লেনদেন চালু রোববার

ছবি

শিল্প খাতে ঋণের প্রবৃদ্ধি ৩৩.৭৫%

রাশিয়া : চীন-ভারতের সঙ্গে বাণিজ্য পুনর্বিন্যাস করছে

ছবি

আইডিয়া এবং বিইউপি: সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর

ছবি

দেশে কোটিপতিদের সংখ্যা বাড়ছে

পতনের বৃত্ত থেকে উত্থানে পুঁজিবাজার

ভবন নির্মাণে অস্বাভাবিক ব্যয়, আছিয়া সি ফুডসকে শোকজ

নাভানা ফার্মাসিটিক্যালসের বিডিং শুরু ৪ জুলাই

ছবি

মুদ্রানীতি আসছে ৩০ জুন

ওয়ান ব্যাংকের ৪০০ কোটি টাকার বন্ড অনুমোদন

ছবি

চড়া দামে গোখাদ্য কিনে ঈদে পর্যাপ্ত দাম পাওয়া নিয়ে শঙ্কায় চাঁদপুরের খামারিরা

ছবি

ই-ক্যাব নির্বাচন: আবারও সভাপতি শমী কায়সার, তমাল সাধারণ সম্পাদক

tab

অর্থ-বাণিজ্য

আইপিও এবং ব্যাংক ঋণের অর্থ আত্মসাৎ

সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজের সাবেক এমডিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২

পুঁজিবাজারের তালিকাভুক্ত সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজের সাবেক তিন শীর্ষ কর্মকার্তার বিরুদ্ধে প্রায় ১৯ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলা করেছেন কোম্পানিটির বর্তমান চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদুল হাসান। আইপিও এবং ব্যাংক ঋণ থেকে পাওয়া এসব টাকা আত্মসাৎ করেছে সাবেক পর্ষদ সদস্যরা।

গত ১০ মে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই মামলা দায়ের করেন কোম্পানির বর্তমান চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদুল হাসান। কোম্পানিটির সাবেক এমডি জাহিদুল হক (৬০), চেয়ারম্যান মো. আনিছ আহমেদ (৫৪) এবং পরিচালক সাইয়েদা সাইমা আকতারের (৫২) বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়েছে। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) নির্দেশনা দিয়েছেন। আগামী ২০ জুনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য সময় নির্ধারণ করেছে আদালত।

২০১০ সালের ১২ এপ্রিল সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ (প্রাইভেট) লিমিটেড কোম্পানি নাম পরিবর্তন করে রেজিস্ট্রার অফ জয়েন্ট স্টক কোম্পানি অ্যান্ড ফার্মস থেকে সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের নামে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানিতে রূপান্তরিত হয়। পরবর্তীতে ২০১৪ সালের ২১ এপ্রিল বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) থেকে আইপিওয়ের অনুমোদন লাভ করে পুঁজিবাজার থেকে ১৪ কোটি টাকা উত্তোলন করে। পাশাপাশি আইপিও ফান্ডের ব্যাংক সুদ হিসেবে টাকা ৩ কোটি ৫৬ লাখ ৫৭ হাজার ২৬ টাকা পায়।

মামলার এজহার অনুযায়ী, ২০১১ সালের ২৪ ডিসেম্বর থেকে ৩০ জুলাই ২০১৭ সাল পর্যন্ত আসামি সুহৃদের এমডি জাহিদুল হক, সুহৃদ চেয়ারম্যান মো. আনিছ আহমেদ, ডারেক্টর সাইয়েদা সাইমা আকতার, ডাইরেক্টর হিসেবে সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড কোম্পানির পরিচালনা পর্ষদ বোর্ড দায়িত্বরত ছিলেন।

তাদের যৌথ স্বাক্ষরে কোম্পানির সব ব্যাংক হিসাব পরিচালিত হতো। দায়িত্ব পালনকালে কোম্পানি ২০১৬-১৭ সালে বার্ষিক প্রতিবেদনে উল্লিখিত ৩০ জুন ২০১৭ সালের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনায় পাবলিক অর্থ ১৪ কোট ১৪ লাখ ১৩ হাজার ৬০৩ টাকার মিথ্যা একাউন্টিং হেড (সাসপেন্স একাউন্ট এবং ক্যাপিটাল ওয়ার্কিং প্রগ্রেস) তৈরি করে অর্থাৎ উক্ত অর্থ কোম্পানিতে বিনিয়োগ হনি, যা কোম্পানি থেকে আসামিরা আত্মসাৎ করেছেন।

আর্থিক প্রতিষ্ঠান এনআরবি ব্যাংক লিমিটেড বরাবর কোম্পানির সাবেক ম্যানেজিং ডাইরেক্টর আসামি জাহিদুল হক, মো. আনিছ আহমেদ এবং আসামি সাইয়েদা সাইমা আকতারের যোগসাজশে শেয়ারহোল্ডারদের অনুমতি ছাড়া বন্ধকি ঋণ আবেদন করলে আর্থক প্রতিষ্ঠন এনআরবি ব্যাংক ১২ জুলাই ২০১৫ তারিখে কোম্পানির মালিকানাধীন ৩৩ শতাংশ জমি, নির্মিত বিল্ডিং ও সব মেশিনারিজ পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি হিসেবে মূল্যায়ন করে গত ১৫ নভেম্বর ২০১৫ তারিখে ১২ কোটি টাকা ঋণ মঞ্জুরপত্র প্রদান করে। আসামিরা ৩৩ শতাংশ সম্পত্তির দলিল প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির নাম পরিবর্তন বা সংশোধন না করে এজিএম/ইজিএমের মাধ্যমে শেয়ারহোল্ডারদের অনুমিত না নিয়ে পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির সম্পত্তি জানা সত্ত্বেও অবৈধভাবে গত ২৮ ডিসেম্বর ২০১৫ সাব রেজিস্টার ২য় যুগ্ম গাজীপুর জেলায় মর্টগেজ দলিল নং ১০১৯০ তারিখ ২৮ ডিসেম্বর ২০১৫ তারিখ রেজিস্ট্রি দলিল সম্পাদন করেন। বন্ধকি দলিল রেজিস্ট্রি হওয়ার পর বিভিন্ন সময়ে এনআরবি ব্যাংক লিমিটেড হতে প্রায় ৯ কোটি টাকা উত্তোলন করে আসামিরা উক্ত অর্থ আত্মসাৎ করেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

আসামিদের পরস্পর যোগসাজশে এবং সহযোগিতায় পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির সম্পত্তি আত্মসাৎ করার সহযোগিতা এবং সম্পত্তি বন্ধকি ঋণ ও আইপিও করার পাবলিকের অর্থ প্রায় ১৯ কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

back to top