alt

অর্থ-বাণিজ্য

‘বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত বিশ্বব্যাংকের’

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক : শনিবার, ১৮ জুন ২০২২

অর্থনীতিবিদদের সংগঠন বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি (বিইএ) বলেছে, ‘বিশ্বব্যাংক কথিত দুর্নীতির অভিযোগে পদ্মা সেতুতে বরাদ্দ বাতিল করেছিল। তারা বাংলাদেশকে নতজানু করে রাখতে প্রতিশ্রুত ঋণচুক্তি বাতিল করে। এখন বিশ্বব্যাংকের উচিৎ বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাওয়া।’ শনিবার (১৮ জুন) অর্থনীতি সমিতির অডিটোরিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থাপিত ‘নিজ অর্থে পদ্মা সেতু : একটি স্বপ্নের বাস্তবায়ন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন’ শীর্ষক নিবন্ধে সমিতি এ মন্তব্য করে।

সব ষড়যন্ত্র ও কথিত দুর্নীতির অভিযোগ উপেক্ষা করে স্বপ্নের পদ্মা সেতু নির্মাণ করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দনও জানানো হয় সমিতির পক্ষ থেকে। সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল বারকাতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে নিবন্ধ তুলে ধরেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. আইনুল ইসলাম। এ সময় বিইএ-এর পক্ষ থেকে পদ্মা সেতুর বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরা হয়।

নিবন্ধে বলা হয়, ‘দেশের নিজস্ব অর্থে পদ্মা সেতু নির্মাণ যে সম্ভব- সে কথা অর্থনীতি সমিতি প্রথম ২০১২ সালের ১৯ জুলাই বিস্তারিত ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণসহ উত্থাপন করে। সেজন্য অর্থনীতিবিদ ও বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল বারকাতকেও অভিনন্দন জানানো হয়।’

সমিতি জানিয়েছে, ‘২০১২ সালের ২৯ জুন দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিশ্বব্যাংক পদ্মা সেতুর ঋণচুক্তি বাতিল করে দেয়ায় বাংলাদেশের তীব্র ভাবমূর্তি সংকটকালে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা নিজস্ব অর্থে পদ্মা সেতু করার ঘোষণা দেন। তখন দেশের অধিকাংশ অর্থনীতিবিদ, সমাজবিদ, রাষ্ট্রচিন্তক, রাজনীতিবিদ সন্দেহ-সংশয়-বিদ্রপ করছিলেন। তখন অর্থনীতি সমিতির ব্যানারে অধ্যাপক বারকাতের ‘নিজ অর্থে পদ্মা সেতু’ গবেষণা ও বিস্তারিত তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরা জাতিকে যথেষ্ট আশান্বিত করেছিল।’

নিবন্ধে আরও বলা হয়, ‘২০১২ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু করার ইচ্ছা এবং অধ্যাপক বারকাতের উপস্থাপিত তথ্য-উপাত্ত বক্তব্যকে অধিকাংশ মানুষ পাগলের প্রলাপ, আকাশ-কুসুম কল্পনা আর ঘোরের মধ্যে স্বপ্নের ফানুস ওড়ানো বলে মন্তব্য করেছিল। এমনকি বিশ্বব্যাংককে ফিরিয়ে আনতে নিজস্ব অর্থায়নের হিংস্র বিরোধিতাও করেছিল। সব প্রতিকূলতা ছাপিয়ে পদ্মা সেতু বর্তমানে দৃশ্যমান এক বাস্তবতা।’

এতে আরও বলা হয়, ‘নিজস্ব অর্থে পদ্মা সেতু নির্মাণকে বাস্তবে রূপ দেয়ার বাংলাদেশকে আরও একবার বিজয়ের আনন্দ এনে দিয়েছে। সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে পৃথিবীর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ খরস্রোতা পদ্মা নদীর ওপর ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ সেতু নির্মাণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ হাতে-কলমে আবারও তার সামর্থ্য প্রমাণ করে দিয়েছে যেমনটি বাংলাদেশ আরেকবার করেছিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের মাধ্যমে। নেতৃত্বের দৃঢ়তা, স্বকীয়তা ও দূরদর্শিতায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধের মূর্ত প্রতীক হচ্ছে পদ্মা সেতুর দৃশ্যমান বাস্তবতা।’

ছবি

চাল আমদানির অনুমতি পাচ্ছে ৯৫ প্রতিষ্ঠান

শীর্ষ কোম্পানিগুলোর লেনদেনের দাপট কমেছে

ছবি

ব্যাংক মাস্কাট থেকে ৪৫ মিলিয়ন ডলার ঋণ পেল সিটি ব্যাংক

বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট হলেন রাইজার

ছবি

বন্যার কারণে নিত্যপণ্য ও সবজির দাম ঊর্ধ্বমুখী বিপাকে সাধারণ মানুষ

ছবি

বাণিজ্য ঘাটতি বাড়তে পারে ৩৭ বিলিয়ন ডলার পর্যন্ত

ছবি

‘ক্ষুদ্র শিল্পই অর্থনীতির মেরুদন্ড’

সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকা ফিরলো শেয়ারবাজারে

নতুন ৩৩ খাদ্য স্থাপনাকে গ্রেডিং দিল বিএফএসএ

ছবি

আন্তর্জাতিক বাজারে কমলো জ্বালানি তেলের দাম

ছবি

নতুন অর্থবছরের বাজেট পাস, কাল থেকে কার্যকর

খাদ্য খাতের ১২ কোম্পানির প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ বেড়েছে

ছবি

ক্ষতিকর তামাক ছেড়ে ভুট্টা চাষে ঝুঁকছেন কৃষকরা

আগ্রহের শীর্ষে মেঘনা ইন্স্যুরেন্স

কৃষকদের বিশেষ প্রণোদনার মেয়াদ বাড়ল

গ্রামীণফোনের ৭ কোম্পানির শেয়ারে ক্রেতা নেই

সূচকের সঙ্গে বেড়েছে লেনদেনও

অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে কারিগরি শিক্ষা

শনিবার ব্যাংক খোলা থাকবে

ছবি

কোরবানির চামড়া ক্রয়-বিক্রয়ে সমন্বিত কর্মপরিকল্পনা গ্রহণের নির্দেশ

ছবি

বিদ্যুৎ খাতে ৫১ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্ব ব্যাংক

ছবি

মূল্যস্ফীতির চাপ সামাল দিতে ‘সংকোচনমুখী’ মুদ্রানীতি ঘোষণা

ছবি

বাংলাদেশকে ৭৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্ব ব্যাংক

ছবি

আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমলে এখানে হুট করে কমানো যায় না : বাণিজ্য সচিব

বাংলাদেশ-নেপাল বাণিজ্য সম্প্রসারণে ১.০৩ বিলিয়ন ডলার ঋণ বিশ্বব্যাংকের

সূচক বাড়লেও লেনদেন কমেছে শেয়ারবাজারে

ছবি

র‌্যাবের বহরে প্রগতির পাজেরো জীপ

ছবি

লিফট উৎপাদন শিল্পে সুরক্ষা দেয়া সরকারের ‘সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত’

ছবি

শুরুতে ঊর্ধ্বমুখী শেয়ারবাজার

জুনে ২৩ দিনে কমলো রেমিট্যান্স, তিন মাসের মধ্যে সবচেয়ে কম

সামান্য উত্থান শেয়ারবাজারে, সূচক, লেনদেন, দর বেড়েছে

নিম্নস্তরের সিগারেটের দাম না বাড়ালে বিড়ির অস্তিত্ব থাকবে না : বিড়ি শ্রমিক ইউনিয়ন

ছবি

ওয়ালটন হেডকোয়ার্টারে ওয়ার্ল্ড রেফ্রিজারেশন ডে উদ্যাপন

ছবি

ডিস্ট্রিবিউশন নেটওয়ার্ক বাড়াতে এলজি ও র‌্যাংস-এর চুক্তি স্বাক্ষর

ছবি

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের সহযোগিতায় আরলা ফুডস বাংলাদেশ

ছবি

টেকসই অর্থায়ন বিষয়ক প্রশিক্ষণ ও সচেতনতামূলক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

tab

অর্থ-বাণিজ্য

‘বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত বিশ্বব্যাংকের’

অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

শনিবার, ১৮ জুন ২০২২

অর্থনীতিবিদদের সংগঠন বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতি (বিইএ) বলেছে, ‘বিশ্বব্যাংক কথিত দুর্নীতির অভিযোগে পদ্মা সেতুতে বরাদ্দ বাতিল করেছিল। তারা বাংলাদেশকে নতজানু করে রাখতে প্রতিশ্রুত ঋণচুক্তি বাতিল করে। এখন বিশ্বব্যাংকের উচিৎ বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাওয়া।’ শনিবার (১৮ জুন) অর্থনীতি সমিতির অডিটোরিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থাপিত ‘নিজ অর্থে পদ্মা সেতু : একটি স্বপ্নের বাস্তবায়ন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন’ শীর্ষক নিবন্ধে সমিতি এ মন্তব্য করে।

সব ষড়যন্ত্র ও কথিত দুর্নীতির অভিযোগ উপেক্ষা করে স্বপ্নের পদ্মা সেতু নির্মাণ করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দনও জানানো হয় সমিতির পক্ষ থেকে। সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল বারকাতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে নিবন্ধ তুলে ধরেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. আইনুল ইসলাম। এ সময় বিইএ-এর পক্ষ থেকে পদ্মা সেতুর বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরা হয়।

নিবন্ধে বলা হয়, ‘দেশের নিজস্ব অর্থে পদ্মা সেতু নির্মাণ যে সম্ভব- সে কথা অর্থনীতি সমিতি প্রথম ২০১২ সালের ১৯ জুলাই বিস্তারিত ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণসহ উত্থাপন করে। সেজন্য অর্থনীতিবিদ ও বাংলাদেশ অর্থনীতি সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল বারকাতকেও অভিনন্দন জানানো হয়।’

সমিতি জানিয়েছে, ‘২০১২ সালের ২৯ জুন দুর্নীতির অভিযোগ তুলে বিশ্বব্যাংক পদ্মা সেতুর ঋণচুক্তি বাতিল করে দেয়ায় বাংলাদেশের তীব্র ভাবমূর্তি সংকটকালে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা নিজস্ব অর্থে পদ্মা সেতু করার ঘোষণা দেন। তখন দেশের অধিকাংশ অর্থনীতিবিদ, সমাজবিদ, রাষ্ট্রচিন্তক, রাজনীতিবিদ সন্দেহ-সংশয়-বিদ্রপ করছিলেন। তখন অর্থনীতি সমিতির ব্যানারে অধ্যাপক বারকাতের ‘নিজ অর্থে পদ্মা সেতু’ গবেষণা ও বিস্তারিত তথ্য-উপাত্ত তুলে ধরা জাতিকে যথেষ্ট আশান্বিত করেছিল।’

নিবন্ধে আরও বলা হয়, ‘২০১২ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু করার ইচ্ছা এবং অধ্যাপক বারকাতের উপস্থাপিত তথ্য-উপাত্ত বক্তব্যকে অধিকাংশ মানুষ পাগলের প্রলাপ, আকাশ-কুসুম কল্পনা আর ঘোরের মধ্যে স্বপ্নের ফানুস ওড়ানো বলে মন্তব্য করেছিল। এমনকি বিশ্বব্যাংককে ফিরিয়ে আনতে নিজস্ব অর্থায়নের হিংস্র বিরোধিতাও করেছিল। সব প্রতিকূলতা ছাপিয়ে পদ্মা সেতু বর্তমানে দৃশ্যমান এক বাস্তবতা।’

এতে আরও বলা হয়, ‘নিজস্ব অর্থে পদ্মা সেতু নির্মাণকে বাস্তবে রূপ দেয়ার বাংলাদেশকে আরও একবার বিজয়ের আনন্দ এনে দিয়েছে। সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে পৃথিবীর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ খরস্রোতা পদ্মা নদীর ওপর ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ সেতু নির্মাণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ হাতে-কলমে আবারও তার সামর্থ্য প্রমাণ করে দিয়েছে যেমনটি বাংলাদেশ আরেকবার করেছিল জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের মাধ্যমে। নেতৃত্বের দৃঢ়তা, স্বকীয়তা ও দূরদর্শিতায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধের মূর্ত প্রতীক হচ্ছে পদ্মা সেতুর দৃশ্যমান বাস্তবতা।’

back to top